Logo
শিরোনাম

কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের হীরক জয়ন্তী পালিত

প্রকাশিত:Wednesday ০২ November 2০২2 | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

 ঐতিহ্যবাহি কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের হীরক জয়ন্তীতে নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালন করেছে শিক্ষাবোর্ড।

বুধবার সকালে বেলুন উড়িয়ে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের ৬০ বছর পূর্তির বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর জামাল নাসের। শোভাযাত্রাটি শিক্ষাবোর্ড প্রাঙ্গন থেকে নগরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে নগরের উদ্যোনে গিয়ে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ।

বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় নবীণ-প্রবীণের মেলবন্ধনে দেশের সেরা শিক্ষার্থীসহ শিক্ষাবোর্ডের শিক্ষক,শিক্ষার্থীসহ অবসরে যাওয়া শিক্ষাবোর্ড কর্মকর্তারা অংশ নেন।


কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চাঁদপুর, ফেণী, নোয়খালী ও লক্ষীপুর ৬ জেলার মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষা কার্যক্রম সফল ভাবে চালিয়ে আসছে।

১৯৬২ সালে যখন কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয় তখন মাত্র ২৭টি কলেজ এবং ৫৩২টি মাধ্যমিক স্কুলের দায়িত্ব পালন করে এই প্রতিষ্ঠানটি। আর বর্তমানে ৪২৬টি কলেজ এবং ১৯৬৫টি মাধ্যমিক স্কুলের দায়িত্ব পালন করছে কুমিল্লা বোর্ড। 

একসময় কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের সকল জেলার দায়িত্ব পালন করেছে। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম বোর্ড আলাদা হয় এবং আরো পরে সিলেট বোর্ডও স্বতন্ত্র দায়িত্ব পায়।


আরও খবর



কুমিল্লায় মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম

স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে

প্রকাশিত:Friday ০৩ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো :

স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম। 

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, 'দেশজুড়ে শহরের পাশাপাশি গ্রাম পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর উন্নয়ন হয়েছে। গ্রামের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা এখন দেশ-বিদেশে সুনামের সাথে কাজ করছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন। স্মার্ট শিক্ষার্থীরাই স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলবে।'

 শুক্রবার (০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩) সকালে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের চার তলা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।  

মেয়র আরও বলেন, 'গ্রামের একটি স্কুলের সফলতার জন্য সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকতে হবে। লালপুর গ্রামের এই স্কুলটি শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও গ্রামবাসীর সহযোগিতায় এগিয়ে চলেছে। জেলা পর্যায়ে ও উপজেলা পর্যায়ে স্কুলের শিক্ষার্থীর ভালো করছে। মাননীয় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী আজ নিজে এসে স্কুলের চার তলা ভবন উদ্বোধন করেছেন। আশা করছি স্কুলটির সুনাম ও সফলতা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, লালপুর নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের চার তলা ভবনের নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করে কুমিল্লা জেলার শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর।

এসময় ডিএনসিসি মেয়র বিদ্যালয়টিতে আসা যাওয়ার সুবিধার জন্য বিদ্যালয় থেকে আশেপাশের গ্রামগুলোতে যাওয়ার রাস্তা নির্মাণের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর নিকট আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্হানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম এমপি। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ২০৪১ সালের স্মার্ট ও উন্নত  বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান অর্জনের মাধ্যমে সক্ষমতা ও দক্ষতা লাভের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন স্হানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। 


প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, 'বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শিক্ষার উন্নয়নে প্রাইমারি স্কুলের জাতীয়করণ করেছিলেন যাতে শিক্ষকরা নিয়মিত বেতন পান। তাঁর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্কুলে শতভাগ এনরোলমেন্ট নিশ্চিত করেছেন। জনগণের দ্বারগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে শেখ হাসিনা কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করেছেন। উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত রাখতে মন্ত্রী শিক্ষার্থীদের আইটি শিক্ষায় গুরুত্ব দেবার আহবান জানান। 

মন্ত্রী আরও বলেন, 'কৃষকের সন্তানও সক্ষমতা ও দক্ষতা অর্জন করে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার জন্য সমান সুযোগ সৃষ্টি করতে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন। নারী শিক্ষা ও ক্ষমতায়নে বাংলাদেশে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। যে বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে এক সময় উন্নত বিশ্ব সন্দেহ পোষণ করত, তারাই আজ বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বগুণেই আজ তা সম্ভব হয়েছে।'

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা-৬ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার ,কুমিল্লা  জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম।


আরও খবর



কে হচ্ছেন পরবর্তী রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল :রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ দুই মেয়াদে এ পদে থাকায় তিনি আর রাষ্ট্রপতি হতে পারছেন না। সংবিধান অনুযায়ী নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করতে হবে আগামী ফেব্রুয়ারির মধ্যে। সে কারণে খুব শিগগিরই রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ব্যাপারে আওয়ামী লীগকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে হবে।

আগামী ২৩ এপ্রিল বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের দায়িত্বের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। রাষ্ট্রপতির ৫ বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগের ৯০ দিন থেকে ৬০ দিনের মধ্যে নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের কথা বলা হয়েছে সংবিধানে। সে অনুযায়ী আগামী ২৩ জানুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরু হবে। এদিকে সময় যত এগিয়ে আসছে এ পদটি নিয়ে আলোচনাও তত বাড়ছে। বিশেষ করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে এ আলোচনা জোরালো হয়ে উঠেছে। কারণ, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ যাকে রাষ্ট্রপতি প্রার্থী করবে, তিনিই সংসদ সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত হবেন। সংসদীয় গণতন্ত্রে জাতীয় সংসদের সদস্যদের ভোটে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। বর্তমান সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে।

সংসদীয় গণতন্ত্রে রাষ্ট্রপতির ক্ষমতা সীমিত। সরকারের প্রধান প্রধানমন্ত্রী এবং তিনিই সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমেই রাষ্ট্রপতি সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন। বাংলাদেশ বর্তমানে সংসদীয় গণতান্ত্রিক পদ্ধতির সরকার দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। চলতি বছরের শেষে অথবা আগামী বছরের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের সময় কোনো কোনো ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অপশক্তির দ্বারা সংকট তৈরির চেষ্টা হতে পারে বলে অনেকেই আশঙ্কা করছেন। এরই মধ্যে বর্তমান নির্বাচন কমিশন নিয়ে বিএনপি ও কোনো কোনো রাজনৈতিক দল আপত্তি তুলেছে। নির্বাচনের সময় বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের পরিবর্তে নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে দলগুলো। এ পরিস্থিতিতে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন সংকটমুক্ত হওয়া অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। এই প্রেক্ষাপটে একজন দক্ষ, সবার কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিকেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করার ওপর গুরুত্ব দেবে আওয়ামী লীগ।

বিশেষ করে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে নতুন রাষ্ট্রপতির সময়ে। সেজন্যই রাষ্ট্রপতি কে হচ্ছেন, এটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই কে হচ্ছেন পরবর্তী রাষ্ট্রপতি- এ নিয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন মহলে আলোচনা হচ্ছে। রাষ্ট্রের শীর্ষ পদটির জন্য অনেকের নামও শোনা যাচ্ছে।

দেশের পরবর্তী রাষ্ট্রপতি হিসেবে আলোচনায় আছেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। এছাড়া রয়েছেন আওয়ামী লীগের বর্তমান মন্ত্রিসভার দুই সদস্য। এছাড়া সাবেক একজন মন্ত্রীও রাষ্ট্রপতি পদে নির্বাচিত হতে পারেন বলে আলোচনা শোনা যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর একজন উপদেষ্টা সদস্যের নামও রাষ্ট্রপতি হিসেবে আলোচিত হচ্ছে। আলোচনায় আছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের এক সদস্যও। তবে কে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন এবং কাকে রাষ্ট্রপতি করা হবে- সেটা সম্পূর্ণই নির্ভর করছে দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের ওপর।

আওয়ামী লীগ নেতাদের মতে, সামনের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে যে কোনো সংকট তৈরি হলে সাহসিকতা, দক্ষতা ও বিশ্বস্ততার সঙ্গে যিনি সংকট থেকে উত্তরণে অবস্থান নিতে পারবেন, তেমন কাউকেই এ পদে বসাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনেক কিছু বিবেচনা করেই রাষ্ট্রপতি পদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের এক নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ এই পদটিতে আওয়ামী লীগ কাকে নির্বাচিত করবে তা দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের ওপরই নির্ভর করছে। তিনি সার্বিক বিষয়গুলো বিবেচনা করেই সর্বাধিক যোগ্য ব্যক্তিকে এই পদে নির্বাচিত করবেন। তিনি বিশ্বস্ত, দলের আদর্শের প্রতি দায়বদ্ধ ও অনুগত ব্যক্তিকেই বিবেচনা করবেন।

রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন জাতীয় সংসদ সদস্যদের ভোটে। তফসিল ঘোষণাসহ এ নির্বাচন পরিচালনা করে নির্বাচন কমিশন। বর্তমানে জাতীয় সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতার কারণে আওয়ামী লীগ যাকে মনোনীত করবে তিনিই রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হবেন।

এছাড়া রাষ্ট্রপতি হওয়ার দৌড়ে এখন পর্যন্ত যাদের নাম আলোচনায় এসেছে তাদের মধ্যে রয়েছেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি খায়রুল হক, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আ ক ম মোজাম্মেল হক, আওয়ামী লীগের টানা তিনবারের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের উচ্চপর্যায়ের কয়েকজন নেতা বলেছেন, রাষ্ট্রপতি কে হবেন- এ নিয়ে আওয়ামী লীগের থিংক-ট্যাংকের মধ্যে আলাপ-আলোচনা চলছে। প্রধানমন্ত্রী নিজেও বিভিন্ন ব্যক্তির মতামত নিচ্ছেন। এ ব্যাপারে তিনিই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবেন।

নতুন বছরের শুরুতে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের বিষয়টি আলোচনায় এসেছে আইনমন্ত্রীর একটি বক্তব্যকে কেন্দ্র করে। গত ৪ জানুয়ারি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছেন, ‘যেহেতু তিনি (বর্তমান রাষ্ট্রপতি) দুই মেয়াদ থেকেছেন, সংবিধান অনুযায়ী আর থাকতে পারেন না। সেহেতু আমরা নতুন রাষ্ট্রপতি দেখব।’ মো. আবদুল হামিদকে তৃতীয় মেয়াদের জন্য রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করতে হলে সংবিধান পাল্টাতে হবে- এ কথা জানিয়ে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এখন পর্যন্ত সংবিধান পাল্টানোর কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই।’

ফলে সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে তৃতীয় মেয়াদের জন্য মো. আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন না- এটা নিশ্চিত। আর আওয়ামী লীগের দলীয় ফোরামেও জোরেশোরে আলোচনা হচ্ছে নতুন রাষ্ট্রপতি কাকে করা হতে পারে- তা নিয়ে। তবে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে এ নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনা হয়নি। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাও এ বিষয়টি ফোরামে উল্লেখ করেননি। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা বলছেন, সবকিছু বিবেচনা করে একজন যোগ্য ব্যক্তিকে রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়ন দেওয়া হবে।


আরও খবর



তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর ফিরবে না

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সাধারণ সম্পাদক ও ফেনী-১ আসনের সংসদ সদস্য শিরিন আখতার বলেছেন, ‘বাংলাদেশে আর কখনো তত্ত্বাবধায়ক সরকার হবে না। নিয়মতান্ত্রিক গতিতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি যেভাবে গত ১৪ বছর চালিয়ে যাচ্ছে ঠিক সেভাবেই চলবে। কোনো অপশক্তিকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে দেওয়া হবে না।’ যারা খাদ্য নিয়ে সিন্ডিকেট করে তাদের ব্যাপারে কঠোর হুঁশিয়ারি দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ঘোষণা দেন।

রবিবার ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার দক্ষিণ বরইয়া সরকারি প্রথামিক বিদ্যালয় মাঠে অভিভাবক ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আগামী নির্বাচনে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তি, শেখ হাসিনার সরকারকে ক্ষমতায় আনতে অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। স্কুলে শিক্ষার মানোন্নয়েন নারী শিক্ষকদের কঠোর হুঁশিয়ারী দিয়ে বলেন, আপনারা স্কুলে নিয়মিত আসবেন, ঠিক সময়মত স্কুলে এসে নিজের সন্তানদের নিয়ে ব্যস্ত না থেকে শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা দিতে হবে। যদি এর ব্যতিক্রম হয় তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রীর সংবাদ সম্মলেন

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

মোঃ নাঈম হোসাইন,পটুয়াখালী প্রতিনিধি :

পটুয়াখালীর দশমনিায় যৌতুক না পয়েে স্ত্রীকে শারীরকি ও মানসকি নর্যিাতনরে অভযিোগে সংবাদ সম্মলেন করছেনে স্ত্রী। এ ঘটনায় বচিাররে দাবতিে সংবাদ সম্মলেন করছেে স্বপ্না। বুধবার বকিাল ৪টায় উপজলোর বাঁশবাড়য়িা ইউনয়িনরে দক্ষনি দাস পাড়া গ্রামে বাবার নজি বাড়তিে ভুক্তভোগী পরবিাররে এ সংবাদ সম্মলেন করনে। সংবাদ সম্মলেনে লখিতি বক্তব্যে স্বপ্না বলনে, ২০১৬ সালে ঢাকা শনরি আখড়া এলাকায় মোফাজ্জলে হোসনে ওরফে সাগর এর সাথে প্রমে সংগঠতি সর্ম্পকে মাধ্যমে বয়িে হয়। বয়িরে ৩বছর পরে তাদরে ঘরে ১টি পুত্র সন্তানরে জম্মহয়। সন্তানরে জম্মরে পর থকেে এ র্পযন্ত ৬বার বাবার বাড়ি থকেে প্রায় সাড়ে ৩লাখ টাকা যৌতুক এনে দয়িছে।ি র্বতমানে ৩লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে স্বামী মোফাজ্জলে হোসনে ওরফে সাগর। যৌতুকরে টাকা না পয়েে বড় ননদ, ভাশুররে ময়ে,ে ভাশুররে ছলেওে মোফাজ্জলে হোসনে নজিে মারধরসহ নানাভাবে শারীরকি-মানসকি নর্যিাতন চালায়। চলতি বছররে ২৬জানুয়ারী স্থানীয় একটি এনজওি থকেে দড়ে লাখ টাকা ঋন করে দলিে বলে আমি ঋন তুলে দতিে রাজি না হওয়ায় আমাকে মারধরসহ নানাভাবে শারীরকি-মানসকি নর্যিাতন শুরু কর।ে ৩০জানুয়ারী শারীরকি-মানসকি নর্যিাতনরে ভয়ে ছোট ননদরে বাড়তিে আশ্রয় নইে। সখোনে গয়িে আমাকে মারধর করে এবং খুন করার কথা বললে আমি গোপনে ৯৯৯নম্বরে কল দইে এর আগে আবার চাচাতো ভাইও ৯৯৯নম্বরে কল করলে বরশিাল বন্দর থানা পুলশি আমাকে হফোযত করনে এরপরে আমার চাচা ও চাচাতে ভাই থানা পুলশি হইতে ওই রাত ২টায় জম্বিায় ননে। আমার স্বামী নয়িোমতি একজন মাদক ব্যবসায়ী। বরশিাল সাইবরে হাট বন্দর থানার সংিহরে কাঠি গ্রামরে মৃত.হাফজে হাওলাদাররে ছোট ছলেে মোফাজ্জলে হোসনে ওরফে সাগর। এসব ঘটনার প্রতকিার চয়েে প্রশাসন ও প্রধানন্ত্রীর সহযোগতিা চয়েছেনে এবং বচিাররে দাবি জানয়িছেনে ভুক্তভোগী এই নারী। সংবাদ সম্মলেনে উপস্থতি ছলিনে ভুক্তভোগীর নারীর মা সুফয়িা বগেম, চাচা আমরি হোসনে সকিদার, চাচাতো ভাই রায়হান বাদল রাকবি, হুন্ডা চালক মো. হাসান মুন্সি ও ভাইর ছেলে রাব্বি 


আরও খবর



ইউপি চেয়ারম্যানের অবৈধ ইটভাটা ধবংস,২০ লাখ টাকা জরিমানা

প্রকাশিত:Friday ২০ January ২০23 | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন(স্টাফ রিপোর্টার) :

আজ ধামরাই উপজেলার কুশুরা ইউনিয়নের মধুডাঙ্গা এলাকায় মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষে উপজেলা প্রশাসন এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে অবৈধ ইট ভাটা বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় সানোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খালেদ মাসুদ খান লাল্টুর মালিকানাধীন মেসার্স খান ব্রিক্স নামক একটি অবৈধ  ইট ভাটা চিমনিসহ গুড়িয়ে দেয়া হয় এবং লাইসেন্স বিহীন ভাটা পরিচালনা করায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে  ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইন, ২০১৩ অনুযায়ী ২০ লক্ষ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। অভিযানের সহযোগিতায় ছিল ধামরাই থানা পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, পল্লী বিদ্যুৎ এবং বন বিভাগ।  অবৈধ ইট ভাটার বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ধামরাই এর নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়।


আরও খবর