Logo
শিরোনাম

মহাযজ্ঞ উদ্বোধন আজ

প্রকাশিত:রবিবার ২০ নভেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

ইয়াশফি রহমান :  স্বপ্নের আল বায়াত স্টেডিয়ামে হবে স্বপ্নযাত্রার সূচনা। আজ রাত ৮টা। হয়তো থেমে যাবে সব ব্যস্ততা। চোখ জোড়া লেপ্টে যাবে ওই টিভি সেটের সামনে। কাতার মহাযজ্ঞের শুরুটা হবে যেখানে। কৌতূহলের তুঙ্গে তাই কী থাকবে বিশ্বকাপের উদ্বোধনীতে।

কাতারের ইতিহাস-ঐতিহ্য নিয়ে থাকবে বিশেষে প্রদর্শনী। উঠে আসবে মরুর বুকে কীভাবে ফুটল ফুল। বিশাল সব ইমারতের পেছনের গল্প। বিশ্বকাপের ইতিহাসও পাবে প্রাধান্য। এরপর সুরের মূর্ছনায় হারিয়ে যাওয়ার পালা। ২২তম আসরের অফিশিয়াল থিম সং ‘দ্য ওয়ার্ল্ড ইজ ইউরস টু টেক’ গাইবেন লিও বেবি। তার সঙ্গে বিশেষ পারফর্ম করবেন বলিউড হার্ডথ্রুব নোরা ফাতেহি। নোরার সঙ্গে থাকবেন মানাল ও রেহমা।

জোর গুঞ্জন আছে গাইবেন শাকিরা আর কিজ ড্যানিয়েলও। কিন্তু বিষয়টি এখন পর্যন্ত রহস্যই রেখে দিয়েছেন আয়োজকরা। তবে কোরিয়ার বিখ্যাত ব্যান্ড বিটিএসের গান, তৈরি করবে ভিন্ন আবহ। যেখানে চমক বিটিএসের সর্বকনিষ্ঠ সদস্য জাংকুক। যিনি অংশ হতে যাচ্ছেন এই সাউন্ডট্র্যাকের। এ ছাড়াও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেখা যেতে পারে পপগায়িকা দুয়া লিপা, ব্ল্যাক আইড পিস, জে বালভিন ও নাইজেরিয়ার সংগীতশিল্পী প্যাট্রিক নায়েমেকা ওকোরিকে। স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনাও পাবে বিশেষ স্থান। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে প্রদর্শন করা হবে বিশ্বকাপের অফিশিয়াল মাসকট লা’ইব। আরবি যার অর্থ অতি দক্ষ খেলোয়াড়। এরপর শুরু হবে আতশবাজির ঝলকানি। আর এরই মধ্যে শেষ হবে জমকালো আয়োজন। স্টেডিয়ামে সরাসরি যা উপভোগ করবেন ৬০ হাজার দর্শক। এরপরই ইকুয়েডর-কাতার ম্যাচের রোমাঞ্চ।

২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ ইতিহাসে ২২তম বিশ্ব ফুটবলের আসর। আজ থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত কাতারে অনুষ্ঠিত হবে এই বিশ্ব ফুটবলের মহারণ। এই প্রথমবারের মতো মধ্যপ্রাচ্যের কোনো দেশে ও এশিয়ায় দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ আয়োজিত হতে যাচ্ছে। এর আগে ২০০২ সালে দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে যৌথভাবে বিশ্বকাপ আয়োজিত হয়েছিল। এবারই শেষবারের মতো ৩২টি দেশের অংশগ্রহণে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে। ২০২৬ সালে যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কানাডায় আয়োজিত টুর্নামেন্টে ৪৮টি দেশ অংশ নেবে।

২০০৯ সালে জানুয়ারিতে ২০১৮ ও ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক হতে আগ্রহীদের বিডিং প্রক্রিয়া শুরু হয়। ২০১৮ টুর্নামেন্ট আয়োজনের গ্যারান্টি পাওয়ার পর ২০২২ বিশ্বকাপের বিডিং থেকে সব ইউরোপিয়ান দেশ তাদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়। শেষ পর্যন্ত ২০২২ বিশ্বকাপের জন্য পাঁচটি বিড টিকে ছিল : অস্ট্রেলিয়া, জাপান, কাতার, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। ২২ সদস্যের ফিফা কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১০ সালের ২ ডিসেম্বর ভোটের মাধ্যমে উভয় টুর্নামেন্টের আয়োজক দেশ বেছে নেয়।

কাতারের প্রচন্ড গরমের কথা বিবেচনা করে প্রথমবারের মতো জুন-জুলাই থেকে সরিয়ে টুর্নামেন্ট নভেম্বর-ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। একই সঙ্গে টুর্নামেন্টে পরিধি কমিয়ে এনে ২৯ দিনে শেষ করা হচ্ছে। আগামী ১৮ ডিসেম্বর কাতারের জাতীয় দিবসে টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। চার বছর আগে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ক্রোয়েশিয়াকে ৪-২ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ফ্রান্স।

বিশ্বকাপের স্বত্ব পাওয়ার পর থেকেই পুরো কাতারজুড়ে আটটি নতুন স্টেডিয়াম তারা নির্মাণ করেছে। নির্মাণকৃত স্টেডিয়ামগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়াম। দোহার ১৫ কিলোমিটার উত্তরে ২ লাখ জনসংখ্যার পরিকল্পিত একটি শহর লুসাইল। সেখানেই গড়ে তোলা হয়েছে ৮০ হাজার ধারণক্ষমতাসম্পন্ন লুসাইল স্টেডিয়াম। এই স্টেডিয়ামে আগামী ১৮ ডিসেম্বর টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। আজ কাতার বনাম ইকুয়েডরের মধ্যকার উদ্বোধনী ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আল-খোরের আল-বায়াত স্টেডিয়ামে। এ ছাড়া অন্যান্য ভেন্যু হলো : এডুকেশন সিটি স্টেডিয়াম, আহমাদ বিন আলি স্টেডিয়াম, খালিফা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়াম, আল থুমামা স্টেডিয়াম, স্টেডিয়াম ৯৭৪ এবং আল-জানুব স্টেডিয়াম।

কাতার বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া ৩২ দেশের মধ্যে ২৪টি দেশই চার বছর আগে রাশিয়ায় খেলেছে। ১৯৩৪ সালে ইতালির পর আয়োজক দেশ হিসেবে একমাত্র কাতার প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে। নেদারল্যান্ডস, ইকুয়েডর, ঘানা ও ক্যামেরুন রাশিয়ায় খেলতে ব্যর্থ হওয়ার পর আবারও বিশ্বমঞ্চে ফিরেছে। ১৯৮৬ সালে একমাত্র বিশ্বকাপ খেলা কানাডা ৩৬ বছর পর ফিরে এসেছে। অন্যদিকে ইউরোপিয়ান দল হিসেবে ১৯৫৮ সালের ৬৪ বছর পর দ্বিতীয় বিশ্বকাপ খেলতে যাচ্ছে ওয়েলস। ফিফা বিশ্ব র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ ১০ দলের মধ্যে একমাত্র বাদ পড়েছে ষষ্ঠ স্থানে থাকা ইতালি। এ নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপে খেলতে ব্যর্থ হলো আজ্জুররিা। সর্বনিম্ন ৬১তম র‌্যাংকে থেকে মাঠে নামবে ঘানা।

