Logo
শিরোনাম

নওগাঁ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন ঃ


আগামী ২০ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব‍্য নওগাঁ জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের কাউন্সিল অধিবেশন কে কেন্দ্র করে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। নওগাঁ শহরের নওযোয়ান মাঠে কাউন্সিল মঞ্চে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন নওগাঁ জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।

এ সময় নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আব্দল মালেক, সাধারন সম্পাদক খাদ‍্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, সংসদ সদস্য ব‍্যারিষ্টার নিজাম উদ্দিন জলিল জন, সংসদ সদস্য ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ডিজিটাল আর্কাইভ বিষয়ক সম্পাদক প্রিন্সিপাল এম এ হান্নান, কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক, নওগাঁ জেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগের সাবেক সভাপতি নাসিম আহম্মেদ নাসিম এবং জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক এ‍্যাড. ওমর ফারুক সুমন বক্তব‍্য রাখেন। 

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দরা বলেন, আসন্ন কাউন্সিল কোন মাদক ব‍্যবসায়ী, মাদকসেবী, অসামাজিক কার্ক্রমের জড়িত কেউ যাতে আগামী কমিটিতে নেতৃত্বে স্থান না পায় সেদিকে কঠোর নজরদারি রাখা হবে। কোন হাইব্রীড নেতারাও যাতে কমিটিতে আসতে না পারে সে বিষয়েও লক্ষ‍্য রাখা হচ্ছে। তারা বলেছেন আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গঠনমুলক ভুমিকা রাখতে পারবে এমন গ্রহণযোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করতে হবে সম্মলনের মধ‍্য দিয়ে। বর্তমান সরকারের অভাবনীয় উন্নয়নের কার্যক্রম সাধারন মানুষের মধ‍্যে ছড়িয়ে দিয়ে সরকারের ভাবমৃর্তি তুলে ধরতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানানো হয়।


আরও খবর



কু‌মিল্লার ময়নাম‌তি ওয়ার‌ সি‌মেট্টি‌তে ৭ দেশের শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো ঃ

কুমিল্লার ময়নামতিতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত সেনাদের যুদ্ধ সমাধিতে স্মরণ দিবস পালন করে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলো। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত সৈনিকদের স্মরণে কুমিল্লার সেনানিবাস সংলগ্ন ময়নামতি কমনওয়েল্থ যুদ্ধ সমাধিতে (ওয়ার সিমেট্রি) শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ৭টি দেশের হাই কমিশনার ও প্রতিনিধিগন। 

প্রতিবছরের ন‌্যায় নভেম্বর মাসে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে নিহত সেনাদের স্মরণে কুমিল্লার ময়নামতি কমনওয়েলথ যুদ্ধ সমাধি স্থল ওয়ার সিমেট্রিতে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে বাংলাদেশে নিযুক্ত বৃটিশ হাই কমিশনার চ‌্যাটারটন ডিকসন এর নেতৃত্বে ওইসব দেশের হাই কমিশনারগণ ও প্রতিনিধিরা এ স্মরণ সভায় অংশগ্রহণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, যুক্তরাষ্ট্রের হাই কমিশনার পিটার ডি. হাস, অস্ট্রেলিয়ার হাই কমিশনার জেরেমি ব্রæয়ার, কানাডার হাইকমিশনার ড. লিল্লি নিকলস্, জাপানের হাই কমিশনার ইটো নাউকি, পাকিস্তানের ডেপুটি হাই কমিশনার ক্বামার আব্বাস খোখার ও ভারতের দূতাবাসের প্রতিনিধি ব্রিগেডিয়ার এমএস সাবারওয়াল এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন প্রতিনিধিসহ অন্যান্যরা। 


শ্রদ্ধা নিবেদনের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত এবং পবিত্র বাইবেল পাঠের পর ফাদার ক্যাট্টিক প্রার্থনা অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। ব্রিটিশ হাই কমিশনার রবার্ট চ্যাট্টারটন ডিক এর স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রার্থনা পর্ব শেষে সমাধিক্ষেত্রের হলিক্রসে বাংলাদেশের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন কুমিল্লা সেনানিবাসের ৩৩ আর্টিলারী বিগ্রেড কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. রাব্বী আহসান এনডিসি পিএসসি, কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট শিউলি রহমান তিন্নী ও জেলা পুলিশের পক্ষে শ্রদ্ধা জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মো. আফজাল হোসেন। এর আগে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। পরে হাইকমিশনার ও প্রতিনিধিগণ ময়নামতির যুদ্ধ সমাধির হলিক্রস পাদদেশে ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলির মধ্য দিয়ে নিহত সৈনিকদের স্মরণ করেন। এসময় বিউগলে করুণ সুর বেজে ওঠে। ওই প্রার্থনা ও স্মরণ অনুষ্ঠান শেষে কমনওয়েলথভুক্ত দেশের প্রতিনিধিগণ সমাধিস্থল পরিদর্শন এবং দাঁড়িয়ে নীরবতা পালন করেন। 


ব্রিটিশ হাই কমিশনার রবার্ট চ‌্যাটারটন ডিকসন এর নেতৃত্বে কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর হাই কমিশনার ও তাদের প্রতিনিধিরা যুদ্ধাহতদের স্মরনে প্রার্থনা অনুষ্ঠান শেষে হাইকমিশনার, প্রতিনিধি ও তাদের সঙ্গে আসা পরিবারের লোকজন কুমিল্লার ময়নামতি ওয়ারসিমেট্রিতে শায়িত বীর যোদ্ধাদের সমাধি ঘুরে দেখেন। তারা সমাধির সামনে অপলক দৃষ্টিতে কিছুক্ষণ নিরব হয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন। 

কমনওয়েলভ’ক্ত দেশগুলো সংগঠন কমনওয়েলথ গ্রেইভস কমিশনের তত্বাবধানে এ সমাধি ক্ষেত্র পরিচালিত হয়ে আসছে। ১৯৩৯ সাল থেকে ১৯৪৫ সাল পযন্ত দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সময় নিহত সৈনিক ও সেনা কর্মর্কতাদের সমাধিস্থল এটি। ময়নামতি ওয়ার সিমেট্রিতে  ৭৩৭ জন সমাহিত আছে।


আরও খবর

কর্মবিরতিতে নৌযান শ্রমিকরা

রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২




কু‌মিল্লায় বি‌জি‌বি উ‌দ্যো‌গে দুস্থ‌দের মা‌ঝে কস্বল বিতরণ।

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতি‌বেদক ,কু‌মিল্লা ঃ

কু‌মিল্লায় শীতার্ত দুস্থ মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে।  শনিবার বেলা ১১টার দিকে সদ‌রের কা‌লির বাজার না‌র্গিস আফজল বহুমুখী কা‌রিগ‌রি ক‌লেজে ১০‌বি‌জি‌বি উদ্যোগে  শীতার্ত মানুষের হাতে কম্বল তুলে দেওয়া হয়।                                                    কু‌মিল্লা ব‌্যাটা‌লিয়ন ১০ বি‌জি‌বি সেক্টর এর ব্যবস্থাপনায় কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এফআইজি কমান্ডারের পত্নী শামীমা সুলতানা, উপ-শাখা সীপকস্‌ (সেক্টর), কুমিল্লার ভারপ্রাপ্ত কোষাধক্ষ্য ও সমন্বয়কারী অফিসার তানিয়া ইসলাম ।

উল্লেখ্য, আগামীকালও কুমিল্লা ব্যাটালিয়নের (১০বিজিবি) সীমান্তবর্তী বিবিরবাজার বিওপি ও  আগামী ২৯ নভেম্বর সুলতান ব্যাটালিয়নের (৬০ বিজিবি) বড়জ্বালা বিওপির সীমান্তবর্তী দুঃস্থ্য মানুষের মাঝে উপ-শাখা সীপকস (সেক্টর), কুমিল্লার পক্ষ হতে কম্বল বিতরণ করা হবে।


আরও খবর



জন্মনিয়ন্ত্রণে আগ্রহ কমছে

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

সারা দেশে সরকারি জন্মনিয়ন্ত্রণ সেবা নেওয়ার হার কমছে। অনেকে হাতের নাগালের প্রচলিত জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণ করেন। পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের তথ্য বলছে, গত পাঁচ বছরে সাত ধরনের সেবা নেওয়ার হার কমেছে প্রায় ২৪ শতাংশ। আর ছয় বছরের হিসাব করলে এসব সেবা নেওয়ার হার কমে দাঁড়ায় প্রায় ৩৭ শতাংশ। তবে ঢাকার দম্পতিদের মধ্যে দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতি গ্রহণের হার কমছে বেশি।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রচারের অভাবে দম্পতিরা দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতিতে আগ্রহ হারাচ্ছেন। এ কারণে তারা গর্ভধারণ রোধে হাতের নাগালে থাকা পদ্ধতিই বেশি গ্রহণ করেন। তবে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, মানুষকে সচেতন করতে প্রচার চলছে।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর জুলাই থেকে জুন পর্যন্ত অর্থবছর ধরে উপাত্তের হিসাব রাখে। ২০১৭–১৮ থেকে ২০২১–২২ অর্থবছরের উপাত্ত পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, আটটি বিভাগেই দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতি গ্রহণের হার কমেছে। পাঁচ বছরে সারা দেশে জন্মনিয়ন্ত্রণে সব ধরনের সরকারি সেবা নেওয়ার হার প্রায় ২৪ শতাংশ কমেছে। আর স্থায়ী পদ্ধতি নেওয়ার হার কমেছে ৩৩ শতাংশ।

দীর্ঘমেয়াদি ও স্থায়ী পদ্ধতির ৯০ শতাংশের বেশি সেবা দিয়ে থাকে সরকারি সেবাকেন্দ্র। বেসরকারি সংস্থা সোশ্যাল মার্কেটিং কোম্পানিও (এসএমসি) কিছু সেবা দিয়ে থাকে।

ঢাকায় কমেছে যে কারণে :  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম বলেন, দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতির ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যঝুঁকি, যৌন অক্ষমতা, ভবিষ্যতে সন্তান নিতে পারবেন না-অনেকের মধ্যে এমন ভুল ধারণা রয়েছে। এসব ধারণা ভাঙাতে সরকারের যথাযথ উদ্যোগ নেই।

পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের জন্মনিরোধ সেবা ও সরবরাহ কর্মসূচি (সিসিএসডিপি) ইউনিটের সহকারী পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার বলেন, দীর্ঘমেয়াদি সেবার ক্ষেত্রে সরকারি সুবিধা গ্রামপর্যায়ে বেশি। ঢাকাসহ অন্যান্য সিটি করপোরেশন এলাকায় এ সুবিধা কম। তবে প্রশিক্ষণ, বিলবোর্ড, বিজ্ঞাপন, টক শো ইত্যাদি উপায়ে দীর্ঘমেয়াদি পদ্ধতির বিষয়ে প্রচার চালানো হচ্ছে।

সচেতনতা বাড়াতে হবে : স্ত্রীরোগ ও প্রসূতিবিদ্যায় বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সংগঠন অবসটেট্রিক্যাল অ্যান্ড গাইনোকোলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশের (ওজিএসবি) সভাপতি অধ্যাপক ফেরদৌসী বেগম বলেন, কনডমে ৮ শতাংশ অকার্যকারিতা আছে। খাওয়ার বড়িতে ৯৯ শতাংশ কার্যকারিতা থাকলেও বেশির ভাগ নারী নিয়ম মেনে সেবন করেন না।

ফেরদৌসী বেগম বলেন, অপরিকল্পিত গর্ভধারণে নারীর স্বাস্থ্যঝুঁকি থাকে, শিশুটিরও যত্নের ঘাটতি হয়। অস্ত্রোপচারে সন্তান জন্ম দেওয়া (সি সেকশন) নারী বারবার গর্ভধারণ করলে প্লাসেন্টা আক্রিটা সিনড্রোম বা পিএএস দেখা দেয়। এটা একধরনের অস্বাভাবিক গর্ভধারণ। এতে জরায়ুতে নানা জটিলতা দেখা দিতে পারে। তাই দীর্ঘমেয়াদি ব্যবস্থা নিতে সচেতনতা বাড়াতে প্রচার দরকার।


আরও খবর



লালমনিরহাটে গাছে বেধে মারপিটে

আহত করার অপরাধে ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১০ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 নিজস্ব প্রতিনিধি লালমনিরহাট ঃ

লালমনিরহাটের আমিনুল(২৫) নামের এক মানসিক কিশোরকে গাছে বেধে বেধড়ক মারপিটে গুরুতর আহত করার ভিডিও একাত্তর টিভিতে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রচারের পর বৃহস্পতিবার বিকেরে ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশ। 


মানসিক ভারসাম্যহীন আমিনুলকে সদর উপজেলার দুরারকুঠী বাজারে ৯ নভেম্বর  সকাল সোয়া ১০টার দিকে তাকে গাছে বেধে বেধড়ক মারপিটের ঘটনাটি ঘটে।নিমিশেই তা ভাইরাল হয় নেট দুনিয়ায়।

প্রতক্ষদর্শী ও নির্ভরযোগ্য সুত্র জানায় লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ি ইউনিয়নের পুর্ব দৈলজোর গ্রামের নুর ইসলামের পুত্র আমিনুল দীর্ঘ দিন ধরেই স্থানীয় দুরারকুঠী বাজারে অহেতুক সময় কাটানো সহ ঘোরা ফেরা করে আসছিল।ছিল না তার স্বাভাবিক জীবন যাপন কিংবা ক্ষুধার অনুভুতিও।কখনো সে ওই বাজারের বারান্দা কিংবা গভীর রাতে বাড়ি ফিরতো।এঅবস্থায় আকর্ষিক অনাকাঙ্খিত ঘটনাটিতে বিক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেছেন এলাকার মানুষ।

এদিকে আমিনুলের মা বৃহস্পতিবার বিকেলে লালমনিরহাট সদর থানায় ৪ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৪/৫ জনকে আসামী করে ১টি মামলা দায়ের করেন।পরে থানা পুলিশ ওই মামলায় ইসমাইল হোসেন(৬৩)ও মনজুকে (৪০)গ্রেফতার দেখিয়ে লালমনিরহাট জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে প্রেরন করেন।বিজ্ঞা আদালত তাদের জামিন না মন্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ এরশাদ আলম জানান,মানসিক কিশোরকে গাছে বেধে মারপিটের ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক।তিনি আরো জানান,মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরের মা মমেনা বেগমের দায়ের করা মামলায় এজাহার নামীয় আসামী ও ভাইরাল হওয়া ভিডিও ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করে জড়িতদের গ্রেপ্তারের তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। 

মানসিক ভারসাম্যহীন আমিনুলের মা অভিযোগ করে বলেন,পাগল হলেও আমার আদরের সন্তানকে যারা নির্যাতন করেছে আল্লাহতাআলা তাদের ভাল করবে না এবং আমি এর ন্যায় বিচার চাই।


আরও খবর



নওগাঁয় সংবাদ সম্মেলন

রাজনৈতিক দলে ৩৩ শতাংশ নারীনেতৃত্ব নিশ্চিতের দাবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


রাজনৈতিক দলের সব পর্যায়ে ৩৩ শতাংশ নারী নেতৃত্ব নিশ্চিত করাসহ ৭ দফা দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নওগাঁ নারী উন্নয়ন ফোরাম ও অপরাজিতা নেটওয়ার্ক। মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর দুপুরে নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি উপস্থাপন করেন নারী সংগঠনের নেত্রীবৃন্দরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, অপরাজিতা নেটওয়ার্ক এর সদস্য মরিয়ম বেগম। 

তিনি বলেন, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুযায়ী রাজনৈতিক দলগুলোতে ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব রাখার বিধান কার্যকর করার বিষয়টি দিন দিন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-১৯৭২ অনুচ্ছেদে রাজনৈতিক দলগুলির কেন্দ্রীয় কমিটিসহ সকল কমিটিতে ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব ২০২০ সালের মধ্যে নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে নিবন্ধন নিয়েছিল দলগুলো। কিন্তু ২০২২ সাল অতিক্রম করলেও এখনও প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোসহ অন্য কোনো রাজনৈতিক দলই এই শর্ত পূরন করেনি। 

লিখিত বক্তব্য তিনি আরও বলেন, তাই নতুন একটি সময়সীমা বেঁধে দিয়ে আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে রাজনৈতিক দলসমূহের সকল কমিটিতে এক-তৃতীয়াংশ (৩৩ শতাংশ) নারী প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করার শর্ত যুক্ত করে রাজনৈতিক দল নিবন্ধন আইন-২০২০ বাস্তবায়ন করতে হবে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিওতে) রাজনৈতিক দলের সম্পাদকমন্ডলী বিশেষ করে সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ন সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক পদগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নারী অন্তভুক্তিকরণের বিষয়টি আবশ্যক করতে হবে। 

এছাড়া জেলা-উপজেলা এবং ইউনিয়নে রাজনৈতিক দলের মূল কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণ ও অগ্রগতি কতটুকু হলো তা নির্বাচন কর্মকর্তাদের নিয়মিতভাবে পর্যবেক্ষণ করা, জাতীয় ও স্থানীয় সরকারের নির্বাচনে ৩৩ শতাংশ মনোনয়ন দেওয়ার শর্ত যুক্ত করা, রাজনৈতিক দলের কমিটিগুলোর মেয়াদ শেষ হওয়ার সাথে সাথে সম্মেলনের করা এবং যে কোনো নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে নারীর প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে এবং মনোনয়ন বৃদ্ধি করার দাবি জানানো হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও অপরাজিতা নেটওয়ার্ক সদস্য শাহনাজ আক্তার, মরিয়ম বেগম, মর্জিনা বেগম সহ অপরাজিতা নেত্রীবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর