Logo
শিরোনাম

বাংলাদেশকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক

প্রকাশিত:Saturday ০৩ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

বাংলাদেশের পরিবেশ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে এবং সবুজায়নে বেসরকারি খাতকে অংশগ্রহণে উৎসাহিত করতে ২৫ কোটি ডলার অর্থ অনুমোদন করেছে বিশ্বব্যাংক। বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ প্রায় ২ হাজার ৬৫০ কোটি টাকা । 

২ ডিসেম্বর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ডিসির বিশ্বব্যাংকের প্রধান কার্যালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশ্বব্যাংকের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) থেকে এই অর্থ দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। রেয়াতযোগ্য এই অর্থ পাঁচ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ৩০ বছরের মেয়াদে পরিশোধ করতে হবে।

বিশ্বব্যাংক জানায়, বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্টাল সাসটেইনেবিলিটি অ্যান্ড ট্রান্সফরমেশন (বেস্ট) প্রকল্প পরিবেশ অধিদপ্তরকে তার প্রযুক্তিগত ও প্রশাসনিক ক্ষমতা জোরদার করতে সহায়তা করবে। দূষণরোধে এবং পরিবেশগত মান উন্নত করতে পরিবেশগত বিধি-বিধান এবং প্রয়োগের উন্নতিতেও প্রকল্পটি সহায়তা করবে। প্রকল্পটি লক্ষ্য অনুযায়ী সবুজায়নে বিনিয়োগ উন্নীত করতে বিকল্প অর্থায়ন খুঁজতে পাইলটিং করবে। এটি বায়ুদূষণ কমাতে সবুজ বিনিয়োগকে সমর্থন করার পাশাপাশি আর্থিক খাতকে উৎসাহিত করতে একটি গ্রিন ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিমও প্রতিষ্ঠা করবে। প্রকল্পের সফল বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশকে দূষণ সমস্যা মোকাবিলায় সাহায্য করবে। এর ফলে রাজধানী ঢাকা ও ঢাকার বাইরে বসবাসকারী ২১ মিলিয়নেরও বেশি মানুষ উপকৃত হবে।

বাংলাদেশ ও ভুটানের বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর ড্যান্ডান চেন বলেন, বাংলাদেশের দ্রুত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং নগরায়ন দূষণের ক্ষেত্রে উচ্চ পরিবেশগত উন্নয়নে ব্যয় বেড়েছে। পরিবেশদূষণ শুধু যে স্বাস্থ্যের ওপর প্রভাব ফেলছে তা নয়, এটি দেশের অর্থনৈতিক প্রতিযোগিতার ক্ষমতাও নষ্ট করছে। বাংলাদেশের পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিশ্বব্যাংক দীর্ঘদিনের অংশীদার। এই প্রকল্পটি দূষণ নিয়ন্ত্রণ এবং টেকসই পরিবেশ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে দেশের পরিবেশ সংস্থাগুলোকে শক্তিশালী করবে।

বিশ্বব্যাংক জানায়, প্রকল্পটি বার্ষিক প্রায় ৪৬ হাজার যানবাহন পরিদর্শনের জন্য সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের পদ্ধতি ব্যবহার করে চারটি যানবাহন পরিদর্শন কেন্দ্র নির্মাণে সহায়তা করবে। বার্ষিক ৩ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন ই-বর্জ্য প্রক্রিয়া করার জন্য একটি ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সুবিধা স্থাপন করা হবে। প্রকল্পটি লক্ষ্যযুক্ত উৎস থেকে ১ মিলিয়ন মেট্রিক টন গ্রিন হাউস গ্যাস নির্গমন কমাতে সহায়তা করবে।


আরও খবর



পারমাণবিক হামলার হুমকি রাশিয়ার

প্রকাশিত:Friday ২০ January ২০23 | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

ইউক্রেনে রাশিয়া হেরে গেলে পারমাণবিক যুদ্ধ হবে। বৃহস্পতিবার ন্যাটোকে সতর্ক করে একথা বলেছেন রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ।

এক টেলিগ্রাম বার্তায় মেদভেদেভ বলেন, প্রথাগত যুদ্ধে একটি পারমাণবিক ক্ষমতাধর দেশ হেরে গেলে পারমাণবিক যুদ্ধের সূচনা হতে পারে। তিনি আরও বলেন, পরমাণু শক্তিগুলো কখনো বড় ধরনের সংঘাতে হারে না। কারণ এর ওপর তাদের ভাগ্য নির্ভর করে। তাই, ন্যাটো ও অন্যান্য পশ্চিমা প্রতিরক্ষা নেতাদের উচিত যুদ্ধ নীতির ঝুঁকি বিবেচনা করা। মেদভেদেভ বর্তমানে পুতিনের নিরাপত্তা কাউন্সিলের ডেপুটি চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি রাশিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠ হিসেবেও পরিচিতি।


আরও খবর



সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক স্থানান্তর

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :

নওগাঁর মান্দায় ঐতিহাসিক কুসুম্বা মসজিদে যাতায়াতের রাস্তার ধারে থাকা সাংস্কৃতিক অঙ্গনের কালো পাথরের প্রাচীন নিদর্শনটি ''সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক বা শিরোনা'' স্থানান্তর করা হয়েছে। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের উদ্যোগ ও স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় শনিবার ২১ জানুয়ারী দুপুরে কুসুম্বা মসজিদের উত্তর পাশে তেঁতুলতলায় এটি সরিয়ে নেওয়া হয়।

এসময় প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ড. নাহিদ সুলতানা, প্রত্নতাত্ত্বিক যাদুঘর মহাস্থানগড়ের কাষ্টোডিয়ান রাজিয়া সুলতানা, প্রত্নতাত্ত্বিক যাদুঘর পাহাড়পুরের কাষ্টোডিয়ান ফজলুল করিম, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের গবেষনা সহকারী হাসানাত বিন ইসলাম, মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু বাক্কার সিদ্দিক, উপজেলা প্রকৌশলী শাইদুল ইসলাম মিয়া, কুসুম্বা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নওফেল আলী মণ্ডল, কুসুম্বা শাহী মসজিদের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ড. নাহিদ সুলতানা বলেন, কালো পাথরের খণ্ডটি সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রাচীন একটি নিদর্শন। এটি সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক বা শিরোনা কিনা বলা যাচ্ছে না। লিপিটার পাঠোদ্ধার হলেই বিস্তারিত জানা যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

জনশ্রুতি আছে সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের স্ত্রী কুসুম বিবি সেই সময় মান্দার কুসুম্বা গ্রামে অবস্থান করতেন। সেই সুবাদে শেষ বয়সে সুলতান কুসুম্বা গ্রামে স্ত্রীর কাছে অবস্থান করাও বিচিত্র নয়। যেহেতু সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহ মৃত্যুর সময় কোথায় অবস্থান করছিলেন প্রচলিত গ্রন্থে তার উল্লেখ না থাকায় ধরে নেওয়া যায় তিনি কুসুম্বাতে সমাহিত রয়েছেন। প্রাচীন এ নিদর্শন সম্পর্কে ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ইমরুল কায়েস চৌধুরী ‘কালান্তরে নওগাঁ’ গ্রন্থে উল্লেখ করেন লিপিযুক্ত প্রস্তর খণ্ডটি সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহ্রে কবর ফলক বা শিরোনা।


আরও খবর



নওগাঁয় সড়ক থেকে পুলিশের ''এএসআই'' এর মৃতদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:Sunday ০১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Wednesday ২৫ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁয় এএসআই এর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে জেলার পত্নীতলা থানা পুলিশ। নিহত এএসআই হলেন, রুহুল আমিন। তিনি নওগাঁর পত্নীতলা থানায় এএসআই হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

প্রাথমিক ধারনা, দ্রুতগামী অজ্ঞাত কোন গাড়ির সাথে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে দূর্ঘটনাস্থলে পত্নীতলা থানার এএসআই রুহুল আমিন এর মৃত্যু হয়।

স্থানিয় ও থানা সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মতো শনিবার দিবাগত রাত পৌনে ৯ টা থেকে সারে ৯ টারদিকে থানায় রোলকল হয়। রোলকলে সে থানায় উপস্থিত থেকে রোলকল করেছিল। এরপর সে কোন এক সময় থানা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে বেরিয়ে যায়। রাতে পত্নীতলা মধইল আঞ্চলিক সড়কের কঞ্চিপুকুর নামক স্থানে রাস্তায় এএসআই রুহুল আমিনের মৃতদেহ পরে থাকতে দেখে থানায় খবর দেন স্থানিয়রা। খবর পেয়ে থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নেয়।

নিহতের সত্যতা নিশ্চিত করে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব বলেন, রাত সাড়ে ১০ টারদিকে স্থানীয়দের মাধ্যমে সংবাদ পাওয়ার পরই দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে মৃতদেহ উদ্ধার করে রবিবার ১ জানুয়ারী সকালে ময়না তদন্তের জন্য মৃতদেহটি নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। 


আরও খবর



সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু আর নেই

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

মো নুরুল্লাহ খান, আরব আমিরাত থেকে: 

ঢাকার দোহার উপজেলায় দোহার প্রেসক্লাব- এর প্রবীণ সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু(৬৭) আর নেই(ইন্না-লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। বুধবার(১৮ জানুয়ারি) বাদ যোহর উপজেলার ঝনকী গ্রামে তার নিজ বাড়িতে ইন্তেকাল করেন। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ ডায়াবেটিস, প্যারালাইসিসসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও চার কন্যাসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী দুনিয়ায় রেখে গেছেন। 

