Logo
শিরোনাম

ডিসেম্বরে চালু হবে মেট্রোরেল

প্রকাশিত:Friday ২৫ November ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চালু হবে মেট্রোরেল। ২৩ নভেম্বর রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানিয়েছেন ডিএমটিসিএল ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক।

অনুষ্ঠানে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রোরেল 'এমআরটি লাইন-ওয়ানে' পিতলগঞ্জ ডিপো এলাকার ভূমি উন্নয়নে ঠিকাদার নিয়োগে চুক্তি সই করে ডিএমটিসিএল।

তিনি আরো বলেন, প্রাথমিকভাবে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার ভায়াডাক্ট খুলে দেওয়া হবে। এ পথ পাড়ি দিতে পড়বে ৯টি স্টেশন। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেলের নির্মাণসামগ্রী সরানো হয়েছে। বিশেষ করে কংক্রিট ও স্টিলের রোড ট্রাফিক বেরিয়ার। এ ট্রাফিক বেরিয়ার এক সময় ভুগিয়েছে পথচারীদের। মূলত মেট্রোরেলের পিলার নির্মাণ করার সময় নিরাপত্তার জন্য এগুলো ব্যবহার করা হয়।

ডিএমটিসিএল জানায়, সময়াবদ্ধ কর্মপরিকল্পনা ২০৩০ অনুসরণে ২১ দশমিক ২৬ কিলোমিটার দীর্ঘ প্রায় ৩৩ হাজার ৪৭২ কোটি টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে উত্তরা উত্তর থেকে কমলাপুর পর্যন্ত বাংলাদেশের প্রথম মেট্রোরেলের নির্মাণকাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে। চলতি বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সার্বিক গড় অগ্রগতি ৮৩ দশমিক ১৩ শতাংশ। প্রথম পর্যায়ে নির্মাণের জন্য নির্ধারিত উত্তরা তৃতীয় পর্ব থেকে আগারগাঁও অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৯৪ দশমিক ২২ শতাংশ। দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্মাণের জন্য নির্ধারিত আগারগাঁও থেকে মতিঝিল অংশের পূর্ত কাজের অগ্রগতি ৮৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ। ইলেকট্রিক্যাল ও মেকানিক্যাল সিস্টেম এবং রোলিং স্টক (রেলকোচ) ও ডিপো ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ কাজের সমন্বিত অগ্রগতি ৮৩ দশমিক ৮১ শতাংশ। প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন অনুসরণে মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার বর্ধিত করার জন্য নকশা পর্যন্ত যাবতীয় কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। ভূমি অধিগ্রহণের কার্যক্রম চূড়ান্ত পর্যায়ে। এ অংশের পরিষেবা যাচাই এর কাজ শুরু করা হয়েছে।


আরও খবর



পুলিশ বাহিনীকে জনগণের আস্থা অর্জন করতে হবে---প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

বাংলাদেশ পুলিশকে দক্ষতা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করার আহ্বান জানিয়েছেন সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবার আগে পুলিশ বাহিনীকে জনগণের আস্থা অর্জন করতে হবে। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমন জনগণের ভূমিকা ও সহযোগিতা প্রয়োজন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রবিবার ২৯ জানুয়ারি রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে ৩৮ তম বিসিএস''পুলিশ''ক্যাডার শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী ও কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলে বলেন।

এসময় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ২০৪১ইং সালের বাংলাদেশ হবে স্মার্ট বাংলাদেশ। গড়ে তোলা হবে, স্মার্ট সেবা, স্মার্ট শহর, স্মার্ট শিক্ষা ব্যবস্থা। সেখানে বাংলাদেশ পুলিশ কেও স্মার্ট পুলিশ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এজন্য সরকার সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করবে।


