Logo
শিরোনাম

ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রপাতের আভাস

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

দেশের ২০ জেলার নদীবন্দরকে সতর্ক সংকেত দিয়েছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে জেলাগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়াসহ বজ্রপাতের আভাস দেওয়া হয়েছে।

বুধবার আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ মো. মনোয়ার হোসেন জানান, দুপুর ১টা পর্যন্ত অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। এই পূর্বাভাসে ২০ জেলার ওপর দিয়ে ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার বেগে দমকা হাওয়াসহ ঝড় বয়ে যেতে পারে।

জেলাগুলো হলো- রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার এবং সিলেট। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, সকাল ৬টায় ঢাকায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। একই সময়ে আর্দ্রতা ছিল ৮৯ শতাংশ। আজকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস।


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন--সিএএ মামলার শুনানি শুরু হয়েছে আজ। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে নরেন্দ্র মোদী সরকারের তৈরি এ আইনের সাংবিধানিক বৈধতা চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে এই জনস্বার্থ মামলাগুলো করা হয়েছিল।

শুনানি হচ্ছে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি উদয় উমেশ ললিত ও বিচারপতি এস রবীন্দ্র ভাটের এজলাসে। সুপ্রিম কোর্টের ১৫টি বেঞ্চে মোট ২২৮টি জনস্বার্থ মামলার শুনানির দিন ধার্য হয়েছে। এর মধ্যে প্রধান বিচারপতির এজলাসেই হবে ২০৫টির শুনানি, যার মধ্যে ১৮৯টি মামলা সিএএর সাংবিধানিক বৈধতাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মামলা করা হয়েছিল। সংশোধিত আইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়, যদি ধর্মীয় অত্যাচারের কারণে ভারতের নাগরিকত্ব চায়, তাহলে তাদের তা দেওয়া হবে। 


আরও খবর

জাতিসংঘে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

জাতিসংঘের ভূমিকায় হতাশ মালয়েশিয়া

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




মুকুট নিয়ে আজ ফিরছে বাঘিনীরা

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

সব অপেক্ষার অবসান ঘটছে। হিমালয়ের দেশ থেকে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট নিয়ে দেশে ফিরছেন বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল।  দুপুরে ট্রফি নিয়ে ঢাকায় পা রাখবেন সাফজয়ী লাল-সবুজের মেয়েরা।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ট্রফি নিয়ে ছাদখোলা বাসে ঘরে ফিরতে চেয়েছেন বাংলাদেশ নারী ফুটবলাররা। তাঁদের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে যাচ্ছে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। সাফজয়ী মেয়েদের জন্য ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থা করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়।

বুধবার কাঠমান্ডু থেকে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় বাংলাদেশের বিমানের একটি ফ্লাইটে করে ঢাকায় রওনা হবে বাংলাদেশ নারী দল। দুপুর দেড়টা নাগাদ ঢাকায় পা রাখবেন সাবিনারা।

ঢাকায় পা রেখে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা পাবেন চ্যাম্পিয়ন মেয়েরা। এরপর সেখানে তাদের ফেরার জন্য অপেক্ষায় থাকবে ছাদখোলা বাস। যাতে চড়ে বাফুফে ভবনে ফিরবেন সানজিদা-কৃষ্ণারা।

বিমানবন্দর থেকে সাবিনাদের বাস এয়ারপোর্ট, কাকলী, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়, বিজয় সরণি ফ্লাইওভার, তেজগাঁও, মগবাজার হয়ে মৌচাক-কাকরাইল-ফকিরাপুল-মতিঝিল হয়ে পৌঁছাবে বাফুফে ভবনে। এরপর সেখানে মতিঝিলে বাফুফে ভবনে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা দেবেন।


আরও খবর

বিশ্বকাপ নিশ্চিত নারী ক্রিকেট দলের

শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

আসরের সেরা খেলোয়াড় সাবিনা

মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22




আশুলিয়ায় ৫শ' বাড়ির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

আশুলিয়ায় প্রায় ৫শ বাসা বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাস এন্ড ট্রান্সমিশন ডিসট্রিবিউশন কোম্পানি। এসময় জব্দ করা হয়েছে অবৈধ গ্যাস সংযোগে ব্যবহার করা পাইপ ও রাইজার।

মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত আশুলিয়ার ধনাইদ,গোরাট ও ইউসুফ মার্কেট এলাকায় এই উচ্ছেদ অভিযান চালায় তিতাস কর্তৃপক্ষ। কর্মকর্তারা জানায়, মূল লাইন থেকে অবৈধভাবে নিম্নমানের পাইপ ব্যবহার করে একটি চক্র বিভিন্ন বাসাবাড়িতে ঝুঁকিপূর্ণভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। এসময় প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকায় অভিযান চালিয়ে জব্দ করা হয় অবৈধ সংযোগ নিতে ব্যবহার করা পাইপ ও রাইজার। এছাড়া প্রায় ৫শ বাসাবাড়ির অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে তিতাস কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে ৪ গ্রামের মানুষের ভরসা কাঠের ভাঙ্গা সেতু

