Logo
শিরোনাম

কুমিল্লায় ভাইফোঁটা উৎসব পালিত

প্রকাশিত:Wednesday ২৬ October ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো ঃ                

সারাদেশের ন্যায় কুমিল্লার বিভিন্ন উপজেলায় সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাসাবাড়ীতে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় ঘরোয়া পরিবেশে বাঙালি হিন্দুদের শ্রেষ্ঠ সামাজিক অনুষ্ঠান ভ্রাতৃদ্বিতীয়া  ভাইফোঁটা উৎসব পালিত হয়ে‌ছে। 

- শুভ দিনের পরম পবিত্র লগ্নে  ভাই-বোনের মধুর সম্পর্কের পুনঃ নবীকরণ করে নেওয়া হয় প্রতি বছর। শৈশবের হারিয়ে যাওয়া মধুর এই দিনটিতে বড় বেশি করে মনে পড়ে যায়। ভাই-বোনের স্নেহ ভালোবাসার সম্পর্কের প্রকাশ ভাইফোঁটা আচার অনুষ্ঠানটি মন কেড়ে নেয়। একটি অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে চিরন্তন আবেগ অনুভূতিই জীবন্ত হয়ে ওঠে। কার্তিক মাসের শুক্লপক্ষে দ্বিতীয় তিথিতে বোন তাঁর ভাইকে পরম যত্ন সহকারে একটি সুন্দর আসনে বসিয়ে হেমন্তের শিশির ও অন্যান্য উপকরণ দিয়ে হাতের তিন আঙ্গুলের সাহায্যে বোন তাঁর ভাইয়ের কপাল ধুয়ে দেয়। এরপর বোন তার কনিষ্ঠা আঙ্গুল দিয়ে একইভাবে চন্দন তিলক এঁকে দিয়ে ছড়া কেটে বলে "ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমের দুয়ারে পড়লো কাঁটা, যমুনা দেয় যমকে ফোঁটা, আমি দেই আমার ভাইকে ফোঁটা।"

এ বিষয়ে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ কুমিল্লা জেলা শাখার তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট তাপস চন্দ্র সরকার বলেন- দীপাবলির একদিন পরেই ভ্রাতৃদ্বিতীয়া বা ভাইফোঁটা।হেমন্তের পবিত্র শিশির দিয়ে বোন তাঁর ভাইয়ের সব অশুভ, অমঙ্গল ও অকল্যাণকর শক্তিকে ধুয়ে দেয়। সুগন্ধি চন্দন তিলক ললাটে এঁকে দিয়ে এনে দেয় সৌভাগ্যের পরশমনি। তারই সঙ্গে অমরত্বের প্রতীক দুর্বা আর ধনের প্রতীক ধান দিয়ে প্রার্থনা বা আশীর্বাদ বা তার মঙ্গল কামনা করেন। তিনি আরো বলেন- যমী (যমুনা) তার ভাই যমকে কার্তিক মাসের শুক্লপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে নিজ গৃহে এনে পূজা করে ভোজনে আপ্যায়িত করেছিলেন। জনশ্রুতি আছে, সেই থেকে অধ্যাবদি বিপুুুল উৎসাহউদ্দীপনায় ঘরোয়া পরিবেশে পালিত হয়ে আসছে বাঙালি হিন্দুদের শ্রেষ্ঠ সামাজিক অনুষ্ঠান ভ্রাতৃদ্বিতীয়া বা ভাইফোঁটা উৎসব। 