সাইবার ক্রাইম রোধে পুলিশের ভূমিকার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তুলেছি। মানুষ ডিজিটাল সেবা পাচ্ছে। তবে এর ভালো দিক যেমন আছে, তেমনি অনেক খারাপ দিকও রয়েছে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে একটি গোষ্ঠী সাইবার ক্রাইম সহ জালিয়াতি, জঙ্গিবাদ বাড়ছে। এসব প্রতিরোধে পুলিশ বাহিনী কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ বাহিনীর জাতীয় জরুরি সেবা (৯৯৯) দেশের মানুষের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। মানুষ এ নম্বরে কল করে দ্রুত সেবা পাচ্ছেন। বিপদে তারা পুলিশের তাৎক্ষণিক সেবা পাচ্ছেন। ফলে তাদের পুলিশের প্রতি আস্থা বাড়ছে। নারী নির্যাতন রোধ ও সন্ত্রাস দমনেও তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা হিসেবে এ সেবা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে বলেও বক্তব্যে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার টানা ৩ মেয়াদে দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র সহ মেগা প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছে সরকার। বিশ্বে বাংলাদেশ এর ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল করতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। তবে বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিতে একটি গোষ্ঠী উঠে পড়ে লেগে আছে। তারা হত্যা, লুটপাট, অগ্নি-সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ এর মাধ্যমে বাংলাদেশকে এগিয়ে যাওয়ার পথে বাধা হয়ে দাড়িয়েছে। তবে পুলিশ বাহিনী পেশাদারিত্বের সঙ্গে অগ্নি-সন্ত্রাস, বোমাবাজ, জঙ্গিবাদে জড়িতদের প্রতিহতে কাজ করে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাসের সময়ও পুলিশ বাহিনী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষের পাশে থেকে সেবা করেছে বা দিয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হওয়া ব্যক্তিকে যখন তার পরিবার সহ আত্মীয়-স্বজনরাও দাফন করছিলো না, তখনও পুলিশ সদস্যরা এগিয়ে গিয়েছিলো। 


আরও খবর



শীতে কাবু উত্তরের জনপথ, ঘনকুয়াশায় বিপাকে কর্মজীবি মানুষজন

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি :

হিমেল হাওয়া আর ঘনকুয়াশার  দরুন কাবু উত্তরের জনপথ, খড়কুটোর আগুনে শরীর গরম রাখার চেষ্টা কর্মজীবি ও পেশাজীবি মানুষজন। বিকেল থেকে শুরু করে সকাল ৮ টা পর্যন্ত ঘনকুয়াশা ও হিমেল হাওয়ায় অনেকে অতী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেনা। রাতের বেলা ফুটপাতে গরম কাপড় কিনতে ভীর জমাচ্ছেন অনেকে।  টানা ৭দিনপর লালমনিরহাটের আকাশে দেখা দিয়েছে নিরুত্তাপ সূর্যের আলো।   গত কয়েকদিনের চেয়ে মাত্র ৩ পয়েন্ট তাপামাত্রা বৃদ্ধি পেয়ে আজ ৮ডিগ্রী সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। বৃষ্টির সম্ভাবনা না থাকেলও আরও কয়েকনি থাকতে পারে মেঘলা আকাশ সহ এমন কনকনে শতি। কর্মজীবি, রিক্সাওয়ালারা জানান,সড়কে লোকজন না থাকায় তারা যাত্রী না পাওয়ায় বিপাকে পরেছেন। হাসাপাতল গুলোতে শিশুসেহ নানান বয়সী রোগিদের উপচে পরা ভীর লক্ষ্যকরা গেছে। চিকিৎসক শঙ্কট থাকায় হিমসিম খাচ্ছে ডাক্তাররা ।   

কথায় আছে,মাঘের শীতে কাবু হয়েছে পড়েছে উত্তরের জনপদ পঞ্চগড়সহ পার্শবর্তী কয়েকটি জেলার জনজীবন। টানা চার দিন ধরে বয়ে যাওয়া মৃদু শৈত্যপ্রবাহে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন এসব এলাকার নিম্নআয়ের মানুষেরা। আজ লালমনিরহাটে ৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপামাত্রা রেকর্ড করা হলেও পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় সর্ব নিম্ন ৬ দশমিক ৮ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এনিয়ে টানা ৭ দিন সবনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। তবে আগের তুলনায় গতকাল কুয়াশার দাপট ছিলো কিছুটা কম। এদিকে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে চলমান মৃদু শৈত্য প্রবাহ থাকবে আরও দুই-একদিন।

লালমনিরহাট,কুড়িগ্রাম,তেতুলিয়া উপজেলায় কয়েক দিন থেকে উত্তরের হিমেল বাতাস ও ঘন কুয়াশায় শীতের দাপট বেড়েই চলছে। মাঘের ৫ম দিনেও  কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে উত্তর দিকে থেকে হিমেল হাওয়া বইতে শুরু করে। পাশাপাশি রাত গভীর হওয়ার সাথে সাথে ঘন কুয়াশায় আচ্ছাদিত হয়ে পড়ে পুরো জেলা। তা পর দিন সকাল পর্যন্ত কনকনে শীত ও কুয়াশায় মোড়ানো থাকে। তবে দিনের বেলা সূর্যের আলো পরিলক্ষিত হলেও তেমন সূর্যের উত্তাপ থাকে না। এ মাঘের শীতে মানুষ কাজকর্ম তেমন একটা করতে পারে না। শীতের কারণে সময়মতো কাজে যেতে পারছে না। অন্যদিকে দিন দিন জেলার আধুনিক সদর হাসপাতালসহ বাকি চার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বেড়েছে রোগীর চাপ, হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতালে কর্তৃপক্ষ।

তবে আবহাওয়া অফিস বলছে, উত্তর দিক থেকে বয়ে আসা হিম বাতাস ও ঘন কুয়াশার কারণে দিনদিন শীতের তাপমাত্রা ওঠানামা করছে এবং শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রতি বছর এ জেলায় মৌসুমের প্রথম দিকে শীতের আগমন ঘটে এবং অন্যান্য জেলায় তুলানায় শেষে বিদাই নেয়। পৌষ-মাঘ দুই মাস শীতকাল, ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি। মূলত নভেম্বর মাসের ২য় সপ্তাহ থেকে শীতের আগমন ঘটলেও পঞ্চগড়ে অক্টোবর মাসের শেষের দিকেই শীত শুরু হয় যায়।

এদিকে লালমনিরহাট ২৫০ শয্যার অধুনিক সদর হাসপাতালসহ জেলার ৪টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দিনদিন শীতজনিত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে । প্রতিদিন জ্বর, সর্দি, নিউমোনিয়া, ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে শিশু ও বয়স্করা। তবে এ রোগে বয়স্কদের চেয়ে শিশুরা আক্রান্ত হচ্ছে। হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

অন্যদিকে  লালমনিরহাট জেলায় তেমন কোনো ভারী শিল্প কলকারখানা না থাকায় বেশির ভাগ মানুষ কৃষক,পাথরশ্রমিক হিসাবে কাজ করেন। জেলার মোট জনসংখ্যার একটি বড় অংশ গরিব। যদিও জেলা প্রশাসন বলছে, জেলার ৫ উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়নে এ পর্যন্ত সাড়ে ৩৮ হাজার শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে এবং তা অব্যাহত রয়েছে। 

জেলা গণতন্ত্রী পার্টি ধরলা চরাঞ্চলের কিছু সংখ্যক সহ পৌর এলাকায় প্রায় ২শত কম্বল বিতরণ করেছেন। জেলা প্রমাসক মোহাম্মদ উল্ল্যা সহ   তাছাড়াও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান , উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সুজন ,হাতিবান্ধা উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা মাহমুদুল হাসান সোহাগকেও শীতার্ত মানুষের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করতে দেখা গেছে।  

হিমালয়ের পাদদেশে হওয়ায় লালসনিরহাটে প্রতি বছর শীত মৌসুমে বেশি শীত অনুভূত হয়। লালমনিরহাট  জেলা প্রশাসন,পুলিশ বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গরিব, অসহায় ও শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ শুরু হয়েছে এবং তা অব্যাহত রয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি যারা প্রকৃত গরিব, অসহায় ও শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করার।

মৃদু শৈত্য প্রবাহ থাকবে আরও ২/৩দিন।  লালমনিরহাট পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান,আইন শৃঙ্খলা ঠিক রেখে মানবিক কারণে এ জেলার শীতার্ত মানুষদের মাঝে  সাধ্যমতো শীত বস্ত্র বিতরণ চলছে।   

এদিকে আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায় দেশের কয়েকটি জেলায় মৃদু চলমান শৈত্য প্রবাহ আরও দুই-একদিন থাকবে।আরও বলেন,লালমনিরহাট ‘দিনাজপুর, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, চুয়াডাঙ্গা এবং মৌলভীবাজারে মৃদু/মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এই জেলাগুলোতে আরও এক থেকে দুইদিন মৃদু শৈত্য প্রবাহ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।’

আবহাওয়ার তথ্য জানিয়ে আবহাওয়া অফিসের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে। একই সঙ্গে মধ্যরাত থেকে ভোর পর্যন্ত নদী অববাহিকা এবং উত্তরাঞ্চলে কুয়াশা থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। বড় কোনো পূর্বাভাস আপাতত নেই।’

অন্যদিকে জেলায শীতজনিত রোগে আকান্ত হয়ে কমপক্ষে ১৩ জন শিশু ও ৫ জন বয়স্ক রোগী মারাযাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

হাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, লালমনিরহাট ,কুড়িগ্রাম এবং পঞ্চগড়ে মৃদু ও মাঝারি শৈত্য প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, যা অব্যাহত থাকবে। এ শৈত্য প্রবাহ রংপুর বিভাগের অন্যান্য এলাকায় এবং রাজশাহী ও খুলনা বিভাগের কিছু কিছু এলাকায় বিস্তার লাভ করবে। সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।তবে আপাতত বৃষ্টির কোন শঙ্কা নেই ।


আরও খবর



প্রেমিকাকে তুলে নিতে এসে সাবেক প্রেমিক সহ ৪ জন আটক

প্রকাশিত:Friday ২৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

যুবতীকে জোর-পূর্বক প্রাইভেটকারে তুলেনিয়ে যাওয়ার সময় সাবেক প্রেমিক সহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। 

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব কাম্প থেকে প্রতিবেদক কে জানানো হয়, র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান এবং স্কোয়াড কমান্ডার সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানা এর নেতৃত্বে বুধবার দুপুর পনে ১২টারদিকে জয়পুরহাট জেলার সদর উপজেলার পাঁচুরমোড় এলাকা 

হতে ভিকটিম যুবতীকে উদ্ধার সহ ভিকটিম এর সাবেক প্রেমিক পরিচয়দানকারী অপহরণকারী আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) সহ সহ মোট ৪ জনকে আটক করা হয়।

আটকৃতরা হলেন, লালমনিরহাট জেলা সদর উপজেলার পঞ্চগ্রাম খন্ডিকরপাড়া গ্রামের 

মোঃ ফয়জার রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) ও তার ৩ সহযোগী লালমনিরহাট জেলা সদর উপজেলার শিবরাম গ্রামের মৃত আলম মিয়ার ছেলে ওবায়দুল ইসলাম(২৬), সাদেক নগর গ্রামের মোঃ ইসলাম এর ছেলে ময়নুল হক (২৩) এবং একই গ্রামের আমিনুল ইসলাম এর ছেলে সোহেল রানা(২২)।

র‌্যাব আরো জানান, বুধবার সকাল ১০ টারদিকে ভিকটিম যুবতী (১৮) জয়পুরহাট জেলা সদর থানাধীন পাচুরমোড় এলাকায় শপিং করার সময় ভিকটিম যুবতীর সাবেক প্রেমিক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মাসুম (২২) ও তার ৩ জন সহযোগী ভিকটিম যুবতীকে জোরপূর্বক ভাড়াকরা একটি প্রাইভেটকারে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। ঘটনাস্থলটি র‍্যাব ক্যাম্প হতে আনুমানিক ৪০০-৫০০ গজ দূরে অবস্থিত। এসময় আমাদের জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের ৬ জন দায়িত্বরত এফএস সদস্য পাম্পে বাইকের জ্বালানি তেল নিতে যাওয়ার সময় বিষয়টি লক্ষ করেন এবং কোম্পানি অধিনায়ককে বিষয়টি অবহিত করলে জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের আভিযানিক দল দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অপহরণকারী চক্রের মূলহোতা সহ ৪ জন সদস্যকে আটক ও ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিম যুবতীকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। পরে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তারা স্বীকার করে যে, ভিকটিম যুবতীকে বিয়ে করার উদ্দেশ্যে তারা তাকে জোর করে উঠিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল বলে আটককৃতরা 

র‌্যাবের কাছে শিকার করেছেন।

এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে র‌্যাব।


আরও খবর



জুনের মধ্যে খুলে দেয়া হবে পদ্মা রেল সেতু

প্রকাশিত:Saturday ১৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :


রেল মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন,  আগামী জুন মাসের মধ্যে ঢাকা থেকে ভাঙা র্পযন্ত পদ্মা সেতু দিয়ে রলে পথ চলাচল উপযোগী করা হবে। উন্নয়নের প্রয়োজনে রেলওয়ের নিজস্ব জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। এ নিয়ে কোন দ্বিমত নেই। যে সমস্ত জায়গা উন্নয়নের জন্য ব্যবহার করতে পারছিনা কিন্তু রেলওয়ের দখলে আছে তা চাহিদা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ডাবল রেললাইনের কারনে সড়কে যাতে যানজট সৃষ্টি হতে না পারে এ কারনে বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে আলাপ আলোচনা চলছে। দুপুরে নারায়ণগঞ্জে ডাবল রেললাইন প্রকল্পের কাজ পরিদর্শণ শেষে নগরের শেখ রাসেল পার্কে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াৎ আইভী, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল হাই ও রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকতা সহ অনেকে।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দৈন্যদশা শিক্ষার্থী ৮ শিক্ষক ২

প্রকাশিত:Thursday ০২ February 2০২3 | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

এম. পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর উপস্থিতি দিন দিন কমে যাচ্ছে। প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্কুলগুলোতে দৈন্যদশা। নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই অনেক বিদ্যালয়ে ছাত্র/ছাত্রীদের ছুটি দিয়ে বাড়ি চলে যাচ্ছেন শিক্ষকেরা। ছুটি না নিয়ে অনেকেই থাকছেন অনুপস্থিত। পরেরদিন হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করে দেখানো হচ্ছে নিয়মিত হাজিরা। সময়ের প্রতি তোয়াক্কা না করে ইচ্ছামাফিক আসছেন বিদ্যালয়ে। কোথাও কোথাও প্রধান শিক্ষকের নির্দেশনা মানছেনা সহকারী শিক্ষকেরা। নৈশপ্রহরী পদে অনেকেই মাসের পর  মাস বিদ্যালয়ে না এসেও পার করছেন দিন। সরেজমিনে এরকম একটি বিদ্যালয়ের ৩টি শ্রেণীকক্ষে উপস্থিত শিক্ষার্থী রয়েছে জন ৮। ৫টি পদে কর্মরত শিক্ষক ৫জন থাকলেও উপস্থিত রয়েছে ২জন। সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিদের নেই কোন নজরদারি। প্রথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে বিভিন্ন বরাদ্দ থাকলেও তা ব্যবহৃত হচ্ছে অপরিকল্পিতভাবে। কাজে আসছেনা বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অর্থ বরাদ্দ। দায়সারাভাবে ক্লাসে পাঠ দিয়ে কোনমতে দিন পার করছেন একাধিকরা।

 উপজেলার জিউধরা ইউনিয়নের ২৩১ নং ঠাকুরনতলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ বিদ্যালয়টি ১৯৯০ সালে স্থাপিত। মঙ্গলবার সময় দুপুর ১২টা ৩০ মিনিট। বিদ্যালয়ে মোট শিক্ষার্থী হাজিরা খাতায় ১১৪ জন। উপস্থিতি রয়েছে ৩টি শ্রেণীকক্ষে মাত্র ৮ জন শিক্ষার্থী। এদের পাঠদান দিচ্ছেন সহকারী শিক্ষক ফাতিমা আক্তার ও শান্তনু তাফালী ২ শিক্ষক। ৩য় শ্রেণীতে উপস্থিত ১ জন মাত্র শিক্ষার্থী মারিয়া সুলতানা, চতুর্থ ৪ জন ও ৫ম শ্রেনীতে ৩ জন। একটি  শ্রেণী কক্ষে ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলতে দেখা গেছে। ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক আকলিমা খানম রয়েছেন অফিসিয়াল কাজে উপজেলা সদরে। সহকারী শিক্ষিকা পপি সুলতানা ছুটি না নিয়েও বিদ্যালয়ে অনুপস্থিত। আরেকজন সহকারী শিক্ষিকা খায়রুন্নাহার রয়েছেন ৩ দিনের ছুটিতে। বিদ্যালয়টিতে সরকারীভাবে ক্ষুদ্র মেরামত, ¯িøপ, প্রাক- প্রাথমিক, করোনা সহায়তা সহ একাধিক বরাদ্দ, পুরাতন ভবনের সামনেই নির্মিত হচ্ছে নতুন স্কুল ভবন। এতসব বরাদ্দ পেয়েও হয়নি পরিবর্তন, মানোন্নয়নও হয়নি শিক্ষা ব্যবস্থার। শিক্ষার্থীর উপস্থিতি ক্রমান্বয়ে কমছে।

   এ সম্পর্কে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আকলিমা খানম মুঠোফোনে জানান, তিনি অফিসিয়াল কাজে উপজেলা সদরে যাবার কথা ছিলো। শারীরিক অসুস্থতার কারনে বাড়ীতে রয়েছে। একজন সহকারী শিক্ষক রয়েছে ৩দিনের ছুটিতে, সহকারী শিক্ষক পপি সুলতানার অনুপস্থিতির বিষয়ে তিনি কিছুই জানেননা।

   উপজেলা শিক্ষা অফিসার শেখ মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, তিনি সদ্য মাত্র এ উপজেলায় যোগদান করেছেন। আগামী ১৩ ফেব্রæয়ারি শিক্ষকদের মাসিক সভার পর বিদ্যালয়ের বিদ্যমান অনিয়ম ও সমস্যাগুলোর পরিবর্তন আসবে বলে তিনি মনে করেন।  

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস.এম তারেক সুলতান বলেন, উপজেলার শিক্ষাব্যবস্থার বর্তমান হালহকিকত এভাবে চলতে পারেনা। তিনি নিজেও একটি বিদ্যালয় সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে ১৯ জন শিক্ষার্থীর উপস্থিত পেয়েছেন। এ অবস্থার পরিবর্তন ও ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ইতিমধ্যে শিক্ষা অফিসারদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।  


আরও খবর