Logo
শিরোনাম
শবে বরাত পালন মুসলিম জাতিকে একতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে। ৫৭ তম খোশরোজ শরীফ ও মইনীয়া যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবীতে প্রতীকী লাশ নিয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মিছিল লক্ষ্মীপুরে কৃষক কাশেম হত্যা: স্ত্রী, শ্বশুরসহ গ্রেপ্তার ৫ কুমিল্লা সিটি’র উপনির্বাচন: মেয়র পদে প্রতীক বরাদ্দ অবৈধ মজুদকারীরা দেশের শত্রু : খাদ্যমন্ত্রী ফতুল্লায় সিগারেট খাওয়ার প্রতিবাদ করায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

নওগাঁ-৩ মহাদেবপুর-বদলগাছী আসনে ১১ জনের মনোনয়নপত্র দাখিল

প্রকাশিত:শুক্রবার ০১ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

সিনিয়র রিপোর্টার :দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এর মনোনয়ন পত্র দাখিল এর শেষ দিন গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত নওগাঁ-৩ 'মহাদেবপুর-বদলগাছী' আসনে মোট ১১ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। স্ব স্ব প্রার্থীরা তাদের নেতা-কর্মী ও সমর্থক সহ মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে সোডাউন দিয়ে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন। মনোনয়ন পত্র উৎসব মুখরভাবে দাখিল করায় এলাকায় নির্বাচনি আমেজ লক্ষ করা যাচ্ছে। 

১১ জন প্রার্থীর মধ্যে কেউ মহাদেবপুর ও বদলগাছী সহকারি রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট, আবার কেউ জেলা রিটার্নিং অফিসার ও নওগাঁ জেলা প্রশাসকের নিকট মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন।

মনোনয়ন পত্র দাখিলকারিদের মধ্যে রয়েছেন, আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতিকের প্রার্থী ও নতুন মুখ সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্ত্তী,

সতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বর্তমান এমপি মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার (সেলিম), সাবেক এমপি ও সদ্য প্রয়াত ড. আকরাম হোসেন চৌধুরীর স্ত্রী মাহফুজা আকরাম মায়া চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সহ বাংলা চলচিত্রের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা ও ইউটিউবার শামিনুর রহমান চিকন আলী এবং মাসুদ রানা জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে, সোহেল কবির চৌধুরী তৃণমূল বিএনপি'র প্রার্থী হিসেবে, স্বপন কুমার দাস এনপিপির প্রার্থী হিসেবে, জাবেদ আলী বিএনএফ এর প্রার্থী হিসেবে, আলাল হোসেন জাকের পার্টির প্রার্থী হিসেবে, ডিএম মাহবুবুল মান্নাফ ও ফিরোজ হোসেন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে।


আরও খবর

কাদের-চুন্নুকে পদ থেকে সরানো হয়েছে

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪

তিন মাস পর কারামুক্ত মির্জা আব্বাস

সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত মাহিয়া মাহির

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

বিয়ের মাত্র আড়াই বছরের মাথায় সংসার ভাঙল ঢাকাই সিনেমার আলোচিত চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির। শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তায় নিজের সংসার ভাঙনের খবর নিশ্চিত করেন এই নায়িকা নিজেই।

ভিডিওর শুরুতেই মাহি বলেন, আমি ও রাকিব খুব ভালো বোঝাপোড়া থেকেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু জীবনের একটা পর্যায়ে এসে মনে হয়েছে আমাদের একসঙ্গে থাকা সম্ভব নয়। তাই আমরা আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ইতোমধ্যে আমরা আলাদা থাকছি।

মাহি আরও বলেন, খুব দ্রুতই আমরা আনুষ্ঠানিকভাবে বিচ্ছেদে যাচ্ছি। কবে আর কীভাবে হবে সেটাও দুজন মিলেই ঠিক করব।

এই নায়িকা বলেন, আমি জানি এই ভিডিওটা দেখার পরে আপনারা সবাই আমাকে নিয়ে অনেক আজেবাজে কথা বলবেন। বিশ্বাস করেন, এসব মন্তব্য একটা তীরের মতো আমার বুকে বিঁধবে। কষ্ট হয়, তবে এসবে আমি কিছু বলি না। আমার পরিবারের মানুষও কষ্ট পায়।

এ সময় ছেলের জন্য দোয়া চেয়ে মাহি বলেন, আপনারা আমার ছেলে ফারিশের জন্য দোয়া করবেন। যেন ওকে ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারি। ওকে নিয়েও অনেকে বাজে মন্তব্য করেন। সে তো বাচ্চা, বুঝে না। কিন্তু আমি কষ্ট পাই। কোনো বাচ্চাকে নিয়েই আপনারা এমন মন্তব্য করবেন না। বুকটা ফেটে যায় একজন মা হিসেবে কষ্টে। আপনারা আমার ও ফারিশের জন্য দোয়া করবেন।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর রাকিবকে বিয়ে করেন মাহি। তাদের একমাত্র পুত্র সন্তানের নাম ফারিশ। বিয়ের প্রায় আড়াই বছরের মাথায় আলাদা হয়ে গেলেন এই দম্পতি।

এর আগেও ২০১৬ সালে সিলেটের ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন মাহি। সেই সংসার টিকেছিল ৫ বছর। এরপর অপুর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর রাকিব সরকারকে বিয়ে করেন অভিনেত্রী।


আরও খবর

ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন পরীমণি

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

মোঃ সিনান তালুকদার নোবিপ্রবি প্রতিনিধি :

গত ২২ফেব্রুয়ারি হয়ে গেলো নোবিপ্রবির সিএসটিই বিভাগের এলামনাই এসোসিয়েশন এর নতুন কমিটি গঠনের কাজ।

এতে সভাপতি হয়েছেন আদনান আহমেদ হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন আব্দুল আহাদ। সাধারণ সম্পাদক জানান,

"আমাদের মূল লক্ষ্য হলো সকলের মতামত এবং পরামর্শের মাধ্যমে এসোসিয়েশনটি পরিচালন, এবং একটি স্মার্ট এসোসিয়েশন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা।

এছাড়াও তিনি জানান, ডিপার্টমেন্টের শিক্ষকবৃন্দ, পূর্ব এবং বর্তমান শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংযোগ তৈরি করা, বর্তমান শিক্ষার্থীদের দেশের আইটি ইন্ডাস্ট্রিতে এন্ট্রি পয়েন্টে সহযোগিতা করা, এলুমনাইদের পরিচিতি বাড়ানো, এসোসিয়েশনটির ব্রান্ডিং করা, ডিজিটালাইজেশন ইনিশিয়েটিভ (ওয়েবসাইট, ইমেইল, ইত্যাদি) বাস্তবায়ন করা, এলুমনাই সদস্য বাড়ানো, বার্ষিক মিটআপ এবং নেটওয়ার্কিং বৃদ্ধি করা ইত্যাদিতে  কাজ করে যাবে এই এলামনাই এসোসিয়েশন।

উল্লেখ্য,সিএসটিই হলো  প্রতিষ্ঠাকালীন বিভাগ এবং বর্তমানে এর ১৮তম ব্যাচ চলছে।


আরও খবর



ট্রাম্পকে ৩৫৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

প্রতারণা মামলায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার ট্রাম্প অর্গ্যানাইজেশনকে ৩৫৫ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে নিউইয়র্কের একটি আদালত। স্থানীয় সময় শুক্রবার এই রায় দেওয়া হয়।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, রায়ে ট্রাম্পকে তিন বছরের জন্য নিউইয়র্কের কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ গ্রহণে নিষিদ্ধ করা হয় এবং নিউইয়র্কের কোনো করপোরেশনে তাকে অফিসার বা পরিচালক হিসেবে কাজ করা থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, নিউইয়র্কের একজন বিচারক শুক্রবার ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার কোম্পানিগুলোকে ৩৫৪.৯ মিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছেন। রায়ে বিচারক জানিয়েছেন, তারা কয়েক বছর ধরে তাদের এমন সব আর্থিক বিবরণ দিয়ে বোকা বানাচ্ছিল যা তার অর্থের পরিমাণকে বাড়িয়ে দেখাচ্ছিল।

ট্রাম্পকে অবিলম্বে এই অর্থ দিতে হবে না কারণ এ ব্যাপারে আপিলের প্রক্রিয়া অব্যাহত থাকবে। তবে এই রায় সাবেক প্রেসিডেন্টের অগ্রগতির জন্য প্রতিবন্ধক।

শেষ অবধি তিনি যদি এই অর্থ প্রদানে বাধ্য হন তাহলে আগের বিচারের রায়ের উপর এই রায় তার অর্থ সম্পদকে নাটকীয়ভাবে হ্রাস করবে। এছাড়া একজন সফল ব্যবসায়ী হিসেবে তার ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে।

২০২২ সালে সম্পত্তির মূল্য বাড়িয়ে দেখিয়ে জালিয়াতির মাধ্যমে ব্যাংক লোন ও বীমা সুবিধা নেয়ার অভিযোগে নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের একটি আদালতে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এই দেওয়ানি মামলা হয়। তদন্ত শেষে ট্রাম্পের কোম্পানি ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে সম্পত্তির অতিরিক্ত মূল্য দেখানো আবার সেই সম্পত্তিরই দাম কম দেখিয়ে আয়করে ছাড় পাওয়া, ব্যবসায়িক রেকর্ড, বীমা জালিয়াতি এবং ষড়যন্ত্রসহ বেশ কয়েকটি অভিযোগে ট্রাম্প ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার কাজ শুরু করে আদালত।

বেশ কয়েকটি ফৌজদারি অপরাধে আনুষ্ঠানিকভাবে অভিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প রিপাবলিকান প্রার্থী হিসেবে চলতি বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছেন।


আরও খবর

অনুমতি ছাড়া হজ করলে শাস্তি ঘোষণা

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




ট্রাক চাপায় সড়কে ঝরলো দু'জন কিশোর এর প্রাণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

ট্রাক-মোটরসাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে দু'জন কিশোর নিহত। মর্মান্তিক এ সড়ক দূর্ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারি দুপুরের দিকে বগুড়া শহরের দ্বিতীয় বাইপাস সড়কের সাবগ্রাম এলাকায়। সত্যতা নিশ্চিত করে বগুড়া ফায়ার সার্ভিস এর কর্মকর্তা মাসুদ পারভেজ জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টারদিকে দু'জন কিশোর একটি মোটরসাইকেল যোগে গাবতলী উপজেলা থেকে বগুড়া শহরের দিকে আসার পথে দ্বিতীয় বাইপাসের সাবগ্রাম বড়িয়া এলাকায় পৌছালে এসময় বিপরীদ-মুখী একটি ট্রাকের সাথে মোটরসাইকেল এর মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। সংঘর্ষে দূর্ঘটনাস্থলেই মোটরসাইকেল আরোহী গাবতলী উপজেলার বাগবাড়ী এলাকার সুমন এর ছেলে মাহিনুর রহমান (১৪) ও একই উপজেলার দূর্ঘাহাটা গ্রামের উজ্জ্বল রহমান এর ছেলে সিতাব মিয়া (১৫) দু' জনের মৃত্যু হয়। 

এব্যাপারে বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ সাইহান ওলিউল্লাহ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত দূর্ঘটনাস্থলে পৌছে ট্রাক ও মোটরসাইকেল পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে এবং প্রাথমিক আইনানুগ পক্রিয়া শেষে নিহত দু' জনের মৃতদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।


আরও খবর



বেচি দই কিনি বই, অতঃপর একুশে পদক

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার সাদা মনের মানুষ জিয়াউল হক পাচ্ছেন একুশে পদক। তাকে শুভেচ্ছা জানাতে বিভিন্ন এলাকা থেকে মানুষ ফুল নিয়ে জড়ো হচ্ছেন তার বাড়িতে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও শুভেচ্ছা-ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছে তিনি। পেশায় দই বিক্রেতা জিয়াউল হক, দই বিক্রির টাকা পরিবারের খরচ মেটানোর পর যা অবশিষ্ট থাকে তা দিয়ে তিনি বই কেনেন। সেই বই তুলে দেন অসহায়-দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে। এভাবেই তিনি হয়ে উঠলেন সাদা মনের মানুষ, পরোপকারী ও একজন সমাজসেবক। এসব কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ তিনি পাচ্ছে একুশে পদক। গত মঙ্গলবার সাংস্কৃতিক বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে তাকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ দেশের ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিককে একুশে পদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গত মঙ্গলবার সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব আইরীন ফারজানা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে পদকপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকায় ১৫ নম্বরে রয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের জিয়াউল হক। তিনি সমাজসেবায় অবদান রাখায় একুশে পদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

জিয়াউল হক (৯১) ১৯৩৮ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার চামামুশরীভূজা গ্রামের এক অতিদরিদ্র মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একুশে পদক পাওয়ার জন্য মনোনীত হওয়ায় বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

সৎ মানুষ ও ভালো দই বিক্রেতা হিসেবে তার নাম জেলা থেকে ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে। তিনি প্রথমত অভাবগ্রস্ত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে বিনামূল্যে পাঠ্যবই বিতরণ করেন। বছর শেষে সেই বই ফেরত নিয়ে আসতেন। পরে তিনি স্থানীয় হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় পাঠ্যবই, পবিত্র কোরআন মাজিদ ও এতিমদের পোশাক দেয়া শুরু করেন। বর্তমানে তিনি ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ডিগ্রী পর্যন্ত বিজ্ঞান, কলা ও বাণিজ্য বিভাগে অনেক ছাত্র-ছাত্রীকে বিনামূল্যে পাঠ্যবই দিয়ে আসছেন। জেলা ছাড়া রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন কলেজের ছাত্রছাত্রীদেরও বই দেন তিনি। যেসব ছাত্রছাত্রী দূর-দূরান্ত থেকে বই নিতে আসেন তাদের যাতায়াত খরচও দিয়ে থাকেন জিয়াউল হক। ঈদে গরিব দুঃখীর মধ্যে কাপড় বিতরণ এবং প্রচ- শীতে দরিদ্রদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করেন।

জিয়াউল হক বলেন, তার বাবা ছিলেন গ্রামের গোয়াল। ষষ্ট শ্রেণিতে পড়ার সময় টাকার অভাবে বই কিনে দিতে পারেননি। এ কারণে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সৌভাগ্য হয়নি। একপর্যায়ে বাবার সঙ্গে শুরু করেন দই বিক্রি।

তিনি বলেন, আমি দীর্ঘ ৬৫ বছর ধরে মাথায় করে দই বিক্রি করি। বেচি দই কিনি বই স্লোগানে ১৯৬৯ সালে ভোলাহাট উপজেলার মুশরিভূজা গ্রামে নিজের নামে জিয়াউল হক সাধারণ পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করি। তিনি বলেন, এরপর থেকেই শুরু হয় আমার সমাজসেবা। এলাকার স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের বিনা মূল্যে বই প্রদান, গ্রামের দরিদ্র মানুষের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা, গরীব-দুঃখীদের বাড়ি নির্মাণ, নলকূপ স্থাপন, দুস্থদের খাদ্য সহায়তা, গরীব শিক্ষার্থীদের স্কুল-কলেজে বেতন পরিশোধসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় কাজে আর্থিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি। আমার মাধ্যমে শত শত মানুষ উপকৃত হচ্ছে।

একুশে পদকের জন্য মনোনীত হওয়ার বিষয়ে জিয়াউল হক বলেন, আমি কোনোদিন ভাবতে পারিনি, একুশে পদক পাবো। আমি অত্যন্ত আনন্দিত। জিয়াউলের ছেলে মহব্বত আলী বলেন, বাবা একুশে পদকের জন্য মনোনীত করায় আমি খুব খুশি। আমি আমার বাবার অবর্তমানে এই পাঠাগারের হাল ধরব এবং সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব।

দলদলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোজ্জামেল হক চুটু বলেন, জিয়াউলকে একুশে পদকের জন্য মনোনীত করায় আমরা গর্বিত।

উল্লেখ্য, রহনপুর স্কাউট দল, ভোলাহাট প্রেস ক্লাব, খুলনা পিপি কলেজ, জেলা প্রশাসন (১৯৯৩ সালে), চ্যানেল আই (২০০৫), নবাবগঞ্জ নয়াগোলা পাঠাগার, ২০০১ সালে ইটিভি ও ২০০৮ সালে ফ্রিডম ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সর্বশেষ ইউনিলিভার বাংলাদেশ ২০০৬ সালে তাকে সাদা মনের মানুষ পদকে ভূষিত করে।


আরও খবর