Logo
শিরোনাম

মমতাময়ী মাও তো একজন শিক্ষক

প্রকাশিত:রবিবার ১৭ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সিনিয়র সাংবাদিক লেখক ও গবেষক :

পৃথিবীর প্রত্যেক সন্তানের প্রথম শিক্ষক হচ্ছেন তার মা | খুব উচ্চ শিক্ষিত, স্বল্প শিক্ষিত হবার প্রয়োজন নেই, স্বশিক্ষিত হবারও প্রয়োজন নেই | যখন একজন মা সন্তান জন্ম দেন তখন তার মধ্যে জন্ম নেয় কালজয়ী এক শিক্ষক | যে শিক্ষকের  তথাকথিত পৃথিবীর মতো কোনো স্কুল নেই, বড় বড় জ্ঞানগর্ভ বই নেই, মা নিজেই যেন শিক্ষার আলোকবর্তিকা হয়ে উঠেন | মা এমন  একজন শিক্ষক যিনি এসবের বিনিময়ে কোনো বেতন নেননা, কোনো ধরণের সুযোগ সুবিধা নেননা, কেবল দিয়েই যান | তিল তিল করে নিজেকে  কেবল ত্যাগ করে যান, ভালোবাসার পরশ বুলিয়ে যান | মা এমন একজন নিঃস্বার্থ শিক্ষক যিনি সন্তানের মঙ্গলের জন্য নিজের জীবনও উৎসর্গ করতে পারেন | 

মমতাময়ী মাও তো একজন শিক্ষক। সেটা আমরা হয়তো বুঝতে পারিনা। তবে সময় আমাদের তা বুঝিয়ে দেয়। একটা ঘটনায় বিষয়টি অনেক সহজবোধ্য হয়ে যাবে।  বিশ্ববিখ্যাত বিজ্ঞানী টমাস আলভা এডিসনের তখন শিশুকাল। এক দিন এডিসন ঘরে এসে তার মাকে খামবন্দি চিঠি দিলেন। তিনি মাকে বললেন, ‘আমার শিক্ষক আমাকে কাগজটি দিয়েছেন এবং শুধু তোমাকেই দিতে বলেছেন।’ মা চিঠিটি জোরে পড়া শুরু করলেন এবং তার চোখ থেকে জল গড়িয়ে পড়ছে মাটিতে, ‘আপনার পুত্র মেধাবী। এই স্কুলটি তার জন্য অনেক ছোট এবং এখানে তাকে শেখানোর মতো যথেষ্ট প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও দক্ষ  শিক্ষক নেই। দয়া করে আপনি নিজেই তার শিক্ষার ব্যবস্থা করুন।’ তার মা মারা যাওয়ার অনেক বছর পরের কথা। এডিসন তখন শতাব্দীর সেরা আবিষ্কারক। এক দিন তাঁর পারিবারিক পুরনো জিনিসপত্র দেখছিলেন। একটি ডেস্কের ড্রয়ারের কোনায় হঠাৎ তিনি একটি ভাঁজ করা কাগজ পেলেন। তিনি সেটি খুললেন। কাগজে লেখা ছিল—‘আপনার সন্তান মেধাহীন ও নিম্ন বুদ্ধিসম্পন্ন। আমরা তাকে আমাদের স্কুলে আর আসতে দিতে পারি না।’ এডিসন কয়েক ঘণ্টা ধরে কাঁদলেন। কারণ এডিসন বুঝতে পারলেন তার  মা সেদিন বড় কিছু ভাবেননি। বরং তার চিন্তাশক্তি প্রয়োগ করে ভেবেছেন কিভাবে একটা নেতিবাচক ধারণাকে ইতিবাচক ধারণায় পরিণত করা যায়। তিনি টমাস আলভা এডিসনকে গড়ার আগেই ভেঙে যেতে দেননি বরং তার  মধ্যে এই ধারণা সৃষ্টি করেছিলেন যে তার মতো মেধাবী পৃথিবীতে আর কেউ নেই। কয়েকটি শব্দের ইতিবাচক পরিবর্তন এডিসনের জীবন পাল্টে দিয়েছিল। এখানে এডিসনের মা একজন শিক্ষকের মতো কাজ করেছেন। কিন্তু তা  স্কুলের শিক্ষকরা তা পারেননি।

প্রতিদিন এমন মায়ের মতো ভালোবাসার বন্ধনে জড়িয়ে ধরা  নিঃস্বার্থ শিক্ষকদের খুঁজি। সেই প্রাণপ্রিয় মুখগুলিকে খুঁজি। কিন্তু কোথায় তারা। তারা তো আকাশের তারা হয়ে গেছে। সে তারা এখনও রাতে আলোর মশাল নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। আমাদের আলোকিত পথ দেখানোর অপেক্ষা করে। কিন্তু আমরা তো স্বার্থপর হয়ে গেছি। সবাই আর শিক্ষক নেই, কেউ কেউ শিক্ষক। এক দুষ্টচক্রে বাধা পড়ে গেছে শিক্ষকদের প্রকৃত সত্তা। শিক্ষকতা পেশা নয়, এটা একটা আত্মত্যাগ। এটা একটা সেবা। কিন্তু কে শুনবে কার কথা। ছাত্রদের মুখগুলো দেখে কষ্ট লাগে। ওরা ওদের প্রতিভার আলো ছড়িয়ে আলোকিত হতে চায়। কিন্তু শিক্ষক নামের সেই নিঃস্বার্থ মানুষটা তো আর নেই। সব যেন দুঃস্বপ্ন, সব যেন গন্তব্যহীন।


আরও খবর



ইটনায় ৩৬ টি মন্ডপে দুর্গোৎসব-থানা পুলিশের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মোজাহিদ সরকার, কিশোরগঞ্জ ঃ

কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলায় এবার ৩৬টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।মন্ডপগুলোতে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে থানা পুলিশ প্রশাসন ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। 

২৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকালে দুর্গা পুজো উপলক্ষে ইটনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অডিটোরিয়ামে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলার প্রতিটি মন্ডপ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেন। 

ইটনা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল ইসলাম মোল্লা'র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার(অষ্টগ্রাম সার্কেল) সামুয়েল সাংমা। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ইটনা উপজেলা শাখার সভাপতি তাপস রায় এবং সাধারণ সম্পাদক কৌশিক দেব নাথ জয়। থানা পুলিশের মতবিনিময় সভা পরিচালনায় ছিলেন ইটনা থানা পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আহসান হাবিব। 

মতবিনিময় অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত পূজা মণ্ডপের সভাপতি ও সম্পাদক বক্তব্য রাখেন এবং উনাদের দুর্গা পুজোর উৎসবে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের কাছে দাবি রাখেন। পূজা মণ্ডপে উচ্চ শব্দে ডিজে গান বাজানোর নিষেধ করেন পূজা উদযাপন পরিষদ ইটনা উপজেলা শাখার সভাপতি তাপস রায় 

সহকারী পুলিশ সুপার(অষ্টগ্রাম সার্কেল) সামুয়েল সাংমা বলেন, এবার শারদীয় দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন করার লক্ষে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সব সময় তৎপর থাকবে। মন্ডপ এলাকায় কোন ক্রমেই কোন রকম নেশাদ্রব্য গ্রহণ করা যাবে না। এছাড়া উচ্চশব্দে গান বাজানোর ক্ষেত্রে সহনশীল হতে হবে। প্রতিটি মন্ডপে আনসার ও ভিডিপির নারী-পুরুষ সদস্যরা পাহারায় থাকবে। তিনি মন্ডপ গুলোর আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




রনির অগ্রগতি নেই : চিকিৎসক

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে দগ্ধ কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনিসহ দু’জনের অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। এখনো কোনো অগ্রগতি নেই। তাদের ব্যাপারে কিছুই বলা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

রবিবার সকালে এ তথ্য জানান শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন ডা. এস এম আইউব হোসেন।

তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি ও পুলিশ কনস্টেবল জিল্লুর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এখনো তাদের কোনো অগ্রগতি নেই। তাদের অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। বর্তমানে তাদের হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে চিকিৎসা চলছে। দুজনেরই ইনহ‍্যালেশন বার্ন রয়েছে। তাদের সব ধরনের চিকিৎসা চলছে। আজ দুপুরে একটি মেডিকেল বোর্ড বসার কথা রয়েছে।

কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি, মোশাররফ হোসেন, পুলিশ কনস্টেবল জিল্লুর রহমান, ইমরান হোসেন ও রুবেল হোসেন। এদের মধ্যে মোশারফ হোসেন ইমরান হোসেন ও রুবেল হোসেনকে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

বেলুন বিস্ফোরণে আবু হেনা রনির শ্বাসনালীসহ দেহের ২৫ শতাংশ এবং কনস্টেবল জিল্লুর রহমানের দেহের ১৯ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে বলে জানান চিকিৎসকরা।


আরও খবর

এক এনআইডিতে ১৫টির বেশি সিম নয়

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে দরিদ্র গৃহিণীর সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

কুমিল্লার লালমাইয়ে মিথ্যা মামলার হয়রানি থেকে পরিত্রাণ পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সিরাজের নেছা নামের এক দরিদ্র গৃহিণী। তিনি লালমাই উপজেলার গজারিয়া গ্রামের আব্দুল মতিনের স্ত্রী। শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকালে স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী সিরাজের নেছা জানান, একই গ্রামের গোলাম মোস্তফার স্ত্রী রাহেলা বেগমের সাথে তাদের সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। এ বিরোধকে কেন্দ্র করে তাদেরকে পরাস্থ করতে সম্প্রতি প্রতিপক্ষ রাহেলা বেগম বাদি হয়ে তার কন্যাকে ভিকটিম সাজিয়ে সিরাজের নেছার স্বামী আবদুল মতিনের বিরুদ্ধে লালমাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আব্দুল মতিন কারাবাসে থাকাকালীন পুনরায় রাহেলা বেগম তার ননশের ছেলে রুবেলকে দিয়ে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আরেকটি মামলা দায়ের করেন। যা বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

সিরাজের নেছা বলেন, ‘সম্পত্তি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার স্বামীকে কারাগারে পাঠিয়েই ক্ষান্ত হয়নি। আবারো আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছে। এর আগেও তারা আমার বাড়ি ঘরে হামলা, ভাঙচুর ও আমার কন্যা সহ আমাদেরকে মারধর করেছে। যা এলাকাবাসী অবগত আছেন। বর্তমানেও আমাদেরকে বিভিন্ন ধরণের হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। আমরা দরিদ্র মানুষ। আমার এক ছেলে রিকশাচালক, দুই ছেলে নির্মাণ শ্রমিক। স্বামীর অবর্তমানে সন্তান-সন্তুতি নিয়ে আমি খুবই কষ্টে দিনাতিপাত করতেছি। প্রতিপক্ষের হামলা-মামলা ও হুমকি-ধমকিতে আমি সপরিবারে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেছি।’

সঠিক তদন্তের মাধ্যমে সত্য উদ্ঘাটন ও মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেন ভুক্তভোগী সিরাজের নেছা। এসময় তার বোন নিলুফা বেগম, ছেলে কবির হোসেন ও নাসির উদ্দিন সহ পরিবারের অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




খাদের মধ্যে হাবুডুবু খাচ্ছে বিএনপি

নির্বাচনে না আসলে আর উঠতে পারবে না: কৃষিমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

সোনারগাঁ প্রতিনিধি:  

কৃষিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, গত ১৩ বছর ধরে আন্দোলনের নামে মানুষ হত্যা আর জ্বালাও-পোড়াও করে বিএনপি এখন খাদের মধ্যে পড়ে হাবুডুবু খাচ্ছে। কোন রকমে তাদের নাকটা ভেসে আছে। এখনও যদি তারা সঠিক পথে না আসে, নির্বাচনে না আসে, মুক্তিযুদ্ধের-স্বাধীনতার চেতনা-আদর্শের রাজনীতি না করে, তাহলে ভেসে থাকা নাকটাও ডুবে যাবে। আর কোন দিন খাদ থেকে উঠতে পারবে না।

শনিবার সকালে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে শেখ রাসেল স্টেডিয়ামে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি নানা রকম ষড়যন্ত্র করছে। তারা আন্দোলনের হুমকি দিচ্ছে। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শেষ লড়াই, মরণপণ লড়াই এর হুমকি দিচ্ছেন। আমি বলতে চাই, এখন পর্যন্ত কোন লড়াইয়ে বিএনপি জিততে পারে নাই, ভবিষ্যতেও আর পারবে না। অন্যদিকে আওয়ামী লীগ লড়াইয়ে কখনও হারে না। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও হারে না।

বিএনপির উদ্দেশে মন্ত্রী আরও বলেন, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু, সুন্দর ও নিরপেক্ষ হবে। সেই নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার চেষ্টা করুন। এছাড়া, ক্ষমতায় আসার দ্বিতীয় কোন পথ খোলা নেই।

তৃণমূলের নেতাকর্মীরাই দলের খুঁটি উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, নেতৃত্ব নিয়ে কোন কোন্দল থাকলে তা ভুলে যেতে হবে। দলের আদর্শই আমাদের কাছে সবচেয়ে বড়। আমাদের শক্তি হলো বঙ্গবন্ধুর আদর্শ, ত্যাগ ও সাহস। আর দলের নেতৃত্ব জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতে। এই দুটিকে আঁকড়ে ধরে আমাদের সকল নেতাকর্মীকে কাজ করতে হবে। তাহলে কোন শক্তিই আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে হারাতে পারবে না। আবার শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসবে, ইনশাল্লাহ।

 আন্দোলন-সংগ্রামের জন্যও নেতাকর্মীদের প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, যে কোন পরিস্থিতিতে আন্দোলন-সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত হোন। বিএনপি-জামায়াত যদি দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায়, তাহলে রাজপথে থেকে আমরা তা মোকাবেলা করব। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও আমরা সহযোগিতা করব। 

সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য মো. কামরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভি, সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস, সংসদ সদস্য সানজীদা খাতুন, সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক নজিবুল্লাহ হিরু, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক আনোয়ার হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারন সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল, সাবেক সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার সহ জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

সম্মেলনে সভাপতি হিসেবে শামসুল ইসলাম, সাধা্রন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল কায়সার ও সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের নাম ঘোষনা করেন ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আযম। 


আরও খবর



আবারো অস্থির ডিমের বাজার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

আবারো অস্থির হয়ে উঠেছে ডিমের বাজার। প্রতি ডজন ডিম বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকায়। হালি বিক্রি হচ্ছে ৪৫ টাকায়।

ব্যবসায়ীদের কেউ কেউ বলছেন, টানা বৃষ্টিতে সরবরাহ সংকটে এমন হয়েছে। আবার কেউ বলছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে মুরগির খাদ্যের উপকরণের দাম বেড়ে যাওয়া, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি এবং ডলারের দাম বেড়ে যাওয়া এর বড় কারণ। এসব কারণে যখন গত মাসে ডিমের দাম বেড়েছে, সে সময় প্রশাসনের চাপে বাধ্য হয়ে দাম কমেছিল। কিন্তু সমস্যা সমাধান না হওয়ায় আবারো বাড়ছে। এদিকে খুচরা ব্যবসায়ীরা বলছেন এসবই পাইকারদের কারসাজি। এই মুহূর্তে ডিমের দাম বাড়ার কোন যুক্তিসংগত কারণ নেই।  


আরও খবর

স্বর্ণের দাম কমেছে

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২