Logo
শিরোনাম

লালমনিরহাটে মাদক বিক্রয়ে বাঁধা দেওয়ায় বাড়ীতে হামলা

প্রকাশিত:Saturday ০৭ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ 

জেলা সদরে উচাটারী গ্রামে মাদক বিক্রয়ে বাঁধা দেওয়ায় মাদক বিক্রেতা কর্তৃক খোরশেদা বেগমের বাড়ীতে হামলা,ভাংচুরের ঘটনায় সদর থানায় এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী খোরশেদা বেগম। অভিযোগ নথিতে জানা গেছে স্বপন,সুজন,সুমন, শরিফ হামিদুল ও মেহেদী সহ সংঘবদ্ধ একটি মাদক বিক্রেতা চক্রের কয়েকজন সদস্য উক্ত খোরশেদা বেগমের বাড়ীতে হামলা,ভাংচুর সহ লুটপাট করা সহ মারপিট করে।  এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট থানা সূত্র অভিযোগের বিষয়টি পেয়েছেন এবং তদন্ত করছেন মর্মে নিশ্চিত করেন।


আরও খবর



নওগাঁয় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ

প্রকাশিত:Friday ২০ January ২০23 | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

শুভ কাজে সবার পাশে'' এই শ্লোগান নিয়ে বসুন্ধারা গ্রুপের সহায়তায় নওগাঁর মান্দা উপজেলায় দেড়শ শীতার্ত মানুষের মাঝে (শীত নিবারনে গড়ম কাপড়) কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। দৈনিক কালের কণ্ঠ’র শুভসংঘ মান্দা উপজেলা শাখা শুক্রবার বিকেলে রেবা আখতার আলিম মাদ্রাসা মাঠে এসব কম্বল বিতরণ করেন।

এ উপলক্ষে শুভসংঘ মান্দা উপজেলা শাখার সভাপতি সাহাদত হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা  আবু বাক্কার সিদ্দিক, মান্দা থানার পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) মেহেদী মাসুদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবা সিদ্দিকা রুমা, শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, শুভসংঘের নওগাঁ জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আকরামুল ইসলাম, দৈনিক কালের কণ্ঠের নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি ফরিদুল করিম তরফদার ও মান্দা প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম।

শেষে ১৫০ জন অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়।


আরও খবর



রাণীনগরে সাবেক এমপির স্ত্রীর দখলে রাখা জমি ফেরতের দাবিতে মানব বন্ধন

প্রকাশিত:Sunday ০৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :


নওগাঁ-৬,(রাণীনগর-আত্রাই) আসনের সাবেক এমপি মরহুম ইসরাফিল আলমের স্ত্রী সুলতানা পারভিন বিউটির দখলে থাকা জমি ফেরৎ পেতে এবং মামলা হামলা থেকে মুক্তি পেতে মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ভুক্তভোগীরা। রোববার দুপুরে উপজেলার কাশিমপুর এলাকায় নওগাঁÑআত্রাই সড়কে এই মানব বন্ধন করা হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানব বন্ধনে ভুক্তভোগীরা বলেন, গত ২০১৫ সালে ইসরাফিল আলম এমপি কাশিমপুর মৌজায় প্রায় ৪০বিঘা জমি জবর দখল করে প্রাচীর দিয়ে “পল্লী শ্রী সম্বনিত কৃষি প্রদর্শনী খামার” গড়ে তোলেন। ওই সময় এলাকার গরীব অসহায়দের টাকা না দিয়ে জমি জোরপূর্বক দখলে নেয়। এছাড়া জমির মালিকরা জমি ছাড়তে না চাওয়ায় এলাকার সাদেকুল ইসলামসহ কয়েকজনকে কে “মিথ্যে”মামলায় হয়রানি ও নির্যাতন করে। এছাড়া জমি হারানোর শোকে বেশ কয়েকজন মারা গেছেন বলে দাবি করা হয়। এবিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেননা দাবি করে উল্লেখিত জবর দখলে রাখা জমি ফেরত পেতে এবং “মিথ্যা” মামলা,হত্যার হুমকিসহ সকল হয়রানী বন্ধে, প্রশাসনের ন্যায় বিচার এবং হকদারের নিকট জমি ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানব বন্ধন করে ভুক্তভোগীরা। কাশিমপুর ইউনিয়নের ভুক্তভোগী পরিবারের আয়োজনে এবং ভুক্তভোগী সাদেকুল ইসলামের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত মানব বন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন,মারিয়া বিবি,সুফিয়া বিবি,এবাদুল হক,আজিজার রহমান ও আব্দুস ছাত্তারসহ ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা।

