Logo
শিরোনাম

নওগাঁয় গৃহবধূ'র মৃত্যু, স্বামী সহ পরিবারের লোকজন পলাতক

প্রকাশিত:Monday ২১ November ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


নওগাঁয় মাত্র দু' বছর বয়সি এক শিশু সন্তানের মা গৃহবধূ'র মৃত্যু, স্বামী সহ পালিয়েছে পরিবারের লোকজন। মৃত্যু বরণকারী গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমা (২১)

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার

দক্ষিণ আন্ধারকোঠা গ্রামের সুমন এর স্ত্রী। তাদের রিমন হোসেন নামে মাত্র দু' বছর বয়সি এক ছেলে সন্তান রয়েছে। এঘটনায় গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমা'র বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

জানা গেছে, শুক্রবার ১১ নভেম্বর সন্ধার পর গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমাকে গুরুতর অবস্থায় তার স্বামী সহ স্বামীর বাড়ির স্বজনরা নওগাঁ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক রিমা আক্তার রুমাকে মৃত ঘোষনা করে বলেন হাসপাতালে নেওয়ার পূর্বে তার মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর বিষয় জানার পরই গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমা'র মৃতদেহ হাসপাতালে রেখেই হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান তার স্বামীসহ স্বজনরা। এক পর্যায়ে মেয়ে হাসপাতালে আছেন এমন খবর পেয়ে নওগাঁ সদর উপজেলার কুমুরিয়া গ্রাম থেকে হাসপাতালে ছুটে আসেন রিমা আক্তার রিমা'র বাবা মা সহ স্বজনরা। হাসপাতালে এসে তারা তাদের মেয়েকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান। স্বজনদের অভিযোগ যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমাকে তার স্বামী শ্বশুর ও শাশুড়ি মাঝে মাঝেই নির্যাতন করতো। এসময় তারা অভিযোগ করেন, রিমা আক্তার রুমাকে মারপিট 'নির্যাতন' করে মারার পর গলায় ওড়না'র ফাঁস লাগিয়ে ঝুলিয়ে রেখে এবং পরবর্তীতে হাসপাতালে এনে ঘটনাটি ভিন্ন খাতে নিতে অপচেষ্টা করেছে তার স্বামী, শ্বশুর সহ স্বজনরা।

গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমার স্বামীর বাড়ি দক্ষিন আন্ধারকোঠা গ্রামের বেশ কয়েক জন তাদের নাম-পরিচয় গোপন রাখার শর্তে প্রতিবেদককে জানান, রিমা আক্তার রুমার স্বামী সুমন একজন মাদক সেবি। সে মাঝে মাঝেই তার স্ত্রীকে মারপিট করতো, এমনকি ঘটনার দিনও হাসপাতালে নেওয়ার পূর্বেও তাকে মারপিট করা হয় জানিয়ে তারা বলেন, প্রশাসন তদন্ত করলে সত্য ঘটনা উদর্ঘাটন হবে।

অপরদিকে হত্যার অভিযোগ অস্বিকার করে নিহত গৃহবধূ রিমা আক্তার রুমা'র চাচা শ্বশুর দক্ষিন আন্ধারকোঠা গ্রামের হারুন অর রশিদ (৪৫) প্রতিবেদক কে জানান, ঘটনার দিন বা সময় তার ভাইস্তা বউ নিজ শয়ন ঘড়ের ভেতর ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে ঝুলছিলো, দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এসময় প্রতিবেশি নারী সহ অপর একজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ঘটনার দিন স্বামী-স্ত্রী বিবাদের এক পর্যায়ে রিমা আক্তার রুমাকে তার স্বামী নির্যাতন করেন। এর পরই তারা হৈ চৈ করেন এবং হাসপাতালে নিয়ে যান।

এঘটনায় ঐ দিন রাতেই রিমা আক্তার রুমার বাবা ইলিয়াস কবিরাজ বাদী হয়ে মহাদেবপুর থানায় রিমা আক্তার রুমার স্বামী সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা এস আই জিয়াউর রহমান জানান, তদন্ত পূর্বক জড়ীতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



পশ্চিমবঙ্গে আসছেন নরেন্দ্র মোদী

প্রকাশিত:Friday ৩০ December ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ২৬ January ২০২৩ |
Image

পশ্চিমবঙ্গে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শুক্রবার ৭ হাজার ৮০০ কোটি রুপির প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন তিনি। একইসাথে কলকাতায় জাতীয় গঙ্গা কমিশনের মিটিংয়েও সভাপতিত্ব করবেন মোদী।

জলশক্তি দফতরের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, উত্তরাখণ্ড, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, ঝাড়খণ্ড, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীরাও এই বৈঠকে অংশ নেবেন। গঙ্গাকে দুষণমুক্ত করতে ৯৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে ২০টি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন নরেন্দ্র মোদী। এছাড়া, হাওড়া-এনজেপি সেমি হাই স্পিড বন্দে ভারত এক্সপ্রেস ট্রেনের উদ্বোধণ করবেন। কলকাতা মেট্রোর জোকা-তারাতলা সম্প্রসারিত অংশেরও সূচনা হবে আজ। 


আরও খবর



শ্রীনগরে চাঁদাবাজি মামলায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Sunday ০৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শ্রীনগর সংবাদদাতা :


মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরে চাঁদাবাজি মামলায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার বেলা ১১ টার দিকে কামারগাও এলাকা থেকে ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল আমিন মোড়ল সহ ১৩ জনকে বিবাদী করে কামারগাও এলাকার মৃত ইদ্রিস মুন্সীর ছেলে মোঃ হাবিবুর রহমান মুন্সীগঞ্জ আদালতে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, ওই এলাকায় হাবিবুর রহমানের একটি ভবন নির্মাণকে কেন্দ্র করে চাঁদাদাবীর অভিযোগ এনে তিনি আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক মোঃ এজাজুল হক তদন্ত প্রতিবেদন প্রদান করেন। পরে আদালত নুরুল আমিন মোড়ল সহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করে। পরোয়ানা পেয়ে শ্রীনগর থানা পুলিশ ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করে। 

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, আদালতের গ্রেপ্তারী পরোয়ানা থাকায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরও খবর



কাছিমারচর টেকনিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ

প্রকাশিত:Wednesday ২৮ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

জামালপুর প্রতিনিধি :


জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার কাছিমারচর টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ সোলায়মান হোসেনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অধ্যক্ষের অপসারণের দাবিতে বুধবার দুপুরে কলেজ মাঠে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে স্থানীয় এলাকাবাসী। কলেজ মাঠে বিক্ষোভ শেষে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সমাজসেবক আতাউর রহমান,মোসাব্বের রহমান, মাহফুজ আহম্মেদ,আবদুল বাসেদ, শামীম মিয়া,তোফাজ্জল হক,বাবুল মিয়া ও সামছুল হক প্রমূখ।  

মানববন্ধনে মোসাব্বের রহমান বলেন, কাছিমারচর টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ সোলায়মান হোসেন আমার সহোদর বড় ভাই। তিনি আমাকে কলেজে চাকুরি দেওয়ার কথা বলে কলেজের নামে আমার কাছ থেকে জমি নেন। জমি নেওয়ার পর আমার যোগ্যতা থাকা সত্বেও চাকুরি না দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে অযোগ্য লোককে নিয়োগ দিয়েছেন। তিনি আমার সাথে প্রতারণা করেছেন। তিনি আরো বলেন,এই কলেজে পড়াশোনা একেবারেই হয়না। প্রতিদিন বেলা ১২ দিকেই কলেজ বন্ধ করে শিক্ষকরা চলে যান। তাই অধ্যক্ষের বিচার চাই,তার অপসারণ চাই। 

আতাউর রহমান বলেন, কাছিমারচর টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ সোলায়মান হোসেন অধ্যক্ষ একজন দুর্নীতিবাজ। নানা অনিয়মের মাধ্যমে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে অযোগ্য লোককে নিয়োগ দিয়েছেন। এলাকাবাসী অধ্যক্ষের অপসারনের দাবিতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে। 

এ ব্যাপারে কাছিমারচর টেকনিক্যাল এন্ড বিএম কলেজের অধ্যক্ষ সোলায়মান হোসেন জানান,পারিবারিক কলহের জেরে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। পারিবারিক বিরোধের কারনেই বহিরাগত কিছু লোক এনে কটি কুচক্রি মহল আমার বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে। আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ ভিত্তিহীন।


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান

উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে পার্বত্য অঞ্চল- পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

মো. রেজুয়ান খান:


পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য অঞ্চলকে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, পার্বত্য অঞ্চল এখন আর পিছিয়ে পড়া জনপদ নয়। পার্বত্য অঞ্চল এখন দেশের সম্পদ। সমতলের মতোই পার্বত্য চট্টগ্রামের মানুষ এখন দেশের উন্নয়নে সমানভাবে ভূমিকা রাখছে। সংশ্লিষ্টদের উদ্দেশ্য করে তিনি আরও বলেন, আমাদের চলমান প্রকল্পগুলো যথাযথভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে যেন বলতে পারি, আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছেন, তা আপনার দিকনির্দেশনায় সঠিকভাবে সম্পন্ন করেছি।
আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এডিপি বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি এসব কথা বলেন।
সভার সভাপতিত্ব করেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোসাম্মৎ হামিদা বেগম।
সম্প্রতি সফলভাবে সম্পন্ন হওয়া পার্বত্য মেলা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বীর বাহাদুর বলেন, মন্ত্রণালয়ের সচিব, অতিরিক্ত সচিব, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড, পার্বত্য তিন জেলা পরিষদ ও অন্যান্য সহযোগী প্রতিষ্ঠান অত্যন্ত সুন্দর, সফল ও আকর্ষণীয়ভাবে মেলার কাজ সম্পন্ন করেছেন। এ জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পার্বত্য জেলা পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড-এর কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের কোমর তাঁতের কাপড়, পুঁথির মালা, কুটির শিল্প, হস্তশিল্প খুবই সুন্দর ও সূ²। এগুলোর মান যথেষ্ট ভালো। এর ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য আপনারা পরিকল্পনা নেন। মিশ্র ফল বাগান, তুলা চাষ ও আখ চাষের উপর কৃষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন। মন্ত্রী বলেন, এবারের পার্বত্য মেলা দেশের বিভিন্ন এলাকার মানুষ স্বতঃস্ফ‚র্তভাবে উপভোগ করেছেন।
সভায় তিন পার্বত্য জেলায় ০৩টি কোল্ড স্টোরেজ নির্মাণ, পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় টেকসই সামাজিক সেবা প্রদান প্রকল্পের কার্যক্রম, পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় মিশ্র ফল চাষ এবং মসলা চাষ প্রকল্প, পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় টেকসই সামাজিক সেবা প্রদান প্রকল্প, পার্বত্য চট্টগ্রামে তুলা চাষ বৃদ্ধি ও কৃষকদের দারিদ্র্য বিমোচন, পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে কফি ও কাজুবাদাম চাষের মাধ্যমে দারিদ্র্য হ্রাসকরণ, পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ (২য় পর্যায়) প্রসঙ্গে আলোচনা হয়।
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোসাম্মৎ হামিদা বেগম এর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে পার্বত্য চট্টগাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সত্যেন্দ্র কুমার সরকার, অতিরিক্ত সচিব মো. আমিনুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রæ চৌধুরী, পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রত্যন্ত এলাকায় সোলার প্যানেল স্থাপন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ উপস্থিত ছিলেন।



লেখক ঃ জনসংযোগ কর্মকর্তা, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়,

আরও খবর



ত্রিশালে ৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ময়মনসিংহের ত্রিশালের মোখলেসুর রহমান মুকুলসহ পলাতক ছয় আসামিকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামসহ তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করেন।

আটক, অপহরণ, নির্যাতন, হত্যাসহ ছয়টি অভিযোগে আসামিদের বিরুদ্ধে রায় দেয়া হয়। রায়ে পলাতকদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।তিনজনকে হত্যার অভিযোগে তাদের মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়। বাকি তিন অভিযোগে ৭ বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। বিচার শুরুতে এ মামলায় মোট নয় আসামি ছিলো। কারাগারে তিন আসামি মারা যায়। ২০১৭ সালের ২৬ জানুয়ারি এ মামলার তদন্ত শুরু হয়। ওই বছরের ৩১ ডিসেম্বর তদন্ত সংস্থা অনুসন্ধান কাজ শেষে প্রতিবেদন জমা দেয়।পরের বছর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।  


আরও খবর