Logo
শিরোনাম

নওগাঁয় ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Sunday ১৩ November ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ 


নওগাঁর সাপাহারে ১দিন ব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা ও উদ্ভাবনী অলিম্পিয়াড উপলক্ষে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সাপাহার উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উক্ত প্রেস ব্রিফিং এ স্থানীয় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে মেলায় বিষয় ভিত্তিক ৪টি প্যাভিলিয়নে উদ্ভাবন ডিজিটাল সেবা, হাতের মুঠোয় সেবা এবং শিক্ষা ও কর্মসংস্থান বিভিন্ন সরকারী/বেসরকারী প্রতিষ্ঠান সমূহে সেবা প্রদান নিশ্চিত সহ মডেল এসডিজি রাষ্ট্র এবং ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ বিষয়ক সেমিনার, বিজ্ঞান বিষয়ক কুইজ প্রতিযোগীতা ও স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উপর প্রেস বিফিং করেন সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ আব্দুল্যাহ আল মামুন। এসময় উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মনিরুজ্জামান টকি, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী খাদিজা আক্তার, উপ-সহকারী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী সন্তোষ কুমার কুন্ডু এবং স্থানীয় বিভিন্ন গনমাধ্যম কর্মীগন।


আরও খবর



নওগাঁয় ৫শ ৯ মন ভেজাল গুড় ধ্বংস, ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

প্রকাশিত:Wednesday ০৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর মহাদেবপুরে র‌্যাব ও ভোক্ত অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এর যৌথ অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল গুড় তৈরি ও বিক্রি করার অপরাধে ৪ গুড় ব্যবসায়ীকে ১লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার ৪ জানুয়ারী সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে গুড় তৈরির ভেজাল উপকরণ সহ ৫শ ৯ মন গুড় ধ্বংস করেন।

জানা যায়, জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান এবং সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানা ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, জয়পুরহাট জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ রুবেল আহমেদ এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালনা করে ৫শ ৯মন ভেজাল গুড়, ১শ ৭৪ মন চিনির শিরা, ৬ কেজি ক্ষতিকর রং, ২ কেজি হাইড্রোজেনসহ অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল গুড় উৎপাদন এবং বিপনন করার অপরাধে “বুলেট গুড় কারখানা” এর প্রোপাইটার মোঃ বুলেট হোসেনকে ৩০ হাজার টাকা, ‘আমজাদ গুড় ঘর’ এর মালিক শ্রী প্রদীপ মন্ডলকে ৩০ হাজার টাকা “মালেক গুড় ঘর” এর মালিক মালেককে ২০ হাজার টাকা, ‘জামাল গুড়ের আড়ৎ’ এর মালিক মোঃ জামাল হোসেনকে ৮০ হাজার টাকা সহ মোট ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয় এবং উক্ত ভেজাল গুড়সহ ভেজাল গুড় তৈরীর উপাদানসমূহ ধ্বংস করা হয়।

র‍্যাব আরও জানান, উক্ত ৪টি প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল গুড় উৎপাদন ও বিক্রি করতো বলে জনসম্মুখে স্বীকার করেছেন।


আরও খবর



বান্দরবানে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান, ৫ জঙ্গি আটক

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :বান্দরবানের পাহাড়ে নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র আস্তানায় একাধিক অভিযান চালালেও শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার করা যায়নি। সেখানে নানারকম প্রশিক্ষণ চললেও তাদের লক্ষ্য সম্পর্কে স্পষ্ট কোনো তথ্য পায়নি র‌্যাব । তবে, বান্দরবান ক্যাম্পের অভিযানে আটক পাঁচজনের কাছে মিলেছে নিখোঁজ ৫৫ ব্যক্তির তথ্য।

গেল বৃহস্পতিবার বান্দরবানের থানচি ও রোয়াংছড়ি উপজেলার দুর্গম পাহাড়ি অঞ্চলে র্যাবের অভিযানে গ্রেপ্তার জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়ার ৫ সদস্যকে ছয় দিনের রিমান্ড দেয় রাঙ্গামাটি আদালত।এই রিমান্ডে তারা ঐ নব্য জঙ্গি সংগঠন সম্পর্কে নানা তথ্য দিয়েছে বলে জানায় র‌্যাব।

তারা জানিয়েছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাকিঁ দিয়ে নতুনভাবে জঙ্গীবাদকে সংগঠিত করতে চেয়েছিল নতুন এই সংগঠনটি। তবে তাদের লক্ষ্য সম্পর্কে স্পষ্ট তথ্য পায়নি র‌্যাব ।

এদিকে এখন পর্যন্ত র্যা বের হাতে দেশব্যপী নিখোঁজ তালিকার ৫৫ জনের মধ্যে ৭ জন গ্রেফতার আছে, মারা গেছে ২ জন। কেএনএফের প্রশিক্ষণদাতা ১৪ জন এবং নতুন জঙ্গী সংগঠনটির মোট ৩৫ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। তবে এখনো ধরা পড়েনি কোন সর্বোচ্চ নেতা।

পার্বত্য জেলা বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি, থানচি এবং রাঙামাটির বিলাইছড়ি সীমান্তবর্তী পাহাড়ের গহীন অরণ্যে অর্থের বিনিময়ে এই জঙ্গীদের প্রশিক্ষণ দেয়া ‘কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট’ (কেএনএফ)-এর সর্বোচ্চ পর্যায়ের নেতাদেরও এখনো ধরা যায়নি।


আরও খবর



প্রতিবেশীদের নিয়ে ধামরাইয়ে শুরু ‘প্রতিবেশী উৎসব’

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন (স্টাফ রিপোর্টার)

ঢাকার ধামরাইয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল আইএফআইসি BANK এর ‘প্রতিবেশী উৎসব'

উক্ত অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন ধামরাই পৌরসভার সুযোগ্য মেয়র আলহাজ্ব গোলাম কবির মোল্লা।অনুষ্ঠানটি সভাপতিত্ব করেন শাখা ব্যাবস্হাপক এ.বি.এম. মাসুম। 

আইএফআইসি যখন প্রতিবেশী ব্যাংকিং করি যত খুশি !আইএফআইসি ব্যাংক উপশাখা আরো কাছে সবার মাঝে পাড়ায় পাড়ায় আমার ব্যাংক। •এজেন্ট বা কারো মাধ্যমে নয় সরাসরি ব্যাংকের কাছ থেকে ব্যাংকিং সেবা  • ব্যাংকের নিজস্ব কর্মী দ্বারা পরিচালিত • ঋণসহ সব ব্যাংকিং সেবা • শাখার মতোই রিয়েল টাইম ব্যাংকিং অভিজ্ঞতা • এর মধ্যেই গ্রাম- শহর সারাদেশে ছড়িয়ে গেছে আইএফআইসি ব্যাংক উপশাখা।

শহুরে জীবন মানুষকে এক ধরনের বিচ্ছিন্নতাবােধের দিকে ঠেলে দিয়েছে।যেখানে প্রতিবেশীদের নিজেদের মধ্যে কোনাে যােগাযােগ নেই, যেখানে একই এলাকার ভেতরে এক প্রতিবেশীর কাছে অপর প্রতি বেশীকে আগন্তুক বলে মনে হয়, যা সামাজিকভাবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ‘প্রতিবেশী কমিউনিটি’কে দুর্বল করে ফেলছে।প্রতিবেশীদের মধ্যে এ সংযােগকে পুনরুজ্জীবিত করে তুলতেই ঢাকার ধামরাইয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘প্রতিবেশী উৎসব’।


আরও খবর



রাণীনগরে স্বাভাবিক প্রসব সেবা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Tuesday ০৩ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :


নওগাঁর রাণীনগরে ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে ২৪/৭(সার্বক্ষণিক) স্বাভাবিক প্রসব সেবা জোরদারকরণ বিষয়ক অবহিত কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় আয়োজিত ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের এমসিএইচ-সার্বিসেস ইউনিট কর্তৃক বাস্থবায়িত এই দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

 রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহাদাত হুসেইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা রাজশাহী বিভাগের পরিচালক দেওয়ান মোর্শেদ কামাল,এমসিএইচ ও প্রোগ্রাম ম্যানেজার (মাতৃস্বাস্থ্য) বিভাগের উপ-পরিচালক ডা. মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রধান, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) কস্তুরী আমিনা কুইন, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুনির আলী আকন্দ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু, ভাইস চেয়ারম্যান জার্জিস হাসান মিঠু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা বেগম, সহকারি কমিশনার (ভূমি) হাফিজুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কেএইচএম ইফতেখারুল আলম খাঁন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. মামুনাল হক প্রমুখ। কর্মশালায় উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী, জনপ্রতিনিধি, গনমাধ্যমকর্মীসহ শতাধিক ব্যক্তি অংশগ্রহণ করে। 


আরও খবর



স্বপ্নের মেট্রোরেলের লোগো বানিয়েছেন নওগাঁর নিশান

প্রকাশিত:Friday ৩০ December ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


স্বপ্নের মেট্রোরেলের লোগো বানিয়েছেন নওগাঁর নিশান।

গত বুধবার চালু হয়েছে স্বপ্নের মেট্রোরেল। 

আর স্বপ্নের মেট্রোরেলের লোগো বানিয়েছেন নওগাঁর কৃতি সন্তান আলী আহসান নিশান। নিশান নওগাঁ জেলা সদর পৌরসভার ধামকুড়ি এলাকার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত আব্দুল কুদ্দুস এর ছেলে। মূল লোগো ছাড়াও মেট্রোরেল এর স্টেশনে যে সাইনগুলো রয়েছে সেগুলোও তার করা। মেট্রোরেলের লোগো বানিয়ে ইতিহাসের অংশ হওয়া নিশানকে নিয়ে নওগাঁর মানুষ গর্বিত। নিশান এখন নওগাঁর ট্যক অব দ্য টাউন।

সৈয়দপুরে রেলের লোকোমোটিভ ওয়ার্কসপের ইঞ্জিন হল্ড কারখানার তত্ত্বাবধায়ক হিসাবে কাজ করতেন নিশানের বাবা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চারুকলা অনুষদের গ্রাফিকস ডিজাইন বিভাগ থেকে সদ্য পাস করা নিশান জানান, লোগোর মধ্যে তুলে ধরা হয়েছে বাংলাদেশকে। একটা লাল সূর্য উঠছে। নিচে বাংলার চিরচেনা সবুজের মাখামাখি। দু-ইয়ে মিলে বাংলাদেশ। মেট্রোর ''এম'' অক্ষরটাও এমনভাবে বসানো, মনে হবে যেন প্লাটফর্ম। রেলটির দিকে কিছুক্ষণ তাকালেই মনে হবে ওটা স্থীর নয়, ছুটে চলেছে। উন্নয়ন-অগ্রগতিতে বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়াকে ইঙ্গিত করছে ছুটে চলা রেল। বাংলাদেশের যে উন্নয়নের গতি, সেটা লোগোর দিকে তাকালে লক্ষ্য করা যাবে। সাধারণত লোগো স্থির প্রকৃতির হয়। এর রঙের ব্যবহারেও এক ধরনের ভারসাম্য থাকে। যেন চোখটা আটকে থাকে। এতে এক ধরনের গতি আছে।

নিশান তার লোগো তৈরির গল্প বলেন এভাবে, ''সদ্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করে বেরিয়েছি। কোনো কাজ নেই। চলতি বছরের শুরুর দিকে একদিন বিভাগের এক শিক্ষকের কাছে যাই। তিনি আমাকে বললেন মেট্রোরেলের লোগো নির্বাচনের জন্য প্রযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণকারীদের প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। তুমি প্রতিযোগিতায় অংশ নাও। স্যারের আহ্বানে আমি ৩টি লোগো বানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগে জমা দেই। অনেকেই লোগো বানিয়ে জমা দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাঠানো ৩টি লোগোর মধ্যে আমার দুটো ও অন্যজনের একটি পাঠানো হয়। এরপর জাতীয়ভাবে জমা হওয়া লোগোগুলোর মধ্যে থেকেও শর্টলিস্ট হয়। সেখান থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমার লোগোটি চুড়ান্ত করেন।

প্রতিযোগিতায় নির্বাচিত হবার পরও সেই লোগো নিয়ে কয়েক বার কাজ করতে হয়েছে জানিয়ে নিশান বলেন, এখন লোগোতে থাকা ''এম'' অক্ষরটি লিখে যে প্লাটফর্ম বোঝানো হয়েছে, প্রথমে তা ছিল না। বিশ্বের ৩৫টি দেশে মেট্রোরেলের লোগোতে ''এম'' রয়েছে। ওটাকে যুক্ত করার সময় একটু নতুনত্ব আনা হয়েছে। এছাড়া লোগো যখন বানানো শুরু করি তখন মেট্রোরেল দেখতে কেমন সেটাও জানা ছিল না। তাই প্রথম যে রেলটা ব্যবহার করেছিলাম সেটি দেখতে বুলেট ট্রেনের মতো ছিল। পরে যখন মেট্রোরেলের ইঞ্জিন দেখলাম তখন কিছুটা পরিবর্তন করে দেওয়া হলো।

আরো বলেন, পুরো কাজ শেষ করতে ৬ মাসের মতো সময় লেগেছে। চলতি বছরের মে মাসে যখন কাজ'টি হলো আমি ভীষণ উত্তেজিত ছিলাম। অনেক প্রতিষ্ঠানে লোগো করেছি কিন্তু এতটা ভালো লাগা কাজ করেনি। বাংলাদেশের ইতিহাসের অংশ হওয়ার আনন্দ অবশ্যই অন্যরকম।

মেট্রোরেরেলের সাইনের কাজ করতে গিয়ে দেশের সব স্তরের মানুষ যেন চিহ্ন গুলো দেখে বুঝতে পারেন কোন দিকে যেতে হবে, টয়লেট কোন দিকে, টিকিট কোথায় পাবেন-এসব ভাবতে হয়েছে।

নিশান এর গ্রামের বাসিন্দা বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নওগাঁ জেলা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার সিরাজুল ইসলাম বলেন, স্বপ্নের মেট্রোরেলের লোগো বানিয়েছে আমাদের গ্রামের সন্তান নিশান। দোয়া করি, ইতিহাসের অংশ হওয়ার মতো নিশান যেন আগামীতে আরো ভালো, ভালো কাজ করতে পারে। 

নওগাঁর সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন একুশে পরিষদ নওগাঁর সভাপতি ডিএম আব্দুল বারী বলেন, নিশানের মধ্যে যে শিল্পী সত্ত্বা আছে, আশা করি ভবিষ্যতে তার আরও অনেক ভালো কাজ দেখতে পারব। তার দ্বারা দেশ ও জাতি উপকৃত হবে।


আরও খবর