Logo
শিরোনাম

গরমে পাউডার ব্যবহার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

গরমে অনেকেই ঘাম আটকাতে কিংবা খানিকটা স্বস্তি পেতে পাউডার ব্যবহার করেন। আপনার ব্যবহার করা এই ট্যালকম পাউডার কতটুকু ভালো?

যে উপাদান দিয়ে ট্যালকম পাউডার তৈরি হয়-

ট্যালকম পাউডার তৈরি হয় ট্যাল্ক নামক একটি পদার্থ থেকে। এটি মূলত ম্যাগনেশিয়ামসিলিকন  অক্সিজেন দ্বারা গঠিত একটি উপাদান। এটি আর্দ্রতা শোষণ করতে  ত্বককে ঘর্ষণজনিত আঘাত থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করে। ফলে এই ধরনের পাউডারে যেমন এক দিকে ঘাম নিয়ন্ত্রিত হয়তেমনই কমে ঘাম  ত্বকের বিভিন্ন ক্ষত তৈরির আশঙ্কা।

ট্যালকম পাউডার মাখার কী ঝুঁকি ?

১। কিছু কিছু ট্যালকম পাউডারে অ্যাসবেসটস নামক একটি উপাদান থাকে। এই উপাদানটি শ্বাসের সঙ্গে দেহে প্রবেশ করলে ক্যানসারের আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

২। আমেরিকার একটি গবেষণা বলছে যৌনাঙ্গ সংলগ্ন অঞ্চলে এই পাউডার বেশি ব্যবহার করা হলে আশঙ্কা থাকে ওভারিয়ান ক্যানসারের।

৩। শ্বাসের মধ্যে দিয়ে এই পাউডার দেহে প্রবেশ করলে হতে পারে হাঁচিকাশি  শ্বাসকষ্ট। এমনকি দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতি হতে পারে ফুসফুসের কোষ  কলার।

৪। শিশুদের জন্য যে পাউডার ব্যবহার করা হয় তাতে যদি এই পাউডার থাকেতবে অতিরিক্ত সতর্কতা নেওয়া বাঞ্ছনীয়। শিশুদের নাকে চলে গেলে শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৫। কারও কারও মতে এই ধরনের পাউডার ঘর্মগ্রন্থির ক্ষরণের পথ রুদ্ধ করে। ফলেঘাম আটকাতে গিয়ে হতে পারে হিতে বিপরীত।


আরও খবর

যোগাসনে ব্যায়াম হবে পুরো শরীরের

সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২

খালি পেটে কাঁচা রসুন কেন খাবেন

শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২




সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে ডেমরায় সমাবেশ ও চার থানা কমিটি ঘোষণা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

হাসিবুল ইসলাম: সোমবার বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের রাজধানীর ওয়ারী জোনের আওতাধীন ডেমরা স্টাফ কোয়ার্টার মাঠে আয়োজিত সাংবাদিক নির্যাতন ও সুরক্ষা আইন প্রণয়নের দাবিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আহমেদ আবু জাফর। তিনি সরকারকে সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়ণসহ ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়ন করতে জোড়ালো আহবান জানান। দেশে অহরহ সাংবাদিক নির্যাতন ঘটনা যেন থামছেইনা। সাংবাদিক সুরক্ষা আইন না থাকায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন। 

উদ্বোধনী বক্তব্যে রাখেন অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক মো. শফিকুল ইসলাম সাদ্দাম যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম, কেন্দ্রীয় কমিটি। সদস্য সচিব সেলিম নিজামির সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি ছিলেন এশিয়ান টিভির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হারুন অর রশিদ (সিআইপি)। বিশেষ অতিথি ছিলেন ডেমরা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শফিকুর রহমান, ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ৬৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাহমুদুল হাসান পলিন, চিত্রনায়ক যুবরাজ খান, বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ খায়রুল আলম,সদস্য আমির হোসেন, পূর্বাঞ্চল সাংবাদিক ইউনিটির সভাপতি ওমর ফারুক জালাল, স্বাস্থ্য এন্ড পরিবেশ মানবাধিকার সাংবাদিক সোসাইটির চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম খান, শরিফুল ইসলাম বিপ্লব।


অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক মুন্সি মোঃ আল ইমরান, রফিকুল ইসলাম, রেজাউল করিম,  মোঃ সাইফুল ইসলাম পারভেজ, রেভা খান, সুমন খান,  মনির হোসেন, সভায় নেতৃবৃন্দ সারাদেশে সাংবাদিকদের ওপর অব্যাহত হামলা, নির্যাতন, জেল জরিমানার নীল নকশার কালো আইন বাতিল, সাংবাদিক সুরক্ষা আইন প্রণয়নসহ ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়নে সরকার এবং গণমাধ্যম মালিকদেরকে আন্তরিক হওয়ার আহবান জানানো হয়। সমাবেশে ওয়ারী জোনের ৪টি থানার কমিটি ঘোষণার মধ্য দিয়ে সাংবাদিকদের মাঝে একটি বৃহৎ ঐক্যের সুচনা করা হয়। যাত্রাবাড়ী থানা কমিটির সর্বসম্মতিক্রমে সভাপতি  মোঃ সাইফুল ইসলাম পারভেজ ও সাধারণ সম্পাদক মুন্সি আল ইমরান নির্বাচিত হন, শ্যামপুর থানার সভাপতি মোঃ সহিদুল ইসলাম জনি সাধারণ মোঃ মনির নির্বাচিত হন। ডেমরা থানার সভাপতি সেলিম নিজামী ও সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, কদমতলী থানার সভাপতি অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন  ও ইঞ্জিনিয়ার হাসান সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

সমাবেশ শেষে বিভিন্ন শিল্পীর অংশগ্রহনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে ভ্যাকসিন সংকটে প্রাণিসম্পদ অফিস

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক  

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল ভ্যাকসিন সংকটে ভোগান্তিতে পড়েছে খামারিরা। প্রতিনিয়ত চাহিদা অনুযায়ী হাঁস-মুরগির ভ্যাকসিন না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যেতে হচ্ছে প্রত্যন্ত গ্রাম-গঞ্জের সাধারণ মানুষকে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ পাচ্ছেননা। বিসিআরডিভি ভ্যাকসিনের চাহিদা রয়েছে মাসে পাঁচশত সেখানে পাচ্ছেন একশত। ডাকপ্লেগ ভ্যাকসিন চাহিদা মাসে দুইশত থাকলেও সেখানে পাচ্ছেন একশত। কলেরা ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে দু’মাসে গিয়ে পাচ্ছেন ৫০টি।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন  সহ একটি পৌরসভায় প্রায় ৫লক্ষ মানুষের বসবাস এখানে। প্রতিনিয়ত গবাদিপশু হাঁস-মুরগি, গরু ছাগল, মহিষ সহ গৃহপালিত পশুপাখি বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পরছে। রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে সরকারিভাবে প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর থেকে ভ্যাকসিন সরবরাহের ব্যবস্থা থাকলেও চাহিদা অনুযায়ী সাধরণ মানুষসহ খামারিরা পাচ্ছেন না এ ভ্যাকসিন। প্রতিদিন এ নিয়ে গ্রাহকদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ছেন কর্মকর্তারা ।

অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় রেজিষ্ট্রেশনভুক্ত খামারির সংখ্যা রয়েছে ৩হাজার ৬’শ ৬৭টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য মুরগির খামার রয়েছে ১৩০ এবং হাঁসের খামারও ১৩০টি কাগজে কলমে দেখানো হয়েছে। এদিকে মাঠ পর্যায়ের চিত্র রয়েছে ভিন্ন সঠিক জরিপের তালিকা নেই প্রাণিসম্পদ দপ্তরে।  

 বিসিআরডিভি ভ্যাকসিন (বাচ্চা মুরগি রানীক্ষেত) আরডিবি (বড় মুরগি রানীক্ষেত) প্রতিটি ভ্যাকসিনের সরকারিভাবে মূল্য তালিকায় দাম রয়েছে ১৫ টাকা। চাহিদা রয়েছে প্রতিমাসে ৫ শতাধিক। সেখানে বরাদ্দ পাচ্ছেন ১শ’। ডাকপ্লেক ভ্যাকসিন সরকারি মূল্যে ৩০ টাকা, মাসে চাহিদা রয়েছে দুইশ’ সেখানে পাচ্ছেন ১শ’। হাঁস মুরগির কলেরা ভ্যাকসিন মূল্য ৩০ টাকা, মাসে চাহিদা রয়েছে ১শ’ সেখানে দুই মাসে মিলছে না ৫০টি।

এ ভ্যাকসিন বিতরণ করছেন অফিসের একজন এ আই ফিল্ড এ্যাসিট্য্যান্ড (কৃত্রিম প্রজনন) মো. আলি আকবর তিনি এ ভ্যাকসিন সরবরাহের অফিসিয়াল দায়িত্ব না থেকেও দায়িত্ব পালন করছেন। দায়িত্বরত উপ-সহকারি প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফিরোজ আলী খানের দায়িত্ব থাকলেও স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের কারনে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রেখেছেন কর্মকর্তারা তাকে।

ভ্যাকসিন নিতে আসা গ্রহক মোরেলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের নুর আলী শিকদার, বারইখালী আলী আকবর শেখ, সুতালড়ি গ্রামের মর্জিনা বেগম,  ভাইজোড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম, দেবরাজ গ্রামের আলমঙ্গীর হোসেনসহ একাধিক সুবিধাবঞ্চিতরা বলেন, মুরগির ভ্যাকসিন একের অধিক চাইলেই চোখ রাঙ্গানো দেখতে হয় অফিসারদের। অনেক বাকবিতান্ডা করে দিনের পর দিন ঘুরেও প্রয়োজনীয় চাহিদা অনুযায়ী ভ্যাকসিন পাচ্ছিনা। এ দুর্ভোগের শেষ কোথায়?। এগুলো দেখারকি কেউ নেই।

এ সর্ম্পকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সঞ্চয় বিশ্বাস জানান, এ উপজেলায় চাহিদা অনুযায়ী হাঁস মুরগির ভ্যাকসিনের সংকট লাঘবের জন্য ইতোমধ্যে জেলা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। চলতি বছরের চাহিদার তালিকায় বেশী বরাদ্দের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা। 


আরও খবর



চা শ্রমিকদের কথা শুনবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চা-শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলবেন। এ লক্ষ্যে সিলেটে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

 

প্রধানমন্ত্রী কথা বলবেন জেনে সিলেটসহ সারা দেশের চা শ্রমিকরা আনন্দে উদ্বেলিত।

 

দীর্ঘতম কর্মবিরতিতে যখন গভীর সংকটে দেশের চা শিল্প,  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্বাসেই ধর্মঘট ভেঙে গত ২৮ আগস্ট কাজে যোগ দেন চা শ্রমিকরা। প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক  নির্ধারিত মজুরি বাড়িয়ে ১৭০ টাকা করায় ইতোপূর্বেই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তারা।

শেখ হাসিনা আজ নিজে তাদের মুখ থেকে শুনবেন তাদের জীবন সংগ্রামের কথা। অবশেষে,পূরণ হচ্ছে চা-শ্রমিকদের প্রাণের চাওয়া। 

সিলেট,মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। সিলেটের লাক্কাতুড়া বাগানের গলফ মাঠে আয়োজন করা হয়েছে অনুষ্ঠানের। সেখানে হাজির হবেন সিলেট জেলার ২৫টি চা-বাগানের কয়েক হাজার শ্রমিক। 

 

অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে জেলা প্রশাসনসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। একই সঙ্গে এ অনুষ্ঠানকে ঘিরে রাজনৈতিক তৎপরতাও লক্ষনীয়। সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতারা প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় করে অনুষ্ঠান সফল করতে নানা কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছেন।

 

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (উত্তর) উপপুলিশ কমিশনার আজবাহার আলী শেখ পিপিএম জানান,এ অনুষ্ঠানকে ঘিরে সিলেটে লাক্কাতুরা গলফ ক্লাব মাঠ ও আশপাশ এলাকায় দুই দিন ধরে পুলিশ অবস্থান  করে ওই এলাকাকে কঠোর নজরদারিতে রেখেছে। অনুষ্ঠানের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর এমন সাড়া ঐতিহাসিক মনে করেন চা শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা।


খবর বাসস


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




মোরেলগঞ্জের বারইখালীতে কিশোরীদের মাঝে তথ্য কার্ড বিতরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক : 

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে বারইখালী ইউনিয়নে বাল্য বিয়ে ঝুঁকিতে থাকা কিশোরীদের মাঝে তথ্য কার্ড বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে বেসরকারি সংস্থা ব্রাকের সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনী সুরক্ষা কর্মসূচি (সেল্প)’র আয়োজনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল খান মহারাজ, ব্রাকের সুরক্ষা কর্মসূচির সেল্প অফিসার মাহফুজা খাতুন, ইউপি সদস্য মো. নিজাম উদ্দিন, প্রধান শিক্ষক কল্পনা রানি, ইউনিয়ন পল্লী সমাজের সভাপতি গৌতম বিশ্বাসসহ স্থানীয় বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ। অনুষ্ঠান শেষে পল্লী সমাজের ১৮ জন কিশোরীদের মাঝে তথ্য কার্ড বিতরণ করা হয়। 


আরও খবর



বীরত্ব’ সিনেমা

যৌনপল্লীতে নায়িকা নিপুণ আক্তার !

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

দেশের আলোচিত নায়িকা নিপুণ আক্তার। দীর্ঘদিন পর ‘বীরত্ব’ সিনেমা দিয়ে প্রেক্ষাগৃহে আসছেন তিনি। ১৬ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাচ্ছে সিনেমাটি। এতে যৌনকর্মীর চরিত্রে দেখা যাবে তাকে। শুটিংয়ের জন্য টানা পাঁচদিন রাজবাড়ির যৌনপল্লীতে থেকেছেন তিনি। এই পাঁচদিন নানা অভিজ্ঞতার মুখে পড়েছেন এই অভিনেত্রী। সেখানকার মানুষদের জীবন-যাপন দেখেছেন অতি কাছ থেকে।

নিপুণ বলেন, এই সিনেমায় আমাকে একজন যৌনকর্মীর চরিত্রে দেখা যাবে। যে জীবনে সব হারিয়েও বেঁচে থাকার স্বপ্ন দেখে। আমার বিশ্বাস আমার চরিত্রটি অনেক অসহায় নিপীড়িত মেয়েদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে সহায়তা করবে। তাদের আশা জাগাবে, তারা নতুন করে বাঁচতে চাইবে।’

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী বললেন, ‘নিষিদ্ধ পল্লীতে কাজ করা এটা আসলে একটা অন্যরকম অভিজ্ঞতা। সেটা দেখার জন্য আপনাদের হলে আসতে হবে।’

সাম্প্রতিক পরাণ ও হাওয়া' এর মাধ্যমে দর্শকরা হলে আসতে শুরু করেছেন। নতুন করে সিনেমা পুনর্জীবিত হয়েছে। এই পালে হাওয়া দেবে বীরত্ব। নিপুণ বলেন, পরাণ ও হাওয়া দেখে দেখে আপনারা যে স্বস্তি পেয়েছেন, বীরত্ব সিনেমাটা দেখেও আপনারা সেই স্বস্তিট পাবেন।’

ছবিটিতে  নিপুণের বিপরীতে একজন দালালের চরিত্রে অভিনয় করেছেন ছোটপর্দার অভিনেতা ও অভিনয়শিল্পী সংঘের সভাপতি আহসান হাবীব নাসিম।

সাইদুল ইসলাম রানার প্রথম সিনেমা ‘বীরত্ব’তে নায়ক-নায়িকার ভূমিকায় আছেন মামনুন হাসান ইমন ও নবাগত নিশাত নাওয়ার সালওয়া। তাদের দুজনকেই দেখা যাবে চিকিৎসকের ভূমিকায়। এছাড়া খল চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইন্তেখাব দিনার। পুলিশ অফিসারের চরিত্রে আছেন শতাব্দী ওয়াদুদ। আরও আছেন বড়দা মিঠু ও জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়সহ অনেকে।


আরও খবর

স্থূলকায় নারীদের সৌন্দর্য প্রতিযোগিতা

মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২