৩২ দেশ আটটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে প্রথম পর্বে লড়াই করবে। ২০ নভেম্বর-২ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে গ্রুপ পর্বের খেলা। প্রতিটি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুটি দল নকআউট পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। ৩-৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত শেষ ১৬ এবং ৯-১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত হবে কোয়ার্টার ফাইনালের খেলা। ১৩ ও ১৪ ডিসেম্বর হবে দুটি সেমিফাইনাল। ১৭ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ। ১৮ ডিসেম্বর হবে বহুল প্রতীক্ষিত ফাইনাল। প্রখ্যাত ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাডিডাসের সঙ্গে ফিফার সম্পর্কটা বেশ পুরোনো। ১৯৭০ সাল থেকে বিশ্বকাপের প্রতি আসরের জন্য বল প্রস্তুত করে আসছে এই প্রতিষ্ঠান।

এবারও ব্যতিক্রম হয়নি। গত মার্চে কাতার বিশ্বকাপের জন্য তৈরি বলটি উন্মোচন করে ফিফা। যার নাম ‘আল রিহলা’। আরবি ভাষায় শব্দটির অর্থ ভ্রমণ। কাতারের পতাকা, ঐতিহ্যবাহী নৌকা, স্থাপত্য ও সংস্কৃতি থেকে অনুপ্রাণিত হয়েই তৈরি করা হয়েছে বলটি। যেখানে ২০টি প্যানেলের ডিজাইন ব্যবহার করেছে অ্যাডিডাস। প্যানেলগুলো ত্রিভুজাকৃতির। যা মধ্যপ্রাচ্যের ‘ধো’ নৌকাকে মনে করিয়ে দেয়। প্যানেলের দুই দিক বিভিন্ন রঙে, যা কাতারের পতাকা ও আরবের ঐতিহ্যবাহী সাদা পোশাককে ফুটিয়ে তুলেছে।

দল গুলো কাড়ি কাড়ি ডলার খরচ করা কাতার নেমেছে হিসেব কষেই। আট স্টেডিয়ামে ফুটবল তারকাদের পায়ের জাদুতে বুঁদ হয়ে থাকবেন সমর্থকরা। ফিফা জানিয়েছে, মোট তিন মিলিয়ন টিকিট বিক্রি করেছে। শুধু টিকিট বিক্রি থেকেই ফিফা রেকর্ড রেভেনিউ পেতে পারে। রাশিয়া বিশ্বকাপে টিকিট বিক্রি থেকে ফিফার আয় ছিল ৫.৪ বিলিয়ন ডলার। এবার সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে বলেই রিপোর্টে এসেছে। এর পেছনে কারণ, ম্যাচ টিকিটের দাম বৃদ্ধি। ধারণা করা হচ্ছে, এবারের বিশ্বকাপে চোখ রাখবে বিশ্বের প্রায় ৫০০ কোটি মানুষ।



আরও খবর

ডু অর ডাই ম্যাচ মেসিদের

শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২

আর্জেন্টিনাকে মাটিতে নামাল সৌদি

বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২




গজারিয়ায় অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

গজারিয়া প্রতিনিধি : মুন্সগঞ্জের গজারিয়ায় ছয় কিলোমিটার অবৈধ গ্যাস লাইন বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ। লাইনটির মাধ্যমে প্রায় দশ হাজার অবৈধ সংযোগ চলতো বলে তিতাসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। 

গজারিয়া উপজেলার লস্করদী-ভবানীপুর এলাকা থেকে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গজারিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) জি.এম. রাশেদুল ইসলাম।

তিতাস গ্যাসের সোনারগাঁ আঞ্চলিক বিপণন বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী সুরুজ আলম বলেন, গজারিয়া উপজেলার লস্করদী-ভবানীপুর এলাকার হোসেন্দী, হোসেন্দী বাজার এলাকা, ভবানীপুর, লস্করদী, নাজির চর গ্রাম পর্যন্ত প্রায় ছয় কিলোমিটার অবৈধ গ্যাস বিতরণ লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়। লাইনটির মাধ্যমে অন্তত ১০ হাজার সংযোগ চালু ছিল। গজারিয়া উপজেলায় আরো কিছু অবৈধ গ্যাস লাইন চালু আছে বলে আমরা খবর পেয়েছি। পর্যায়ক্রমে অভিযান পরিচালনা করে সবগুলো লাইন বিচ্ছিন্ন করা হবে।