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ পঞ্চকরন ইউনিয়নে ৪ গ্রামের মানুষের যাতায়াতের একমাত্র ভরসা একটি ভাঙ্গা কাঠের সেতু। প্রতিনিয়ত যোগাযোগের ৪/৫ হাজার মানুষের অভাবনীয় দুর্ভোগ। দূর্ঘটনার স্বীকার হতে হচ্ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিশু শিক্ষার্থীসহ ভ্যান মটর যাত্রীদের। এ খালের এক প্রান্তে প্রভাবশালীদের দখলে গড়ে উঠছে অবৈধ স্থাপনা। নতুন  ব্রীজ নির্মানের টেন্ডারের এক বছর পেরিয়ে গেলেও দেখা মিলছেনা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের। স্থানীয়দের দাবী নতুন ব্রীজ নির্মান করে দুর্ভোগ লাঘবের।

সরেজমিনে খোজ নিয়ে জানা গেছে, পঞ্চকরন ইউনিয়নের পাচগাঁও বাজারের কুমারিয়াজোলা হেড়মা সংযোগ খালের জনগুরুত্বপুর্ণ কাঠের পুলটি দীর্ঘদিন ধরে জরজীর্ণ ও ভাঙ্গা অবস্থায় পড়ে থাকায় প্রতিনিয়ত ঝুকি নিয়ে যাতায়াত করছে দেবরাজ, কুমারিয়াজোলা, পাচগাঁও, খারইখালী সহ সীমান্তবর্তী তেলিগাতী, বহরবুনিয়া, পুটিখালী ইউনিয়নের ৪/৫ হাজার মানুষ। এ কাঠের পুলটি পার হয়ে গুরত্বপূর্ণ কাজে যেতে হচ্ছে জেলা শহরে। সেতুটির একপ্রান্তে রয়েছে পাচগাঁও বাজার, ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়, পাচগাঁও মাধ্যমিক বিদ্যালয়, প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ দু’পান্তে রয়েছে ৭/৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দির,কমিউনিটি ক্লিনিকসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা। এ পুলটি পার হয়ে প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থী যাচ্ছেন বিদ্যালয়ে। সামান্য বৃষ্টি হলে দুর্ভোগের আর অন্ত থাকেনা। ইতোপুর্বে এ পুল পার হতে গিয়ে দূর্ঘটনার স্বীকার হতে হয়েছে শিশু শিক্ষার্থী,বৃদ্ধসহ ভ্যান,মটর যাত্রীদের অনেকেই। এদিকে কাঠের পুলটির বাজারের অপর পান্তে রেকর্ডিয় খালের জমি দখল করে প্রভাবশালীরা ৮/১০টি দোকানঘর স্থাপনা গড়ে তুলেছে।

পথচারী কুমারিয়া গ্রামের দেলোয়ার মুন্সি, ইব্রাহীম হাওলাদার, বৃদ্ধ হাশেম আলী শেখ, শিশু শিক্ষার্থী জান্নাতী,শিপন সহ একাধিকরা বলেন ব্রীজ হওয়ার কথা অনেকদিন ধরে শুনে আসছি, কতদিন ধরে এ দুর্ভোগ পোহাতে হবে আমাদের, কবে হবে ব্রীজ?

এ বিষয়ে পঞ্চকরন ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক মজুমদার বলেন, পাচগাঁও বাজারের এ কাঠের সেতুটি ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে প্রতিবছরই সংস্কার করা হয়েছে। এলজিইডি দপ্তরের মাধ্যমে ব্রীজ নির্মানের টেন্ডারও হয়েছে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজে আসার কথা বলে তালবাহানা করছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলীকে একাধিকবার জানানো হয়েছে।

এ সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, পাচগাঁও বাজার সংলগ্ন সংযোগখালে  নতুন ব্রীজ নির্মানের জন্য  ইতিমধ্যে অনুর্ধ ১শ মিটার (ইউ এইচ বিপি) প্রকল্পের মাধ্যমে টেন্ডার হয়েছে। অতিরিক্ত পানির চাপের কারনে  ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করতে পারেনি কাজের বিলম্বের বিষয়টি উর্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে। জরুরীভিত্তিতে কাজটি শুরু করারও তাগিদ দেয়া হয়েছে ঠিকাদারকে।

এ সর্ম্পকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পঞ্চকরনে খালের জমি দখল করে যারা অবৈধ স্থাপনা গড়ে তুলেছে বিষয়টি সরেজমিনে দেখে অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হবে 


আরও খবর



গণপরিবহনে নৈরাজ্য থামছেই না

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রাজধানীর গণপরিবহনে অভিযান চালাচ্ছে বিআরটিএ'র ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিভিন্ন অনিয়ম-অভিযোগে আদায় করা হচ্ছে জরিমানা। দেওয়া হচ্ছে মামলা। বিআরটিএ'র এসব অভিযান স্বত্বেও রাজধানীর সড়কে ফেরেনি শৃঙ্খলা। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়, ওয়েবিল সিস্টেম, যত্রতত্র যাত্রী তোলা কোনোটিই বন্ধ হয়নি।

বিআরটিএ সূত্র জানায়, অতিরিক্ত ভাড়া আদায় এবং রুট ভায়োলেশন, রুট পারমিট না থাকা,হাইড্রোলিক হর্ন,ফিটনেস না থাকা,ওয়েবিল ও অন্যান্য অপরাধের দায়ে ৮৪টি বাসের বিপরীতে ৮৪ মামলায় প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এছাড়া রুট পারমিট না থাকায় একটি গাড়িকে ডাম্পিং স্টেশনে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে বিআরটিএ।

বাড়তি ভাড়া আদায় নিয়ে বাগবিতণ্ডা হয় যাত্রীদের সঙ্গে। চার্ট অনুযায়ী ভাড়া নেওয়ার কথা বললে ওয়েবিলের কথা বলে বেশি টাকা আদায় করে। এরপরও যাত্রীরা পুরো বাসে গাদাগাদি করে উঠতে বাধ্য হন এবং অতিরিক্ত ভাড়া দেন। তবে বিপাকে পড়েন নারী যাত্রীরা। তাদের বাসে ওঠার সুযোগই হয়নি ভিড়ে।

বাসের এ অনিয়ম আর অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ে যাত্রীদের দৈনন্দিন জীবনের খরচের মাত্রা আরো কয়েকগুন বেড়ে যায়।

এদিকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) পুনর্র্নিধারিত বাস ভাড়া কার্যকর করা গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে তিনটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। এসব সিদ্ধান্ত  ১০ অগাস্ট থেকেই কার্যকর হয়। কিন্তু এতেও শৃঙ্খলা ফেরেনি গণপরিবহনে।

ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি সিদ্ধান্তগুলো হলো- বিআরটিএর চার্ট অনুযায়ী ভাড়া আদায় করতে হবে। চার্টের বাইরে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা যাবে না। প্রতিটি গাড়িতে দৃশ্যমান স্থানে ভাড়ার চার্ট অবশ্যই টাঙিয়ে রাখতে হবে।

কোনো পরিবহনের গাড়িতে বিআরটিএর পুনর্নির্ধারিত ভাড়ার অতিরিক্ত ভাড়া যাতে আদায় না করা হয়, সে বিষয়ে সভায় মালিকদের সমন্বয়ে নয়টি ভিজিলেন্স টিম গঠন করা হয়। এসব টিম বিআরটিএর ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে থেকে সব অনিয়ম তদারকিসহ আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে।

ঢাকা শহর ও শহরতলী রুটে চলাচলকারী গাড়ির ওয়েবিলে কোন স্ল্যাব থাকবে না। রাস্তায় কোন চেকার থাকবে না। এক স্টপেজ থেকে আরেক স্টপেজ পর্যন্ত গাড়ির দরজা বন্ধ থাকবে, খোলা রাখা যাবে না। রুট পারমিটের স্টপেজ অনুযায়ী গাড়ি থামাতে হবে।

রাজধানীতে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে গঠিত বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০০ বাস নিয়ে চালু হওয়ার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। কারণ, তিন রুটের বাসের জন্য থামার স্থানের নির্মাণকাজ করা যায়নি। তাছাড়া বর্তমানে চলা গাড়ির মালিকরা এই ইস্যুতে সাড়া দেননি। তবে এই কমিটির সভা আগামী ৬ সেপ্টেম্বর হবে। সেখানে সিদ্ধান্ত নেওযা হবে কবে চালু করা যাবে এই নতুন বাস।

বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সদস্য ও গণপরিবহন বিশেষজ্ঞ ড. এস এম সালেহ উদ্দিন সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বড় অবকাঠামো প্রকল্পের (মেট্রোরেল) কারণে আমরা কিছু জায়গায় এই তিন রুটের বাসের জন্য থামার স্থানের নির্মাণকাজ করতে পারিনি। এছাড়া আমাদের যে ২০০ বাস নামানোর কথা ছিল তার নির্মাণ ও সংস্কার শেষ করা যায়নি। তাই আমাদের তিনটি রুটে বাস নির্ধারিত সময়ে শুরু করা যাবে না।

কবে চালু হতে পারে এই তিন রুট জিজ্ঞাসা করা হলে সালেহ উদ্দিন বলেন, কমিটির সভা রয়েছে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর। সেখানে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো কবে এটা চালু করা যাবে।

 


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২