অন্যদিকে, ১৩৩৬ খ্রিস্টাব্দে আচার্য সবানন্দ সুবীর পুঁথির শেষ শ্লোকে বলা হয় মহাবীরের জীবনবাসন হলে রাজা নন্দী বর্ধন বোনের শোক নিবারণের জন্য বোনকে বুঝিয়ে আদর যত্ন করে আপ্যায়ন করেছিলেন। ভ্রাতৃদ্বিতীয়া যমের দুয়ারে কাঁটা দিয়ে ভাইয়ের দীর্ঘায়ু ও সৌভাগ্য কামনা করা হয়। ভাইফোঁটার দিনে বোনেরা তাদের দাদা বা ভাইকে নিজের বাড়ীতে নিমন্ত্রণ করে আপ্যায়ন করে এবং ভাইয়েরাও বোনদের প্রাণ ভরে আর্শীবাদ করে। ভাগ্নিরা ভাইয়ের কপালে চন্দন ও কুমকুমের তিলক বা ফোঁটা এঁকে দিলে কেউ তার ক্ষতি করতে পারবেনা।  সেজন্যই বোনেরা ভাইয়ের হাতে রাখি বেঁধে দেয়। এভাবে বোনেরা ভাইয়ের দীর্ঘায়ু কামনা করে। এরপর ভাইকে ঐতিহ্যবাহী মিষ্টি খাওয়ায়। ভাইও তার সাধ্যমত বোনকে কিছু উপহার বা টাকা দেয়। পশ্চিমবঙ্গের ন্যায় বাংলাদেশেও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে পালিত হয় বাঙালি হিন্দুদের শ্রেষ্ঠ সামাজিক অনুষ্ঠান ভ্রাতৃদ্বিতীয়া বা ভাইফোঁটা উৎসব। 

এদিকে, তারই ধারাবাহিকতায় কার্তিক মাসের শুক্লপক্ষের দ্বিতীয়া তিথিতে কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ নগরীর কালিয়াজুরীতে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ নেতা কুমিল্লা জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য এডভোকেট তাপস চন্দ্র সরকার এর একমাত্র মেয়ে অর্পিতা সরকার তাঁর একমাত্র ছোটভাই অরন্য সরকার প্রিন্স এর কপালে চন্দন দিয়ে ফোঁটা এঁকে ছড়া কেটে বলেন "ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমের দুয়ারে পড়লো কাঁটা, যমুনা দেয় যমকে ফোঁটা, আমি দেই আমার ভাইকে ফোঁটা।"  এভাবেই ভ্রাতৃদ্বিতীয়া যমের দুয়ারে কাঁটা দিয়ে ভাইয়ের দীর্ঘায়ু ও সৌভাগ্য কামনা করেন বোন।


আরও খবর



কুমিল্লায় ৯৪ কেজি গাঁজাসহ ৩ মাদককারবারি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Tuesday ১০ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :

কুমিল্লায় র‌্যাবের অভিযানে ৯৪ কেজি গাঁজাসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সোমবার সকালে এসব তথ্য জানিয়েছেন র‌্যাব ১১ কুমিল্লার কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

র‌্যাব-১১ অধিনায়ক সাকিব জানান, পৃথক তিনটি অভিযানে ৯৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে আদর্শ সদর উপজেলার টিক্কারচর ব্রিজ এলাকা থেকে ২৬ কেজি গাঁজাসহ মাদককারবারিকে গ্রেপ্তার করে। এঘটনায় গ্রেপ্তার হন দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ থানার চন্ডিপুর গ্রামের মো. মনিরুল ইসলাম এর ছেলে মো. মাসুদ রানা (২৩)।


রবিবার দুপুরে একই উপজেলার মুন্সীবাজার এলাকা থেকে ১৮ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এসময় মাদক পরিবহন কাজে ব্যবহৃত একটি সিএনজিঅটোরিক্সা জব্দ করা হয়।

রবিবার পৃথক অন্য আরেকটি র‌্যাবের অভিযানে রাতে কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার নাজিরাবাজার এলাকা থেকে ৫০ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদককারবারিকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এসময় মাদক পরিবহনের অভিযোগে গ্রেপ্তার হন চট্টগ্রাম জেলার হালিশহর থানার মগপাড়া আনন্দপুর গ্রামের মৃত মোতাহের হাওলাদার এর ছেলে মো. জাহাঙ্গীর আলম (৩৮); এবং কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী মডেল থানার তেলিকোনা সাহাপাড়া গ্রামের মৃত কানুলাল সাহা এর ছেলে বিশ্বজিৎ চন্দ্র সাহা (৩৮)। এসময় মাদক পরিবহন কাজে ব্যবহৃত একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করে র‌্যাব ।