সাংবাদিকতা পেশাগত জীবনে তিনি দৈনিক সংগ্রাম, দৈনিক দিনকাল, দৈনিক আমার দেশ, সাপ্তাহিক সোনার বাংলা ও সাপ্তাহিক খুলনার বানী পত্রিকার দোহার স্যবাদদাতা ও প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করেছেন।

মরহুমের ছোট ভাই আতিকুর রহমান ফনু খান জানান, বুধবার বাদ এশা আল আমিন বাজারের টিনশেটের

কবরস্থান মসজিদের সামনে জানাজা নামাজ শেষে মরহুমের মরদেহ ওই কবরস্থানেই দাফন করা হয়। তার পরিবার-পরিজন, সহকর্মী ও আত্মীয় স্বজন মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জুর মৃত্যুতে দোহার প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকেও শোকবার্তা প্রকাশ করা হয়। শোকবার্তায় বলা হয়- ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার প্রবীণ সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম মঞ্জু আজ বাদ যোহর মারা গেছেন(ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। দোহার প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোক সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনসহ শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।


আরও খবর



টেন্ডার প্রক্রিয়া- নওগাঁয় আটকে রয়েছে আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন কাজ

প্রকাশিত:Tuesday ০৩ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


নওগাঁয় আঞ্চলিক মহাসড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের প্রায় হাজার কোটি টাকার কাজ টেন্ডার প্রক্রিয়ায় আটকে রয়েছে। নওগাঁর মহাদেবপুরসহ জেলার আঞ্চলিক মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ কবে নাগাদ এই টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হবে এ নিয়ে কোন মন্তব্য করতে নারাজ সড়ক ও জনপথ বিভাগ। চলতি বছরের ২২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় ১ হাজার ১শ’ ৮৫ কোটি টাকা ব্যয়ে আঞ্চলিক ও মহাসড়ক উন্নয়নের অনুমোদন হয়।

জেলার মহাসড়কের উন্নয়নে একনেকের সভায় অনুমোদন পেলেও নওগাঁর সড়ক ও জনপথ বিভাগের উদাসিনতায় টেন্ডার প্রক্রিয়া ২ জানুয়ারি ২০২৩ সোমবার পর্যন্ত সম্পন্ন হয়নি। এক হাজার ১৮৫ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়ক বিভাগের ৩ টি আঞ্চলিক ও ৩ টি মহাসড়ক উন্নয়নে অনুমোদনকৃত প্রকল্প গুলোর মধ্যে রয়েছে জেলার নওগাঁ-বগুড়া-মহাদেবপুর-পত্নীতলা-ধামইরহাট-জয়পুরহাটের সঙ্গে আঞ্চলিক ও মহাসড়কের উন্নয়ন, নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার চৌমাসিয়া মোড় থেকে ধামইরহাট উপজেলার মঙ্গলবাড়ী পর্যন্ত ৫১.৪৯৮ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে ৪৪৮ কোটি টাকা, সান্তাহার থেকে নওগাঁর আত্রাই ৫.৪৪ কিলোমিটার ও ঢাকা মোড় থেকে রানীনগর পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে ৬৫ কোটি টাকা, নওগাঁ-বদলগাছী-পত্নীতলা-সাপাহার-পোরশা চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর সড়ক উন্নয়নে ও নওগাঁ জেলা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল থেকে রাইগাঁর মাতাজীর মোড় হয়ে পত্নীতলা পর্যন্ত ৩৩ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে ৪০৫ কোটি টাকা, সড়াইগাছী-পোরশা সড়ক ও মহাদেবপুর শহরের মাছের মোড় থেকে নিতপুর পর্যন্ত ৩৭ দশমিক ৯৩০ কিলোমিটার রাস্তার উন্নয়নে ১৪ কোটি টাকা, বদলগাছী-জয়পুরহাট-আক্কেলপুর-ভান্ডারপুর সড়ক থেকে বদলগাছী ব্রীজ পর্যন্ত ১১ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে ৪১ কোটি টাকা, মান্দা-নিয়ামতপুর-শিবপুর-পোরশা সড়ক এবং মান্দা ব্রীজ থেকে নিয়ামতপুর পর্যন্ত ১৮.২৫০ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়নে ৮০ কোটি টাকা একনেকের সভায় অনুমোদন হয়। নওগাঁ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান বলেন, বিভিন্ন সমস্যার কারনে ঐ সব সড়কের টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে সময় লাগছে। তবে কিছু কিছু সড়কের টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেও অধিকাংশ টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি বলেও জানান প্রকৌশলী। এই টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে আর কতদিন লাগবে এমন প্রশ্নে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজী হননি।

নওগাঁ-৩ মহাদেবপুর-বদলগাছী আসনের এমপি আলহাজ্ব মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম বলেন, বর্তমান সরকার সারাদেশে যোগাযোগের ক্ষেত্রে অভাবনীয় উন্নয়ন সাধন করেছেন। তারই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ২২ মার্চ বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একনেকের বৈঠকে এসব প্রকল্প অনুমোদন দেন।


আরও খবর