Logo
শিরোনাম

ঈদে ঢাকা ছাড়ছে ৬৫ লাখ মানুষ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১২ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৮ থেকে ৯ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ লাখ ৭৮ হাজার ৮৬৬ মানুষ ঢাকা ছাড়েন। ঢাকার বাইরে যাওয়া সিমের হিসাব দিয়ে এমন তথ্য জানান ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

রবিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এ তথ্য তুলে ধরেন তিনি। গত ঈদুল ফিতরে এই সংখ্যা ছিল প্রায় ৮৬ লাখ। তবে এই হিসাব গড়ে জনপ্রতি সিমের সংখ্যায় ধরা হয়েছে। ১৮ বছরের নিচে কেউ এই হিসেবের মধ্যে পড়ে না।

মন্ত্রী চারটি অপারেটর গ্রামীণফোন লিমিটেড, রবি অ্যাজিয়াটা লিমিটেড, বাংলালিংক ডিজিটাল কমিউনিকেশনস ও টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের সিমের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা পরিসংখ্যানটি ফেসবুকে পোস্ট করেন।

এতে দেখা যায়, শুক্রবার ও শনিবারে রবির মোট ১৫ লাখ ৪৫ হাজার, গ্রামীণফোনের ৩৪ লাখ ৪৮ হাজার, বাংলালিংকের ১৪ লাখ ১৭ হাজার ও টেলিটকের ১ লাখ ৬৮ হাজার সিম ব্যবহারকারী ঢাকা ছাড়েন।

তবে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন, মোবাইল ব্যবহারকারীর চেয়ে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া মানুষের সংখ্যা বেশি হবে। কারণ অধিকাংশই পরিবার নিয়ে ঢাকা ছেড়েছেন। একটি পরিবারের সবাই মোবাইল ব্যবহার করে না বিশেষ করে অল্প বয়সীরা। আবার অনেকেই আছেন একাধিক সিম ব্যবহার করেন।


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




বিতর্কিত নির্বাচনের শঙ্কা টিআইবির

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল : জাতীয় নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন (ইসি) ঘোষিত রোডম্যাপ সংশোধন না করলে আবারও ২০১৪ ও ২০১৮ এর মতোই বিতর্কিত নির্বাচনের শঙ্কা প্রকাশ করেছেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। বলেন, ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে।

আন্তর্জাতিক গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক নির্বাচন; গণতান্ত্রিক সুশাসনের চ্যালেঞ্জ উত্তরণে করণীয়’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ইসির রোডম্যাপকে চূড়ান্ত না ভেবে আবার সংশোধন করা যেতে পারে। বিশেষ করে প্রশাসনকে নিরপেক্ষ করতে উদ্যোগ নেয়ার কথা বলেন তিনি।

টিআইবির এ নির্বাহী পরিচালক জানিয়েছেন, তত্বাবধায়ক সরকার আদর্শ গণতান্ত্রিক চর্চা নয়। কিন্তু মন্ত্রিত্ব বহাল রেখে নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডও তৈরি সম্ভব নয়। আইন সংস্কার করে এমপি-মন্ত্রী ও প্রশাসনের হস্তক্ষেপ বন্ধ করার উদ্যোগ নিতে হবে ইসিকেই। নির্বাচনের সময় ইন্টারনেটের গতি হ্রাস ও গণমাধ্যম সংবাদ সংকুচিত করার নজির আছে জানিয়ে ইসিকে গণতান্ত্রিক ক্ষমতার চর্চার আহ্বান জানায় টিআইবি।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রোডম্যাপ বা কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রকাশিত ২০ পৃষ্ঠার কর্মপরিকল্পনায় ২০২৩ সালের নভেম্বরে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। আর ভোট হবে ডিসেম্বরের শেষ অথবা চব্বিশ সালে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে; মোট ১৫ দিনের মধ্যে ভোটের সময় রেখে কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ করা হয়েছে।



আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




মাধবদীতে ডাকাতির প্রস্তুতকলে অস্ত্রসহ ৮ ডাকাত আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধি ঃ 

নরসিংদীর মাধবদীতে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে নরসিংদীর জেলা গোয়েন্দা শাখা ও মাধবী থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৮ জন সদস্যকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। 

পুলিশ জানায়,  গত সোমবার রাত ১.২৫ মিনিটে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাধবদী থানা এলাকা মেহের পাড়া ইউনিয়নের চৌয়া গ্রামে একটি কালভার্টের উপর হতে তাদেরকে আটক করা হয় । এ সময় তাদের সাথে থাকা একটি বিদেশি পিস্তল ,একটি ম্যাগজিন ও ২ রাউন্ড গুলি এবং১টি চাপাতি ,১টি রামদা ,১ টি কাটার, লোহার পাইপ সহ ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত একটি পিকআপ ভ্যান উদ্ধার করা হয়।

আটকৃত প্রত্যেক এই আন্ত:জেলা ডাকাত দলের সদস্য বলে জানায় পুলিশ । আটককৃতরা হলেন মাধবদী থানা সাগরদি গ্রামের মতি মিয়ার পুত্র মোঃ ইব্রাহিম, ডৌকাদি গ্রামের জমির আলীর পুত্র ইউনুস ,নরসিংদী থানার বানিয়াছল  এর আবু তাহের পুত্র রুবেল ,মাধবদী থানার বালাপুর এর জাবেদ আলীর পুত্র আইউব, বিরামপুরের আব্দুল হালিমের পুত্র শাহিন, সাগরদী গ্রামের বাসেত পুত্র শফিকুল ইসলাম বাদল ,আড়াইহাজার থানার শালমদী গ্রামের জালালের পুত্র মোঃ শাহিন ,যশোর কোতয়ালী থানা আব্দুল সাত্তার এর পুত্র জাহাঙ্গীর, পুলিশ জানায় তাদের নামে একাধিক মামলা রয়েছে তারা বিদেশি ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ডাকাতি করার জন্য বের হয়েছিল । নরসিংদী জেলা গোয়েন্দা শাখা ইনচার্জ মোঃ আবুল বাশার বিপিএম-বার এর নেতৃত্বে মাধবদী থানা অফিসার ইনচার্জ রোকনুজ্জামান এর সহযোগিতায় এস আই নইমুল ইসলাম মোস্তাক,এস আই মোফাজ্জল হোসেন, সজিব খান ,রাহুল মজুমদার ,ফরহাদ,রুবেল, হামিদুল ,মান্নান, তুষার সহ আরো বেশ কয়েকজন অভিযানে অংশগ্রহণ করেন । উক্ত বিষয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে মাধবদী থানায় পেনাল কোড ৩৯৯/৪০২ ধারায় এবং ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯অ/১৯(ঋ) ধারায় পৃথক পৃথক এজাহার দাখিল করা হয়েছে।


আরও খবর



লক্ষ্মীপুরে এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতি মামলা

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক লক্ষ্মীপুর ঃ

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছালেহ উদ্দিন মানিক বিরুদ্ধে  ৫ লাখ টাকার চেক জালিয়াতি মামলায় 

সমন জারি করেছেন আদালত। রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট চন্দ্রগঞ্জ আমলী আদালতে মামলা হলে আদালতের বিচারক বেলায়েত হোসেন এ আদেশ দেয়। আগামি ৭ নভেম্বর চেয়ারম্যান মানিককে আদালতে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 

বাদীর আইনজীবী রেহানুল ইসলাম বলেন, পল্লী চিকিৎসক জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে মানিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এতে আদালত সমন জারি করেছেন। এরআগে ১ আগস্ট বাদীর টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য অভিযুক্তকে লিগ্যাল নোটিশ করা হলেও তা পরিশোধ করেননি।  

ছালেহ উদ্দিন মানিক সদর উপজেলার কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়নের গোরারবাগ গ্রামের বাসিন্দা। অভিযোগকারী জসিম একই ইউনিয়নের পূর্ব চরমটুয়া গ্রামের বাসিন্দা ও গ্রাম্য চিকিৎসক। স্থানীয় বাজারের ওষুধের ফার্মেসী ব্যবসায়ী।

এজাহার সূত্র জানায়, মানিক ও জসিমের সঙ্গে ব্যবসায়ীক সম্পর্ক রয়েছে। গত ফেব্রæয়ারিতে জসিমের কাছ থেকে মানিক ৫ লাখ টাকা ধার দেয়। গত ১২ এপ্রিল ওই টাকা নগদ না দিয়ে মানিক তার অগ্রণী ব্যাংক হিসাবের (নং০২০০০১৫৫১০৯৬০, দাসেরহাট শাখা) একটি চেক  (নং-১২০১, ৯১৬৬৭৪৩) জসিমকে দেয়। ২৮ জুলাই চেক নগদায়নের জন্য জসিম জমা নেয়। কিন্তু মানিকের ব্যাংক হিসেবে কোন টাকা ছিল না। এতে চেকটি কর্তৃপক্ষ ডিজঅনার করেন। এতে টাকা ফেরত পেতে ১ আগস্ট আইনজীবীর মাধ্যমে চেয়ারম্যানকে লিগ্যাল নোটিশ করা হয়। এরপরও তিনি টাকা ফেরত দেননি।

জসিম উদ্দিন বলেন, ব্যাংক হিসেবে টাকা না থাকা সত্তে¡ও মানিক প্রতারণার উদ্দেশ্যে আমাকে চেক দিয়েছে। বারবার টাকা চেয়েও তার কাছ থেকে আদায় করা যায়নি। এতে বাধ্য হয়েই আদালতের স্বরনাপন্ন হলাম। বক্তব্য জানতে কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছালেহ উদ্দিন মানিকের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।


আরও খবর



কারাগারের পাখি বলে পরিচিত শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

শাহ আলম ইসলাম নিতুল  ঃ

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক, সাবেক উপ প্রধানমন্ত্রী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মৃত্যুতে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অবঃ সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক গভীর শোক জানিয়েছেন। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়েছে। পাশাপাশি মরহুমের শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়েছে।

বহু আন্দোলন সংগ্রামে নেতৃত্ব দেওয়া এই নেতা ১৯৫২ সালে নবম শ্রেণির ছাত্র থাকাকালে ভাষা আন্দোলন করতে গিয়ে গুরুতর আহতাবস্থায় গ্রেফতার হয়ে কারাবরণ করেন। ১৯৫২ থেকে ১৯৭০ সাল পর্যন্ত তার ঠিকানা ছিল মূলত কারাগার।

বন্ধু মহলে কারাগারের পাখি বলে পরিচিত শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন  জীবনে অন্তত ২০ বছর জেল খেটেছেন।

ঢাকা কলেজ ছাত্র সংসদে নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন তখনকার পূর্ব পাকিস্তান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও তিনবার সভাপতির দায়িত্ব পালন করে এদেশে অনেক প্রথিতযশা রাজনীতিক তৈরি করেছেন।

১৯৬৬ সালের ছয়দফা ও ১৯৬৯ সালের এগার দফার অন্যতম রূপকার শাহ মোয়াজ্জেম মহান মুক্তিযুদ্ধেরও অন্যতম সংগঠক। তিনি স্বাধীনতার স্বপক্ষে বিশ্বজনমত গঠনের জন্য ভারতীয় পার্লামেন্টে টানা আড়াই ঘণ্টা ভাষণ দেন। নিজ হাতে অস্ত্র নিয়ে যুদ্ধ করা সে সময়ের জাতীয় নেতাদের মধ্যে অন্যতম শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন।

১৯৭০ ও ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন প্রবীণ এই রাজনীতিক। স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পার্লামেন্টে প্রথমবারের মতো চিফ হুইপ নির্বাচিত হন। ১৯৭৩ সালের নির্বাচনের পর দ্বিতীয়বারের মতো চিফ হুইপ নির্বাচিত হন তিনি।

বর্নাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের অধিকারী শাহ মোয়াজ্জেম হোসেনের মৃত্যুতে দেশ একজন গুনী রাজনীতিবিদ হারিয়েছে।

বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির নেতা মনে করেন বর্তমানে যে একদলীয় আধিপত্যবাদী শাসন চলছে এমন সময়ে তার মতো রাজনীতিবিদ এর প্রস্থান একটা শূণ্যতা সৃষ্টি করবে।


আরও খবর



বাসভাড়া কমবে কিনা জানা যাবে বিকালে

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

ডিজেলের দাম কমানোর পরিপ্রেক্ষিতে ডিজেলচালিত বাস ও মিনিবাসের ভাড়া পুনর্নির্ধারণ সংক্রান্ত বৈঠক ডেকেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

বুধবার বিকাল ৫টায় বনানীতে বিআরটিএর প্রধান কার্যালয়ে এ বৈঠক হবে। সোমবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জ্বালানি তেলের দাম কমানোর ঘোষণা দেয় বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।

নতুন দাম অনুযায়ী, ভোক্তা পর্যায়ে প্রতি লিটার ডিজেল ১১৪ টাকা থেকে কমে ১০৯ টাকায় বিক্রি হবে। আর প্রতি লিটার কেরোসিন ১১৪ টাকা থেকে কমে বিক্রি হবে ১০৯ টাকায়, অকটেন ১৩৫ টাকা থেকে কমে ১৩০ টাকা এবং পেট্রল ১৩০ টাকা থেকে কমে ১২৫ টাকায় বিক্রি হবে। এ দাম কার্যকর হচ্ছে রাত ১২টার পর থেকে।

এর আগে গত ৬ আগস্ট জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে মহানগরে প্রতি কিলোমিটারে বাস ও মিনিবাসে ভাড়া ৩৫ পয়সা বাড়ায় বিআরটিএ। আর দূরপাল্লায় বাসভাড়া বাড়ায় ৪০ পয়সা।

বাড়ানোর আগে ভাড়া ছিল মহানগর পর্যায়ে কিলোমিটারে বাসে ২ টাকা ১৫ পয়সা, মিনিবাসে ২ টাকা ১০ পয়সা। দূরপাল্লার বাসে ভাড়া কিলোমিটারপ্রতি ১ টাকা ৮০ পয়সা ছিল। সর্বনিম্ন ভাড়া বাসে ১০ টাকা, মিনিবাসে ৮ টাকা।

জ্বালানি তেলের দাম কমায় ভাড়া সমন্বয়ের দাবি করেছেন যাত্রী সাধারণ। সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসবে বিকালে। 


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২