র‌্যাব -১১ অধিনায়ক মোহাম্মদ সাকিব হোসেন বলেন, অনুসন্ধান ও গ্রেপ্তারকৃতদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দীর্ঘদিন যাবৎ দিনাজপুর, চট্টগ্রাম, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গাঁজাসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল বলে স্বীকার করে। উক্ত বিষয়ে গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী মডেল ও বুড়িচং থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মাদকের মতো সামাজিক ব্যাধির বিরুদ্ধে র‌্যাবের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান র‌্যাবের অধিনায়ক।


আরও খবর



সামরিক শক্তি সূচকে ৪০তম বাংলাদেশ

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

সামরিক সক্ষমতার ওপর নির্ভর করে তৈরি করা আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল ফায়ারপাওয়ারের (জিএফপি) চলতি বছরের সামরিক শক্তি সূচকে বিশ্বের ১৪৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশ ৪০তম অবস্থানে রয়েছে। এই সূচকে গত বছরের মতো শীর্ষ সামরিক ক্ষমতাধর দেশ নির্বাচিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর আগে, ২০২০ ও ২০২১ সালে বাংলাদেশের এই অবস্থান ছিল যথাক্রমে ৪৬ ও ৪৫ তম।

জিএফপির চলতি বছরের সূচকে দেশগুলোর শক্তি বৃদ্ধির প্রবণতার ওপর ভিত্তি করে জাতীয় সামরিক শক্তিকে তুলে ধরা হয়েছে। জিএফপির পর্যালোচনায় ‘পাওয়ারস অন দ্য রাইজ’ তালিকায় ১২তম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। জিএফপির ২০২৩ সালের বার্ষিক প্রতিরক্ষা পর্যালোচনায় ‘পাওয়ারস অন দ্য রাইজ’ হিসেবে ৫৩টি দেশকে বেছে নেওয়া হয়।

আন্তর্জাতিক এই সংস্থার ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বিশ্বের ১৪৫টি দেশের সামরিক সক্ষমতার সর্বশেষ সহজলভ্য সামরিক সরঞ্জাম, প্রতিরক্ষা বাজেট, সৈন্য সংখ্যাসহ বিভিন্ন ধরনের ৬০টির বেশি মাপকাঠির ওপর ভিত্তি করে চলতি বছরের সূচক তৈরি করা হয়েছে।

‘২০২৩ মিলিটারি স্ট্রেন্থ র‍্যাংকিং’ নামে প্রকাশিত এই সূচকে সামরিক শক্তিমত্তা বিচারে দেশগুলোর স্কোরও নির্ধারণ করা হয়েছে। এতে বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীকে বিশ্বের ৪০তম হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। সামরিক শক্তিসূচকে বাংলাদেশ স্কোর পেয়েছে শূন্য দশমিক ৫৮৭১।

গত ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশের সামরিক সক্ষমতাকে এই সূচকের ভিত্তি হিসেবে ধরে নিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে জিএফপি।

এদিকে, গত বছরের মতো এই সূচকে শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। রাশিয়া-ইউক্রেন চলমান যুদ্ধের পটভূমিতে ১৪৫টি দেশের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সামরিক বাহিনীর তালিকায় ১৫তম স্থানে রয়েছে ইউক্রেন।

অন্যদিকে, জিএফপির সূচকে দ্বিতীয় সামরিক ক্ষমতাধর দেশ নির্বাচিত হয়েছে রাশিয়া। দেশটির স্কোর শূন্য দশমিক ০৭১৪। আর সামরিক শীর্ষ ক্ষমতাধর দেশের এই সূচকে চীন রয়েছে তৃতীয় স্থানে। চীনের স্কোর শূন্য দশমিক ০৭২২।

বাংলাদেশের প্রতিবেশি ভারত শীর্ষ সামরিক ক্ষমতাধর দেশের এই তালিকায় চতুর্থ স্থানে আছে ভারত; দেশটির স্কোর শূন্য দশমিক ১০২৫। পাকিস্তান রয়েছে ৭ম স্থানে; স্কোর শূন্য দশমিক ১৬৯৪। আর মিয়ানমার রয়েছে ৩৮তম স্থানে। দেশটির স্কোর শূন্য দশমিক ৫৭৬৮।

জিএফপির এই সূচকে ইরান ১৭তম, ইসরায়েল ১৮তম, ভিয়েতনাম ১৯তম, সৌদি আরব ২২তম, তাইওয়ান ২৩, থাইল্যান্ড ২৪তম ও উত্তর কোরিয়া ৩৪তম সামরিক ক্ষমতাধর দেশের অবস্থানে রয়েছে।

আর এই তালিকার একেবারে তলানিতে রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভুটান। ১৪৫তম অবস্থানে থাকা দেশটির স্কোর ৬ দশমিক ২০১৭।


সূত্র : জিএফপি।


আরও খবর



নওগাঁয় মাদক ও বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁয় মাদক ও বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ১৯ জানুয়ারী সকাল ১১টায় নওগাঁর সাপাহারে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের মধ্যে মাদক ও বাল্য বিবাহের কুফল সম্পর্কে জনসচেতনতামূলক ২দিন ব্যাপি প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত হয়।

সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্যাহ আল মামুন এর সভাপতিত্বে উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্প (ইউজিডিপি), স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সী (জাইকা) সহায়তায় উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক স্থায়ী কমিটির বাস্তবায়নে উপজেলা পরিষদ হল রুমে উপজেলা পরিষদের আয়োজনে ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি প্রশিক্ষণের সমাপনি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাহজাহান হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন জাহান লূনা, থানার ওসি (তদন্ত) হাবিবুর রহমান, আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তা জুলেখা বেগম, উপজেলা পরিচালন ও উন্নয়ন প্রকল্প (ইউজিডিপি), স্থানীয় সরকার বিভাগ ও জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোঅপারেশন এজেন্সী (জাইকা)'র ইউডিএফ শহিদুল ইসলাম প্রমূখ। উক্ত অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী সম্প্রদায়ের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



সম্পদের দুই-তৃতীয়াংশ এক ভাগ মানুষের হাতে

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

২০২০ সাল থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বের ৯৯ ভাগ মানুষ মোট যে পরিমাণ সম্পদ অর্জন করেছে, তার প্রায় দ্বিগুণ সম্পদের মালিক হয়েছে বাকি এক শতাংশ মানুষ। এমনটিই বলছে অক্সফামের সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদন।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম 'সারভাইভাল অব দ্য রিচেস্ট' শীর্ষক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। ১৬ জানুয়ারি সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বার্ষিক সভায় প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়।

পৃথিবীর মোট সম্পদের দুই-তৃতীয়াংশই নিয়ন্ত্রণ করছে মাত্র এক ভাগ মানুষ। সোমবার 'সারভাইভাল অব দ্য রিচেস্ট' নামে এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম। প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২০ সাল থেকে বিশ্বে নতুন করে ৪২ ট্রিলিয়ন ডলারের সম্পদ অর্জিত হয়েছে। যার প্রায় সবটাই গেছে ঐ ধনকুবেরদের পকেটে। এ সময়ে বিলিয়নিয়ারদের সম্পদ আবার প্রতিদিন বেড়েছে দুই দশমিক সাত বিলিয়ন ডলার করে।

