Logo
শিরোনাম

পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত:Tuesday ০১ November ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

পোশাক কারখানা বন্ধের প্রতিবাদে আরামবাগ গোল চত্বর অবরোধ করেছে অলিও অ্যাপারেল নামের পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। সকাল আটটা থেকে সড়ক অবরোধ করে রেখেছেন তারা।

শ্রমিকরা জানান, প্রতিষ্ঠানটিতে প্রায় তিন হাজার কর্মী কাজ করতেন। গতকালও ফ্যাক্টরিতে কাজ করেছেন তারা। মঙ্গলবার সকালে নির্ধারিত ডিউটি পালন করতে এসে কারখানা গেইটে তালা ঝুলতে দেখেন । কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাদের পাওয়া যায়নি। শ্রমিকরা আরও জানান,অক্টোবরের বেতন ও শ্রমিক আইন অনুযায়ী অন্যান্য সুবিধাদি পাওনা রয়েছে তাদের। পাওনা বুঝিয়ে না দেয়া পর্যন্ত অবরোধ চলবে বলে জানান তারা।এদিকে, অবরোধের কারণে মতিঝিল থেকে নয়াপল্টন ও কমলাপুর সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ আছে। এতে যানজটে ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।


আরও খবর



সোনারগাঁওয়ে ৫১ তম জাতীয় স্কুল ও মাদ্রাসা খেলাধুলার পুরস্কার বিতরন

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শাহাদাৎ হোসেন সায়মন (সোনারগাঁও প্রতিনিধি) :

সোনারগাঁও উপজেলার মেঘনা শিল্প নগরী স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে বাংলাদেশের ৫১ তম জাতীয় স্কুল মাদ্রাসা খেলাধুলার পুরস্কার বিতরনী অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্টানে এডঃ সামসুল ইসলাম ভূইয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জাতীয়  সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রেজাওয়ান উল ইসলাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার, সোনারগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম, জেলা পরিষদ সদস্য আবু নাইম ইকবাল, নোওয়াগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল ইসলাম সামসু। এছাড়াও আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন কর্মকর্তাগন বিভিন্ন স্কুল মাদ্রাসার শিক্ষকগণ এবং ছাত্রছাত্রীবৃন্দসহ প্রিন্ট ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন। এসময় খেলাধুলায় বিজয়ীদের হাতে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ পুরষ্কার তুলে দেন।

সংসদ সদস্য লিয়াকত হোসেন খোকা বলেন, মাদক সন্ত্রাস ইভটিজিং জঙ্গিবাদ থেকে নিজেদের সন্তান এবং নিজেদেরকে বাঁচিয়ে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সুস্থ দেহের জীবন-যাপন করা প্রতিটি শিক্ষার্থীর উচিত লেখাপড়ার পাশাপাশি ক্রীড়া সংস্কৃতিতে মনযোগী হওয়া।  নিজের প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে নিজেকে পৃথিবীতে শ্রেষ্ঠ মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।

চেয়াম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম বলেন, তোমারা ফেইজবুক কম ব্যবহার করবে তাহলে তোমার লেখাপড়া এগিয়ে নিয়ে যেতে পাড়বে।তোমাদের তোমার মা বাবার আশা তোমরা সুশিক্ষিত হও। তোমাদের খেলাধুলার জন্য যা কিছু দরকার আমি যতদিন আছি তোমাদের পাশে থাকবো।


আরও খবর



রাজশাহীতে নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন --প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:Sunday ২৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

রাজশাহীতে ২৬টি প্রকল্প উদ্বোধণ করলেন প্রধানমন্ত্রী।

উন্নয়নের জয়যাত্রা অব্যাহত রেখে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে আবারও নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রবিবার ২৯ জানুয়ারী বিকেলে রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠে রাজশাহী মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় জনসভায় উপস্থিত লাখো জনতাকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি আরো বলেন, নৌকায় ভোট দিয়ে উন্নয়নের জয়যাত্রা, ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা যেন স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে পারি এজন্য আপনারা নৌকায় ভোট দেবেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত নির্বাচনে আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন এজন্য আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আবারও আপনাদের আহ্বান জানাচ্ছি, আগামী নির্বাচনেও ''চলতি বছর এর শেষে অথবা আগামী বছরের শুরুতে'' আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন কিনা ওয়াদা চাই। প্রধানমন্ত্রীর কথাশুনে মাঠে থাকা লাখো নেতা-কর্মীরা স্লোগান দিয়ে ভোট দেওয়ার অঙ্গীকার করেন এসময়।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, রাজশাহী সব সময় অবহেলিত ছিলো। বিগত মেয়র নির্বাচনে আপনারা আমাদের ভোট দিয়েছেন। আপনারা নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে নৌকাকে জয়যুক্ত করেছেন। আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।

আওয়ামীলীগ সরকার রাজশাহীতে ব্যাপক উন্নয়ন করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, ২০০৯ সাল থেকে গত ১৪ বছরে শুধুমাত্র রাজশাহী জেলা ও মহানগরে ১০ হাজার ৬শ' ৬০ কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে দিয়েছি।

এসময় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা জনসভার পূর্বে ৩২টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের কথা উল্লেখ করে আরো বলেন, আজকেই কিছুক্ষণ আগে ১ হাজার ৩শ' ৩৩ কোটি টাকার ২৬টি প্রকল্প উদ্বোধন করলাম এবং ৩শ' ৭৫ কোটি টাকার ৬ টি প্রকল্পের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করলাম। 

এ প্রকল্পগুলো আমি আপনাদের উপহার হিসেবে দিয়ে গেলাম বক্তব্যে জনতার জনতার উদ্দ্যশ্যে বলেন প্রধানমন্ত্রী।


আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসলে মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন হয় মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সংগঠন হলো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর হাতে গড়া সংগঠন। এজন্যই আওয়ামীলীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে, হয়েছে উন্নয়ন।

এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখন বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ দেশ। যেখানে ৪০ ভাগ দারিদ্র সীমা ছিলো, আমরা ২০ ভাগে নামিয়ে এনেছি। বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, মুক্তিযোদ্ধা ভাতাসহ অনান্য ভাতা আমরা দিয়ে যাচ্ছি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর দেশে কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবে না। কোনো মানুষ না খেয়ে কষ্ট পাবে না। সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

এসময় প্রধানমন্ত্রী, রাজশাহীতে একটি আন্তর্জাতিক মানের হোটেল করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তাহলে আমরা এখানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করতে পারবো।

মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিত জনসভায় সভাপতিত্ব করেন, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আলী কামাল। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সহ দলের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, তথ্য মন্ত্রী হাছান মাহমুদ, খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল, ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন সহ অন্যান্য নেতা-কর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

রবিবার সকাল থেকেই মাদ্রাসা মাঠ জনসভাস্থলে জড়ো হোন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এক পর্যায়ে রাজশাহী মাদ্রাসা মাঠের বাইরেও আশ-পাশের এলাকায় হাজারো নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মালয়েশিয়ায় কর্মসংস্থান আইন সংশোধন

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :মালয়েশিয়া এমপ্লয়মেন্ট (কর্মসংস্থান) আইন সংশোধন করেছে। যা ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট আইনের ৬০ ধারা সংশোধন করে লেবারের ডিরেক্টর জেনারেলের কাছ থেকে পূর্বানুমতি নেওয়া বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

এজন্য নিয়োগকর্তা বা নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের জন্য কিছু বাধ্যতামূলক শর্ত রয়েছে; যেমন—এমপ্লয়মেন্ট আইনের সঙ্গে সম্পর্কিত কোনো ইস্যু পেন্ডিং থাকা যাবে না; এমপ্লয়মেন্ট আইনের অধীনে প্রদত্ত কোনো সিদ্ধান্ত বা আদেশ বা নির্দেশনা বাস্তবায়ন করা; সকসো, মিনিমাম বেতন এবং মিনিমাম আবাসনের শর্ত প্রতিপালন না করার কারণে নিয়োগ কর্তাকে কোনো দণ্ড আরোপ করলে এবং সে মোতাবেক অবস্থার উন্নয়ন না করলে; মানবপাচার ও জবরদস্তিমূলক শ্রমের জন্য নিয়োগকর্তা শাস্তি পেলে নিয়োগের অনুমতি পাবে না।

বর্তমান আইন অনুযায়ী বিদেশিকর্মী নিয়োগের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হবে নিয়োগকর্তাদের এবং অবশ্যই কোন পদে বা কোন কাজের জন্য নিয়োগ করবে তা স্পষ্ট উল্লেখ করা; কর্মরত স্থানীয় কর্মীর সংখ্যা; কর্মরত বিদেশি কর্মীর সংখ্যা, কোম্পানির নাম, রেজিস্ট্রেশন নম্বর, কোম্পানির ঠিকানা ও অবস্থান; কোম্পানির যোগাযোগের তথ্যাদি; সেক্টর; কোম্পানি বা ব্যবসা শুরুর তারিখ; কোম্পানির বর্তমান অবস্থা; সকসো নম্বর তথ্য দিতে হবে।

জি-টু-জি প্লাসের নিয়োগের সময় বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম উইং ডিমান্ড এটেস্টেশন করার পূর্বে সরেজমিন নিয়োগকর্তা বা কোম্পানির উপযুক্ততা নির্ণয়ের জন্য যেসব বিষয়াদি যাচাই করেছিল ঠিক সে বিষয়গুলো মালয়েশিয়া সংশোধিত এমপ্লয়মেন্ট আইনের অধীনে এনেছে।

হাইকমিশনের শক্ত অবস্থানের কারণে জি-টু-জি প্লাসের সময় তুলনামূলক ভালো এবং শতভাগ কর্মসংস্থান হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মালয়েশিয়ার সংসদেও ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। সিন্ডিকেট এবং অতিরিক্ত অভিবাসন খরচের ইস্যুর ভিড়ে ভালো কর্মসংস্থানের ইস্যুটি চাপা রয়ে গেছে।

এমন কি কোম্পানির পরিচালকের সাক্ষাৎ এবং লিখিত ঘোষণাও নিয়েছিল যেন বাংলাদেশি কর্মীরা ভালো থাকে। উপযুক্ততা না থাকায় অনেক কোম্পানির এটেস্টেশন করেনি এবং পদ্ধতি অনুসরণ না করায় মালয়েশিয়ার বিমান বন্দরে আগত কর্মীকে নিয়োগকর্তা নিজ খরচে ফেরত পাঠিয়ে এবং পুনরায় যথা নিয়মে মালয়েশিয়ায় আনয়ন করেছিল।

সে সময়ের লেবার কাউন্সিলর সরকারের অবসরপ্রাপ্ত সচিব মো. সায়েদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের কর্মীদের যৌক্তিক এবং নিরাপদ মাইগ্রেশন অর্থাৎ সঠিক কোম্পানিতে কাজ পাওয়া এবং ভালোভাবে থাকার বিষয়টি ছিল চ্যালেঞ্জের এবং অত্যাধিক গুরুত্বারোপ করা হয়েছিল। ফলে অনেক চাপ ও বিরোধিতা এবং নেতিবাচক প্রপাগান্ডা সত্ত্বেও আমরা নিয়োগকর্তার ও কোম্পানির অবস্থা যাচাই না করে এটেস্টেশন করিনি। এতে দীর্ঘদিনের কাজ না পাওয়া, অমানবিক অবস্থার শিকার হওয়ার যে দুর্নাম ছিল সেখান থেকে উত্তরণ ঘটানো সম্ভব হয়েছে।

করোনার আগে মালয়েশিয়ায় আগমনে বিদেশি কর্মীদের উচ্চ অভিবাসন খরচ এবং কর্মীদের মানহীন আবাসনের কারণে আমেরিকা ও ইউরোপ মালয়েশিয়ায় উৎপাদিত পণ্য গ্রহণ না করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

আন্তর্জাতিকভাবে এ দুটিকে মানবপাচার এবং জবরদস্তিমূলক শ্রম অপরাধ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এ দুটি অভিযোগ মালয়েশিয়ার উন্নত দেশের স্বীকৃতি লাভের ক্ষেত্রে অন্যতম বাধা। এসব সমস্যা কাটিয়ে ওঠার জন্য মালয়েশিয়া সরকার জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা এবং দেশীয় এনজিওদের সঙ্গে কাজ করছে।

এরই মধ্যে মালয়েশিয়া সরকার আইএলও কনভেনশনে সই করেছে। বর্তমান সরকার বিদেশি কর্মী নিয়োজন প্রক্রিয়া বেশি সহজ ও সংক্ষিপ্ত করার কাজ করছে।


আরও খবর



বায়ু দূষণের তালিকায় ঢাকা পাঁচ নম্বরে

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

বিশ্বের বায়ু দূষণের তালিকায় ঢাকা শহরের অবস্থান আজ পাঁচ নাম্বারে। সবচেয়ে বেশি দূষিত শহরের তালিকার শীর্ষে আছে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি। আজ সকাল নয়টায় বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী আন্তর্জাতিক প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার এই তালিকা প্রকাশ করে।

এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সে শীর্ষে থাকা ভারতের দিল্লির স্কোর ২৬৩। এরপরে পাকিস্তানের লাহোর ২১৭ , করাচি ২১২ ও কিরগিজস্তানের রাজধানী বিশকেক ২১১ এবং পঞ্চম স্থানে থাকা ঢাকার স্কোর ১৯৯। একই সময় একিউআইয়ে ঢাকার পরই আছে মিয়ানমারের ইয়াঙ্গুন ১৯৪ ও ভারতের মুম্বাই ১৯২। সুইজারল্যান্ডভিত্তিক বায়ুর মান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান আইকিউ এয়ার দূষিত বাতাসের শহরের এ তালিকা প্রকাশ করে। একিউআই স্কোর ১০০ থেকে ২০০ পর্যন্ত ‘অস্বাস্থ্যকর’ হিসেবে বিবেচিত হয়। একইভাবে একিউআই স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে স্বাস্থ্যসতর্কতাসহ জরুরি অবস্থা হিসেবে বিবেচিত হয়। এ অবস্থায় শিশু, প্রবীণ ও রোগীদের বাড়ির ভেতরে এবং অন্যদের বাড়ির বাইরের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়।

 


আরও খবর



কাপ্তাইয়ে বিস্ফোরনে ঘটনায় বাবা ছেলের মৃত্যু : গুরুতর আহত মা

প্রকাশিত:Sunday ০৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

উচিংছা রাখাইন কায়েস, রাঙ্গামাটি :


রাঙ্গামাটির কাপ্তাই উপজেলার ৪নং কাপ্তাই ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের  বাদশা মিয়া টিলা নামক এলাকায় রবিবার (৮ জানুয়ারী) সন্ধা ৬.৩০ মিনিটে আকর্ষিক বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের বাবা ও ছেলে নিহত হয়েছে।


 নিহতরা হলেন মোঃ ইসমাইল মিয়া (৪৫) ও তাঁর ছেলে মোঃ রিফাত (০৭)। এছাড়া এঘটনায় ওই পরিবারের গৃহবধু মোছাঃ সখিনা বেগম (৩৫) গুরুতর আহত হয়েছে। তারা সকলেই নতুন বাজারের বাদশা মিয়ার টিলার বাসিন্দা। 


বিষয়টি নিশ্চিত করে ৪নং কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ জানান, কাপ্তাই ইউনিয়নের নতুন বাজার সংলগ্ন বাদশা মাঝির টিলায় আকর্ষিক বিস্ফোরণের ঘটনায় একই পরিবারের বাবা ও ছেলে দুইজন সদস্য নিহত হয়েছে এবং বাড়ির গৃহবধু একজন সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে। তবে বিস্ফোরণটি কোথা থেকে হয়েছে সেটি এখনো নিশ্চিত করা যায়নি। 


এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান কাপ্তাই থানার ওসি মোঃ জসীম উদ্দীন। তিনি জানান, ঠিক কেন বা কিসের মাধ্যম থেকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে তা এখন নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না তবে সেনাবাহিনীর  একটি বিস্ফোরক   টিম আসছে তারা আসার পর পরীক্ষা করে বিস্তারিত বলা যাবে বলে তিনি জানান।


এবিষয়ে কাপ্তাই সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রওশন আরা রব জানান, তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে কিছু বিস্ফোরক দ্রব্যের ক্লিপ পাওয়া গেছে। এতে ধারনা করা হচ্ছে ঘটনায় নিহত লোকটি নৌকা নিয়ে সেনাবাহিনির অস্ত্র মহড়া চলে এমন জায়গাতে গিয়েছিল। এবং ওখান থেকে লোহা ভেবে কুড়িয়ে এনেছিলে। যেগুলো আজকে বিস্তোরিত হয়েছে। সেখানে কিছু ওই লোহার অংশ পাওয়া গেছে। এছাড়া ঘটনাস্থলে ফায়ার ব্রিগেডের তদন্ত টিম আসবে। তারা আসলে বিস্তারিত বলা যাবে।


কাপ্তাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ ওমর ফারুক রনি জানান, এই বিস্ফোরণের ঘটনায় দুইজন বাবা ও ছেলেকে হাসাপাতালে আনার পূর্বের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া দগ্ধ গৃহবধুর অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়াতে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর