Logo
শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীর সাথে আইএমএফ ডিএমডি

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

আসছে ৩০ জানুয়ারিতে নির্ধারিত সভায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল-আইএমএফ এর নির্বাহী পর্ষদ বাংলাদেশের ঋণ প্রস্তাবে চূড়ান্ত অনুমোদন দিতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতকালে এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন ঢাকা সফররত সংস্থাটির ডিএমডি অ্যান্তইনেত মনসিও সায়েহ। এসময় বেসরকারি বিনিয়োগ, রপ্তানি খাত এবং জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় বাংলাদেশের পরিকল্পনা নিয়েও আলোচনা করেন তিনি ।

গণভবনে এই সাক্ষাত উপলক্ষে এক বিবৃতিতে বলা হয় মূল্যস্ফীতি ও জিডিপি'র তুলনায় ঋণের হার নিয়ন্ত্রণ সহ অর্থনৈতিক নানা ধাক্কা সামলাতে বাংলাদেশের উদ্যোগগুলোর প্রসংশা করছে আইএমএফ। অ্যান্তইনেত বলেন, রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিও ঝুঁকিতে আছে তবে সংকট উত্তরণে সরকারের পদক্ষেপগুলো প্রসংশাযোগ্য। রির্জাভ ঘাটতি মেটাতে সহায়তার প্রশ্নে তিনি বলেন, এজন্য সরকারের নেয়া সংস্কার কর্মসূচিগুলো নিরিক্ষা করছে আইএমএফ কারণ আগামী দিনে রাজস্ব আয় আরও বাড়ানো এবং আর্থিক খাতে স্থিশীলতা জরুরি।  


আরও খবর

কমছে আয়, বাড়ছে ব্যয়

Saturday ০৪ February ২০২৩




ধামরাইয়ে সরিষার বাম্পার ফলন কৃষকের মুখে হাসি।

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ০৩ February ২০২৩ |
Image

মোঃ মাহবুবুল আলম রিপন,ধামরাই,ঢাকা :


ঢাকার ধামরাই উপজেলার ১৬ টি ইউনিয়ন জোরেই এবার সরিষার আবাদ হয়েছে, যতদূর চোখ যায় শুধু সরিষা আর সরিষা।

এবার ১৬ টি ইউনিয়ন এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সরিষা আবাদ হয়েছে ধামরাই সদর ইউনিয়ন, সোমভাগ ইউনিয়ন, ভাড়ারিয়া ইউনিয়ন  কুল্লা ইউনিয়ন, কুশুরা ইউনিয়ন সূতিপাড়া ইউনিয়ন, আমতা ইউনিয়ন, বালিয়া ইউনিয়ন, নান্নার ইউনিয়ন ও সুয়াপুর ইউনিয়ন এ সবচেয়ে বেশি সরিষার আবাদ হয়েছে। 

সরিষা চাষি কালাম মিয়া বলেন এবার আমি ৫ বিঘা জমিতে সরিষা আবাদ করেছি আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবার ভালো ফলন হবে বলে আশা করি, তিনি জানান যে অনন্য ফসলের তুলনায় সরিষা আবাদে খরচ কম সার বিষ লাগে না বললেই চলে, যখন সরিষা রোপণ করি তখন ২ টা চাষ করি এবং সাথে হালকা কিছু সার দিয়ে সারিষা রোপন করি


যখন সরিষার গাছ গুলো একটু বড় হয় তখন একবার ৫ বিঘা জমিতে একমণ সার দিয়েছি তারপর আর কোন সার বিষ দিয়ে দিতে হয়নি, আল্লাহ তালা যদি আবহাওয়ার ঠিক রাখে বৃষ্টি পাত না হয় তাহলে এবার অনেক ভালো সরিষা হবে বলে মনে করি, তিনি জানায় প্রতি বিঘা জমিতে প্রিয় ৪ মণ সরিষা হয়ে থাকে, আশা করি এবার ভালো দামে সরিষা বিক্রি করতে পারবো। 

