Logo
শিরোনাম

মোরেলগঞ্জে প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে সহায়ক উপকরণ বিতরণ

প্রকাশিত:Saturday ০৩ December ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

এম.পলাশ শরীফ,বাগেরহাট প্রতিনিধি:


৩১তম আন্তর্জাতিক ও ২৪তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ৪৬ জন প্রতিবন্ধীকে চলাচলের জন্য সহায়ক উপকরণ দেওয়া হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে শনিবার বেলা ১১টায় প্রতিবন্ধী সমাবেশ প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. আমিরুল আলম মিলন।

প্রধান অতিথি সমাজকল্যাণ মন্ত্রনালয় থেকে পাওয়া ৩০টি হুইল চেয়ার, ২টি ক্র্যাচ ও ১৪টি স্মার্ট কেন (আধুনিক লাঠি) প্রতিবন্ধীদের মাঝে বিতরণ করেন। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম।

বক্তৃতা করেন উপজেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা মো. কায়কোবাদ আকুঞ্জী, সমাজসেবা কর্মকর্তা গৌতম কুমার বিশ্বাস, মাধ্যমিক শিক্ষার একাডেমিক সুপারভাইজার মো. বাকি বিল্লাহ ও প্রতিবন্ধী সুবিধাভোগী মো. সোহেল শেখ।


আরও খবর



বিদ্যুতের দাম ১৫% বাড়ানোর সুপারিশ

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

জহীরুল কবির আমজাদ : গ্রাহকপর্যায়ে বিদ্যুতের দাম ১৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ বাড়ানোর সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। রবিবার (৮ জানুয়ারি) বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির গণশুনানিতে এ সুপারিশ করে বিইআরসির কারিগরি কমিটি। 

পল্লীবিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি) জানিয়েছে, গ্রাহকপর্যায়ে বিদ্যুতের দাম না বাড়লে তাদের ১ হাজার ১২৭ কোটি টাকা ক্ষতি হবে। একইভাবে পিডিবি ২৩৪ কোটি, ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি (ডিপিডিসি) ১ হাজার ৫৫১ কোটি, ঢাকা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি (ডেসকো) ১ হাজার ৪০২ কোটি টাকা, নর্দান ইলেকট্রিক সাপ্লাই কোম্পানি (নেসকো) বলছে, তাদের ৫৩৫ কোটি টাকা লোকসান হবে। ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানিও (ওজোপাডিকো) তাদের ক্ষতির কথা জানিয়েছে।

গত ২১ নভেম্বর বিদ্যুতের পাইকারি দাম ১৯ দশমিক ৯২ শতাংশ বৃদ্ধি করে বিইআরসি। এরপর বিদ্যুতের খুচরা মূল্যবৃদ্ধির আবেদন করে পাঁচটি প্রতিষ্ঠান। সবগুলো প্রতিষ্ঠান বলছে পাইকারি দাম বৃদ্ধির পর খুচরা দাম না বাড়ালে তারা আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে। সেসব আবেদন কারিগরি কমিটিতে মূল্যায়ন শেষে তা গণশুনানিতে আসে।

সবশেষ ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে সব পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়। সে সময় পাইকারিতে দাম ৮ দশমিক ৪ শতাংশ বাড়ানোর পাশাপাশি সাধারণ গ্রাহক বা খুচরাপর্যায়ে ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ানো হয়।


আরও খবর

সুখবর নেই বাজারে

Saturday ০৪ February ২০২৩




বকশীগঞ্জে ভাইস চেয়ারম্যানের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত:Friday ০৩ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

জামালপুর প্রতিনিধি :

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির বাসায় ডাকাতির ঘটনায় মামলায় গ্রেপ্তার উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জাহিদুল ইসলাম তালুকদার জুমানের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে উপজেলা পরিষদের সামনে কামালপুর-বকশীগঞ্জ সড়কে ঘন্টাব্যাপী এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা সর্বস্তরের জনগনের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে আওয়ামীলীগের সাবেক নেতাকর্মীদের সাথে সাধারণ মানুষও এই মানববন্ধনে অংশ নেন।   

মানববন্ধনে পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ভাইস চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম তালুকদার জুমানকে নি:শর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়া়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার, সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন,সাবেক বন ও পরিবেশ সম্পাদক  ফজলুর রহমান খুদু, ইয়াসিন তালুকদার,নজরুল ইসলাম ও ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাইদুর রহমান লাল প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।  

ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সাইদুর রহমান লাল বলেন,জুমান তালুকদার রাজপথের লড়াকু সৈনিক। অন্যায়ের কাছে কখনো মাথা নত করেনি। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারনে তাকে সাজানো মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও জুমান তালুকদারের নি:শর্ত মুক্তি চাই। 

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম সাত্তার বলেন, জুমান তালুকদারের স্ত্রী-কন্যা হাসপাতালে ভর্তি। সেখান থেকেই সাজাঁনো একটি মিথ্যা মামলায় জুমান তালুকদারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই এবং অলিমম্বে জুমান তালুকাদরের মুক্তি চাই। 

উল্লেখ্য,গত ২৪ ডিসেম্বর মধ্যরাতে বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহীনা বেগমের পৌর শহরের নয়াপাড়ার বাসায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় অজ্ঞাত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে বকশীগঞ্জ থানায় মামলা হয়। পরে মামলাটি তদন্তের জন্য জামালপুর ডিবি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। বুধবার রাতে ঢাকা জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতালের সামনে থেকে ডিবি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।


আরও খবর



স্ট্রোকের বিশ্বমানের চিকিৎসা হচ্ছে দেশেই

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :স্ট্রোক একটি ঘাতক ব্যাধি। প্রতি বছর প্রায় দেড় কোটি মানুষ এ রোগের আক্রান্ত হন। এর মধ্যে মারা যান অর্ধ কোটি মানুষ আর অর্ধ কোটি পঙ্গুত্ব বরণ করেন। বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর দ্বিতীয় কারণ এটি। মারা যাওয়াদের দুই-তৃতীয়াংশ আমাদের মত দেশে ঘটে। দিন দিন স্ট্রোক আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

গবেষণায় দেখা গেছে ২০৫০ সালের মধ্যে এ হার প্রায় ৮০ গুন বেড়ে যাবে। বাংলাদেশেও এ হার কিন্তু কম নয়। গবেষণায় দেখা গেছে দেশে প্রতি ১ হাজার জনে প্রায় ১২ জন স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। ঘাতক এ ব্যাধি থেকে বেঁচে থাকতে সচেতনতার বিকল্প নেই।

স্ট্রোক নিয়ে জাতীয় স্ট্রোক কনফারেন্সের আয়োজন করে বাংলাদেশ সোসাইটি অব স্ট্রোক ও নিউরোইন্টারভেনশন (বিএসএসএনআই)। কনফারেন্সে প্রধান অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক শারফুদ্দিন আহমেদ। সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রখ্যাত নিউরোলজিস্ট অধ্যাপক কাজী দীন মোহাম্মদ, অধ্যাপক আনোয়ার উল্লাহ, অধ্যাপক ফিরোজ আহম্মেদ কোরাইশি, অধ্যাপক মো. বদরুল আলম ও অধ্যাপক আবু নাসার রিজভী।

উপাচার্য অধ্যাপক শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, স্ট্রোকের চিকিৎসা যত দ্রুত করা সম্ভব তত ফলাফল ভালো হয়। স্ট্রোকের চিকিৎসায় দেরি করলে উন্নতি হওয়ার সম্ভবনা কমে যায়। তাই দেরি না করে দ্রুত হাসপাতালে নিতে হবে। জাতীয় পর্যায়ের একজন নেতা স্ট্রোকের তিন ঘণ্টার মধ্যে বিএসএমএমইউ-তে আসলে তাকে স্ট্রোকের আধুনিক চিকিৎসা দেয়া হয়। সাত দিন পরই তিনি হেঁটে বাড়ি চলে যান।

বাংলাদেশ সোসাইটি অব স্ট্রোক ও নিউরোইন্টারভেনশনের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক কাজী মহিবুর রহমান বলেন, আমাদের দেশে স্ট্রোক রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। স্ট্রোকের আধুনিক সব চিকিৎসা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স (নিনস) হাসপাতালে হচ্ছে। সরকারি ভাবে অনেক কম খরচেই স্ট্রোকের সব আধুনিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বাংলাদেশ সোসাইটি অব স্ট্রোক ও নিউরোইন্টারভেনশনের উপদেষ্টা অধ্যাপক শরীফ উদ্দিন খান বলেন, বাংলাদেশে সরকারিভাবে একমাত্র নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে নিয়মিতভাবে আইভি থ্রোম্বলাইসিস করা হচ্ছে। শুধু তাই নয় এ হাসপাতালের ইন্টারভেনশনাল নিউরোলজি বিভাগ স্ট্রোকের অত্যাধুনিক চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি ঢাকার বাইরের মেডিকেল কলেজগুলোকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

সোসাইটি অব নিউরোলজিস্ট অব বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ফিরোজ আহম্মেদ কোরাইশি, স্ট্রোকের আধুনিক চিকিৎসা আইভি থ্রোম্বলাইসিস জেলা পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের আহবান জানান।

নিউরোসায়েন্সস হাসপাতালের যুগ্ম- পরিচালক অধ্যাপক বদরুল আলম মন্ডল বলেন, নিউরোসায়েন্স হাসপাতাল স্ট্রোক চিকিৎসায় দিকপালের কাজ করছে। স্ট্রোকের অত্যাধুনিক চিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছে এটি।


আরও খবর



ক্যালিফোর্নিয়ায় বন্দুক হামলা নিহত ১০

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসের মন্টেয়ারি পার্কের একটি নাইট ক্লাবে বন্দুক হামলায় ১০ জন নিহত হয়েছেন। এই ঘটনার মূল সন্দেহভাজন ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছে, চীনা চান্দ্রবর্ষের উৎসবের অনুষ্ঠানে গোলাগুলির পর বন্দুকধারী ব্যক্তি একটি সাদা রঙের ভ্যানে আশ্রয় নেয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা গাড়িটি ঘিরে ফেললে, সেটির চালক গুলি চালিয়ে আত্মহত্যা করেন। লস অ্যাঞ্জেলেস কাউন্টি শেরিফ জানান, ৭২ বছর বয়সি ওই ব্যক্তির নাম হু কান ত্রান। এর আগে স্থানীয় সময় শনিবার রাতে ক্যালিফোর্নিয়ার মনটেরে পার্ক শহরে একটি নাইট ক্লাবে বলরুমে এক বন্দুকধারী হামলা চালায় ।  


আরও খবর



স্পর্শকাতর জায়গায় আঘাত করে বৃদ্ধকে খুন !

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :


কুমিল্লার মুরাদনগরে স্পর্শকাতর জায়গায় আঘাত করে বৃদ্ধকে খুনের অভিযোগ উঠেছে।

 বুধবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার নবীপুর ইউনিয়নের বকুলনগর গ্রামে তুচ্ছ বিষয় নিয়ে এ ঘটনা ঘটেছে। 

নিহত আব্দুল বারেক ওরপে খোকন মিয়া (৬২) বকুল নগর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। 

স্থানীয় মাহবুবউল আলম হানিফ জানান-, স্থানীয় ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কামাল উদ্দীন নিহত খোকনসহ কয়েকজনের কাছ থেকে ১০ বছরের জন্য জমি বর্গা নেয়। সেখানে তিনি ইটভাটা করেন। ১০ বছর মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় কিছুদিন পূর্বে ইটভাটা ভেঙে ফেলেন তিনি। পরে স্থানীয় গিয়াসউদ্দিনের কাছে ভাটার স্থানে পড়ে থাকা ইটের খোয়া বিক্রি করেন। 

স্থানীয়দের অভিযোগ গিয়াসউদ্দিন ও তার ছেলে কয়েকজনকে নিয়ে ইটের খোয়া তুলে নেয়ার পর জমির মূল মাটি নিয়ে যাচ্ছিল। তাই বাধা দিতে যায় খোকন মিয়া। এসময় তাদের সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে গিয়াসউদ্দিন ও তার ছেলেরা খোকন মিয়ার স্পর্শকাতর জায়গায় আঘাত করলে গুরুতর আহন হন খোকন মিয়া। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। 

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদারবলেন-, রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে গিয়াসউদ্দিন ও তার ছেলে খোকন মিয়ার স্পর্শকাতর জায়গায় আঘাত করেছে বলে পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ বিষয়ে আইনী ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


আরও খবর