উল্ল্যেখ গজারিয়ার প্রায় প্রতিটি গ্রামে অবৈধ গ্যাস লাইনের ছড়াছড়ি ,তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ এর আগেও বেশ কয়েকবার

সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গেলে মধ্য বাউশিয়া, লক্ষিপুর সহ বিভিন্ন গ্রামের মহিলা পুরুষ রাস্তায় নেমে অরাজগতা সৃষ্টি করে ।

আর এর সাথে সরকারি দলের নেতারা জড়িত ।


আরও খবর



র‌্যাবের অভিযানে চাঞ্চল্যকর ক্লুলেস হত্যা মামলার দুই আসামী আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ

র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট কাম্পের পৃথক অভিযানে চাঞ্চল্যকর ক্লুলেস হত্যা মামলার  দু' জন আসামী গ্রেফতার।

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট কাম্প থেকে জানানো হয়,

গত ২০ নভেম্বর ২০১৭ তারিখে জয়পুরহাট জেলার সদর থানার চকবরকত ইউনিয়নের অন্তর্গত নওপাড়া গ্রামস্থ পল্লীবালা বাজারের পশ্চিম পার্শ্বে জনৈক জয়নাল আবেদীন এর পুকুরের দক্ষিণ পার্শ্বে গাছের ডালের সাথে একই গ্রামের মোঃ সাহেব আলীর (৫১) ছেলে ওয়াজ কুরুনী ওরফে সজীব (২২) এর ঝুলন্ত অবস্থায় মৃতদেহ পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে জয়পুরহাট সদর থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশি তদন্তে ৬ জন অভিযুক্তের নাম উঠে আসে। এর মধ্যে মোঃ আব্দুল মোমিন (৩০) ও মোঃ সাবিরুল (২৯) অন্যতম। পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে অভিযুক্ত মোঃ আব্দুল মোমিন (৩০) ও মোঃ সাবিরুল (২৯) এর অবস্থান সনাক্ত করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল কোম্পানী কমান্ডার মেজর মোঃ মোস্তফা জামান, আর্টিলারি ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানা এর নেতৃত্বে মঙ্গলবার ১ নভেম্বর ১১ টারদিকে জয়পুরহাট জেলা সদর থানাধীন পুরানাপৈল এলাকা হতে মোঃ আব্দুল মোমিন (৩০), পিতা-মোঃ কিনু মন্ডল, সাং-খাসবাগুড়ি, থানা-পাঁচবিবি, জেলা-জয়পুরহাট এবং একই দিন সারে ১১ টারদিকে জয়পুরহাট জেলার সদর থানাধীন গতন শহরের মোড় এলাকা হতে মোঃ সাবিরুল (২৯), পিতা-মৃত ওয়াহাব আলী ওরফে ওয়াহেদ, সাং-খাসবাগুড়ি, থানা-পাঁচবিবি, জেলা-জয়পুরহাটদ্বয়কে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামীদ্বয়কে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সিআইডি কার্যালয়, জয়পুরহাটে জিডি মূলে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর



সড়কে-ফুটপাতে রাখা নির্মাণসামগ্রী নিলামে

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

রাজধানীর একটি সড়ক ও ফুটপাত দখল করে রাখা নির্মাণসামগ্রী ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে তাৎক্ষণিক নিলামে সাড়ে ১২ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। এ ছাড়া একটি আবাসন প্রতিষ্ঠানের তৈরি করা অবৈধ পাঁচটি লোহার ফটক ভেঙে সেগুলোও নিলামে প্রায় ১৫ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) অঞ্চল-৫-এর আওতাধীন রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের চন্দ্রিমা হাউজিং এলাকায় ওই অভিযান চালানো হয়। অভিযান পরিচালনা করেন আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতাকাব্বীর আহমেদ।

ঢাকা উত্তর সিটির কর্মকর্তারা জানান, আবাসিক ওই এলাকায় একটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনে রাস্তা ও ফুটপাতে ইট রেখে বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। পরে ওই ইট ১৩ হাজার টাকা, ভ্যাট ও আয়করসহ ১৪ হাজার ৬২৫ টাকায় বিক্রি করা হয়। পাশের আরেকটি নির্মাণাধীন ভবনের সামনের রাস্তা ও ফুটপাতের জায়গা দখল করে বালু, ইটের খোয়া ও রড রাখা হয়েছিল। সেগুলো তাৎক্ষণিকভাবে নিলামে তোলা হয়। নিলামে ভ্যাট ও আয়করসহ সেগুলো ১২ লাখ ৫৬ হাজার ৮৭৫ টাকায় বিক্রি হয়।

এ ছাড়া চন্দ্রিমা হাউজিং আবাসন প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন জায়গায় অবৈধভাবে ৫টি লোহার ফটক তৈরি করে রেখেছিল। সেগুলো ভেঙে ফেলা হয়। পরে ওই ফটকগুলো নিলামে ৪৬ হাজার ১২৫ টাকায় বিক্রি করা হয়।

মোতাকাব্বীর আহমেদ বলেন, জনসাধারণের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করায় নির্মাণসামগ্রী জব্দ করা হয়। পরে সেগুলো জনসমক্ষে উন্মুক্ত স্থানে প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রি করা হয়। তিনি আরও বলেন, আবাসন প্রতিষ্ঠানের ৫টি অবৈধ ফটক ভাঙা হয়েছে। বাকি যে কয়টি ফটক রয়েছে, তা প্রতিষ্ঠানকে আগামী সাত দিনের মধ্যে অপসারণ করার নির্দেশ দেওয়া হয়।


আরও খবর

ই-টিকেটিংয়ে বন্ধ অতিরিক্ত ভাড়া

শুক্রবার ২৫ নভেম্বর ২০২২




নওগাঁয় বিজিবি'র উপর হামলা, মূলহোতা বাবা ও ছেলেকে আটক

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ


নওগাঁর সীমান্ত এলাকায় মাদক চোরাকারবারি কর্তৃক বিজিবি'র টহল দলের উপর হামলার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত বাবা ও ছেলেকে আটক করেছে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, কাম্পের চৌকস অভিযানিক দল। আটককৃতরা নওগাঁর পার্শ্ববর্তী জয়পুরহাট জেলার সীমান্ত দিয়ে পার্শ্ববর্তী দেশে পালানোর সময় র‌্যাব তাদের আটক করেন।

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট কাম্প থেকে প্রতিবেদককে জানানো হয়, র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের বিশেষ অভিযানে বিজিবি সদস্যদেরকে কুপিয়ে গুরুতর জখমকারী দু' জন প্রধান আসামি বাবা ও ছেলেকে গ্রেফতার পূর্বক থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। র‌্যাব আরো জানায়,


গত শুক্রবার ৪ নভেম্বর বিজিবি জেসিও নায়েব সুবেদার মোঃ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ৩ জন অন্যান্য পদবীর সদস্য সহ ১৪ বিজিবি (পত্নীতলা) ব্যাটালিয়ন এর অন্তর্গত নওগাঁ জেলার ধামইরহাট উপজেলার সীমান্তবর্তী বস্তাবর সীমান্ত এলাকায় টহলে বের হয়। এবং রাত আনুমানিক সারে ৩ টারদিকে বস্তাবর সীমান্ত এলাকায় ৮/১০ জন অবৈধ মাদক ব্যবসায়ী মাদকদ্রব্য বহন করে নিয়ে আসতেছিল। এই দৃশ্য টহল টিমের নজরে আসলে দায়িত্বরত টহল টিম তাদেরকে আটক ও অবৈধ মাদক দ্রব্য উদ্ধারের চেষ্টা করলে এসময় আসামীগণ চাপাতি, চাইনিজ কুড়াল, হাসুয়াসহ বিভিন্ন ধরণের ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে বিজিবি'র টহল কমান্ডার সহ ৩ জন বিজিবি সদস্যকে কুপিয়ে জখম করের। এর মধ্যে টহল কমান্ডার জেসিও নায়েব সুবেদার মোঃ মুজিবুর রহমানের অবস্থা আশংকাজনক। তার মাথা ও পিঠের গভীরে হাসুয়া ঢুকে যায়। অন্যান্য সদস্যদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর আঘাত করে মাদক ব্যবসায়ীরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে আক্রমনকারী মাদক চোরাকারবারীদের সনাক্ত করে নওগাঁ জেলার ধামইরহাট থানায় ১৪ বিজিবি (পত্নীতলা) ব্যাটালিয়ন ৭ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত ৮/১০ জন চোরাকারবারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এরপর র‌্যাব এজাহারপ্রাপ্ত হয়ে র‌্যাব এর গোয়েন্দা শাখার সহায়তায় ছায়া তদন্ত শুরু করে এবং গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রাখে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার ৭ নভেম্বর পূর্বরাতে জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্প কমান্ডার মেজর মোঃ মোস্তফা জামান, আর্টিলারি এর নেতৃত্বে একটি চৌকস আভিযানিক দল জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি থানাধীন ধুরইল সীমান্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় বিজিবি সদস্যদের উপর আক্রমনকারী ও ১নং এজাহার নামীয় প্রধান আসামি মোঃ রেজাউল করিম ওরফে গুপ্তা (৫৫), পিতা- মৃত তসির উদ্দিন এবং ২নং এজাহার নামীয় আসামী মোঃ মেহেদী হাসান ওরফে রাজু (২৫), পিতা- মোঃ রেজাউল করিম ওরফে গুপ্তা উভয় সাং- রসুলবিল (ধন্দুপাড়া), থানা-ধামুইরহাট, জেলা-নওগাঁদ্বয়কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় এবং গ্রেফতারকৃতদের দেয়া তথ্য ও দেখানো মতে একটি হাসুয়া উদ্ধার করেন র‌্যাব।

পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃত আসামী বাবা ও ছেলেকে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নওগাঁ জেলার ধামুইরহাট থানায় জিডি মূলে হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও নিশ্চিত করেছে র‌্যাব।


আরও খবর



পাংশায় বিশ্ব এন্টিমাইক্রোবিরিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ উপলক্ষে সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 রাজবাড়ী, প্রতিনিধি ঃ

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রর সম্মেলন কক্ষে বেলা ১১ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মাদ হাসানাৎ আল মতিন এর সভাপতিত্বে এন্টিবায়োটিক রেজিষ্ট্যান্স সহনীয় মাত্রায় আনায়নের জন্য চিকিৎসক সহ সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মাসুুর রহমান রুবেল প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন বিশেষ অতিথি ছিলেন পাংশা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রতন কুমার ঘোষ, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আজাহার উদ্দিন, পাংশা উপজেলা আবাসিক ম্যাডিকেল অফিসার তরুন কুমার পাল প্রমুখ। অনুষ্ঠান সজ্ঞালনা করেন উপজেলা সেনেটারী ইন্সিপেক্টর ও নিরাপদ খাদ্য পরিদর্শক তৈয়বুর রহমান। 

বক্তাগণ বলেন , সারাবিশ্ব জুরে এন্টিবায়োটিক রেজিষ্ট্যান্স একটি জনস্বাস্থ্য সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে এবং জীবাণু সমূহ এন্টিবয়োটিকের প্রতি তাদের প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করেই চলছে। জীবাণু সমূহ বহু প্রকার এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে পড়ছে। এমতাবস্থায় এন্টিবায়োটিক রেজিষ্ট্যান্স সহনীয় মাত্রায় আনয়নের জন্য সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে সচেতনতা বৃদ্ধি এখনই জরুরী।


আরও খবর