এ বিষয়ে ধামরাই উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আরিফ হাসান বলেন এবার ৬২০০ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছে, এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে অবশ্যই সরিষার ফলন ভালো হবে বলে মনে করি। এখন বর্তমানে সরিষার যে দাম আছে এই দাম থাকলে কৃষক লাভবান হবে। কৃষকের যে পরামর্শের জন্য আমার কাছে আসলে সর্বোচ্চ সেবা দেওয়ার চেষ্টা করি আমি।


আরও খবর



সদরপুরে ঘটনা স্থলে উপস্থিত না থেকেও হত্যা মামলার আসামী মোঃ রফিকুল ইসলাম

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

সদরপুর (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

ফরিদপুরের সদরপুরে গত (১৭ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার দুই গ্রুপের সংঘর্ষের সময় রফিকুল ইসলাম ঢাকা অবস্থান করার পরেও তাকে মিথ্যে হত্যা মামলার আসামী করা হয়েছে।

ফরিদপুরের সদরপুরে কৃষ্টপুর ইউনিয়নের হাটকৃষ্ণপুর বাজারে গত বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুরে সাবেক চেয়ারম্যানের সমর্থক গিয়াস তালুকদার নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন করে বর্তমান চেয়ারম্যান আকতারুজ্জামান তিতাসের সমর্থকরা পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে তার শারিরীক অবস্থায় অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আহত গিয়াস উদ্দিন তালুকদার একই ইউনিয়নের যাত্রাবাড়ি গ্রামের নয়ন তালুকদারের পুত্র।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিকেলে উভয় গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পাল্টাপাল্টি হামলা ও সংঘর্ষের সময় বেশ কিছু বাড়িঘর ভাঙচুর করা হয়। এতে আহত হন কমপক্ষে ১৫ জন।

পরে গত (১৭ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা থেকে দুপুর পযর্ন্ত সদরপুর উপজেলার যাত্রাবাড়ী এালাকায় কৃষ্টপুর ইউনিয়নের সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষ হয় । এ সময় সংঘর্ষে জালাল ফকির নামে এক ব্যক্তি নিহত হন। পরবতিতে নিহত জালালের ফকিরের ভাই দেলোয়ার ফকির বাদী হয়ে ৫১ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

কিন্তু ঘটনা স্থলে উপস্থিত না থেকেও বর্তমান চেয়ারম্যান তিতাসের নিদেশে মামলার ৩৯ নং আসামী করা হয় রফিকুল ইসলামকে । যিনি ঐসময়ে ঢাকার কদমতলী সাদ্দাম মার্কেট এলাকার এন, আর, বি, সি, কমার্শিয়াল ব্যাংকে লেনদেন অবস্থায় ছিলেন। যা ব্যাংকের সিসি টিভি ফুটেজে স্পষ্ট ফুটে উঠেছে।

অথচ ঘটনার দিন রফিকুল ইসলামের ঘটনাস্থলে উপস্থিত না থাকার বিষয়টা সদরপুর থানার ওসি ও মামলার তদন্ত অফিসার কৃষ্ণ বিশ্বাসকে জানানো হলেও এই মিথ্যা মামলা থেকে রেহাই পায়নি।

এ বিষয়ে রফিকুল ইসলাম দৈনিক বর্তমান দেশবাংলাকে বলেন, আমি ঘটনার দিন ঢাকার কদমতলী সাদ্দাম মার্কেট এলাকার এন আর বি সি কমার্শিয়াল ব্য্রংকে লেনদেন অবস্থায় ছিলাম। কিন্তু আমাকে বর্তমান চেয়ারম্যান তিতাসের নির্দেশে জালাল হত্যা মামলার মিথ্যা আসামি করা হয়েছে । আমি প্রশাসনের নিকট এই হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলার সুষ্ট তদন্ত দাবি করছি। সেই সাথে আমাকে এই মিথ্যা মামলা থেকে অব্যহতি দেওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

 


আরও খবর



খাবারের অভাবে, আহত ঈগল কৃষকের বাড়ীতে

প্রকাশিত:Friday ০৩ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি :

খাবারের অভাবে, আহত ঈগল লালমনিরহাটের কৃষকের বাড়ীতে লালিত পালিত হচ্ছে।  

জেলা সদরের কালমাটি নামক গ্রামে  খাবারের অভাবে শারিরিক অসুস্থ ও আহত ঈগল  তিস্তা নদী পারের তামাক ক্ষেতে বসে থাকা দেখে নিজ বাড়ীতে নিয়ে এসে গেলো দুদিন ধরে লালন পালন করছে কৃষক হাছেন আলী।  

হাছেন আলী জানান, নিত্যদিনের মতো নিজন

 তামাক  ক্ষেত পরিচর্যার জন্য গিয়ে দেখে একটা ঈগল বসে আছে।  কাছে গেলেও উড়তে না পারায় তাকে ধরে নিয়ে আসে বাড়ীতে।  তাকে বেকারির বিভিন্ন প্রকার খাবার দিলে সে না খাওয়ায় ভেঙে পরেন হাছেন।  আজ শুক্রবার সকালে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে, ঈগল দেখতে ভীড় জমায় বিভিন্ন এলাকার নানান বয়সী মানুষ।  

পরে তাকে একটি মুরগী ছিলে খেতে দিলে এক পা দিয়ে টেনে ধরে খাওয়া শুরু করে।  কয়েক মিনিটের মধ্যে মুরগির অর্ধেক খেয়ে নেয় ওই ঈগল। তার একটি পা কে বা কাহারা কেটে দেয়ায়  নিজে শিকার করতে না পাওয়ায় হয়তো কদিন থেকে সেই কারণে শারীরিক দূর্বল হয় এবং পাখিটি ক্ষুধার্ত হয়ে পরলে চলাফেরায় দেহ না চলায় মাটিতে লুটিয়ে পরেছে। তাই এই কৃষক তাকে ধরতে পেরেছে।  অনেকের ধারণা পাখিটি হয়তো ইউক্রেনের যুদ্ধপর সময় একটি পা হারিয়ে উড়িয়ে এখানে এসে পরেছে।


আরও খবর



রৌমারীতে প্রধান শিক্ষক কর্তৃক বিদ্যালয়ের সভাপতিকে পেটানোর অভিযোগ

প্রকাশিত:Tuesday ৩১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি : 

কুড়িগ্রামের রৌমারীতে বারবান্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে সরকারি বরাদ্দের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ দেওয়ায় বিদ্যালয়ের সভাপতি মনিরুল ইসলামকে (৩৬) পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। 

সোমবার (৩০ জানুয়ারি) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার বারবান্ধা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে নির্যাতনের শিকার বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি বাদী হয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমসহ দুইজনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। ঘটনার আগের দিন রোববার (২৯ জানুয়ারি) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত নিয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দেন ওই সভাপতি।  

অভিযুক্ত আবুল কাশেম (৪৮) উপজেলার সদর ইউনিয়নের বারবান্ধা গ্রামের মৃত জসিম উদ্দিনের ছেলে।  তিনি উত্তর বারবান্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। এছাড়া একই ইউনিয়নের বারবান্ধা গ্রামের নুর হোসেনের ছেলে রঞ্জু মিয়াকে (৪০) আসামী করা হয়েছে। রঞ্জু মিয়া ওই প্রধান শিক্ষকের সম্পর্কে ভাতিজা। ভুক্তভোগি সভাপতি মনিরুল ইসলাম উপজেলার সদর ইউনিয়নের উত্তর বারবান্ধা গ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে।

নির্যাতনের শিকার বিদ্যালয়ের সভাপতি মনিরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, ২০২১-২২ইং অর্থ বছরে উপজেলার উত্তর বারবান্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নামে বিদ্যালয় উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত মোট ২লাখ ৭৫হাজার ৫০২টাকা যৌথ হিসাব নাম্বারে জমা হয়। তৎকালীন সভাপতি আইয়ুব আলীর মেয়াদ শেষ হলে গত বছর  মনিরুল ইসলাম ওই বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচিত হন। পরে প্রধান শিক্ষকসহ ব্যাংকে যৌথ হিসাব খুলতে যান সভাপতি মনিরুল ইসলাম। এ সময় তিনি দেখেন ব্যাংকে জমানো কোনো টাকা নেই। সন্দেহ হলে খেঁাজ নিয়ে জানতে পান তৎকালীন সভাপতি আইয়ূব আলীর স্বাক্ষর জাল করে অবৈধভাবে সমস্ত টাকা উত্তোলন করে আত্মসাত করেছেন প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম।

এর প্রতিকার চেয়ে রোববার (২৯জানুয়ারি) সভাপতি বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দেন। এতে ক্ষিপ্ত হন প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম। পরদিন (সোমবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ওই সভাপতি বারবান্ধা বাজার এলাকায় গেলে প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমসহ ভাতিজা রঞ্জু মিয়া তঁাকে এলোপাথারী মারধর করেন। এসময় স্থানীয়রা সভাপতিকে উদ্ধার করে রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ওইদিন (সোমবার) রাতে মারধরের শিকার সভাপতি মনিরুল ইসলাম বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেমসহ দু’জনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেন।

বিদ্যালয়ের তৎকালীন সভাপতি আইয়ূব আলী বলেন, আমি এক বছর ধরে অসুস্থ্য। সরকারি বরাদ্দের টাকা উত্তোলনের বিষয়ে কিছুই জানিনা এবং আমাকে জানানোও হয়নি। আমার স্বাক্ষর জাল করে সমস্ত টাকা আত্মসাত করেন প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, আমার অসুস্থ্যতার খবর শুনেও একবারের জন্য দেখতে আসেননি ওই প্রধান শিক্ষক।

রৌমারী সদর ইউনিয়ন পরিষদের ৬নম্বর ওয়ার্ড সদস্য ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সহসভাপতি ফিরোজ মিয়া বলেন, তৎকালীন সভাপতি আইয়ূব আলীর স্বাক্ষর জাল করে সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাত করেন ওই প্রধান শিক্ষক। এনিয়ে সভাপতি মনিরুল ইসলাম বাদি হয়ে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হন তিনি। এর জের প্রধান শিক্ষক ও তঁার ভাতিজা রঞ্জু মিয়া মিলে সভাপতির উপর হামলা চালান।

সরকারি বরাদ্দের টাকা আত্মসাতের বিষয়টি অস্বীকার করেন উত্তর বারবান্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাশেম। তিনি বলেন, তৎকালীন সভাপতি আইয়ূব আলী অসুস্থ্যতার কারণে সব কিছু ভুলে গেছেন। তঁার স্বাক্ষরেই টাকা উত্তোলন করা হয়েছে। সভাপতি মনিরুল ইসলামকে পেটানোর বিষয়ে তিনি বলেন, ঘটনাটি আমার ভাতিজা রঞ্জু মিয়ার সাথে ঘটেছে। আমি এর সাথে জড়িত নই।  

রৌমারী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মারধরের ঘটনায় মনিরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি ভর্তি হয়েছেন। তঁার শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ছেলা, ফোলা ও জখমের চিহ্ন রয়েছে। তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রৌমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) এবিএম সরোয়ার রাব্বী বলেন, অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষাকর্মকর্তাকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

রৌমারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেন, তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পেলে ওই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে সুপারিশ করা হবে।

অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে রৌমারী থানার ওসি রুপ কুমার সরকার বলেন, বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর



রাজধানীতে আজ আ.লীগের সমাবেশ

প্রকাশিত:Wednesday ২৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ আজ বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশের দিন ঢাকায় সমাবেশ কর্মসূচি পালন করবে।

নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবি আদায়ে বুধবার দেশব্যাপী সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। একই দিনে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের দুটি স্থানে আওয়ামী লীগের কার্যক্রম রয়েছে। এ কার্যক্রমে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের অংশ নেবেন। তবে আওয়ামী লীগের এসব কার্যক্রম বিএনপির সঙ্গে পাল্টাপাল্টি নয় বলে দবি ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সমাবেশের আয়োজন করছে। নগর দক্ষিণের দপ্তর সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন রিয়াজ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সমাবেশটি সকালে বঙ্গবন্ধু ২৩ অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত হবে। এতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা উপস্থিত থাকবেন।

মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে, বিকেলে বনানীতে উত্তরের শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ। সেখানে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য দেন।


আরও খবর