Logo
শিরোনাম

ঢাকায় বাড়ছে বন্যার ঝুঁকি

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : আগে ঢাকার মতো প্রাকৃতিক নিষ্কাশন ব্যবস্থা পৃথিবীর কোথাও ছিল না। কিন্তু এরই মধ্যে সেই নিষ্কাশন ব্যবস্থা মরে গেছে। ভরাট করা হয়েছে জলাশয়, পুকুর ও খালবিল। ফলে রাজধানী শহরটি মারাত্মকভাবে বন্যাকবলিত হওয়ার আশঙ্কায় আছে।

এতে এক দশকেরও কম সময়ের মধ্যে নতুন করে বন্যার ঝুঁকিতে পড়েছেন দেড় কোটি মানুষ, যা দেশের জনসংখ্যার ৯ শতাংশ। প্লাবনভূমি ও নদী তীরে বসতি এবং অবকাঠামো বেড়ে যাওয়ায় এ ঝুঁকি আরো বাড়ছে। ফলে জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে বন্যার ভয়াবহতা সামনের দিনগুলোতে আরো তীব্র হওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

 ( বাংলাদেশের নদী এলাকায় মানব উপস্থিতি ও বন্যার ঝুঁকির গতিবিধি ) বিভিন্ন সময়ের উপগ্রহের ছবির একটি মূল্যায়ন’ শিরোনামের গবেষণা করে জিওকার্টো ইন্টারন্যাশনাল। যা একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা সাময়িকীতে প্রকাশ পেয়েছে। নিবন্ধটির গবেষকদের একজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক।

এছাড়া অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ গবেষণায় দেখা গেছে, বর্তমানে বাংলাদেশে আট কোটি ৭০ লাখ (প্রায় পৌনে ৯ কোটি) মানুষ সরাসরি বন্যাকবলিত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন। এসব মানুষ বাস করছেন দেশের ছোট-বড় নদীগুলোর দুই কিলোমিটারের মধ্যে। এ ছাড়াও বিভিন্ন কারণে মানুষের জন্য বন্যার ঝুঁকি বেড়েছে। যেমন, নদীর ১-২ কিলোমিটার তীরবর্তী বনাঞ্চল ৯১.৯৮ শতাংশ সংকুচিত হয়ে গেছে। তৃণভূমি ৬ শতাংশ ও অনুর্বর ভূমি কমেছে ২৭.৯২ শতাংশ। এ ছাড়াও প্লাবনভূমি আর নদী অববাহিকায় বসতি ও স্থাপনা নির্মাণ বেড়েছে ১১ শতাংশের বেশি।

এদিকে, মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার আর্থ অবজারভেটরির এক প্রতিবেদন বলছে, ১৯৮৮ সালে ঢাকার জনসংখ্যা ছিল ৫৭ লাখ। কিন্তু ২০২২ সালে এসে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই কোটি ২০ লাখে। জনসংখ্যার এই ব্যাপক বৃদ্ধির কারণে বিশ্বের সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ শহরগুলোর একটি এখন ঢাকা। যে কারণে এখানকার বহু মানুষকে বন্যাপ্রবণ এলাকাগুলোতে বাস করতে হচ্ছে।

ন্যাচার সাময়িকীর এক বিশ্লেষণ বলছে, ঢাকার চারপাশেই নদী। দক্ষিণে বুড়িগঙ্গা, পশ্চিমে তুরাগ, উত্তরে টঙ্গীখাল ও পূর্বে বালু নদী। ২০০০ সাল থেকে বুড়িগঙ্গা ও বালু নদীর তীরে জনবসতি বেড়েছে।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৮ সালের বন্যায় ডুবে গিয়েছিল ঢাকা। এতে দুই হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। আর ১৯৯৮ সালের বন্যায় মারা যান ৯০০ জন। প্রায় সাড়ে ৩০০ কোটি মার্কিন ডলারের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছিল।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, উপগ্রহের মাধ্যমে তোলা রাতের ছবির পিক্সেলের আলো বিশ্লেষণ করে দেশের কোথায় কোথায় মানুষের বসতি গড়ে উঠেছে, সে সম্পর্কে ধারণা নেওয়া হয়েছে। ছবিতে কোথাও কোথাও আলোর উজ্জ্বলতা বেড়েছে।

