Logo
শিরোনাম

কালকিনিতে বসতবাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব ঝুমকির পরিবার

প্রকাশিত:সোমবার ২১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

এইচ এম মিলন, কালকিনি (মাদারীপুর):

মাদারীপুরের কালকিনিতে আড়িয়াল খাঁ নদীর তান্ডবে স্বামীর পৈত্রিক ভিটা হারিয়ে ও শেষ সম্বল সরকার থেকে পাওয়া জমিটুকু প্রভাবশালী কর্তৃক দখল হয়ে যাওয়ায় ঝুমকি বেগম নামে এক অসহায় পরিবার পুরোপুরিভাবে এখন নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। বর্তমানে মাথার গোজার কোন ঠাই মিলছে না ওই পরিবারের। তবে সরকার থেকে পাওয়া ওই জমি বেদখল মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন দ্বারে-দ্বারে ঘুরছেন এখন অসহায় ঝুমকি বেগম ও তার পরিবার।

সরেজমিন ও ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার পুর্বএনায়েতনগর এলাকার আলীপুর গ্রামের ঝুমকি বেগমের স্বামী হামিদ আকনের ১৩৪ নং বাশগাড়ি মৌজার ১৬১৮ নং দাগের ৪ একর ৮১ শতাংশ জমির উপর বসতবাড়ি ছিল। কিন্তু নিয়তির নিষ্ঠুর আঘাতে গত দুই বছর আগে অব্যহত ভাঙ্গনে আড়িয়াল খা নদী গর্ভে সকল জমি ও বসবাড়িটি সম্পুর্নরুপে বিলিন হয়ে যায়। এ নদী ভাঙ্গনে ঝুমকি বেগম ও তার পরিবার পুরোপুরি নিঃস্ব হয়ে যায়। এ ঘটনায় ঝুমকি বেগম নিরুপায় হয়ে নদীর পাড়ে পরিবার পরিজন নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করে। পরে এ বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসলে মানবিক বিবেচনায় ভুমিহীন হিসেবে ঝুমকি ও তার স্বামী হামিদ আকনের নামে ওই এলাকায় ২৬ শতাংশ জমি কবুলিয়ত দলিল মুলে প্রদান করে সরকার। এ সুত্র মতে হামিদ আকন ওই জমিতে বেশ কিছু গাছ রোপন করেন এবং একটি ঝুপড়ি ঘর তুলে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন। কিন্তু সরকারের দেয়া ওই জমি হামিদ আকনকে আনুষ্ঠানিকভাবে বুঝিয়ে দিতে বিলম্ব করলে তিনি হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন। উক্ত রিট অনুযায়ী গত ০৭-০২-২২ তারিখে রুল ইস্যু করা হয়। এ মামলা চলমান অবস্থায় সরকার থেকে পাওয়া হামিদ আকনের ওই জমির বিভিন্ন প্রকার রোপনকৃত গাছ কেটে নিয়ে জমি অবৈধভাবে জোর পুর্বক দখল করে নেয় ফাসিয়াতলা গ্রামের কবির খা, হাবি মালত, নজু মালত,  আরিফ মালত ও ফারুক মালতসহ বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী। অসহায় হামিদ আকন ওই ঘটনার কোন প্রতিবাদ করতে না পেরে প্রভাবশালীদের বিচারের দাবিতে বিভিন্নস্থানে গিয়েও কোন সঠিক বিচার পাচ্ছে বলে অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে।

অসহায় হামিদ আকন ও তার স্ত্রী ঝুমকি বেগম আক্ষেপ করে বলেন, আমাদের ভিটামাটি সব চলে গেল রাক্ষুসে আড়িয়াল খার পেটে। এখন আবার সরকারের দেয়া আমাদের শেষ সম্বল জমিটুকু চলে যাচ্ছে প্রভাবশালীদের পেটে। আমাদের জমি আমাদের ভোগ থেকে বিতারিত করা হচ্ছে। আমরা এখন কোথায় গিয়ে বাচবো। অনেক জায়গায় গিয়েছি সঠিক বিচারের জন্য কিন্তু তা পাচ্ছি না। আমাদের এখন আত্নহত্যা করা ছাড়া কোন উপায় পাচ্ছি না।

তবে অভিযুক্ত কবির খা ও হাবি মালত ঘটনার অস্বিকার করেন।

পুর্বএনায়েত নগর ইউপি চেয়ারম্যান নেয়ামুল আকন বলেন, আমি বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করবো।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিংকি সাহা জানান, হামিদ আকনের বিষয়টির ব্যাপারে জেনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে ওসিসহ তিন পুলিশকে জখম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ অক্টোবর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল:বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীসহ সমমনা দলগুলোর ডাকা অবরোধের প্রথম দিনেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে নারায়ণগঞ্জে বিএনপির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে বলে জানা গেছে। ভাঙচুর করা হয়েছে বিভিন্ন যানবাহনে। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের বন্দর এলাকা, গাজীপুর ও চট্টগ্রামে বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছে।

৩১ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বিএনপির নেতাকর্মীরা গাছের গুঁড়ি, সিমেন্টের পিলার ও টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করে। এছাড়া খণ্ড খণ্ড মিছিল করতে দেখা যায় তাদের। এ সময় বিএনপি সন্ত্রাস নৈরাজ্যের প্রতিবাদে মিছিল বের করে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। এতে দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে গেলে ত্রিমুখী সংঘর্ষে পরিণত হয়।

সংঘর্ষে পাঁচরুখী এলাকায় রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে। এ সময় ওসিসহ তিন পুলিশ সদস্য ও অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে দুই পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে বলে জানা গেছে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলে টিয়াসসেল ও রাবার বুলেট পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে। সকাল সোয়া ১০টায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে মহাসড়কে যান চলাচল শুরু হয়। আহত পুলিশ সদস্যদের ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করা হয়।

এর আগে রাজধানীর মাতুয়াইল এলাকায় বিএনপি কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। পরে সেখান থেকে বিএনপির ৩০ নেতাকর্মীকে আটক করে পুলিশ।


আরও খবর



নওগাঁ-৬ এমপি হেলালের হাতেই নৌকার বৈঠা দিলেন শেখ হাসিনা

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

আসন্ন দ্বাদশ নির্বাচনে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনে নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান এমপি আনোয়ার হোসেন হেলাল। রবিবার ২৬ নভেম্বর বিকেল ৪টায় সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে চ‚ড়ান্তভাবে জানান দিয়েছেন নৌকার মাঝির নাম। এমপি হেলালের নাম ঘোষণা হওয়ার পরপরই নির্বাচনী এলাকায় আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। এর আগে গত কয়েক দিন ধরেই আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে ছিলেন কে হচ্ছে গুরুত্বপ‚র্ণ এই আসনের নৌকার মাঝি। 

তপশিল ঘোষণা হওয়ার পর শুরু হয়েছিল মনোনয়ন ফরম দেওয়ার লড়াই। ফলে এই আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন ১০জন। কে হচ্ছেন নৌকার মাঝি তা নিয়ে শুরু হয়েছিল জল্পনা-কল্পনা। অবশেষে সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত রবিবার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সংবাদ সন্মেলনের মাধ্যমে এমপি হেলালের নাম ঘোষণা দেন। বর্তমান এমপি আনোয়ার হোসেন হেলালের হাতেই নৌকার বৈঠা তুলে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অবশ্য নাম প্রকাশ হওয়ার পরপরই ধন্যবাদ দিতেও ভ‚লেননি এমপি হেলাল।

নওগাঁর ছয়টি আসনের মধ্যে সর্বশেষ আসন নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) এটি। জেলার রাণীনগর ও আত্রাই উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬। এ আসনটি জাতীয় সংসদের ৫১ নম্বর নির্বাচনী এলাকা। দুই উপজেলায় মোট ভোটার ৩লক্ষ ১৯হাজার৩৩৫ জন। তার মধ্যে পুরুষ ১লক্ষ৬১হাজার৭৭ জন, নারী ১লক্ষ৫৮হাজার২৭১ জন এবং হিজড়া ২জন।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে বিজয়ী হন তৎকালীন ঢাকা মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত নেতা ইসরাফিল আলম। এরপর ২০১৪ ও ২০১৮ সালে আবারও আসনটি দখলে রাখেন ইসরাফিল আলম। গত ২০২০ সালের ২৭জুলাই চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ইসরাফিল আলম। এরপর উপনির্বাচনে তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন হেলালকে নৌকার মনোনয়ন দিলে তিনি বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন। উপ-নির্বাচনে বর্তমান এমপি আনোয়ার হোসেন হেলাল জয়ী হওয়ার পর সাংগঠনিকভাবে দলীয় নেতাকর্মীদের মনোবল চাঙ্গা করা ও বিভিন্ন উন্নয়নম‚ল কাজের জন্য তিনি আবারও পেয়েছেন বলে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মী মনে করছেন। 

এমপি হেলাল বলেন, গত উপ-নির্বাচনে ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর মধ্যে থেকে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকার মনোনয়ন দিয়েছিলেন। আমি বিপুল ভোটে জয়লাভ করে এ আসনটি শেখ হাসিনাকে উপহার দিয়ে সংসদে গিয়েছিলাম। এমপি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করার পর প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। প্রধানমন্ত্রীর সুনাম ধরে রেখেছি। আবারও এ আসনটি তাকে উপহার দিতে পারব ইনশাআল্লাহ। আমি আমার নির্বাচনী এলাকা থেকে অন্যায় অবিচার দ‚র করে সাম্যের সমাজ গড়ে তুলতে বদ্ধপরিকর।

উল্লেখ্য, সিইসির ঘোষিত তপশিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ৩০ নভেম্বর। মনোনয়নপত্র যাচাইবাছাই হবে আগামী ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর। রিটার্নিং অফিসারের আদেশের বিরুদ্ধে কমিশনে আপিল দায়ের ও নিষ্পত্তি হবে ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনী প্রচারণা চলবে ১৮ ডিসেম্বর থেকে আগামী ২০২৪ সালের ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। এবং আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।


আরও খবর



অবরুদ্ধ গাজায় তীব্র খাদ্য সংকট

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে ইসরায়েলের নির্বিচার বোমা হামলায় ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায়। সেখানে খাবার, পানি ও ওষুধের তীব্র সংকট চলছে। জাতিসংঘ জানিয়েছে, ইসরায়েলের সর্বাত্মক অবরোধের কারণে আটার তৈরি মাত্র দুই টুকরো পাউরুটি খেয়ে গাজাবাসীরা বেঁচে আছেন।

অবরুদ্ধ গাজায় খাবার, পানি এবং জ্বালানির সীমিত মজুত এবং ইসরায়েলি অবরোধে চরম মানবেতর সময় কাটছে গাজাবাসীর। অসহায় গাজাবাসী এখন পানির অভাবে চিৎকার করে কাঁদছে। বিভিন্ন দেশ থেকে ত্রাণ সহায়তা পেলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা একেবারেই অপর্যাপ্ত।

জাতিসংঘের রিলিফ অ্যান্ড ওয়ার্কস এজেন্সি ফর প্যালেস্টিনিয়ান রিফিউজিসের (ইউএনআরডব্লিউএ) পরিচালক থমাস হোয়াইট বলেন, টানা ২৯ দিন ধরে ইসরায়েলের নির্বিচারে বোমা হামলায় গাজা উপত্যকা এখন মৃত্যুপুরী। গাজার কোনো জায়গাই নিরাপদ নয়।

এক ভিডিও ব্রিফিংয়ে জাতিসংঘের ১৯৩ সদস্য দেশের কূটনীতিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থী সংস্থা (ইউএনআরডব্লিউএ) ১৭ লাখ গাজাবাসীকে রুটির যোগানের লক্ষ্যে প্রায় ৮৯টি বেকারিকে সহায়তা দিচ্ছে। এখন এই অঞ্চলের মানুষরা রুটির বদলে একটু পানির খোঁজে আছেন।

জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক উপ-সমন্বয়ক এবং ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মানবিক সমন্বয়কারী লিন হেস্টিংস বলেন, ইসরায়েলের তিনটি পানি সরবরাহ লাইনের মধ্যে মাত্র একটি চালু আছে। তাই অনেকে লবণাক্ত বা লবণাক্ত ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার করছে।

এদিকে জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক প্রধান মার্টিন গ্রিফিথস এক ব্রিফিংয়ে বলেন, গাজায় জ্বালানি প্রবেশের অনুমতির জন্য ইসরায়েল, মিশর, যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ কর্তৃপক্ষের মধ্যে আলোচনা চলছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল এবং পানি ও বিদ্যুৎ বিতরণের জন্য জ্বালানি জরুরি।

ইউএনআরডব্লিউএ'র ১৪৯টি আশ্রয়কেন্দ্রে গাজার প্রায় ছয় লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে। এদের বেশিরভাগই স্কুল। কিন্তু গত ৭ অক্টোবর হামাসের আকস্মিক হামলার পর ইসরায়েলের তীব্র স্থল ও বিমান হামলায় সংস্থাটি উত্তরা গাজার সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি হামলায় ফিলিস্তিনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ২৯৯ জনে। নিহতদের মধ্যে ৯ হাজার ১৫৫ জনই গাজার এবং বাকি ১৪৪ জন ইসরায়েল অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পশ্চিম তীরের। এছাড়া, ইসরায়েলি হামলায় আহত হয়েছে অন্তত ২৬ হাজার ২০০ জন। আহতদের মধ্যে ২৪ হাজার জন গাজার অধিবাসী, বাকিরা পশ্চিম তীরের। হামাসের হামলায় ইসরায়েলের দেড় হাজারের বেশি নিহত হয়েছে।


আরও খবর



১০টি আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী যারা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৪ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

সদরুল আইন, প্রধান প্রতিবেদক :

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ৩০০ আসনের বিপরীতে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করেছে ৩ হাজার ৩৬২টি। 

এর মধ্যে ১০টি আসনে একক প্রার্থী রয়েছে বলে জানা গেছে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রির বুথ সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে। 

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রির কাজ শেষ করেছে আওয়ামী লীগ। গত বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দলটির সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, শনিবারই জানা যাবে আগামী নির্বাচনে কারা হবেন নৌকার মাঝি।  

বুথ সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার পক্ষে গোপালগঞ্জ-৩ ও রংপুর-৬ আসনের জন্য মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন দলটির নেতারা। 

 গোপালগঞ্জ-৩ আসনের জন্য অন্য কেউ নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন চেয়ে ফরম তোলেননি। একই তালিকায় রয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কার্যনির্বাহী সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী। 

এছাড়াও ঢাকা-৩ আসনের জন্য এককপ্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন নসরুল হামিদ বিপু। এই তালিকায় রয়েছেন নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী নেতা শামীম ওসমান, বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন, শেখ সালাউদ্দিন ও শেখ তন্ময়। 

এসব নেতার আসনে আর কোনো প্রার্থী নৌকার মনোনয়নের প্রত্যাশায় ফরম সংগ্রহ করেননি। ফলে এ ১০ আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী থাকছে।

ঢাকা-৩ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য নসরুল হামিদ বিপু। তিনি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বেও রয়েছেন। ঢাকা-৩ আসন থেকে একমাত্র তিনিই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছেন।

 বিগত নির্বাচনগুলোতেও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এ আসনে একমাত্র তিনিই দলীয় মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছিলেন। তিনি আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর ট্রাস্টি।

এদিকে বাগেরহাট-১ আসন থেকে শেখ হেলাল উদ্দিনের বিপরীতে দলের আর কোনো প্রার্থী ফরম নেননি। শেখ হেলাল আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার আপন চাচাতো ভাই।

 অন্যদিকে শেখ হেলালের ছেলে শেখ তন্ময় বাগেরহাট-২ আসন থেকে মনোনয়নপ্রত্যাশী। তার আসন থেকেও অন্য কেউ দলের মনোনয়ন প্রত্যাশায় ফরম নেননি।

অন্য দিকে শেখ হেলালের আরেক ভাই শেখ সালাহউদ্দিন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য। তার আসনেও নৌকা প্রত্যাশায় ফরম সংগ্রহ করেননি কেউ।

এদিকে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী মাদারীপুর-১ আসনে একক প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন।

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন বর্তমান সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তার আসনেও মনোনয়ন প্রত্যাশায় অন্য কেউ ফরম নেননি।


আরও খবর

নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা হবে

বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩




বকশীগঞ্জ-ঢাকা বাস চলাচল বন্ধ,দূর্ভোগে যাত্রীরা

প্রকাশিত:বুধবার ০১ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

মাসুদ উল হাসান :বিএনপি-জামায়াতের ডাকা তিন দিনের অবরোধের কারনে বকশীগঞ্জ থেকে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। দূর পাল্লার বাস বন্ধ থাকায় দূর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা। তবে মালিকরা বলছেন অবরোধের কারনে যাত্রী সঙ্কট,তাই বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। 

জানা যায়,প্রতিদিন গড়ে প্রায় ৩০-৩৫ টি যাত্রীবাহী দূর পাল্লার বাস বকশীগঞ্জ থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় চলাচল করে। এছাড়াও ভৌগলিক কারনে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলা থেকে বেশ কয়েকটি বাস বকশীগঞ্জ হয়ে চলাচল করে থাকে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে হরতালসহ নানা কর্মসূচী দিচ্ছে বিএনপি-জামায়াতসহ সরকার বিরোধী দলগুলো। এরই জেরে টানা ৭২ ঘন্টার অবরোধের ডাক দিয়েছে বিএনপি-জামায়াত। যে কারনে আতঙ্কে রয়েছেন পরিবহন মালিকরা। অবরোধের কারনে রাস্তায় গাড়ি বের করার সাহস পাচ্ছেন না তারা। ফলে বকশীগঞ্জ থেকে সকল ধরনের দূর পাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে জুরুরী প্রয়োজনে গন্তব্যে যেতে পারছেন না যাত্রীরা।  অপরদিকে যাত্রী সংকটের কারণ দেখিয়ে ছাড়া হচ্ছে না কোনো বাস। বেশিরভাগ বাস কাউন্টার বন্ধ। তবে মালিকদের দাবি বাস বন্ধের কোন নির্দেশনা নেই। যাত্রী সঙ্কটের কারনেই বাস চলছে না। 

বকশীগঞ্জ পুরাতন বাসস্ট্যান্ড জননী কাউন্টারের সামনে কথা হয় আইড়মারী গ্রামের মমতাজুর রহমান নামে এক যাত্রীর সাথে। তার ভাষ্য,ঢাকায় একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন তিনি। তিনদিনের ছুটিতে বাড়িতে এসেছিলেন। ঢাকায় যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে এসেছেন। কিন্তু ঢাকাগামী কোন গাড়ি পাচ্ছেন না। 

ভোগান্তিতে পড়েছেন বগারচর ইউনিয়নের বাসিন্দা নুরেজা বেগম। তিনি বলেন ডেংগু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে তার বড় বোন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। কিন্তু বাস চলাচল বন্ধ থাকায় ঢাকায় যেতে পারছেন না তিনি ও তার পরিবারের লোকজন। 

জানতে চাইলে প্রিয় এক্সপ্রেসের কাউন্টার ম্যানেজার বিপুল মিয়া বলেন, অবরোধের কারনে গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। এতে মালিক শ্রমিকদের অপূরনীয় ক্ষতি হয়। সেই আতঙ্ক থেকেই বাস ছাড়া হয়নি। এছাড়া অবরোধের কারনে যাত্রী নেই বললেই চলে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে গাড়ি পাঠানো হবে। 

জননী কাউন্টারের সুপারভাইজার মো.আসাদ বলেন,অবরোধে যাত্রীরাও আতঙ্কে আছে। আমাদের বাস চালানোর নির্দেশনা আছে। যাত্রী না থাকলে কেমনে যাব। লোকসান করে তো বাস চালাতে পারব না। 

পরিবহন শ্রমিকরা বলছেন,অবরোধের মধ্যে রাস্তায় গাড়ি চললে গাড়িতে আগুন ও ভাঙ্চুরের ঘটনা ঘটতে পারে বলে শঙ্কায় রয়েছেন মালিকরা। গাড়ি ভাঙচুর হলে বা অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটলে অনেক  মালিক নিঃস্ব হয়ে যায়। এছাড়াও এতে চালক ও হেল্পারের জীবনের শঙ্কাও থাকে। তাই যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। যান চলাচল না করায় যাত্রীরা যেমন বিপাকে পড়েছেন তেমনি শ্রমিকরাও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। 

বকশীগঞ্জ বাস মালিক সমিতির সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য জয়নাল আবেদীন বলেন,অবরোধকে ঘিরে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা কিছুটা আতঙ্কিত। তবে সেই কারনে বাস চলাচল বন্ধ নয়। যাত্রী না থাকায় লোকসানের ভয়ে মালিকরা গাড়ি পাঠাচ্ছেনা।


আরও খবর