Logo
শিরোনাম

বুমেরাং শব্দটির কথা মনে পড়ে গেল

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৯ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান চৌধুরী ঃ

 ইতিহাস থেকে জানা যায় বুমেরাং শব্দটি অস্ট্রেলিয়ার নিউসাউথ ওয়েলসের একটি আঞ্চলিক ভাষা থেকে এসেছে। বুমেরাং একখণ্ড বক্রাকৃতি কাঠ, যা অস্ত্র হিসেবে বা খেলার জন্য ব্যবহৃত হয়। কোনো একটি লক্ষ্যবস্তুকে উদ্দেশ্য করে এটি ছুড়ে মারলে সেটি আবার নিজের কাছে ফিরে আসে।

এটি কোনো জাদুবিদ্যা নয়। পদার্থবিজ্ঞানের একটি মৌলিক নীতি মেনে এটি কাজ করে। তবে বুমেরাংয়ের সঙ্গে মানুষের কর্মের ফলাফলের একটা যোগসূত্র থাকতে পারে। যেটি মটিভেশনের একটি থিওরির সঙ্গে মেলানো যেতে পারে। বি এফ স্কেনার তাঁর বিহেভিয়ার মডিফিকেশন থিওরিতে বলেছেন, ভালো কাজের ফলাফল ভালো হয়, মন্দ কাজের ফলাফল মন্দ হয়। এর মানে দাঁড়াচ্ছে, মানুষ মন্দ কিছু করলে সেটা বুমেরাং হয়ে তার কাছে ফিরে আসে। ভালো কাজের ফলাফলও বুমেরাং হয়ে ভালো ফলাফলের জন্ম দেয়। আপাতদৃষ্টিতে যে মানুষ অবৈধভাবে অর্থ-সম্পদ গড়ে তুলছে তাকে সুখী মনে হলেও প্রকৃতপক্ষে সে সুখী নয়। হার্ভার্ড বিজনেস স্কুলের অধ্যাপক ও সহলেখক মাইকেল নরটনও ‘হ্যাপি মানি : দ্য সায়েন্স অব স্মার্টার স্পেনডিং’ বইয়ের ভাবনাটা অনেকটা একই রকম। বইটির এক জায়গায় বলা হয়েছে, ‘আসলে সুখকে পাশে রেখে আমরা অর্থ দিয়ে কিছু কিনি না। বরং আমরা আমাদের সুখকে পণ্যের মধ্যে স্থানান্তর করতেই অর্থ ব্যয় করি। যেটি আসলে মূল্যহীন। ড. ম্যাডিলিন লিভিনের দ্য প্রাইস অব প্রিভিলেজে দেখানো হয়েছে কিভাবে সময়ের সঙ্গে মূল্যবোধের পরিবর্তনের কারণে মানুষ ক্রমেই অর্থের দিকে ঝুঁকেছে। 

উনিশ শ ষাটের দশক ও সত্তরের দশকের প্রারম্ভে কেন ছাত্র-ছাত্রীরা কলেজে যায়, এ প্রশ্ন করা হলে তাদের বেশির ভাগই উত্তর দিত শিক্ষিত হয়ে ওঠা ও জীবন সম্পর্কে জ্ঞান বৃদ্ধি করার জন্যই তারা কলেজে যায়। খুব কমসংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী বলত, অনেক অর্থ উপার্জন করার জন্য তারা কলেজে যায়। কিন্তু উনিশ শ নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিকে মানুষের মূল্যবোধের পরিবর্তন লক্ষণীয়। এ সময় ছাত্র-ছাত্রীদের কেন তারা কলেজে যায়, এই প্রশ্ন করা হলে বেশির ভাগ ছাত্র-ছাত্রীই উত্তর দিত অনেক অর্থ উপার্জন করার জন্য তারা কলেজে যায়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষ ইতিবাচক মূল্যবোধকে বিসর্জন দিয়ে নেতিবাচক মূল্যবোধ দ্বারা প্রভাবিত হয়েছে। নেতিবাচক ভাবনা কখনো ইতিবাচক ফলাফলের জন্ম দিতে পারে না। এ কারণে কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে এই মূল্যবোধের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে অবসাদ, আত্মহত্যা এবং অন্যান্য মানসিক সমস্যার হার হঠাৎ করে অনেকটাই বেড়ে গিয়েছিল। মূল্যবোধের কেন এমন পরিবর্তন ঘটল? আমাদের লোভ? মানবিক শক্তির চেয়ে টাকার শক্তির আধিপত্য? সৃজনশীল ও উদার দৃষ্টিভঙ্গির বদলে সংকীর্ণ ও নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি? দেশপ্রেম ও দেশের স্বার্থের চেয়ে নিজ স্বার্থ ও গোষ্ঠী স্বার্থকে প্রাধান্য? বিশ্বাসঘাতকতা? মুখ ও মুখোশ? দীনতা? দৃশ্যমান শক্তি? দৃশ্যমানের ভেতরের অদৃশ্যমান শক্তি? চেনা শক্তির অচেনা সম্পর্ক? দেয়ালের পর দেয়াল? মানুষের অভিনয়? মানুষ যা না সেটা প্রমাণের চেষ্টা? খেলার পেছনের খেলা? প্রকৃতির প্রতি অনাচার? পেশিশক্তি? হয়তো কোনোটাই না কিংবা সবগুলো? হয়তো জানা-অজানা অনেক কিছু। যা আমরা জানি-বুঝি কিন্তু বলতে গেলেই থমকে যায়। 

এই প্রতিবন্ধকতাগুলো যদি মানবিক মূল্যবোধের উৎকর্ষের পথে প্রতিবন্ধকতা বা দেয়াল হিসেবে বিবেচনা করা হয়, তবে সে দেয়াল ভাঙতে হবে। এক দিন বা দুই দিনে হয়তো তা হবে না। তবে দীর্ঘমেয়াদি গবেষণা ও মানবিক আচরণের নানা দিক বিশ্লেষণ করে এই প্রাচীর ভাঙতেই হবে? সে ভাবনা হোক আমাদের সবার। শিক্ষাক্ষেত্রে মানবিক আচরণ উন্নয়নের বিষয়টিকে যুক্ত করলে ইতিবাচক ফলাফল আসতে পারে। তবে সেটি হতে হবে ধারাবাহিক ও মানুষের বেড়ে ওঠার সঙ্গে সম্পৃক্ত।

অসততা ও অন্যায়ের ফলাফল যে ভালো হয় না ফেসবুক থেকে সংগৃহীত গল্পটি থেকে সে শিক্ষা আমরা গ্রহণ করতে পারি। ইন্টারভিউ টেবিলের স্যার কিছুক্ষণ চুপ করে রইলেন। তারপর ভারী গলায় বললেন—বাহ! তোমার সার্টিফিকেট তো বেশ ভালো! তোমাকে আর প্রশ্ন করতে চাচ্ছি না। ধরে নাও তুমি চাকরিটি পেয়ে গেছ। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে বড় স্যারকে উপহার হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা দিতে হবে। এক সপ্তাহের মধ্যে টাকাটা জমা করে দাও। তারপর তোমার নিয়োগ হবে। ছেলেটি ইন্টারভিউ রুম থেকে বের হয়ে বাড়িতে এসে তার বাবাকে জানাল, পাঁচ লাখ টাকা না হলে তার চাকরিটা হবে না। গ্রামের সহজ-সরল বাবা নিজের ছেলের চাকরির জন্য ভিটাবাড়ি বিক্রি করে পাঁচ লাখ টাকা জোগাড় করলেন। তারপর বড় স্যারকে উপহার হিসেবে পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে ছেলেটি চাকরি পেয়ে গেল। আজ বড় স্যারের ছেলের জন্মদিন। বাড়িতে বিশাল পার্টির আয়োজন করা হয়েছে। 

তিনি বাড়িতে ঢুকেই তার ছেলের নাম ধরে ডাকতে শুরু করলেন। ছেলে কাছে আসতেই বড় স্যার ‘হ্যাপি বার্থডে মাই সান’ বলতে বলতে ছেলের হাতে পাঁচ লাখ টাকার বাইকের চাবি তুলে দিলেন। বাইক পেয়ে ছেলেটি খুশিতে আত্মহারা হয়ে বাবাকে জড়িয়ে ধরে চিৎকার দিয়ে বলল, আমার বাবা পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ বাবা। বড় স্যারের ছেলে আজ বাইক নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার বেগে রাজপথে ছুটে চলেছে বাইক। হঠাৎ ট্রাকের সঙ্গে ধাক্কা—সব কিছু থেমে গেল। বড় স্যারের ছেলেকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হলো। হাসপাতালের বড় ডাক্তার সাহেব জানালেন, আপনার ছেলের অবস্থা ভালো না, খুব জটিল একটা অপারেশন করাতে হবে। হাসপাতালের কাউন্টারে ১০ লাখ টাকা জমা করে দিন। বড় স্যার কোনো উপায় না দেখে মেয়ের বিয়ের জন্য ব্যাংকে জমিয়ে রাখা টাকাটা কাউন্টারে জমা করে দিলেন। 

বড় ডাক্তার সাহেব আজ খুব খুশি। তিন-চার লাখ টাকার অপারেশনের জন্য ১০ লাখ টাকা নিয়েছেন, পুরোটাই লাভ। খুশিতে তিনি তাঁর একমাত্র মেয়ের জন্য স্বর্ণের নেকলেস কিনে বাসায় ফিরলেন। বাসায় ঢুকেই তিনি তাঁর কলেজপড়ুয়া মেয়েকে মামণি মামণি বলে ডাকতে শুরু করলেন। ডাক্তার সাহেবের বউ কাঁদতে কাঁদতে বললেন, তাঁদের মেয়ে এখনো বাসায় ফেরেনি। বড় ডাক্তার সাহেব তাঁর মেয়েকে অনেক খোঁজাখুঁজি করলেন, কোথাও কোনো খোঁজ না পেয়ে তিনি যখন দিশাহারা হয়ে পড়লেন, ঠিক তখনই অপরিচিত এক নম্বর থেকে ফোন এলো। ফোনেও ওই প্রান্ত থেকে জানাল, আপনার মেয়ে আমাদের কাছে, মেয়েকে ফেরত পেতে হলে মুক্তিপণ হিসেবে ২০ লাখ টাকা দিতে হবে। কথাটা শুনে বড় ডাক্তার সাহেবের স্ত্রী স্ট্রোক করলেন। 

এ ঘটনা থেকে একটি বিষয় পরিষ্কার তা হলো মানুষকে তার কর্মের ফল ভোগ করতেই হয়। কাজেই যেকোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষেত্রে মানুষকে তার ইতিবাচক ও নেতিবাচক ফলাফলগুলো বিশ্লেষণ করে দেখতে হবে। মানুষকে তার মানবিক আচরণ দ্বারা পরিচালিত হতে হবে। দানবিক আচরণ বা অন্য কোনো নেতিবাচক শক্তির আচরণ দ্বারা মানুষ প্রভাবিত হলে তার ফলাফল কখনো শুভকর হয় না। মানুষ তার বিবেক দ্বারা তাড়িত হোক, ভেতরের ঘুমন্ত সত্তাকে জাগিয়ে তুলুক, তবেই মানুষ তার কর্মের মাধ্যমে নিজে যেমন সমৃদ্ধ হবে, সমাজও তেমনি মানুষের দ্বারা সমৃদ্ধ হবে।


আরও খবর



নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে

ছাত্রলীগ কর্মী হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ তিনজন গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জের ছাত্রলীগ কর্মী রাকিব হোসেন হত্যা মামলার পলাতক প্রধান আসামি দেলোয়ারসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। শনিবার বিকেলে র‌্যাব ১১'র মিডিয়া কর্মকর্তা রিজওয়ান সাঈদ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন

গ্রেফতারকৃতরা হলো, শ্রমিক লীগের নেতা দেলোয়ার তার সহযোগি সজিব মিয়া ও রুবেল হোসেন। তাদের সকলের বাড়ি রূপগঞ্জ উপজেলায়।

র‌্যাব জানায়, রূপগঞ্জ থানাধীন গোলাকান্দাইল এলাকায় আধিপত্য বিস্তার এবং পূর্ব শত্রুতার জেরে গত বুধবার (২১ সেস্পেম্বর) রাতে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে যুবলীগকর্মী রাকিবকে হত্যা করে। পরে নিহতের বোন আখি আক্তার বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন। ঘটনার পরপরই হত্যাকারীরা আত্মগোপন করে। র‌্যাব মামলার আসামীদের গ্রেফতারে গোয়েন্দা নজরধারী শুরু করে।

র‌্যাব ১১'র মিডিয়া কর্মকর্তা রিজওয়ান সাঈদ জানান, শুক্রবার রাতে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি সহ তিনজানকে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। পাশাপাশি হত্যাকান্ডে জড়িত অন্যান্য পলাতক আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলমান রয়েছে।


আরও খবর



সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিঃ এর সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রেজাউল করিম ঃ

