Logo
শিরোনাম

অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও পার্বত্য স্থানীয়দের বেকারত্ব গুচাবে পর্যটন শিল্প---পার্বত্য মন্ত্রী

প্রকাশিত:Sunday ১৩ November ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মো. রেজুয়ান খান ঃ


পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন, অপার সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি পার্বত্য অঞ্চল। বান্দরবান ইতোমধ্যে পর্যটকদের কাছে এক আকর্ষণীয় নগরী হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। তিনি বলেন, পর্যটন শহর বান্দরবানকে সাজাতে নতুনভাবে পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট এবং দর্শনীয় স্থানগুলোকে আরো আধুনিকায়ন করার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও পার্বত্য অঞ্চলের স্থানীয়দের বেকারত্ব গুচাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে পর্যটন শিল্প।

 বান্দরবান জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এসব কথা বলেন।

জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি এর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে পাবনা জেলা পুলিশ সুপার মো. তারিকুল ইসলাম, বান্দরবান সিভিল সার্জন ডা. নীহার রঞ্জন নন্দী, বান্দরবান পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষ্মীপদ দাস ও বান্দরবান জেলার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ পর্যটন ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি আরও বলেন, পর্যটন নগরী বান্দরবানে পর্যটকরা যাতে স্বাচ্ছন্দে ভ্রমণ করতে পারে সেই জন্য মহাসড়কসহ আভ্যন্তরীণ সড়কগুলোর উন্নয়ন কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের নৈতিক কাজ হলো দেশের সার্বিক উন্নয়ন করা। সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় একদিন পার্বত্য এলাকার পর্যটন ক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্য দেখা দিবে। তিনি বলেন, আগামীতে পর্যটনখাত আরো সমৃদ্ধ হবে। এগিয়ে যাবে বান্দরবান, আর বান্দরবানের আর্থ-সামাজিক অবস্থা ও স্থানীয় জনগণের জীবনযাত্রার মানের উন্নয়ন ঘটবে। মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য কাজ করেছেন আর তার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা পিতার আর্দশে বাংলাদেশের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি দেশের সার্বিক উন্নয়নে সকল ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্টদের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও সাম্প্রতিক ইস্যু নিয়ে সভায় আলোচনা হয়। সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয় দেশে ১৫ হাজার ম্যালেরিয়া রোগী সনাক্ত হয়েছে যার মধ্যে বান্দরবানেই সনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১২ হাজার। সভায় স্বাস্থ্য সচেতনতার বিষয়টি খুব গুরুত্ব পায়। এছাড়া সভায় পর্যটন শিল্পের আধুনিকায়ন ও এর সম্প্রসারণ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। 

লেখক ঃ

জনসংযোগ কর্মকর্তা

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়



আরও খবর



বকশীগঞ্জের চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম শিক্ষা কমপ্লেক্সে নবীন বরণ অনুষ্ঠান

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মাসুদ উল হাসান,জামালপুর :

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম শিক্ষা কমপ্লেক্সে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের নবীন বরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বুধবার চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম শিক্ষা কমপ্লেক্স অডিটোরিয়াম নবীন বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন অধ্যক্ষ মোঃ রফিকুল ইসলাম। নবীন বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ সদস্য ও বকশীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি জয়নাল আবেদীন। আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন ফতেহপুর কামিল মাদ্রাসার প্রভাষক ইকবাল হোসেন মিল্লাত। চন্দ্রাবাজ শেফালী মফিজ মহিলা আলিম মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আব্দুর রশিদের সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক দিনুল ইসলাম সিরাজীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শিক্ষার্থী শরিফ মাহমুদ,সৈয়দা কামরুন্নাহার কনক ও আসমাউল হোসনা প্রমূখ। এ সময় চন্দ্রাবাজ রশিদা বেগম স্কুল এন্ড কলেজের সকল শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



ধামরাইয়ে এক ভবনেই ২২টি মৌচাক

প্রকাশিত:Tuesday ২৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন, স্টাফ রিপোর্টার :

ঢাকার ধামরাইয়ের বালিয়া ইউনিয়নের বালিয়া বাস টার্মিনালের পাশে বসতবাড়ির বিল্ডিংয়ে বসেছে প্রায় প্রায় ১০ বছর যাবৎ প্রায় দুই ডজন মৌচাক। এ থেকে প্রতি বছর দেড়-দুই মণ খাঁটি মধু আহরণ করে বিক্রির মাধ্যমে ভালো টাকা আয় হচ্ছে তার। ওই মৌচাকগুলো দেখতে স্থানীয়রা ভিড় করছেন।

উপজেলার বালিয়া ইউনিয়নের বালিয়া গ্রামের বাবুল হোসেনের বসতবাড়ির বিল্ডিংয়ের চারদিকে বসেছে মৌমাছির মেলা। গত ১০ বছর যাবৎ মৌমাছিরা ওই বিল্ডিংয়ে মৌচাক তৈরি করে মধু আহরণ করে। প্রায় পুরো বছর ধরেই ওই বাড়িতে কম-বেশি মৌমাছি থাকে।

জানা গেছে, সারাদিন আশপাশে মৌমাছির গুঞ্জনে মুখরিত থাকে । সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত চারদিকে ম-ম গন্ধ ছড়িয়ে উড়ছে মৌমাছির দল।

বাড়ির মালিক মোঃ বাবুল হোসেন বলেন, ২০১০ সাল থেকে আমাদের বাড়ির এই বিল্ডিংয়ে ২৫-৩০টি মৌচাক বসে। এবারও ২২ টি মৌচাক তৈরি হয়েছে। এসব মৌমাছি আমাদের কোনো ক্ষতি করে না।

তিনি আরও জানান, সারা বছরই মৌচাক থাকে। কিন্তু শীত এলে ঝাঁকে-ঝাঁকে মৌমাছি এসে তার বাড়িতে মৌচাক তৈরি করে। মাস দুয়েক পর আবার চলে যায়। গত বছর ২৫টি মৌচাক ছিল। এবার ২২টি মৌচাক বসেছে।

প্রতিবেশী স্থানীয় রহমান বলেন, আমার জানামতে, ৮-১০ বছর যাবত সাড়া বছর জুরে ওই বাড়িতে মৌচাক বসে। খবর শুনে এলাকার এবং দূর-দূরান্ত থেকে লোকজন দেখতে আসেন ওই মৌচাক । মৌচাক কাটার দিন খাঁটি মধু নেয়ার জন্য মানুষ লাইন ধরে অপেক্ষা করেন।

মৌয়াল সিরাজ বলেন, আট -দশ বছর ধরেই ওই বাড়ির বিল্ডিংয়ে মৌমাছির চাকগুলো কেটে আমি মধু নামাই। অন্যান্য বছর ২৫-৩০টি চাক বসলেও এবার বসেছে ২২টি। তাই অন্যবারের তুলনায় এবার মধু কম হবে। আগেরবার প্রতি কাটায় ২৮-৩০ কেজি মধু তুললেও এবার পাওয়া যাচ্ছে ২০-২২ কেজি। বাড়ির মালিককে অর্ধেক দিয়ে বাকিটুকু আমি নিয়ে যাই।

এ ব্যাপারে ধামরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আরিফুল হাসান বলেন, সম্ভবত ওই বাড়িতে রানী মৌমাছির জন্ম বা উৎপত্তি হয়েছিল, তাই প্রতি বছরই দীর্ঘ সময় ধরে মৌমাছিরা ওই বাড়িতে নিরবে বাসা বেধে থাকে । তিনি আরও বলেন, এই এলাকায় জমিতে অধিক সরিষার আবাদ হওয়ায় ফুলের পরিমাণও বেশি। মধুর একমাত্র উৎস ফুল, তাই মৌমাছিরা এখানেই আসে।


আরও খবর



ইউরোপে পরমাণু সংঘাত চায় ওয়াশিংটন !

প্রকাশিত:Saturday ০৪ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

ইউক্রেনকে পর্যন্ত ৪৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যুদ্ধ সহায়তা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র কিয়েভকে অত্যাধুনিক অস্ত্র দেয়ার মাধ্যমে রাশিয়াকে বাধ্য করছে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারে যার শিকার হতে পারে ওয়াশিংটনের বন্ধুরাষ্ট্র ইউরোপের নিরাপরাধ জনগণই এমন মন্তব্য ভারতের ফ্লাইট অফিসার গ্রুপ ক্যাপ্টেন অজয় শ্রীবাস্তবের

রাশিয়ার বিরুদ্ধে গণবিধ্বংসী অস্ত্র ব্যবহার হলে বা প্রচলিত অস্ত্রে মস্কোর অস্তিত্বকে হুমকি দিলে সম্ভাব্য সবধরনের অস্ত্রের ব্যবহার করা হবে পুতিন সতর্ক কোরেছেন, এটি কোনো ধাপ্পাবাজি নয়

ভারতের ফ্লাইট অফিসার গ্রুপ ক্যাপ্টেন অজয় প্রকাশ শ্রীবাস্তব জানান, যুক্তরাষ্ট্র-জার্মানি ইউক্রেনকে অত্যাধুনিক ট্যাংক দেয়ার সিদ্ধান্তের মাধ্যমে হয়তো রাশিয়ার ঠিক কোরে দেয়া চূড়ান্ত সীমা অতিক্রম করতে চলেছে

রাশিয়া কি প্রতিশোধ হিসাবে পরমাণু অস্ত্রের ব্যবহার করবে? অজয় জানান, হিমারস রকেট সিস্টেম থেকে ট্যাংক, অত্যাধুনিক সব অস্ত্র ইউক্রেনকে দেয়ার মাধ্যমে রাশিয়াকে প্রায় কোণঠাসা কোরে ফেলছে পশ্চিমারা প্রতিশোধ নেয়া ছাড়া মস্কোর জন্য কোনো সুযোগই বাকি রাখছে না তারা

রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ইউক্রেনকে প্রায় ৪৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের সহযোগিতা দিয়েছে বিশ্বের স্বঘোষিত শান্তিরক্ষী যুক্তরাষ্ট্র যার মধ্যে অস্ত্র, সরঞ্জাম নিরাপত্তা সহায়তা ২৩ বিলিয়ন সরাসরি আর্থিক মানবিক সহায়তা ২৫ বিলিয়ন যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্তত ৪০টি রাষ্ট্র ইউক্রেনকে সরাসরি সামরিক সহায়তা দিচ্ছে

যুক্তরাষ্ট্র হালকা অস্ত্র থেকে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, আকাশ থেকে ভূমিতে নিক্ষেপযোগ্য মিসাইল, বিস্ফোরণ, নজরদারীর ড্রোন, মনুষ্যবিহীন বিমান, কামান, ট্যাংক, সাঁজোয়ানযান, সামরিক ট্রাক, স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন টার্মিনাল, বিভিন্ন ধরনের রাডার, যোগাযোগের অন্যান্য সরঞ্জাম যন্ত্রপাতি দিয়েছে ইউক্রেনকে

যদিও যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, গণতন্ত্র রক্ষা, গণতন্ত্রের বিস্তার, মানবাধিকার সমুন্নত রাখার পক্ষে কাজ করছে তারা বিশ্বের একমাত্র পারমাণবিক অপরাধী যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করার জন্য রাশিয়াকে বাধ্য করছে

বৃহস্পতিবার পুতিন জানান, আট দশক পর আবারও জার্মান ট্যাংকের হুমকিতে রাশিয়া পুতিনের মুখপাত্র অজয় জানান, পশ্চিমের নতুন নতুন অস্ত্রের জবাবে মস্কো নিজেদের শক্তিশালী অস্ত্রের সর্বোচ্চ ব্যবহার করবে

অজয় বলেন, বিশ্বকূটনীতর নজিরবিহীন উদাহরণ যে, স্বঘোষিত পারমাণবিক অপরাধী যুক্তরাষ্ট্র চক্রান্ত কোরে তার হাজার হাজার মাইল দূরের বন্ধুদেশের নিরাপরাধ মানুষকে হিরোশিমা নাগাসাকির মতো নির্মম ভাগ্য বরণে রাশিয়াকে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারে বাধ্য করছে


আরও খবর



সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক স্থানান্তর

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :

নওগাঁর মান্দায় ঐতিহাসিক কুসুম্বা মসজিদে যাতায়াতের রাস্তার ধারে থাকা সাংস্কৃতিক অঙ্গনের কালো পাথরের প্রাচীন নিদর্শনটি ''সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক বা শিরোনা'' স্থানান্তর করা হয়েছে। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের উদ্যোগ ও স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় শনিবার ২১ জানুয়ারী দুপুরে কুসুম্বা মসজিদের উত্তর পাশে তেঁতুলতলায় এটি সরিয়ে নেওয়া হয়।

এসময় প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ড. নাহিদ সুলতানা, প্রত্নতাত্ত্বিক যাদুঘর মহাস্থানগড়ের কাষ্টোডিয়ান রাজিয়া সুলতানা, প্রত্নতাত্ত্বিক যাদুঘর পাহাড়পুরের কাষ্টোডিয়ান ফজলুল করিম, প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের গবেষনা সহকারী হাসানাত বিন ইসলাম, মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবু বাক্কার সিদ্দিক, উপজেলা প্রকৌশলী শাইদুল ইসলাম মিয়া, কুসুম্বা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নওফেল আলী মণ্ডল, কুসুম্বা শাহী মসজিদের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক পরিচালক ড. নাহিদ সুলতানা বলেন, কালো পাথরের খণ্ডটি সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রাচীন একটি নিদর্শন। এটি সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের কবর ফলক বা শিরোনা কিনা বলা যাচ্ছে না। লিপিটার পাঠোদ্ধার হলেই বিস্তারিত জানা যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

জনশ্রুতি আছে সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহের স্ত্রী কুসুম বিবি সেই সময় মান্দার কুসুম্বা গ্রামে অবস্থান করতেন। সেই সুবাদে শেষ বয়সে সুলতান কুসুম্বা গ্রামে স্ত্রীর কাছে অবস্থান করাও বিচিত্র নয়। যেহেতু সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহ মৃত্যুর সময় কোথায় অবস্থান করছিলেন প্রচলিত গ্রন্থে তার উল্লেখ না থাকায় ধরে নেওয়া যায় তিনি কুসুম্বাতে সমাহিত রয়েছেন। প্রাচীন এ নিদর্শন সম্পর্কে ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ইমরুল কায়েস চৌধুরী ‘কালান্তরে নওগাঁ’ গ্রন্থে উল্লেখ করেন লিপিযুক্ত প্রস্তর খণ্ডটি সুলতান আলাউদ-দীন হোসাইন শাহ্রে কবর ফলক বা শিরোনা।


আরও খবর



মহাদেবপুরে ভীমপুর ইউনিয়ন

আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর মহাদেবপুরে ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।  ২৩ জানুয়ারী সোমবার দুপুরে ভীমপুর ইউনিয়নের হাটচকগৌরী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ হাসান আলী মন্ডল।

উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সাংসদ-৪৮, নওগাঁ-৩, মহাদেবপুর-বদলগাছী আসনের এমপি জননেতা আলহাজ্ব মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম এমপি। এসময় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শাকিল আহম্মেদ বাদল, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক জাভেদ জাহাজ্ঞীর সোহেল, নওগাঁ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তাজুল ইসলাম তোতা,  জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা অজিত কুমার মন্ডল, নওগাঁ জেলা পরিষদ সদস্য ও মহাদেবপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি গোলাম নূরানী আলাল, মহাদেবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আহসান হাবীব ভোদন, মহাদেবপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদ এর চেয়ারম্যান ও সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক তরুন সমাজ সেবক সাঈদ হাসান তরফদার ( শাকিল), মহাদেবপুর উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি রাজু আহম্মেদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন, ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাসানুল ইসলাম স্বপন তরফদার। সম্মেলনের শেষ পর্বে প্রধান অতিথি আলহাজ্ব মোঃ ছলিম উদ্দিন তরফদার সেলিম এমপি আলহাজ্ব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান কে সভাপতি ও আতাউর রহমানকে সাধারন সম্পাদক করে ভীমপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কমিটি গঠনের ঘোষনা দেন। 


আরও খবর