এব্যাপারে মরহুম এমপি ইসরাফিল আলমের স্ত্রী সুলতানা পারভিন বিউটি বলেন,গড়ে তোলা খামারে সাদেকুলের জমি নিয়ে একটু ঝামেলা ছিল। গত ২জানুয়ারী একজন মন্ত্রীর উপস্থিতীতে বৈঠকে তা নিরসন হয়েছে। এর পরেও সে কেন এমন ঝামেলা করছে বুঝতে পারছিনা 


আরও খবর



বিশ্ব ইজতেমা শুরু

প্রকাশিত:Friday ১৩ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ৫৬তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। শুক্রবার বাদ ফজর উর্দুতে পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হকের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় ইজতেমার প্রথম পর্ব। এ বয়ান বাংলাসহ কয়েকটি ভাষায় অনুবাদ করে শুনানো হয়।

শুক্রবার জুমাবার হওয়ায় ইজতেমা ময়দানে একসাথে লাখো মুসল্লি জুমার নামাজ আদায় করবেন।বৃহত্তর এ জুমায় শরিক হতে গাজীপুর, ঢাকাসহ আশপাশের জেলা থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানের দিকে আসতে শুরু করেছেন। বেলা দেড়টার দিকে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। নামাজে ইমামতি করবেন মাওলানা জুবায়ের আহমদ। এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরের মধ্যেই মুসল্লিদের পদচারণায় পূর্ণ হয়ে যায় ইজতেমা মাঠ। ইজতেমা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন।


আরও খবর



কলমাকান্দা বাকলা নদীতে ব্রীজ নিমার্ণের এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image
সোহেল খান দূর্জয় : নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন উব্দাখালী (বাকলা) নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী জানিয়ে আসছে সরকারের কাছে এলাকাবাসী। 

এই বাকলা নদীতে ব্রীজটি নির্মিত হলে প্রায় ১০ থেকে ১৫টি গ্রামের জনজীবন যাপনে অনেকটা সুবিধা হবে, খেয়া দূর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবে মানুষ। তাছাড়া হাট বাজার, স্কুল মসজিদ মাদ্রাসা এবং উত্তরে পাকা রাস্তার যানজট ও দূর্ঘটনা এড়িয়ে নিরাপদে যাতায়াত করতে পারবে এলাকার ছাত্র-ছাত্রী ও মানুষেরা।

উপজেলার কয়ড়া মোড় থেকে কান্দাপাড়া  দাখিল মাদ্রাসা ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় প্রতিদিনই ৫ কিঃমিঃ কাঁচা রাস্তা দিয়ে পায়ে হেটে এলাকার মানুষ ও ছাত্র ছাত্রীরা স্কুল মাদ্রাসা হাটে জন প্রতি ১০ টাকায় খেয়া পারাপারে যাতায়াত করে থাকে।
এমতাবস্থায় স্থানীয় বাসিন্দারা কয়েক দফায় সরকারের কাছে আবেদন নিবেদন করলেও কে শুনে কার কথা, ৭৫ ফুট লম্বা ৫০ হাত প্রস্থ এই খেয়া পারাপারেই  তাদের জীবন। 

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ আসন আলী ও নোমান মিয়া জানান, স্বাধীনতার পূর্ব থেকেই এই কাঁচা রাস্তা দিয়ে এলাকার ছাত্রছাত্রী ও মানুষেরা পায়ে হেটে খেয়াঘাট পাড়ি দিয়ে কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসায় ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয় বাজারে যাতায়াত করে থাকে। বর্ষাকালে আমরা আমাদের ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে আতংকে থাকি খেয়াঘাট ও হেমন্তে বাঁশের চাটায়ে পারাপার ভয়ে!

কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী মহুয়া হাসান জানান, আমরা প্রতিদিনেই এই রাস্তা দিয়ে মাদ্রাসায় আসা যাওয়া করি, যদি এখানে একটি ব্রীজ হতো তাহলে ভালো হতো, নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র হানিফ জানান, বর্ষাকালে দূর্গাপুর সুমেশ্বরীর পাহাড়ী ঢলের মাঝেও এই নদী নৌকায় পাড় হয়ে স্কুলে যেতে হয়,এখানে একটা ব্রীজ হলে ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুবিধা হতো। 

বর্তমান নাজিরপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল আলী বলেন, কতবার শুনেছি চয়েলটেষ্ট হচ্ছে নিজেও কতবার বলেছি কিন্তু কেন যে হচ্ছে না বুঝিনা, এই নদীটির ওপর একটি ব্রীজ জনগুরুত্বপূর্ণ, এলাকাবাসীরও দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী এই বাকলা নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের জন্য।

আরও খবর



মোংলায় বিশ্ব জলাভূমি দিবসে বক্তারা

দূষণ ও দখলের কবল থেকে ম্যানগ্রোভ জলাভূমি সুন্দরবনকে বাঁচাও

প্রকাশিত:Thursday ০২ February 2০২3 | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট :

 প্লাস্টিক এবং শিল্প দূষণ ও দখলের কবল থেকে বিশ্ব ঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ জলাভূমি সুন্দরবনকে বাঁচাও। পরিবেশের ভারসাম্য, জীববৈচিত্র, কৃষি, মৎস্যসহ খাদ্য নিরাপত্তার অবিচ্ছেদ্য অংশ হলো জলাভূমি। বাংলাদেশে জীববৈচিত্রের ক্ষেত্রে সমৃদ্ধ উদাহারণ হলো সুন্দরবন। প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময়ে এই সুন্দরবন আমাদের মায়ের মতো আগলে রাখে। বিশ্ব ঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ জলাভূমি সুন্দরবনসহ দেশের সকল জলাভূমি রক্ষায় সরকারকে যথাযথ উদ্যোগ নিতে হবে। ২ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষে  মোংলার কাপালিরমেঠ বিলে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ ও পশুর রিভার ওয়াটারকিপারের আয়োজনে ”সুন্দরবন বাঁচাও” শীর্ষক মানববন্ধনে বক্তারা একথা বলেন।

বৃহস্পতিবার বেলা ১২টায় বিশ্ব জলাভূমি দিবসের ”সুন্দরবন বাঁচাও” শীর্ষক মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাপা মোংলা আঞ্চলিক শাখার আহ্বায়ক মোঃ নূর আলম শেখ। মানবন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাপা নেতা নাজমুল হক, রাকেশ সানা, শেখ রাসেল, হাছিব সরদার, ছবি হাজরা প্রমূখ। মানববন্ধনে বক্তারা আরো বলেন সম্প্রতি ব্রাজিলের তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় , বাংলাদেশের দুটি বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ পরমানু শক্তি কমিশনের ফুড সেফটি এন্ড কোয়ালিটি ডিভিশনের এক যৌথ গবেষণায় সুন্দরবন সংলগ্ন পশুর নদী, মোংলা নদী ও রূপসা নদীর ১৭ প্রজাতির মাছ মাইক্রো প্লাস্টিকের সংক্রমিত হওয়ার ভয়াবহ তথ্য বেরিয়ে এসেছে। প্লাস্টিক দূষণের ফলে সামুদ্রিক মাছ এখন হুমকির মুখে। আর মাইক্রো প্লাস্টিকে সংক্রমিত মাছ খেলে লিভার ও কিডনি ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হবে। ”সায়েন্স অব দ্য টোটাল এনভায়রনমেন্ট” জার্নালে প্রকাশিত গবেষণা থেকে এসব তথ্য জানা যায়।  তাই দূষণ ও দখলের কবল থেকে বিশ্ব ঐতিহ্য ম্যানগ্রোভ জলাভূমি সুন্দরবন পুনরুদ্ধারের এটাই সময়। সুন্দরবনের খালে বিষ দিয়ে মাছ মারা, নদীতে প্লাস্টিক বর্জ্য ফেলা ও শিল্প দূষণের কবল থেকে সুন্দরবন রক্ষার আমাদের দৃঢ় অঙ্গীকার ও শপথ নিতে হবে। 


আরও খবর