সংস্থাটি জানিয়েছে, বিলিয়নিয়ারদের সম্পদ প্রতিদিন দুই দশমিক সাত বিলিয়ন ডলার বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিলিয়নিয়ারদের অর্ধেক এমন দেশগুলোতে বাস করেন, যেখানে উত্তরাধিকার সূত্রে সম্পদের মালিক হতে কোনো ট্যাক্স দিতে হয় না।

অন্যদিকে, আয়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে জিনিসপত্রের দাম। সম্পদের ব্যবধানের মতোই এই উর্ধমুখী মুল্যস্ফীতির সঙ্গে তাল মেলাতে হিমশিম খাচ্ছেন বিশ্বের ১ দশমিক ৭ বিলিয়ন কর্মী। আর বিলিয়নিয়ারদের অর্ধেক এমন দেশগুলোতে বাস করেন যেখানে উত্তরাধিকার সূত্রে সম্পদের মালিক হতে কোনো ট্যাক্সই দিতে হয় না। ফলে গেল ১০ বছরে বিশ্বের সব ধনকুবেরদের সম্পদ বেড়ে হয়েছে দ্বিগুণ।

অক্সফাম বলছে, ভারতের মোট সম্পদের ৪০ ভাগ রয়েছে মাত্র এক ভাগ ধনীর হাতে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের মাত্র ১০ জন ধনী ব্যক্তির ওপর যদি ৫ শতাংশ কর আরোপ করা হয়, সেই টাকাতেই আগামী তিন বছর শিশুদের শিক্ষার ব্যায়ভার উঠে আসবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে ভারতের ধনকুবেররা যদি তাদের সম্পূর্ণ সম্পদের উপর একবার মাত্র ২% কর দেন তবে আগামী তিন বছরের জন্য ভারতে অপুষ্টির শিকার মানুষের পুষ্টির জন্য ৪০,৪২৩ কোটি টাকার প্রয়োজন মেটাবে। ২০২২ সালে ভারতে বিলিয়নেয়ারের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৬৬, যেখানে ২০২০ সালে এই সংখ্যা ছিল ১০২।

উপার্জনের পরিপ্রেক্ষিতে লিঙ্গ বৈষম্যেকেও প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়েছে। তফসিলি জাতি এবং গ্রামীণ কর্মীদের মধ্যে পুরুষ-মহিলাদের আয়ের পার্থক্য অনেকটাই বেশি । অক্সফ্যাম আরও বলেছে যে করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে ২০২২ সালের নভেম্বর পর্যন্ত ভারতে ধনকুবেরদের সম্পদ প্রকৃত অর্থে ১২১ শতাংশ বা প্রতিদিন ৩৬০৮ কোটি টাকা বেড়েছে।

সূত্র: আল জাজিরা ও এনডিটিভি


আরও খবর



সড়ক দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের ছয়জন নিহত

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শরীয়তপুরের জাজিরা এলাকায় ট্রাকের সঙ্গে অ্যাম্বুলেন্সের সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছেন। শরীয়তপুরের পদ্মাসেতুর দক্ষিণ থানা এলাকায় টোলপ্লাজার কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

শরীয়তপুর ফায়ার সার্ভিস-এর সহকারী উপ-পরিচালক সেলিম মিয়া জানান, মঙ্গলবার ভোরে বরিশাল থেকে অসুস্থ্ মা জাহানারা বেগমকে নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিলেন তার মেয়ে লুৎফুন নাহার লিমা, স্বাস্থ্যকর্মী ফজলে রাব্বি, সাংবাদিক মাসুদ রানা, গাড়ি চালক জিলানি ও গাড়ির সহকারি রবিউল ইসলাম। এসময় জাজিরায় পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার কাছে গতিরোধক পার হবার সময়, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি একটি ট্রাকে ধাক্কা দেয়। এতে অ্যাম্বুলেন্সটি দুমড়ে মুচড়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন অ্যাম্বুলেন্সের ছয় যাত্রী।


আরও খবর