Logo
শিরোনাম

নওগাঁয় ছাত্রীকে যৌন হয়রানি অভিযুক্ত শিক্ষক শ্রীঘরে

প্রকাশিত:Monday ২৮ November ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ 


নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার মেরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান (৫২) এর নামে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার রাতে ভিকটিম শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে সোমবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করেন পুলিশ।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ওই স্কুলে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্রী প্রতিদিনের ন্যায় ২০ নভেম্বর সকাল ১০ টার দিকে স্কুলে যায়। এদিন দুপুর ১২টায় ক্লাস চলাকালীন সময় ওই শিক্ষার্থীকে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাফিজুর রহমান অফিস রুমে ডেকে নিয়ে প্রথমে শিক্ষার্থীকে দিয়ে মাথা টিপে নেয়। এ সময় শিক্ষক হাফিজুর ওই শিক্ষার্থীর শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে যৌনপীড়ন করে। এ ঘটনা ওই শিক্ষার্থী বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারকে জানায়। এরপর ভূক্তভোগীর পরিবারের লোকজন বিদ্যালয়ের সভাপতি, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতিসহ বিভিন্ন জায়গায় জানিয়েও কোন সুরহা না পেয়ে ঘটনাটি গ্রামের লোকজনদের জানালে ওই শিক্ষকের আরও কয়েকজন শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করার বিষয় উঠে আসে। এরপর গ্রামের লোকজন রবিবার সকালে বিদ্যালয়ে গিয়ে ওই শিক্ষকের বিচারের দাবিতে বিদ্যালয় ঘেরাও করে তাকে অবরুদ্ধ করেন।

পরবর্তীতে খবর পেয়ে রাণীনগর থানা পুলিশ ও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে পৌছে প্রায় ৫ ঘন্টা পর বিকাল ৩ টার দিকে শিক্ষককে শাস্তির আশ্বাস দিয়ে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

সত্যতা নিশ্চিত করে রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভিকটিম ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রবিবার রাতে শিক্ষক হাফিজুরকে আসামি করে যৌনপীড়নের মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে সোমবার দুপুরে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরও খবর



বিস্ফোরক মামলায় নওগাঁয় বিএনপির ৯ নেতা কারাগারে

প্রকাশিত:Wednesday ০৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর বদলগাছী উপজেলায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে দায়ের করা মামলায় উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ বিএনপি ও এর অঙ্গ-সংগঠনের ৯ জন নেতা-কর্মীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

বুধবার ৪ জানুয়ারি দুপুরে নওগাঁর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ঐ ৯ জন উপস্থিত হয়ে জামিনের জন্য আবেদন করেছিলেন। তবে বিজ্ঞ আদালতের বিচারক মোঃ আবু শামীম আজাদ তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কারাগারে যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন, নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কৃষকদলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সম্পাদক ফজলে হুদা বাবুল, বদলগাছী উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জাকির হোসেন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাদি চৌধুরী ও দম্পর সম্পাদক শাহিন হোসেন, উপজেলার কোলা ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ওমর ফারুক, বালুভরা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ হোসেন, মিঠাপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, মথুরাপুর ইউনিয়ন যুবদলের সহভাপতি রুস্তম আলী এবং  বদলগাছী উপজেলা কৃষক দলের সভাপতি দুলাল মোহরী।

মামলার এজহার সূত্রে জানা যায়, গত ২২ নভেম্বর সন্ধ্যায় বদলগাছী উপজেলা সদরে আওয়ামী লীগের শোক র‌্যালিতে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।  বিএনপি ও এর অঙ্গ-সংগঠেনর নেতা-কর্মীরা

বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে এমন অভিযোগে উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ছানাউল হোসেন বাদী হয়ে বিএনপি ও এর অঙ্গ-সংগঠেনর ১৮ নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১৫০ জনের বিরুদ্ধে বদলগাছী থানায় মামলা করেন। ঐ দিন রাতেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিএনপির আট নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করে থানা পুলিশ। ঘটনার পর থেকে মামলায় বাকী আসামিরা পলাতক ছিলেন ।

আজ দুপুরে নওগাঁ জেলা ও দায়রা জজ আবু শামীম আজাদের আদালতে ওই মামলার নয় আসামি হাজির হয়ে জামিনের জন্য আবেদন করেন। শুনানি শেষে বিচারক আসামিদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। আসামিপক্ষের আইনজীবী আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করেন।


আরও খবর



মহাদেবপুরে ভীমপুর ইউনিয়ন

আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর মহাদেবপুরে ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  ২৩ জানুয়ারী সোমবার দুপুরে ভীমপুর ইউনিয়নের হাটচকগৌরী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ হাসান আলী মন্ডল।

উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সাংসদ-৪৮, নওগাঁ-৩, মহাদেবপুর-বদলগাছী আসনের এমপি জননেতা আলহাজ্ব মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম এমপি। এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শাকিল আহম্মেদ বাদল, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক জাভেদ জাহাজ্ঞীর সোহেল, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাজুল ইসলাম তোতা,  জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিত কুমার মন্ডল, নওগাঁ জেলা পরিষদ সদস্য ও মহাদেবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি গোলাম নূরানী আলাল, মহাদেবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব ভোদন, মহাদেবপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান ও সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক তরুন সমাজ সেবক সাঈদ হাসান তরফদার ( শাকিল), মহাদেবপুর উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি রাজু আহম্মেদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাসানুল ইসলাম স্বপন তরফদার। সম্মেলনের শেষ পর্বে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম এমপি আলহাজ্ব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান কে সভাপতি ও আতাউর রহমানকে সাধারন সম্পাদক করে ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কমিটি গঠনের ঘোষনা দেন। 


আরও খবর



হাইকোর্ট ফখরুল-আব্বাসের জামিন আবেদন

প্রকাশিত:Monday ০২ January 2০২3 | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের জামিন আবেদন খারিজের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন করেছেন তাদের আইনজীবী।

নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের মামলায় গ্রেফতার বিএনপির এই দুই নেতার জামিনের জন্য গত ১৪ ডিসেম্বর জামিন আবেদন করেন তাদের আইনজীবী। পরদিন, ১৫ ডিসেম্বর ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন শুনানি শেষে তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। এর আগে, ১২ ডিসেম্বরেও ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. শফিউদ্দিন ফখরুল ও আব্বাসের জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন। গত ৯ ডিসেম্বর দুপুরে পুলিশের ওপর হামলার পরিকল্পনা ও উসকানি দেয়ার অভিযোগে পল্টন থানায় করা মামলায় এ দুই নেতাকে গ্রেফতার দেখায় ডিবি।


আরও খবর



শীতের দাপট থাকবে কয়েকদিন

প্রকাশিত:Friday ২০ January ২০23 | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল :মৌলভীবাজারে মাঘের প্রথম সপ্তাহে আবারো জেঁকে বসেছে শীত। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৫ দশমিক ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এটি এখন পর্যন্ত সবচেয়ে কম তাপমাত্রা। উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহের পর এবার শুরু হয়েছে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ। হিমেল বাতাস আর ঘন কুয়াশায় বিপর্যস্ত জনজীবন। তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এদিকে তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। বেড়েছে ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ। সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে শিশু ও বয়স্করা।

মাঝারি ও মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বইছে ২৭ জেলায়। শীতের সঙ্গে ঘন কুয়াশায় বিপর্যস্ত জনজীবন। কষ্টের জীবন কাটছে ছিন্নমূল মানুষের। আরো কিছু দিন শীতের দাপট চলবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

বিভিন্ন স্থানে কুয়াশায় ঢেকে থাকে প্রকৃতি। শীত আর কুয়াশার কারণে প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছেন না কেউ। তারপরও জীবিকার তাগিদে ঘরে বসে থাকলে চলে না অনেকের। মাঘের শীত যতই কাঁপন ধরাক হাড়ে, কাজে বের হওয়ায় নিস্তার নেই।

