Logo
শিরোনাম

পদত্যাগ করলেন জেলেনস্কির উপদেষ্টা

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির প্রভাবশালী উপদেষ্টা ওলেক্সি আরেস্তোভিচ পদত্যাগ করেছেন। রাশিয়ার চালানো একটি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিয়ে ‘নেতিবাচক’ মন্তব্য করে সাধারণ ইউক্রেনীয় ও রাজনীতিবীদদের রোষানলে পড়েন তিনি। এর জেরেই প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টার পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

১৪ জানুয়ারি দানিপ্রোর একটি আবাসিক ভবনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটে। ইউক্রেন দাবি করে রাশিয়া এ হামলা চালিয়েছে। তবে রাশিয়া দাবি করে, তাদের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকাতে পাল্টা ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে ইউক্রেন। যেটির আঘাতে রুশ ক্ষেপণাস্ত্রটি আবাসিক ভবনের ওপর গিয়ে পড়ে। ওই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৪ জন নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ আছেন আরো ২০ জন।

জেলেনস্কির উপদেষ্টা অলেক্সি আরেস্তোভিচ বলেছিলেন, ইউক্রেনের সেনাদের কারণেই হয়তো ওই আবাসিক ভবনে ক্ষেপণাস্ত্র পড়েছে। তার এ মন্তব্যকে ভিত্তি করে রাশিয়ায় পরবর্তীতে এ ঘটনার জন্য ইউক্রেনকে পুরোপুরি দায়ী করে প্রচারণা চালানো হয়।

ওলেক্সি আরেস্তোভিচ যুদ্ধ শুরুর পর ইউক্রেন এবং রাশিয়া দুই দেশেই বেশ পরিচিত হয়ে ওঠেছেন। কারণ ইউটিউবে যুদ্ধ নিয়ে নিয়মিত আপডেট দেন তিনি।

সাধারণ মানুষের রোষানলে পড়ার পর আরেস্তোভিচ একটি বিবৃতিতে নিজের পদত্যাগ করার কথা জানান। বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, আমি ভিকটিম ও তাদের পরিবার, দানিপ্রোর বাসিন্দা এবং বাকি সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি, যারা দানিপ্রোর আবাসিক ভবনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিয়ে আমার ভুল তথ্যের কারণে কষ্ট পেয়েছেন।

সূত্র : বিবিসি।


আরও খবর



নওগাঁয় পরেছিলো মৃতদেহ - উদ্ধার করলো পুলিশ

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :


নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার (পত্নীতলা বাজার) এলাকায় একটি ব্রীজের ধারে পরে থাকা অবস্থায় হাবারু ভূইমালী (৬৫) নামের এক ব্যাক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পত্নীতলা থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মৃতদেহটি ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত হাবারু ভূইমালী পত্নীতলা উপজেলার পাশ্ববর্তী মহাদেবপুর উপজেলার মহিষবাথান (স্কুলপাড়া) গ্রামের মৃত রাজ মোহনের ছেলে।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল সারে ৮ টারদিকে ব্রীজের পার্শ্বে হাল্কা কাদায় এক বৃদ্ধকে পরে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন ও পথচারীরা। পরবর্তীতে ঘটনাটি পুলিশকে জানান স্থানিয়রা। সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথেই পত্নীতলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মৃতদেহর নাম  পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টার পাশাপাশি প্রাথমিক সুরতহাল রির্পোট অন্তে মৃতদেহ উদ্ধার পূর্বক ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করার পক্রিয়া চলছিলো।

মৃতদেহ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) পলাশ চন্দ্র দেব বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে মৃতদেহ পরে থাকার খবর জানতে পেরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়। নিহতের স্বজনদের বরাত দিয়ে ওসি আরো জানান, গতকাল রাতে সে তার ছেলের বাড়ি থেকে মেয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। রাতে সে কিভাবে মারা যায় তা জানা যায়নি। এছাড়া নিহতের শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন নেই। ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসার পরই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।


আরও খবর



বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মইনুল ইসলাম মিতুল :আগামী ১৩ জানুয়ারি টঙ্গীর তুরাগতীরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ৫৬ তম বিশ্ব ইজতেমা। এরই মধ্যে বিশ্ব ইজতেমায় সম্পূর্ণ করা হয়েছে অধিকাংশ কর্মকাণ্ড। এরই মধ্যে ময়দানের ৭৫ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে ইজতেমা আয়োজক কমিটি। প্রস্তুত করা হয়েছে জেলাভিত্তিক খিত্তার তালিকা।

জুবায়েরপন্থির তিন দিনের ইজতেমাকে ঘিরে টঙ্গী ও আশপাশ এলাকায় ধর্মীয় উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। প্রতি বছর ইজতেমায় তাবলিগ জামাতের ঢাকা জেলার সাথিরা সবার শেষে তাদের জন্য নির্ধারিত খিত্তার কাজ করে থাকেন এবারও শুধু ঢাকা জেলার মুসল্লিদের জন্য নির্ধারিত খিত্তার স্থান বাদে অন্যসব কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যেই দেশ-বিদেশের লাখ লাখ মুসল্লি ময়দানে এসে তাদের জন্য নির্ধারিত খিত্তায় অবস্থান নেবেন।

এ বছর প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমায় আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা যেসব খিত্তায় অবস্থান করবেন তা হলো গাজীপুর (খিত্তা-১), টঙ্গী (খিত্তা-২, ৩ ও ৪), ঢাকা (খিত্তা-৫ থেকে ১৮ ও ২১, ২২, ২৫, ২৭, ২৮, ৩০), রাজশাহী (১৯), চাঁপাইনবাবগঞ্জ (২০), নাটোর (২৩), নওগাঁ (২৪), নড়াইল (২৬), সিরাজগঞ্জ (২৯), টাঙ্গাইল (৩১), রংপুর (৩২), গাইবান্ধা (৩৩), লালমনিরহাট (৩৪), মুন্সীগঞ্জ (৩৫), যশোর (৩৬), নীলফামারী (৩৭), বগুড়া (৩৮), জয়পুরহাট (৩৯), নারায়ণগঞ্জ (৪০), ফরিদপুর (৪১), ভোলা (৪২), নরসিংদী (৪৩), সাতক্ষীরা (৪৪), বাগেরহাট (৪৫), কুষ্টিয়া (৪৬), মেহেরপুর (৪৭), চুয়াডাঙ্গা (৪৮), ময়মনসিংহ (৪৯, ৫১), শেরপুর (৫০), জামালপুর (৫২), গোপালগঞ্জ (৫৩), কিশোরগঞ্জ (৫৪), নেত্রকোনা (৫৫), ঝালকাঠি (৫৬), বান্দরবান (৫৭), বরিশাল (৫৮), পিরোজপুর (৫৯), হবিগঞ্জ (৬০), কক্সবাজার (৬১), সিলেট (৬২), সুনামগঞ্জ (৬৩), ফেনী (৬৪), নোয়াখালী (৬৫), লক্ষ্মীপুর (৬৬), চাঁদপুর (৬৭), ব্রাহ্মণবাড়িয়া (৬৮), খুলনা (৬৯), পটুয়াখালী (৭০), বরগুনা (৭১), চট্টগ্রাম (৭৪), কুমিল্লা (৭৫), তুরাগ নদের পশ্চিমপাড় কাঁচাবাজারে মৌলভীবাজার (৭৬), রাজবাড়ী (৭৭), মাদারীপুর (৭৮), শরীয়তপুর (৭৯), মানিকগঞ্জ (৮০, সাফা টাওয়ার), রাঙ্গামাটি (৮১), খাগড়াছড়ি (৮২), দিনাজপুর (৮৩), পাবনা (৮৪), ঠাকুরগাঁও (৮৫), ঝিনাইদহ (৮৭, যমুনা প্লট), মাগুরা (৮৮, যমুনা প্লট), কুড়িগ্রাম (৮৯, কামারপাড়া বেড়িবাঁধ বঙ্গবন্ধু মাঠ) ও পঞ্চগড় (৯০, কামারপাড়া হাইস্কুল মাঠ-বধির স্কুল ভবন)। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগতরা নির্দিষ্ট খিত্তার আওতাভুক্ত জায়গায় অবস্থান নিয়ে ইবাদত-বন্দেগিতে মশগুল থাকবেন।

এ ছাড়া ময়দানের চারপাশে ১১ ও ১২ নম্বর খিত্তার কিছু অংশ, ৩২ ও ৩৭ নম্বর খিত্তার মাঝামাঝি ১২, ৭২, ৭৩, ৮৬ ও ৯১ নম্বর খিত্তা সংরক্ষিত হিসেবে রাখা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমা আয়োজক কমিটির শীর্ষ মুরব্বি ডা. খান মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন। টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি মো. শাহ আলম বলেন, ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের নিরাপত্তায় পুরো ময়দানে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ ও র‌্যাবের পক্ষ থেকে তিন শতাধিক ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা স্থাপন করা হচ্ছে। সিসিটিভির মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে পুরো ময়দানের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যেবক্ষণ করা হবে।

১৩ জানুয়ারি শুক্রবার শুরু হয়ে ১৫ জানুয়ারি রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের (জুবায়েরপন্থি) বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। মাঝে ৪ দিন বিরতি দিয়ে ২০ জানুয়ারি দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাযের অনুসারী (মাওলানা সাথদপন্থি) মুসল্লিরা বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে অংশ নেবেন।

২২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এবারের বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। ২০২০ সালে ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর করোনা-১৯ মহামারির কারণে গত দুই বছর ২০২১ ও ২০২২ সালে ইজতেমা হয়নি।

 


আরও খবর

সুখবর নেই বাজারে

Saturday ০৪ February ২০২৩




ধামরাইয়ে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মান

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন(স্টাফ রিপোর্টার)

ঢাকার ধামরাইয়ে অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী।


সোমবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার যাদবপুর ইউনিয়নের আমছিমুর গ্রামে দুই একর খাস জমি উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- দীর্ঘদিন ধরে আমছিমুর এলাকার প্রভাবশালী দুটি পরিবার প্রায় দুই একর খাস জমি অবৈধভাবে ভোগ দখল করে আসছে। পরে খাস জমি উদ্ধারের জন্য আমছিমুর বনলতা স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ মাহফুযুল হক শাহীন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেন। পরে ইউএনও এই অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মাণের জন্য উদ্যোগ নেন। বনলতা স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ মাহফুযুল হক শাহীন বলেন- আমাদের স্কুলের পিছনে প্রায় দুই একর সরকারি খাস জমি রয়েছে। তা অবৈধ ভোগ দখল করে আসছে এলাকার কিছু লোকজন। আমাদের এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও যুবকরা বিষয়টি আমাকে জানায়। মুক্তিযোদ্ধারা বলেন আমাদের এখানে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় প্রথম ফায়ারিং হয়। আমরা চাই এই জায়গাটাতে যেন মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা মাঠ নির্মাণ হয়। পরে মুক্তিযোদ্ধাদের দাবি অনুযায়ী আমি স্থানীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর আবেদন করি এই খাস জমি উদ্ধার করে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা মাঠ নির্মাণের জন্য। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলা ভূমি অফিস থেকে সরজমিনে তদন্ত করে দখলদারদের উক্ত জমির মালিকানার কাগজপত্র দাখিল করতে বলা হয়। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কোন কাগজপত্র দাখিল করতে পারেনি দখলদাররা। যার ফলে আজ অবৈধ দখলের কবল থেকে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করে খেলার মাঠ নির্মাণের উদ্যোগ নেন ইউএনও।


বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ বলেন- আমরা দেশ ও দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য লড়াই করেছি। পরাধীনতার চাদর থেকে স্বাধীনতা লাভ করার জন্য প্রাণপণ যুদ্ধ করেছি। আমরা নিজেদের স্বার্থ কখনো দেখিনি। তাই আমরা আমাদের গ্রামে একটা মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযোদ্ধা জাদুঘর ও মুক্তিযোদ্ধা পার্ক চাই। এজন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি আবেদন করেছি। তাছাড়া আমাদের অভিভাবক ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ঢাকা-২০ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজির আহমদকে বিষয়টি জানালে সম্মতি দেন। আজ অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে খাস জমি উদ্ধার করে মাঠ নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়ায় ইউএনও সাহেবকে অনেক ধন্যবাদ।


ধামরাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বলেন- অবৈধভাবে কেউ খাস জমি ভোগ দখল করতে পারবে না। আজ যে জমিটি উদ্ধার করা হয়েছে এটি খাস জমি। দীর্ঘদিন অবৈধ ভোগ দখল করে আসছিলো। এখানে প্রায় দুই একর খাস জমি উদ্ধার করা হয়েছে। জমিটিতে আমরা একটি খেলার মাঠ তৈরির উদ্যোগ নিয়েছি। আগামী এক মাসের মধ্যে এটিকে খেলার উপযোগী মাঠে রুপান্তর করা হবে।


আরও খবর



মুখ বেঁধে এসিড দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা !

প্রকাশিত:Tuesday ৩১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :

কুমিল্লায় মুখ বেঁধে এসিড দিয়ে পুড়ে হত্যার অভিযোগে দুই ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। সেই সঙ্গে উভয়ের দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম কারাদÐের আদেশ দেয়া হয়। এসময় মামলার আরেক আসামীকে খালাস দেয়া হয়। মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত-৫ এর বিচারক জাহাঙ্গীর হোসেন এই রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, মো. জাহিদ হাসান (বাবু) ও মো. মাসুম মিয়া।

মামলার বিবরণনে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১২ মার্চ দাউদকান্দি থানাধীন গৌরীপুরস্থ নিউ মাকের্টে চুরির সময় দেখে ফেলায় নাইট গার্ড শফিকুল ইসলামকে হত্যা করে তারা। পরে তার লাশ যেন চেনা না যায় তাই এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এঘটনার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী মোসা. জোসনা বেগম অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরে তদন্ত করে আসামীদের পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আসামীরা জবানবন্দী দিলে আদালত তাদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেয়। 

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম বলেন, একটি মোবাইল দোকানে চুরির সময় দেখে ফেলায় তাকে হত্যা করা হয়। হত্যা করেই তারা ক্ষান্ত হয়নি। পরিচয় যেন না সনাক্ত হয় তাই লাশ এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।

কুমিল্লা কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. মুজিবুর রহমান জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামীরা উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পর আসামীদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ১৪ বিজিবি

প্রকাশিত:Saturday ১৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :


নওগাঁয় শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করলেন ১৪ বিজিবি। এছাড়াসী মান্তবর্তী ২৩৭ জন মহিলা, ১৮৬ জন পুরুষ এবং ১০৬ জন শিশুসহ মোট ৫২৯ জন গরীব অসুস্থদের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।

নওগাঁর পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) কাম্প থেকে জানানো হয়, শীতার্ত  মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ কর্মসূচীর আওতায় শুক্রবার পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি)’র অধীনস্থ কড়িয়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ সীমান্তবর্তী এলাকায় পাঁচবিবি উপজেলাধীন কড়িয়া ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা মাঠে মোট ২৫০ জন এবং চকচন্ডি বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকার ধামইরহাট উপজেলাধীন চকচন্ডি ঈদগাহ মাঠে ২৫০ জন মোট ৫০০ জন বয়স্ক শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতকালীন কম্বল বিতরণ করা হয়। এছাড়াও একই দিন পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি'র) অধিনস্থ কালুপাড়া বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকায় ধামইরহাট উপজেলাধীন কালুপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অত্র ব্যাটালিয়নের মেডিকেল অফিসার মেজর মুছলেহ উদ্দিন এর নেতৃত্বে ধামইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এর সহযোগীতায় সীমান্তবর্তী ২৩৭ জন মহিলা, ১৮৬ জন পুরুষ এবং ১০৬ জন শিশুসহ মোট ৫২৯ জন গরীব অসুস্থদের মাঝে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করা হয়।  


শীতবস্ত্র বিতরণ এবং মেডিকেল ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে লেঃ কর্নেল মোঃ হামিদ উদ্দিন, পিএসসি, অধিনায়ক, পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জনসাধারণকে সীমান্ত দিয়ে পুশইন প্রতিরোধে বিজিবি’কে আন্তরিক সহযোগিতা প্রদান এবং মাদক চোরাচালান ও অন্যান্য সীমান্ত অপরাধের সাথে জড়িত না হওয়ার আহবান জানান। এ সময় অত্র ব্যাটালিয়নের সুবেদার মেজরসহ অন্যান্য পদবীর সদস্য, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর