Logo
শিরোনাম

মিরপুরের বাসে শুরু হয়েছে ই-টিকেটিং

প্রকাশিত:Sunday ১৩ November ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

২৭টি কোম্পানি এক যোগে চালু করলো ই-টিকেটিং ব্যবস্থা। রাজধানীর মিরপুরের বাসগুলোতে এই পদ্ধতি চালু করে সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি।

চার্ট অনুযায়ী আদায় করা হচ্ছে ভাড়া। স্বস্তি ফিরেছে যাত্রীদের মাঝে। যাত্রীরা বলছেন এর ফলে অতিরিক্ত ভাড়া নেয়ার যে অভিযোগ ছিল তা এখন অনেকটাই কম। ৩০টি বাসের এই পদ্ধতি চালু করার কথা থাকলেও শুরু হয়েছে ২৭ টাইট। বাকি তিনটি কোম্পানিতে শিগগিরই চালু করার কথা জানিয়েছে বাস মালিক নেতারা। এর আগে সেপ্টেম্বর মাসে মিরপুর এলাকায় ৮টি কোম্পানির বাসে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছিলো ই-টিকেটিং ব্যবস্থা। 


আরও খবর



মেট্রোরেল ব্যবহারে যত্নবান হওয়ার আহবান প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

মেট্রোরেল ব্যবহারে আরও যত্নবান হওয়ার আহবান জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেই মেট্রোরেল নির্মাণ করা হয়েছে। তাই এর প্রতি সবাইকে যত্নশীল হতে হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে, মন্ত্রিসভা বৈঠকে এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। সভার শুরুতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত নানাভাবে বাধা দেয়া হয়েছে, ষড়যন্ত্র হয়েছে। মেট্রোরেলের ক্ষেত্রেও নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে। শেষ পর্যন্ত কোন বাধাই টিকতে পারেনি। প্রধানমন্ত্রী জানান, তার পরিকল্পনাতেই মেট্রোরেলের লাইন মতিঝিলের পরিবর্তে কমলাপুর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জে বিএনপির সভায় ড. আসাদুজ্জামান রিপন

দেশ তো খাদের কিনারে নাই খাদের মধ্যে পরে গেছে

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :


বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল - বিএনপির নির্বাহী কমিটির বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, নির্বাচন ব্যবস্থা, অর্থনৈতিক ব্যবস্থার পরিবর্তন করতে হবে, দেশে এখন তো একটি ভালো সরকার দরকার।

আজ সোমবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের একটি কমিউনিটি সেন্টারে বিএনপির ঘোষিত যুগপৎ আন্দোলনের ১০ দফা ও রাষ্ট্র কাঠামোর মেরামতের রূপরেখা ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, দেশের দুর্দশা যারা তৈরী করেছে, যারা এই দুর্দশার জন্য দায়ী তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছি তাঁদেরকে ক্ষমতা থেকে নামাতে হবে। ক্ষমতা থেকে নামতে বললেই বলেন ষড়যন্ত্র করছি, তা আপনি কোন যন্ত্র নিয়ে বসে আছেন, ইভিএম যন্ত্র নিয়ে ক্ষমতায় থাকবেন আর আমরা আন্দোলনের কথা বললেই বলেন ষড়যন্ত্র এটাতো হতে পারেনা।

তিনি আরও বলেন, আমাদের একটা তত্ত¦াবধায়ক ব্যবস্থা আসা দরকার। আমার দেশের মানুষ যদি পছন্দ করে তত্ত¦াবধায়ক সরকার, তারা যদি মনে করে তত্ত¦াবধায়ক সরকার ব্যবস্থায় তারা খুশি তাহলে তত্ত¦াবধায়ক সরকার ব্যবস্থায়ই তো আমরা ইলেকশন করবো। আর ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেন যে পৃথিবীর কোন সভ্য দেশে নাকি তত্ত¦াবধায়ক সরকার ব্যবস্থা নেই, তো পৃথিবীর অন্য সভ্য দেশের মত আপনারা কি সভ্য কাজ করেন?

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন খান এর সভাপতিত্বে, সদস্য সচিব আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মাশুকুল ইসলাম রাজীব, রহিমা শরীফ মায়া, দিলারা মাসুদ ময়নাসহ অনেকে।


আরও খবর



রাণীনগরে শীতকালীন পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ)


নওগাঁর রাণীনগরে শীতকালীন পিঠা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। গ্রাম বাংলার হারিয়ে যাওয়া ঐতিহ্যবাহি পিঠাকে সবার সামনে নতুন করে তুলে ধরতে সোমবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

রাণীনগর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু।এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইন,সহকারী কমিশনার(ভূমি) হাফিজুর রজমান জেলা পরিষদ সদস্য জাকির হোসেন জয়,রাণীনগর উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান জারজিস হাসান মিঠু,উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: কেএইচএম ইফতেখার খন্দকার,প্রাণি সম্পদ দপ্তর কর্মকর্তা কামরুননাহার আকতার মুন্নি,কৃষি কর্মকর্তা শহিদুল ইসলামসহ উপজেলা দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ও গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উৎসবকে প্রানবন্ত করতে ষ্টল বসিয়ে রাণীনগর শের-এ বাংলা ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়,মহিলা অনার্স কলেজ,সরকারী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং উপজেলার বিভিন্ন কার্যালয় অংশগ্রহন করে। স্টলে জামায় পিঠা,নারিকেলি পিঠা,পুলি পিঠা,কুশলি পিঠা,পাকান পিঠা,নকসি জিলাপি পিঠা,গোলাপ পিঠা,সঙ্খ পিঠাসহ নানান ধরনের বিলুপ্ত প্রায় পিঠা তৈরি করে প্রদর্শণ করা হয়। এছাড়া সন্ধায় পরিষদ চত্বরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন সংশ্লিষ্ঠরা। 


আরও খবর



পাকিস্তানজুড়ে বিদ্যুৎ বিভ্রাট

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

পাকিস্তান জুড়ে সোমবার সকালে বিদ্যুৎ বিভ্রাট দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি এতোটাই ব্যাপক যে, রাজধানী ইসলামাবাদের পাশাপাশি লাহোর ও করাচির মতো বড় শহরসহ দেশের বিশাল অংশে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের প্রভাব পড়েছে।

দেশটির জ্বালানি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, জাতীয় গ্রিডের ফ্রিকোয়েন্সি সিস্টেম সোমবার সকাল ৭টা ৩৪ মিনিটে ডাউন হয়ে গেলে বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনায় ব্যাপক বিভ্রাট দেখা দেয়। ‘সিস্টেম রক্ষণাবেক্ষণের কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে বলেও জানানো হয়। এদিকে সংবাদমাধ্যম জিও নিউজের সাথে এক সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের জ্বালানি মন্ত্রী খুররম দস্তগীর বিদ্যুৎ বিভ্রাটকে ‘বড় ধরনের কিছু নয়’ বলে মন্তব্য করেছেন। দেশটির গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, রাজধানী ইসলামাবাদ, করাচি, কোয়েটা, পেশোয়ার এবং লাহোরসহ পাকিস্তানের বিশাল অংশ বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে।


আরও খবর



জমে উঠেছে লোককারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে চলছে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনে চলছে মাসব্যাপী লোককারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব। দেশের ঐহিত্যবাহী লোককারু শিল্পের নিদর্শন সংগ্রহ সংরক্ষন, প্রদর্শন ও পুনরুজ্জীবিত করে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার জন্যই প্রতি বছর এ মেলার আয়োজন। দর্শনার্থীদের কাছে সব আয়োজন ঠিকঠাক থাকলেও অভিযোগ উঠেছে মূল ভিষণ থেকে সরে যাচ্ছে ফাউন্ডেশন, চারুকারু শিল্পীদের দেয়া হয়নি পর্যাপ্ত স্টল, কনস্ট্রাকশন কাজ বিনষ্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক রূপ।

বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ভেতরে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন কারুশিল্প যাদুঘর এবং লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর।  গ্রাম বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক এ দুটি যাদুঘরে স্থান পেয়েছে প্রাচীন লোক ও কারুশিল্প।  মাসব্যাপী এ উৎসবেকে কেন্দ্র করে পুরো ফাউন্ডেশন চত্বরকে সাজানো হয়েছে বর্নিল সাজে।  প্রতিদিনই বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রদর্শন করছে লোক জীবন প্রদর্শনী,গ্রাম্য নালিশ,কনে দেখা, বিয়ে,জামাইকেও পিঠা আপ্যায়নের দৃশ্য, গ্রামীন খেলা হা-ডু-ডু ও কানামাছি। 

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা কারুশিল্পীদের প্রদর্শনী,  পুতুল নাচ, বায়স্কোপ, নাগর দোলা, মুন্সিগঞ্জ ও মৌলভী বাজারের শীতল পাটি, মাগুরা ও ঝিনাইদহের শোলা শিল্প, রাজশাহীর শখের হাড়ি ও মুখোশ, চট্টগ্রামের তালপাতার হাতপাখা, রংপুরের শতরঞ্জি, সোনারগাঁওয়ের জামদানী নিয়ে অংশ গ্রহন করেছেন চারু কারু শিল্পিরা। 

এদিকে দর্শনার্থীদের বিনোদনকে আরো প্রানবন্ত করতে ফাউন্ডেশনের ভেতরের লেকে নৌকায় চড়ে ঘুরে বেড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিদিন সন্ধ্যায় লোকজ এই উৎসবে থাকছে পালাগান, বাউল ও জারিসারি গানের।করোনা ভাইরাসের কারনে গত কয়েক বছর মেলা বন্ধ থাকায় এবার অন্তত একলাখ দর্শনার্থী লোকজ এ উৎসবে অংশ নেবেন বলে আশাবাদী আয়োজকরা।

মেলায় দর্শনার্থীরা গ্রামীন এসব ঐতিহ্যে দেখে ও ছেলে মেয়েদের পরিচয় করিয়ে দিতে পেরে অনেকটাই আবেগ আপ্লুত। 

এদিকে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত শিল্পিরা জানালেন প্রতিবছরই এ মেলায় অংশ গ্রহণ করেন তারা। তবে প্লাস্টিক ও বিদেশী পণ্যের দাপটে আজ বিপন্ন হওয়ার পথে এসব গ্রামীন ঐতিহ্য। বংশ পরম্পরায় অংশ গ্রহন কারী এসব শিল্পীরা বললেন সরকারী ভাবে পিষ্ট পোষকতা ছাড়া এ শিল্প ধরে রাখা যাবেনা। তারা বললেন যাদের জন্য এ মেলার আয়োজন তাদেরকেই অবমূল্যায়ন করা হয়েছে এবার। কয়েকটি স্টলেই দুজন করে শিল্পকে দেয়া হয়েছে। 

মেলা পরিদর্শনে আসা কবি শাহেদ কায়েস বলেন, ফাউন্ডেশনের মূল  উদ্দেশ্য থেকে সরে যাচ্ছে। চারু কারুশিল্পীদের প্রমোট করা,আর্থিকভাবে স্বচ্ছল করা ও গবেষণা কেন্দ্র গড়ে তোলার লক্ষেই জয়নুল আবেদিন প্রতিষ্ঠা করেছিল এ ফাউন্ডেশন। প্রতিবছর মেলার আয়োজন ছাড়া তেমন কোন কার্যক্রমই চোখে পড়েনা। আবার যাদের জন্য এ মেলার আয়োজন তাদেরকেও অবহেলা করা হচ্ছে। ১শটি স্টলের মধ্যে ৩২ স্টল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে শিল্পীদের। কোন কোন স্টলে দুজন শিল্পীকে বরাদ্ধ দেয়া হচ্ছে। এখানেতো অন্তত ৬৪ জেলার জন্য ৬৪টি স্টল বরাদ্ধ দিয়ে দেশের সব প্রান্ত থেকে অন্তত একজন করে শিল্পীকে জড়োকরা সম্ভব। তা না করে বেশীরভাগ স্টল দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্যাবসায়ীদের। যারা এখানে প্লাস্টিক ও চায়না প্রডাক্ট বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে।  কোটি টাকার বাজেটে বিভিন্ন ভবন তৈরী হচ্ছে। যা এখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ বিনিষ্ট করা হচ্ছে।

এসব ব্যাপারে ফাউন্ডেশনের পরিচালক এস এম রেজাউল করিম বলেন,তিনি মাত্র একমাস হয়েছে দায়িত্বে বসেছেন। অভিযোগ গুলো তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেবেন। এ বছর কর্মরত কারুশিল্পীদের প্রদর্শনীর জন্য ৩২টি স্টল সহ ১০০টি স্টল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। মেলা চলবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত।


আরও খবর