আলোর উজ্জ্বলতার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে গবেষক দলের নেতা ও অস্ট্রেলিয়ার কার্টিন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আশরাফ দেওয়ান বলেন, ‘আমাদের নগর কিংবা গ্রামীণ অঞ্চলে আলো থাকে। যেসব অঞ্চলে শিল্পকারখানা আছে, সেখানেও আলো থাকে। নাসার বিশেষায়িত একটি উপগ্রহ আছে, যেটা কেবল রাত্রিকালীন আলোর তথ্য চিত্রায়ন করে। অর্থাৎ কোথায় আলো কমেছে কিংবা কোথায় বেড়েছে, তা ধারণ করতে পারে এ উপগ্রহ। এ রকম উপগ্রহ দিয়ে ১৯৯২ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ৩০ বছরের ডেটা নিয়েছি আমরা। কিন্তু এ গবেষণায় ২০০০-২০১৮ সালের তথ্য ব্যবহার করেছি।

বন্যার ঝুঁকি কেন বেড়েছে তার ব্যাখ্যা দিয়ে এই গবেষক আরো বলেন, প্লাবনভূমি কমে গেলে বন্যার পানি কোথায় যাবে? তখন তা মানুষের বসতবাড়ি থেকে শুরু করে অবকাঠামোগুলো ডুবিয়ে দেবে। রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত করবে।

গবেষণা অনুসারে ঢাকা সবচেয়ে বেশি বন্যার ঝুঁকিতে। কারণ রাজধানীর জনসংখ্যার বড় একটি অংশ নদীর পাশে বসবাস করে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক, পানিসম্পদ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিশেষজ্ঞ আইনুন নিশাত বলেন, আগে পানি যেখানে ওঠার কথা উঠত, এখনো যেখানে ওঠার কথা সেখানে ওঠে। কিন্তু পানি যেখানে ওঠার কথা, এখন সেখানে মানুষ থাকে। কাজেই মানুষ থাকে বলে তাদের ক্ষতি হচ্ছে। আগে ঢাকার শ্যামলী পর্যন্ত পানি আসত, কল্যাণপুরে পানি আসত। এখন মানুষ থাকতে চাইলে পানি আটকাতে হবে। আর পানিকে আটকানো হয়েছে। আর ভিতরে যাতে পানি থাকতে না পারে, সে জন্য পাম্পিংয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অর্থাৎ পানির সঙ্গে যুদ্ধ করে বসবাস করতে চাইলে পানি সরিয়ে দিতে হবে। কাজেই পানিকে দোষ দিয়ে কিছু হবে না, পানির কাজ পানি করবেই।


আরও খবর

ই-টিকেটিংয়ে বন্ধ অতিরিক্ত ভাড়া

শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২




নারায়ণগঞ্জে অস্ত্র মামলায় একজনের ১৭ বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার একটি অস্ত্র মামলায় শাহিন ওরফে  চুষনি শাহীনকে ১৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। দুপুরে নারায়ণগঞ্জ যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ কাজী ইয়াসিন হাবীবের আদালত এ রায় প্রদান করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত শাহীন ফতুল্লার ফাজিলপুর এলাকার মৃত মুনসুর কন্ট্রাক্টরের ছেলে।

কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান জানান, ২০১৫ সালের ৬ এপ্রিল র‌্যাব-১১ ফতুল্লা এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে শাহীনকে গ্রেফতার করে। এসময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও একটি চাকু উদ্ধার করা হয়। পরে এই ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ে করা হয়। মামলার তদন্ত শেষে স্বাক্ষীদের সাক্ষ্যগ্রহণের ভিত্তিতে অস্ত্র আইনের দুইটি ধারায় ১৭ বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেন আদালত।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে মানব সেবায় এতিম মিসকিন কল্যাণ সংস্থা ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক : 

বাগেরহটের মোরেলগঞ্জে মানব সেবায় অসহায় এতিম মিসকিন ও প্রতিবন্ধীদের পাশে দাড়িয়েছে “এতিম মিসকিন কল্যাণ সংস্থা’।

এ সংস্থাটি ২০১৭ সাল থেকে সংস্থার সভাপতি হাসানুজ্জামান বাবু, সাধারণ সম্পাদক মো. নূরুল ইসলাম মোল্লার, দপ্তর সম্পাদক আলী ইমাম তপুসহ এ কমিটির সদস্যরা নিজেদের আর্থিক সহায়তায় ও বিদেশে কর্মরত অবস্থানকারি মানুষের সহযোগিতায় এ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

এতিম মিসকিন অসচ্ছলদের দেওয়া হয় একবেলা দুপুরের খাবার। মাসের প্রথম সপ্তাহের শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বারইখালীর মোল্লা মার্কেটে প্রায় ২ থেকে আড়াই শ’ নারী-পুরুষ অসচ্ছল প্রতিবন্ধী অসহায়কে বিশেষ আয়োজনে দুপুরের খাবার খাসির বিরানী পরিবেশন করে থাকে। খাবার পরিবেশনে অর্ভ্যাথনা বিষয়টিও ব্যাতিক্রমী।


খাবার শেষে একাধিক এতিমরা বলেন, এ সমাজের বিত্তবানরা প্রতিনিয়ত ভাল মন্দ খেয়ে তাদের যে খাবার অপচয় হচ্ছে তা আমরা চোখেও দেখিনা। বছরে একবার দামি বড় মাছ ও  মাংস কেনার আর্থিক সচ্ছলতা আমাদের নেই। তারপরেও এরকম একটি আয়োজন যুবকদেরকে আল্লাহর কাছে দোয়া করি। তারা আমাদের একবেলা ভাল খাবার দিতে পারায়।    

  সাধারণ সম্পাদক মো. নূরুল ইসলাম মোল্লার বলেন, মানবসেবায় এলাকার এ সংস্কাটি প্রাথমিকভাবে ছোট পরিসরে যাত্রা শুরু হলেও এর পরিধি অনেকটাই বেড়ে যাচ্ছে। সমাজের অসচ্ছল, এতিমদের শুধু একবেলা খাবার নয়, চিকিৎসা, শিক্ষার ব্যবস্থাও গ্রহন করা হচ্ছে। একবেলা নয় প্রতিনিয়ত এ অসহায়দের খাবার দিতে পারলে নিজেকে আত্ম তুষ্টু মনে হতো। সমাজে বিত্তবানদের এ সংস্কার পাশে দাড়াবার আহবানও জানান তিনি। 


আরও খবর



সোনারগাঁও থেকে ১২ হাজর ইয়াবা ও ১২ পিছ আইস সহ ১ জন গ্রেফতার

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ;


অভিনব কায়দায় মাদক পাচারকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাও থেকে প্রায় ১২ হাজর পিছ ইয়াবা ও ১২ পিছ আইস সহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাতে সোনারগাঁয়ের মেঘনা এলাকা থেকে ট্রাকসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়। শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো: আমির খসরু এক ব্রিফিং  এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, পুলিশ গোপন সূত্রে জানাতে পায় আলুর বিচ ভর্তি একটি  ইয়াবা ও আইস মাদক নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে মুন্সিগঞ্জে যাচ্ছে। এ সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতে  মেঘনা এলাকা পুলিশ চেক পোষ্ট এর সামনে একটি ট্রাক আটক করে চালকের সীটের নিচ থেকে ১১ হাজার ৮ শ’ ইয়াবা ও ১২ পিছ আইস উদ্ধার করা হয়। আটককৃত চালক হোসেন মুন্সির দেয়া তথ্য মতে অভিযান চালিয়ে আবু হানিফ নামে আরো একজনকে গ্রেফতার করা হয়। উদ্ধারকৃত মাদকের মূল্য প্রায় ৬০ লাখ টাকা বলে তিনি জানান।


