Logo
শিরোনাম
শবে বরাত পালন মুসলিম জাতিকে একতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে। ৫৭ তম খোশরোজ শরীফ ও মইনীয়া যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবীতে প্রতীকী লাশ নিয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মিছিল লক্ষ্মীপুরে কৃষক কাশেম হত্যা: স্ত্রী, শ্বশুরসহ গ্রেপ্তার ৫ কুমিল্লা সিটি’র উপনির্বাচন: মেয়র পদে প্রতীক বরাদ্দ অবৈধ মজুদকারীরা দেশের শত্রু : খাদ্যমন্ত্রী ফতুল্লায় সিগারেট খাওয়ার প্রতিবাদ করায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

নওগাঁয় লুণ্ঠিত ৩৪২ বস্তা চাল ও চাল বিক্রির টাকাসহ ১২ ডাকাত আটক

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

নওগাঁয় পুলিশ কর্তৃক আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় ১২ জন ডাকাত সদস্য গ্রেফতার, লুষ্ঠিত ট্রাকসহ ৩৪২ বস্তা চাল ও চাল বিক্রির নগদ ২ লাখ ১৬ হাজার ৪৫০ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার বেলা ১১টায় নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার এর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জেলা পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাশিদুল হক জানান, 

গত ২২মার্চ রাত আনুমানিক দেরটারদিকে নওগাঁ জেলা সদর উপজেলার বাইপাস সড়ক থেকে ৮ জন ডাকাত ট্রাকের চালক ও হেলপারকে বেঁধে রেখে একটি চাল বোঝাই ট্রাক ডাকাতি করেন। ট্রাকটি ৪শ' বস্তা আতব চাল নিয়ে গাইবান্ধা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ যাচ্ছিল। যাওয়ার পথে রাত একটার পরে নওগাঁ সদরের বাইপাস সড়কের ইকরতারা নামক স্থানে পৌঁছলে ডাকাত দল রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে উক্ত ট্রাকটি থামিয়ে ড্রাইভার এবং হেলপারকে ট্রাক থেকে নামিয়ে রাস্তার পাশে মাঠের মধ্যে হাত পা বেঁধে রেখে দু'জন ডাকাত ট্রাকটি নিয়ে চলে যায়। প্রায় দুই থেকে আড়াই ঘণ্টা পর অপর ডাকাতরা ড্রাইভার এবং হেলপার’কে ফেলে রেখে চলে যায়। ভোরে ড্রাইভার এবং হেলপার কৌশলে তাদের হাতের বাঁধন খুলে পাশে লোকালায়ে গিয়ে বিষয়টি জানালে তারা সকালে ঘটনাটি পুলিশকে জানায়।

এ সংক্রান্তে নওগাঁ সদর মডেল থানা একটি মামলা দায়ের হলে নওগাঁ জেলা পুলিশ সুপার এর সার্বিক সহযোগীতা ও দিক নির্দেশনায় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ গাজিউর রহমান পিপিএম এর নেতৃত্বে সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফৌজিয়া হাবিব খান ও নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফয়সাল বিন আহসান এর নের্তৃত্বে পুলিশের চৌকস টিম ডাকাতদের সনাক্ত করার জন্য কার্যক্রম শুরু করেন। এক পর্যায়ে বগুড়া জেলার শেরপুর থানার রানিরহাটে পরিত্যক্ত অবস্থায় ট্রাকটি উদ্ধার করা হয়। এরপর প্রযুক্তি এবং সোর্সকে কাজে লাগিয়ে পুলিশ নিশ্চিত হয় যে, ডাকাতিকৃত চাল শেরপুর থানার একটি গোডাউনে আনলোড করা হয়েছে গত ২৮ মার্চ সেখানে অভিযান চালিয়ে ডাকাতিকৃত চালের দুই জন ক্রেতাকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ডাকাত সোহাগের বাড়ী থেকে ১০ বস্তা চাল এবং বগুড়া সদরের নিশিন্দারা হতে ২০ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও গত ২৯ মার্চ কাহালু থানা এলাকা থেকে শাজির উদ্দীন মন্ডল ওরফে মিলন ডাকাতকে গ্রেফতার করে তার কাছে থেকে ১১১ বস্তা চাল উদ্ধার করা হয়। এরপর ২৯ মার্চ ডাকাত জিয়াকে কাহালু থানা এলাকা থেকে এবং ৩০ মার্চ রাতে ডাকাত শাজাহান ওরফে লালন, মেহেদী এবং ইউসুফকে জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর থানা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ডাকাত মেহেদী হাসান ও ইউসুফ বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

জেলা পুলিশ সুপার আরো বলেন, গতরাতে বগুড়া সদরে অভিযান চালিয়ে ডাকাত মাহফুজ, রাজু পালোয়ান এবং রতনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত রাজু পালোয়ানকে নিয়ে সিরাজগঞ্জ-এ অভিযান চালিয়ে ডাকাতিকৃত চাল বিক্রয়ের সাথে জড়িত হাটিকুমরুল এলাকার শরিফকে গ্রেফতার করে তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ১১১ বস্তা চাল বিক্রির নগদ ২ লাখ ১৬ হাজার ৪৫০ টাকা তার নিকট হতে জব্দ (উদ্ধার) করা হয়।

এছাড়াও গ্রেফতারকৃত ডাকাতদের কাছ থেকে ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত দেশীয় অস্ত্র হাসুয়া, দা, প্লাস ও হাতুড়ি উদ্ধার করা হয়।

উল্লেখ্য যে, দেশের বিভিন্ন জেলায় গ্রেফতারকৃত আসামী জিয়ার বিরুদ্ধে ডাকাতি সহ ৭টি, আব্দুল মজিদের বিরুদ্ধে ডাকাতি সহ ৪টি, মেহেদীর বিরুদ্ধে ডাকাতিসহ ২টি, রতনের বিরুদ্ধে ডাকাতি সহ ৭টি এবং রাজু পালোয়ানের বিরুদ্ধে খুন-ডাকাতিসহ ৮টি মামলা রয়েছে।


আরও খবর



রাণীনগরে ফুটবল ফাইনাল খেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

নওগাঁর রাণীনগরে ফুটবল ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার করজগ্রাম হাইস্কুল মাঠে করজগ্রাম যুব সংঘ কতৃক আয়োজিত এই খেলা অনুষ্ঠিত হয়। খেলায় নির্ধারিত সময়ে আদমদীঘির বিহিগ্রাম ফুটবল একাডেমি ও রাণীনগরের কাটরাশাইন কে, এসপি তরুন সংঘ ১-১ গোলে ড্র হয়। পরে টাইব্রেকারে মাধ্যমে ৫-৩ গোলে আদমদীঘির বিহিগ্রাম ফুটবল একাডেমিকে হারিয়ে রাণীনগরের কাটরাশাইন চাম্পিয়ন হয়। খেলা শেষে বিজয়ী ও বিজিতদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন নওগাঁ-৬ আসনের এমপি এ্যাডভোকেট ওমর ফারুক সুমনের ছেলে জনি,আনোয়ার হোসেন বিএ, আব্দুল ওহাব চাঁন,আনিছুর রহমান,সিরাজুল ইসলাম বাবলু মন্ডল,আবু বক্কর সিদ্দিক বাচ্চু,গোলাম মুক্তাদি,জাহিদুল ইসলাম টুকু,জাহাঙ্গীর মোল্লা, নজরুল ইসলাম মাঝি, হেলাল উদ্দিন,রাইহান ইসলাম রণি মল্লিক,রহিদুল মল্লিক,দৌলত খানসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। রাতে সাংস্কৃতিক অনষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।


আরও খবর



বান্দরবান সীমান্তে ব্যাপক গুলি ও বোমা বর্ষণ

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

বাংলাদেশ মায়ানমার সীমান্তে ব্যাপক গুলি বিনিময় ও বোমা বর্ষণ হচ্ছে। শনিবার দিবাগত রাত ৩টা থেকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ও তুমব্রূ সীমান্তে থেমে থেমে গুলি ও বোমা বর্ষণ চলছে। বেশ কয়েকটি গুলি ও মটারশেল এসে পড়েছে বাংলাদেশের ভূখণ্ডে। এতে হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও কোনাপাড়ার কয়েকটি ঘর বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এদিকে সংঘর্ষে টিকতে না পেরে মায়ানমারের বর্ডার গার্ড পুলিশ বিজিপির ১৪ জনেরও বেশি সদস্য বাংলাদেশের ভূখণ্ডে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের ধুমধুম বিজিবি ক্যাম্পে আশ্রয় দেয়া হয়েছে। সীমান্ত পথে আরো ৩০ জনেরও বেশি বিজিপি সদস্য বাংলাদেশে ঢোকার জন্য অবস্থান নিয়েছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

ঘুমধুম ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ জানিয়েছেন, মিয়ানমারের বিজিপির সদস্যরা তুমব্রূ সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশ আশ্রয় নিয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে সীমান্তে লাগুয়া স্কুলগুলো আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ বর্ডার গার্ড বিজিবি নিরাপত্তা বাড়িয়েছে সীমান্তে। নিরাপত্তা চৌকিগুলোতে সদস্য সংখ্যা বাড়িয়ে টহল বৃদ্ধি করা হয়েছে। সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বিজিবি।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন জানিয়েছেন, সীমান্তে যত অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সেজন্য সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে প্রশাসন থেকে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সীমান্তের দিকে নজর রাখতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, মায়ানমারের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন আরাকান আর্মির সাথে সে দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ চলছে। এ সংঘর্ষের জের ধরে গত এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ও তুমব্রূ সীমান্তেও উত্তেজনা চলছে। মায়ানমারের বিদ্রোহীরা দখল করে নিয়েছে মায়ানমারের তুমব্রূ ক্যাম্পটি।


আরও খবর



রমজান মাসে খোলা থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

ছুটির তালিকা ও শিক্ষাপঞ্জি আংশিক সংশোধন করে রমজানে স্কুল খোলা রাখার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে পবিত্র রমজানের প্রথম ১৫ দিন ক্লাস চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রণালয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২০২৪ সালের শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকা ও শিক্ষাপঞ্জি আংশিক সংশোধন করা হয়েছে। আগামী ১১ মার্চ ২০২৪ থেকে ২৫ মার্চ ২০২৪ পর্যন্ত মোট ১৫ দিন সরকারি/বেসরকারি মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোর শ্রেণি কার্যক্রম চালু রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

২০২৪ সালের ১১ অথবা ১২ মার্চ বাংলাদেশ রোজা শুরু হতে পারে বলে জানা গেছে।

এর আগে গত বছরের ১২ ডিসেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে জানানো হয় প্রতিষ্ঠান প্রধানের তিন দিনের সংরক্ষিত ছুটিসহ বিভিন্ন দিবস উপলক্ষ্যে মোট ৭১ দিন বন্ধ থাকবে।

ছুটির তালিকা অনুযায়ী, পবিত্র রমজান, ঈদুল ফিতর, গ্রীষ্মকালীন অবকাশ, জাতীয় শিশু দিবস, স্বাধীনতা দিবস, ইস্টার সানডেসহ বেশ কয়েকটি সরকারি ছুটির সমন্বয়ে টানা এক মাসের বেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি থাকবে। এ ছুটি শুরু হবে ১০ মার্চ থেকে চলবে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত।

আজ ছুটির সেই তালিকায় সংশোধনী আনা হলো। সংশোধনী অনুযায়ী ১১ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

অন্যদিকে ঈদুল আজহা উপলক্ষ্যে সাত দিন এবং দুর্গাপূজা ও ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম উপলক্ষ্যে সাত দিনের ছুটি থাকবে। তাছাড়া বছরের শেষে ১৭ ডিসেম্বর থেকে শীতকালীন ও বড়দিন উপলক্ষ্যে ১১ দিনের ছুটি চলবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।


আরও খবর

আজ থেকে এক মাস বন্ধ সব কোচিং সেন্টার

মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় সীমান্তে অনেক রোহিঙ্গা

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

মিয়ানমারে গোলাগুলি ও সংঘর্ষ বেড়ে যাওয়ায় বাংলাদেশ সীমান্ত দিয়ে যাতে রোহিঙ্গারা ঢুকতে না পারে, সে ব্যাপারে নাফ নদীতে সর্বোচ্চ সতর্ক পাহারায় রয়েছে বর্ডার গার্ড (বিজিবি)। টেকনাফের দমদমিয়ায় নাফ নদী ও শাহপরীর দ্বীপ সীমান্তে উন্নতমানের স্পিডবোট দিয়ে জালিয়ার দ্বীপসহ আশপাশের এলাকায় বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিজিবির টেকনাফ ব্যাটালিয়নের-২ অধিনায়ক লে. কর্নেল মো: মহিউদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, নাফ নদী অতিক্রম করে মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের পাশাপাশি কোনো লোকজন যাতে সীমান্ত দিয়ে অনুপ্রবেশ করতে না পারে, সেজন্য অতিরিক্ত বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। টেকনাফের সীমান্ত পয়েন্টে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। মিয়ানমারে সামরিক জান্তা বাহিনীর সাথে সশস্ত্র বিদ্রোহীদের গোলাগুলি ও সংঘর্ষের কারণে দেশটির রোহিঙ্গারা নাফ নদী দিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তে ঢোকার চেষ্টা করছে। তবে রোহিঙ্গাদের সম্ভাব্য অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছে বিজিবি ও কোস্ট গার্ড।

টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপের মাঝি আবু বক্কর বলেন, মিয়ানমারের সাগরের তীরে হাজার হাজার রোহিঙ্গার অবস্থান দেখা গেছে। কমপক্ষে ২০ থেকে ২৫টি রোহিঙ্গা বোঝাই নৌকা দেখা যায়। সেসব নৌকায় করে এই পারে ঢোকার চেষ্টা করে যাচ্ছে তারা। কিন্তু বিজিবি ও কোস্ট গার্ডের ভয়ে তারা অনুপ্রবেশ করতে পারছে না।

স্থানীয় জেলে কবির আহমেদ বলেন, রোহিঙ্গাদের এলাকায় আরাকান আর্মি ঢুকে পড়েছে। এতে সংঘর্ষ বেড়ে যাওয়ায় তাদের অন্য জায়গায় আশ্রয় নিতে বলা হয়েছে। তাই কয়েক হাজার রোহিঙ্গা প্রাণে বাঁচতে বিলে, সাগরের তীরে আশ্রয় নিয়েছে। তারা যেকোনো মুহূর্তে নাফ নদী পেরিয়ে বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করবে কি না জানি না। রাতের বেলায় তারা শাহপরীর দ্বীপসহ বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে অনুপ্রবেশ করতে পারে। তবে তাদের ঠেকিয়ে রাখছে বিজিবি ও কোস্ট গার্ড।

এদিকে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যাচ্ছে টেকনাফ সীমান্তের হ্নীলা, সাবরাং ও সেন্টমার্টিনের নাফ নদীর বিপরীতে মিয়ানমার সীমান্তে। প্রতিদিনই এসব এলাকায় গোলাগুলি ও মর্টার শেলের শব্দ পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান স্থানীয়রা।

মিয়ানমারের মংডুর সিকদার পাড়ার রোহিঙ্গা সেলিম বলেন, আমাদের তিনটি গ্রাম ধ্বংস হয়ে গেছে। প্রাণে বাঁচতে বাড়িঘর ছেড়ে চরে আশ্রয় নিয়েছি। সাগরে বাংলাদেশের বাহিনী বেশি থাকায় সেখানে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবে আমরা চেষ্টা করব সেখানে ঢোকার। না হলে বাঁচতে পারব না।

তিনি বলেন, হেলিকপ্টার থেকে বোমা মারছে। আমাদের কয়েকটি গ্রাম থেকে গোলাগুলি হচ্ছে। গ্রামগুলো হচ্ছে মংডু কাদিরবিল, নুরুল্যাহ পাড়া, বাগগুনা, নর বাইন্যা, থানাশো। এসব এলাকা থেকে রোহিঙ্গা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো: মহিউদ্দীন আহমেদ বলেন, বাংলাদেশের জলসীমাজুড়ে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে। সার্বক্ষণিক স্পিড বোট দিয়ে টহল দেয়া হয়। কোনো অনুপ্রবেশকারীকে ঢুকতে দেয়া হবে না।


আরও খবর



গজারিয়ায় সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মতবিনিময়

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

গজারিয়া প্রতিনিধি :

 গজারিয়ায় সদ্য যোগদানকৃত উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তারের সাথে উপজেলা পর্যায়ে কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজ, রাজনৈতিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন।

গত (৪ ফেব্রুয়ারী) রবিবার সকাল ১১টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হল রুমে এ-ই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জি এম রাসেদুল ইসলাম এর সঞ্চালনায়, মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তার।

উক্ত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, গজারিয়া উপজেলা আওয়ামিলীগ এর সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান মো: আমিরুল ইসলাম,  উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান নেকি খোকন, ইমামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুজ্জামান খাঁন জিতু, বাউশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান প্রধান, ভবেরচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার সাঈদ মোহাম্মদ লিটন, বালুয়াকান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জুয়েল সরকার, টেংগারচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান ফরাজি, গজারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো: রাজিব খান, গজারিয়া উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: জসিম উদ্দিন, গজারিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: আরফিন,

এসময় সদ্য যোগদানকৃত নির্বাহী অফিসার কোহিনুর আক্তার তার বক্তব্যে বলেন, সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে আপনারা আমাকে সার্বিক সহযোগিতা করতে হবে। বিভিন্ন দপ্তরের ওয়েবসাইট গুলো আপডেট কার্যক্রম চলছে অতিদ্রুত দপ্তরের রাইডগুলো আপডেট হবে।

তিনি আরো বলেন, এই উপজেলায় মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং, স্বাস্থ্য এবং উন্নয়নের লক্ষ্যে সরকারের যে নীতিমালা রয়েছে সেই প্রক্রিয়ায় কাজ করে যাবো।


আরও খবর