মাধবদীতে সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিমিটেড মাধবদী’র ৩৯ তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল এগারোটার সময় মাধবদী সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিমিটেড ‘র প্রধান কার্যালয়ের সামনের মাঠে সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিমিটেড ‘র শেয়ার হোল্ডারদের সরব উপস্থিতিতে এ বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস  লিঃ এর সভাপতি ও মাধবদী পৌর মেয়র হাজী মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সাবেক পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও নরসিংদী সদর-১  আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম হীরু(বীর প্রতীক)এমপি, নারায়ণগঞ্জ -২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বাবু এমপি, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের সচিব মোঃ মশিউর রহমান এনডিসি ও সমবায় অধিদপ্তরের নিবন্ধক ও মহাপরিচালক ডক্টর তরুণ কান্তি শিকদার।এসময় বক্তারা বলেন,৫১৯ শতাংশ জমি নিয়ে ১৯৫১ সালে ব্যাক্তি শেয়ার হোল্ডারদের নিয়ে আজগর আলী ভূঁইয়ার নেতৃত্বে সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিঃ এর যাত্রা শুরু হয়।এরপর থেকে বিভিন্ন চড়াই উৎরাই পেরিয়ে আজকের এ অবস্থানে এসে উপনীত হয়েছে।বিগত সময়ে এখানে যারা দায়িত্বে ছিলেন তাদের অনেকেই এখানে বেড়ে ওঠা শতবর্ষী বহু পুরনো মূল্যবান গাছ ও কটন মিলের মূল্যবান মেশিনারিজ বিক্রি করাসহ অর্জনের সিংহভাগ অর্থ লুটেপুটে খেয়ে সাবাড় করেছে। উন্নয়নের নামে শুধু কমিটি বাণিজ্য ছাড়া দৃশ্যমান আর কোন উন্নয়ন তাদের দ্বারা সম্ভব হয়নি। তবে বর্তমানের নির্বাচিত কমিটি বিগত কমিটির চেয়ে অনেক শক্তিশালী। মাধবদী বাসীর টাকার কোন অভাব নেই। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পেলে বর্তমান সভাপতি হাজী মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক’র দক্ষ নেতৃত্বে সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিমিটেডের সম্পত্তিতে নজরকাড়া আধুনিক বিল্ডিং নির্মাণ করতে বেশি সময় লাগবে না। এই সমিতি একদিন বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ সমিতি নির্বাচিত হবে তাই এব্যাপারে বর্তমান কমিটিকে সহায়তা করার জন্য পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সকলের সহযোগিতা কামনাসহ প্রকৃত শেয়ার হোল্ডাররা যেন অবশ্যই এখানে পজিশন ও প্লটের মালিকানা থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে বর্তমান সভাপতি মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক’র প্রতি আহ্বান জানান তারা। এসময় অন্যান্যের মধ্যে এডিসি সার্বিক মোস্তফা মনোয়ার, নরসিংদী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন ভূঁইয়া, সদস্য ওবায়দুর রহমান,আনোয়ার হোসেন, নুরুল ইসলাম ও সাবেক সভাপতি এনায়েতুর রহমান চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।পরে বার্ষিক আয়-ব্যায় বিবরনী পাঠ করেন সোনার বাংলা সমবায় কটন মিলস লিমিটেড এর সভাপতি ও মাধবদী পৌর মেয়র হাজী মোশাররফ হোসেন প্রধান মানিক।


আরও খবর

স্বর্ণের দাম কমেছে

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

তেল-চিনির দাম কিছুটা কমেছে

শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২




নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি হলে তিনশ’ আসনে প্রার্থী দিব.. ববি হাজ্জাজ

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি হলে তিনশ’ আসনে প্রার্থী দিয়ে আগামি জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার ঘোষণা দিয়েছে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন-এনডিএম। শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব ভবনে একটি রেস্টুরেন্টে ত্রি-বার্ষিক জেলা সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন দলের চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ। তিনি বলেন, অগণতান্ত্রিক সরকারের অধীনে দেশ চলতে পারে না। তাই দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে এনডিএম আগামি ২০২৪ সালের নির্বাচনে অংশ নিতে প্রস্তুত রয়েছে। সেই লক্ষ্যে সারা দেশে জেলা কমিটি গঠন করে দলের সাংগঠনিক অবস্থাকে শক্তিশালী করা হচ্ছে। 

বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না দাবি করে ববি হাজ্জাজ বলেন, নির্বাচন কমিশনকে নিরপেক্ষ ভূমিকায় থাকতে হবে। ইভিএম মেশিনে ভোট গ্রহণের ব্যাপারেও প্রশ্ন তোলেন তিনি। সরকারের সমালোচন করে ববি বলেন, এই সরকার সারা দেশে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। তাই অচিরেই নারায়ণগঞ্জ থেকে রাজপথে সন্ত্রাসবিরোধি আন্দোলন শুরু করবে এনিিডএম। 

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে মিঠু আলীকে সভাপতি ও আনিসুর রহমান জহিরকে সাধারণ সম্পাদক করে একুশ সদস্যবিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটি ঘোষণা করা হয়।


আরও খবর



চার্লসকে রাজা ঘোষণা করলো কানাডা

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

চার্লস ফিলিপ আর্থার জর্জকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজা ঘোষণা করেছে কানাডা। শনিবার দেশটিতে ব্রিটিশ রাজার প্রতিনিধি ও কানাডার গভর্নর জেনারেলের সরকারি বাসভবনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তৃতীয় চার্লসকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজা ঘোষণা করে দেশটি।

মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর নতুন এ ঘোষণার একটি আদেশে স্বাক্ষর করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। গত বৃহস্পতিবার ৯৬ বছর বয়সে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে যুক্তরাজ্য, কানাডাসহ ১৪টি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান হয়ে যান চার্লস। এদিকে রানির মৃত্যুতে ১০ দিনের দীর্ঘ শোক ঘোষণা করেছে কানাডা। কানাডা ১৮৬৭ সালে ব্রিটেনের উপনিবেশ থেকে মুক্ত হলেও ১৯৮২ সাল পর্যন্ত ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের অধীনে ছিল। তবে দেশটি এখনও সাবেক ব্রিটিশ সাম্রাজ্যভুক্ত দেশগুলোর সংস্থা কমনওয়েলথের সদস্য।


আরও খবর

জাতিসংঘে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

জাতিসংঘের ভূমিকায় হতাশ মালয়েশিয়া

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




লালমনিরহাটে নাবিল পরিবহনের যাত্রী ধর্ষনের অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

লালমনিরহাটে নাবিল পরিবহনের যাত্রী ধর্ষনের অভিযোগে আটক দুজন 

লালমনিরহাট সদরের সেনা মৈত্রী হকার্স মার্কেটের সামনে জেলা মোটর মালিক সমিতি সংলগ্ন নাবিল পরিবহনের যাত্রী  কাউন্টারের পাশের একটি কক্ষে   নিয়ে যায় এবং কর্মচারী বাবলু মিয়া,তসলি মিয়া তাকে ধর্ষন করে এবং  রাতেই ঢাকার উদ্দেশ্যে বাসে তুলে দেয়।  ঘটনাটি ঘটে ১ লা সেপ্টেম্বর মর্মে জানান ভিকটিম ও তার মা।  আরও জানান উক্ত ষোড়শীর বাড়ী জেলার হাতিবান্ধা থানার সিন্দুরনা ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ সিন্দুর্না গ্রামের জয়নুল ইসলামের কন্যা। ভিকটিম ( ছদ্মনাম মমতা খাতুন)  তার প্রতিবেশীএক দুলাভাই  সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক হয় উক্ত ভ্যানচালক প্রেমিক তাকে নাবিল পরিবহনের কাউন্টারে দুপুরে পৌছায় দিয়ে আত্মগোপনে যায়। 

পরপ এ বিষয়ে ভিকটিমের মা রাশেদা ঘটনাটি জানতে পেয়ে স্থানীয় চেয়ারম্যানকে জানালে তার অসুস্থতার দরুন প্রথমে হাতিবান্ধা থানায় যান সেখানকার পরামর্শ মতে মঙ্গলবার দিনগত রাত অনুমান সাড়ে নয়টার দিকে সদর থানায় ভিকটিম সহ হাজির হয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানালে  ওসি এরশাদুলের নেতৃত্বে সোয়া ১১টার সময় উক্ত কাউন্টার কর্মচারী বাবলু ও তসলিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে।  

অভিযোগের ভিত্তিতে দুজনকে আটক করার কথা নিশ্চিত করেছেন অফিসার ইনচার্জ এরশাদুল। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত অভিযোগটি নথিভুক্ত করার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর