Logo
শিরোনাম

ই-টিকেটিংয়ে কমেছে ভাড়ার নৈরাজ্য

প্রকাশিত:Tuesday ২৯ November ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

 ই-টিকেটিংয়ের কারণে গণপরিবহনে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়া বন্ধ হয়েছে।এছাড়া মিরপুর সড়কে ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য আগের চেয়ে অনেকটাই কমেছে বলে মনে করছেন যাত্রীরা।

চলতি মাসেই, রাজধানীর মিরপুর থেকে ঢাকার বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী ৩০টি কোম্পানির বাসে ই টিকেটিং চালু হয়। শুরুতেই এ নিয়ে যাত্রী ও বাস মালিক-শ্রমিকের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তবে এখন অনেকেই ই-টিকেটিং সেবায় সন্তুষ্টি জানিয়েছেন। বাড়তি ভাড়া নেয়ার যে অভিযোগ ছিল তা এখন আর নেই। তবে তারা বলেন, টিকেটে কিলোমিটার উল্লেখ করা থাকলে এই সেবায় আরো স্বচ্ছতা আসতো। শুধু মিরপুরেই নয়, রাজধানীর সব এলাকাতেই দ্রুত এই সেবা চালুর দাবি করেছেন যাত্রীরা। 


আরও খবর



বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে গিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

জামালপুর প্রতিনিধি :

শখ করে বকশীগঞ্জের লাউচাপড়া পর্যটন বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরতে এসে ছিলেন শামীম মিয়া (২৬)। ফেরার পথে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়ে বাড়ি ফিরলেন লাশ হয়ে। রোববার দুপুরে উপজেলার লাউচাপড়া-গাজীর বাজার সড়কে মোটর সাইকেল দূর্ঘটনায় মারা যান শামীম। নিহত শামীম প্রতিবেশী ইসলামপুর উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নের মালমারা গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে। 

জানা যায়, জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নের মালমারা গ্রামের ইদ্রিস আলীর ছেলে শামীম রোববার সকালে বকশীগঞ্জ উপজেলার লাউচাড়া বিনোদন পর্যটন কেন্দ্রে ঘুরতে আসে। বিনোদন কেন্দ্রে ঘুরাঘুরি শেষে বাড়ি ফেরার পথে গাজীর বাজার নামক স্থানে মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রন হারিয়ে রাস্তার পাশে গাছের সাথে ধাক্কা লাগে তার। এতে সে গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বকশীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.মুহাম্মদ আজিজুল হক জানান,গাছের সাথে ধাক্কা লাগায় ছেলেটি মাথায় ও বুকে প্রচন্ড আঘাত পেয়েছিলো। হাসপাতালে পৌছাঁর আগেই মারা যায় সে।

গোয়ালেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুর রহিম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,সকালে লাউচাপড়া ঘুরতে যায় শামীম। আর দুপুরেই ফিরলো লাশ হয়ে। বিষয়টি দু:খজনক। এই ঘটনায় নিহত শামীমের বাড়িতে শোকের মাতম বইছে।


আরও খবর



কলমাকান্দা বাকলা নদীতে ব্রীজ নিমার্ণের এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image
সোহেল খান দূর্জয় : নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন উব্দাখালী (বাকলা) নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী জানিয়ে আসছে সরকারের কাছে এলাকাবাসী। 

এই বাকলা নদীতে ব্রীজটি নির্মিত হলে প্রায় ১০ থেকে ১৫টি গ্রামের জনজীবন যাপনে অনেকটা সুবিধা হবে, খেয়া দূর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবে মানুষ। তাছাড়া হাট বাজার, স্কুল মসজিদ মাদ্রাসা এবং উত্তরে পাকা রাস্তার যানজট ও দূর্ঘটনা এড়িয়ে নিরাপদে যাতায়াত করতে পারবে এলাকার ছাত্র-ছাত্রী ও মানুষেরা।

উপজেলার কয়ড়া মোড় থেকে কান্দাপাড়া  দাখিল মাদ্রাসা ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় প্রতিদিনই ৫ কিঃমিঃ কাঁচা রাস্তা দিয়ে পায়ে হেটে এলাকার মানুষ ও ছাত্র ছাত্রীরা স্কুল মাদ্রাসা হাটে জন প্রতি ১০ টাকায় খেয়া পারাপারে যাতায়াত করে থাকে।
এমতাবস্থায় স্থানীয় বাসিন্দারা কয়েক দফায় সরকারের কাছে আবেদন নিবেদন করলেও কে শুনে কার কথা, ৭৫ ফুট লম্বা ৫০ হাত প্রস্থ এই খেয়া পারাপারেই  তাদের জীবন। 

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ আসন আলী ও নোমান মিয়া জানান, স্বাধীনতার পূর্ব থেকেই এই কাঁচা রাস্তা দিয়ে এলাকার ছাত্রছাত্রী ও মানুষেরা পায়ে হেটে খেয়াঘাট পাড়ি দিয়ে কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসায় ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয় বাজারে যাতায়াত করে থাকে। বর্ষাকালে আমরা আমাদের ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে আতংকে থাকি খেয়াঘাট ও হেমন্তে বাঁশের চাটায়ে পারাপার ভয়ে!

কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী মহুয়া হাসান জানান, আমরা প্রতিদিনেই এই রাস্তা দিয়ে মাদ্রাসায় আসা যাওয়া করি, যদি এখানে একটি ব্রীজ হতো তাহলে ভালো হতো, নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র হানিফ জানান, বর্ষাকালে দূর্গাপুর সুমেশ্বরীর পাহাড়ী ঢলের মাঝেও এই নদী নৌকায় পাড় হয়ে স্কুলে যেতে হয়,এখানে একটা ব্রীজ হলে ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুবিধা হতো। 

বর্তমান নাজিরপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল আলী বলেন, কতবার শুনেছি চয়েলটেষ্ট হচ্ছে নিজেও কতবার বলেছি কিন্তু কেন যে হচ্ছে না বুঝিনা, এই নদীটির ওপর একটি ব্রীজ জনগুরুত্বপূর্ণ, এলাকাবাসীরও দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী এই বাকলা নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের জন্য।

আরও খবর



এ বছর হজে যেতে পারবেন গত বছরের দ্বিগুণ

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান জানিয়েছেন, ২০২৩ সালে দেশের সম্ভাব্য হজযাত্রীর কোটা ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। ২০০৯ সালে এ হজযাত্রীর সংখ্যা ছিল ৫৮ হাজার ৬২৮ জন।

রবিবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তোর পর্বে এম আব্দুল লতিফের এক প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদ অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন।

প্রশ্নের উত্তরে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০০৯ সালে হজযাত্রীর সংখ্যা ছিল ৫৮ হাজার ৬২৮ জন, ২০১৯ সালে বেড়ে হয় এক লাখ ২৬ হাজার ৯২৩ জন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে ২০২২ সালে হজযাত্রীর সংখ্যা কমে দাড়ায় ৬০ হাজার ১৪৬ জনে।

তিনি আরও বলেন, চলতি ২০২৩ সালে হজযাত্রীর সম্ভাব্য কোটা বেড়ে হচ্ছে ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন। ২০০৯ এর তুলনায় এই সংখ্যা ১৪৮ শতাংশ বেশি। এটি সরকারের সাফল্যের একটি মাইলফলক।


আরও খবর

বিশ্ব ইজতেমা শুরু

Friday ১৩ January ২০২৩




দিনে কমতে পারে শীত, বাড়তে পারে রাতে

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :দেশের আকাশ থেকে কুয়াশার চাদর সরে যাচ্ছে। আকাশে সূর্যের দেখা মিলেছে, রোদ উঠতে শুরু করেছে। ফলে ছয় দিন ধরে চলা শীতের কষ্ট কেটে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। 

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, এরই মধ্যে রবিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত টানা রোদের দেখা পাওয়া গেছে। এতে দিন ও রাতের তাপমাত্রার পার্থক্য বেড়ে যেতে পারে। আজ রোদ আরো সকাল সকাল উঠে বেশি সময় স্থায়ী হতে পারে। এতে দিনের বেলা শীতের অনুভূতি কমে আসতে পারে। তবে সন্ধ্যার পর থেকে আবারও শীত বাড়তে পারে। এমনকি দেশের কোথাও কোথাও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আরো কমতে পারে। শৈত্যপ্রবাহের এলাকাও বাড়তে পারে।

এ ব্যাপারে আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, দেশে সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রার পার্থক্য কমে আসায় শীতের অনুভূতি বেশি ছিল। রবিবার থেকে রোদ ওঠায় এবং তা বেশি সময় স্থায়ী হওয়ায় দিনের তাপমাত্রা বাড়তে থাকবে। আগামী দুই থেকে তিন দিন দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে শৈত্যপ্রবাহ থাকবে। তবে দিনের তাপ বাড়বে।

রবিবার টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, ফরিদপুর, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, সাতক্ষীরা ও কুষ্টিয়া জেলা এবং রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। আজও এ অবস্থা অব্যাহত থাকতে পারে। এসব এলাকাসহ সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। তবে রাত থেকে ভোর পর্যন্ত তাপমাত্রা আগের মতোই কম থাকতে পারে। এদিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল চুয়াডাঙ্গা ও যশোরে সাত দশমিক আট ডিগ্রি সেলসিয়াস। রাজধানীর সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২ দশমিক তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে, ঘনকুয়াশার কারণে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌরুটে ১০ ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে।


আরও খবর

সুখবর নেই বাজারে

Saturday ০৪ February ২০২৩




ধামরাই ইসলামপুরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image
একই পরিবারের ৫ জন দগ্ধ

মোঃ মাহবুবুল আলম রিপন :


ঢাকার ধামরাই উপজেলার ইসলামপুরে একটি বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের পাঁচ জন দগ্ধ হয়েছেন। তারা সবাই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন আছেন।শনিবার (৭ জানুয়ারি) ভোরে এ ঘটনা ঘটে। 

দগ্ধ ব্যক্তিরা হলেন, মো. মনজুরুল ইসলাম (৩৫), জোসনা আক্তার (২৫), সাদিয়া আক্তার (১৯), হোসনে আরা (২০) ও মরিয়ম (২)।

দগ্ধদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা মো. সুফিয়ান ইউটিভিকে জানান, পোশাক শ্রমিক মনজুরুল ইসলামের স্ত্রী জোসনা আক্তার শনিবার ভোরে রান্নাঘরে রান্না করতে গেলে গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ হয়। এ ঘটনায় আগুন সারা বাড়িতে ছড়িয়ে যায়। এতে মনজুরুলের শ্যালিকা, ভাতিজি ও দুই বছরের শিশুকন্যা মরিয়মসহ ওই পরিবারের পাঁচজন দগ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আনা হয়েছে। তারা এখন চিকিৎসাধীন আছেন।

আবাসিক সার্জন ডা. এস এম আইউব হোসেন ইউটিভিকে বলেন, সকালে শিশুসহ পাঁচজন দগ্ধ হয়ে এসেছেন। এদের মধ্যে মনজুরুলের শরীরের ৩৩ শতাংশ, তার স্ত্রী জোসনার ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বাকিরা জরুরি বিভাগের চিকিৎসাধীন আছেন।


আরও খবর