আরও খবর



বছরের প্রথম দিনই নতুন বই দেওয়া হবে

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৪ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

বছরের প্রথম দিনই শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। নির্ধারিত সময়ে বই পৌঁছে দিতে দ্রুত ছাপার কাজ ও মান নিয়ন্ত্রণে কঠোর মনিটরিং করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিনামূল্যের পাঠ্যবই ছাপার জন্য কাগজ নিয়ে আমাদের বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছে। বর্তমানে বিশ্ববাজারে কাগজের দাম বেড়েছে। এ ছাড়াও নানা সংকট রয়েছে। টেন্ডার প্রক্রিয়ার নানা কারণে বিলম্বিত হয়েছে। তবে সব সংকট মোকাবিলা করে নির্ধারিত সময়ে বই পৌঁছে দিতে হবে। আশা করছি, সামনে লোডশেডিং কমে যাবে। গত দুই বছরে করোনার মধ্যেও আমরা যথাসময়ে বই দিয়েছি। এবারও সময়মতো নতুন বই দিতে পারব ইনশাআল্লাহ।

তিনি বলেন, আমরা বইয়ের মানটাও ঠিক রাখতে চাই। কাগজের পাল্প পাওয়া না গেলে সেকেন্ডারি পাল্প দিয়ে হলেও কাগজ দিতে হবে। সেখানে যদি কিছুটা হেরফের হয়- গ্রহণযোগ্য মাত্রায় তো হতেই হবে।
 
দীপু মনি বলেন, এমনিতেও তো আপনারা প্রত্যেকবার মান নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। আমাদের ৩৫ কোটি বই সবগুলো তো আসলে চেক করা সম্ভব হয় না। কিন্তু আমরা চাই এটাকে মানে রাখতে। সম্পূর্ণ চেষ্টা আমাদের থাকে। 


আরও খবর

আগামীকাল এসএসসি সমমানের ফল

রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২

ঢাবির ৫৩তম সমাবর্তন আজ

শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২




মঞ্চ মাতালেন নোরা ফাতেহি

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

ঢাকায় এসেই মঞ্চ মাতালেন বলিউড অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহি। নেচে-গেয়ে মুগ্ধতা ছড়ালেন তিনি। রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় উইমেন লিডারশিপ করপোরেশনের আয়োজনে ‘উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক আয়োজনে অংশ নেন নোরা ফাতেহি।

প্রথমে মঞ্চে নোরা ফাতেহির জমকালো এন্ট্রি। রাত ৯টা ৪০ মিনিটে তিনি মঞ্চে এলে উপস্থিত দর্শক-ভক্তরা তাকে ‘নোরা নোরা’ বলে আওয়াজ তুলে স্বাগত জানান। এরপর পর্দায় দেখানো হয় তার অভিনয় ও গান। পরে সহশিল্পীদের সঙ্গে নিয়ে হাজির হন নোরা নিজেই।

এরপর শুরু হয় পারফরম্যান্স। ‘দিলবার’ গানের সঙ্গে নাচ করেন নোরা। শুধু দর্শকরাই তার নাচে উন্মাতাল হননি, নোরা নিজেও ভক্তদের আবেগ সাড়া দিয়েছেন। 

শুরুতেই মঞ্চে উঠে নোরা ফাতেহি হাত নেড়ে ঢাকার অনুগারীদের মাঝে অপার ভালোবাসা ছড়িয়ে দেন। মঞ্চে নোরার বক্তব্য শুনে মনে হয়েছে তিনি বাংলাদেশকে খুব ফিল করছেন। এ দেশের মানুষের ভালোবাসায় তিনি মুগ্ধ।


আরও খবর