ঘন কুয়াশা আর সূর্য কিরণের অভাবে দিন ও রাতের তাপমাত্রার পার্থক্য কমেছে। চলতি মাসে দেশের কোথাও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রির উপরে ছিল না। আর ঢাকায় এ মাসে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১ দশমিক ৭ ডিগ্রি।

এদিকে আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাস বলছে, শৈত্যপ্রবাহ থাকবে আরো কিছু দিন। বাড়বে বিস্তৃতি। নতুন করে আরো কিছু জেলায় ওপর দিয়ে বইতে পারে শৈত্যপ্রবাহ।


আরও খবর



কলমাকান্দা বাকলা নদীতে ব্রীজ নিমার্ণের এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image
সোহেল খান দূর্জয় : নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসা সংলগ্ন উব্দাখালী (বাকলা) নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী জানিয়ে আসছে সরকারের কাছে এলাকাবাসী। 

এই বাকলা নদীতে ব্রীজটি নির্মিত হলে প্রায় ১০ থেকে ১৫টি গ্রামের জনজীবন যাপনে অনেকটা সুবিধা হবে, খেয়া দূর্ভোগ থেকে মুক্তি পাবে মানুষ। তাছাড়া হাট বাজার, স্কুল মসজিদ মাদ্রাসা এবং উত্তরে পাকা রাস্তার যানজট ও দূর্ঘটনা এড়িয়ে নিরাপদে যাতায়াত করতে পারবে এলাকার ছাত্র-ছাত্রী ও মানুষেরা।

উপজেলার কয়ড়া মোড় থেকে কান্দাপাড়া  দাখিল মাদ্রাসা ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রায় প্রতিদিনই ৫ কিঃমিঃ কাঁচা রাস্তা দিয়ে পায়ে হেটে এলাকার মানুষ ও ছাত্র ছাত্রীরা স্কুল মাদ্রাসা হাটে জন প্রতি ১০ টাকায় খেয়া পারাপারে যাতায়াত করে থাকে।
এমতাবস্থায় স্থানীয় বাসিন্দারা কয়েক দফায় সরকারের কাছে আবেদন নিবেদন করলেও কে শুনে কার কথা, ৭৫ ফুট লম্বা ৫০ হাত প্রস্থ এই খেয়া পারাপারেই  তাদের জীবন। 

ওই এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা মোঃ আসন আলী ও নোমান মিয়া জানান, স্বাধীনতার পূর্ব থেকেই এই কাঁচা রাস্তা দিয়ে এলাকার ছাত্রছাত্রী ও মানুষেরা পায়ে হেটে খেয়াঘাট পাড়ি দিয়ে কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসায় ও নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয় বাজারে যাতায়াত করে থাকে। বর্ষাকালে আমরা আমাদের ছাত্র ছাত্রীদের নিয়ে আতংকে থাকি খেয়াঘাট ও হেমন্তে বাঁশের চাটায়ে পারাপার ভয়ে!

কান্দাপাড়া দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী মহুয়া হাসান জানান, আমরা প্রতিদিনেই এই রাস্তা দিয়ে মাদ্রাসায় আসা যাওয়া করি, যদি এখানে একটি ব্রীজ হতো তাহলে ভালো হতো, নাজিরপুর পল্লী জাগরণ উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র হানিফ জানান, বর্ষাকালে দূর্গাপুর সুমেশ্বরীর পাহাড়ী ঢলের মাঝেও এই নদী নৌকায় পাড় হয়ে স্কুলে যেতে হয়,এখানে একটা ব্রীজ হলে ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুবিধা হতো। 

বর্তমান নাজিরপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল আলী বলেন, কতবার শুনেছি চয়েলটেষ্ট হচ্ছে নিজেও কতবার বলেছি কিন্তু কেন যে হচ্ছে না বুঝিনা, এই নদীটির ওপর একটি ব্রীজ জনগুরুত্বপূর্ণ, এলাকাবাসীরও দীর্ঘদিনের প্রাণের দাবী এই বাকলা নদীর ওপর একটি ব্রীজ নির্মাণের জন্য।

আরও খবর