Logo
শিরোনাম
শবে বরাত পালন মুসলিম জাতিকে একতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে। ৫৭ তম খোশরোজ শরীফ ও মইনীয়া যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবীতে প্রতীকী লাশ নিয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মিছিল লক্ষ্মীপুরে কৃষক কাশেম হত্যা: স্ত্রী, শ্বশুরসহ গ্রেপ্তার ৫ কুমিল্লা সিটি’র উপনির্বাচন: মেয়র পদে প্রতীক বরাদ্দ অবৈধ মজুদকারীরা দেশের শত্রু : খাদ্যমন্ত্রী ফতুল্লায় সিগারেট খাওয়ার প্রতিবাদ করায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

রামগড়ে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

মোহাম্মদ শাহেদ হোসেন রানা

রামগড়(খাগড়াছড়ি) :

পার্বত্য খাগড়াছড়ি জেলার রামগড়ে ২৩-২৪ অর্থ বছরে বরি মৌসুমে বোরো ধানের উফশি আবাদ বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (০৫ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি অফিসের যৌথ আয়োজনে কৃষি অফিস প্রাঙ্গণে রামগড় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কার্বারী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিতরণের উদ্বোধন করেন। এ সময় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো.মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন রামগড় ১নং ইউপির চেয়ারম্যান শাহ আলম মজুমদার, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আজিজুর রহমান আঞ্জুম, সহকারি উদ্ভিদ ও সংরক্ষণ কর্মকর্তা মো.সানাউল হক, উপ-সহকারী মো.তসলিম উদ্দিন বাহার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, চাষীদের মধ্যে হাইব্রিড ধান-৫ কেজি, এমওপি-১০ কেজি, ডিএপি-১০ কেজি বিতরণ করা হয়।


আরও খবর



নওগাঁয় সরকারি গাছ যাচ্ছে প্রভাবশালীদের পেটে

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, সিনিয়র রিপোর্টার :

নওগাঁয় সড়কের পাশে রোপন করা সরকারি গাছ যাচ্ছে প্রভাবশালীদের পেটে। নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার গোনা ইউনিয়ন এর বড়বড়িয়া বাজার হতে রেললাইন সংযোগ সড়ক এর দুই ধারে সরকারি ভাবে রোপনকৃত বিভিন্ন প্রজাতির গাছগুলো রাতের আধাঁরে কেটে নিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালীরা। পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে সড়কের পাশ দিয়ে এই গাছগুলো রোপন করা হয়েছিলো বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

গত কয়েক মাসে প্রায় অর্ধশতাধিক গাছ রাতের আধাঁরে কে বা কারা চুরি করে কেটে নিয়ে গেছে। অনুমতি ছাড়াই এসব গাছগুলো কর্তন করায় একদিকে সরকারের লাখ লাখ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। অপরদিকে হুমকির মুখে পড়ছে পরিবেশ। বড়বড়িয়া হতে রেললাইন সড়কের দু' পাশে পড়ে আছে শুধু মাটির ভিতরে থাকা গাছের গোড়ার মুল অংশ টি। প্রশাসন কে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা লাখ লাখ টাকার সরকারি সম্পদ গাছগুলো লুট করছে বলেই জানান স্থানীয়রা। সরকার দেশের সবুজায়ন বৃদ্ধির লক্ষ্যে যেখানে নানা জাতের পরিবেশ বান্ধব বিভিন্ন গাছ রোপনে নানা প্রকল্প গ্রহণ করছে, আর ঠিক সেই সময়-ই সরকারী রাস্তার গাছ রাতের আঁধারে প্রভাবশালী ব্যক্তিরা কেটে নিয়ে গেলেও তেমন কোন পদক্ষেপ নেই প্রশাসন বা কর্তৃপক্ষের।

বরেন্দ্র উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ রাণীনগর জোনের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ ইমানুর রশীদ জানান, আমি গাছ কাটার ঘটনা জানতে পেরে সেখানে লোক পাঠিয়েছি এবং অনুসন্ধান চলছে। যেই গাছ কাটুক না কেন, তাকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।


আরও খবর



ঢাকার সঙ্গে সম্পর্ক গভীর করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ জানালেও, বাংলাদেশের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করবে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ঢাকার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও গভীর এবং দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়েও বাইডেন প্রশাসনের আগ্রহের কথা জানিয়েছে মার্কিন পররাষ্ট্র দফতর।

গত ৭ জানুয়ারি শান্তিপূর্ণভাবে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দেন সাধারণ মানুষ। নির্বাচন পর্যবেক্ষণে আসে ১১ দেশের ১২৭ জন পর্যবেক্ষক। দফায় দফায় সংবাদ সম্মেলনের পর তারা মতামত দেন, নির্বাচন হয়েছে অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য।

সরাসরি উপস্থিত থেকে বিভিন্ন দেশের পর্যবেক্ষকরা যখন নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হয়েছে বলে জানান, তখন পর্যবেক্ষক না পাঠিয়েই ভিন্ন সুর ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। ভোট নিয়ে নিজেদের অসন্তুষ্টির কথা জানায় তারা।

তবে এবার বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও গভীর করার বিষয়টি নিশ্চিত করলো ওয়াশিংটন। বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ এবং নবনির্বাচিত সরকারের সঙ্গে ভবিষ্যতে কাজ করার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান জানতে চাওয়া হয়।

এসময় মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার জানান, বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত তারা।

তিনি বলেন, এ ধরনের সম্পর্ক বিশ্বের অনেক দেশের সঙ্গেই আছে আমাদের। আমরা বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগের কথা জানিয়েছি। বাংলাদেশের ক্র্যাকডাউন নিয়েও আমরা উদ্বেগ জানিয়েছি। তবে এর মানে এই নয় যে দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কাজ করার দায়িত্ব নেই আমাদের।

বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে বিভিন্ন নাশকতাসহ দেশে-বিদেশে নানা অপপ্রচার চালানো হয়। তবে এসবকে পাত্তা দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র। এর আগেও নির্বাচিত নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করার কথা জানিয়েছে দেশটি।

 


আরও খবর

অনুমতি ছাড়া হজ করলে শাস্তি ঘোষণা

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




বিজিবি ও বিএসএফ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠক

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, সিনিয়র রিপোর্টার :

শান্তিপূর্ণ, নিরাপদ এবং চোরাচালান মুক্ত সীমান্ত নির্মানের অঙ্গীকারে বিজিবি ও বিএসএফ ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বুধবার ৭ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ সময় সকাল সারে ১১ টা থেকে বেলা ২ টা পর্যন্ত নওগাঁ জেলাধীন পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) এবং প্রতিপক্ষ (ভারত) ১৩৭ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ, পতিরাম এর মধ্যে সীমান্ত পিলার ২৬৮/৯-এস এর নিকট বর্তী আলতাদিঘি ( জিআর-৮৫৯৮৬১ মানচিত্র ৭৮সি/১৬) নামক স্থানে ভারতের অভ্যন্তরে বিএসএফ এর আহবানে ব্যাটালিয়ন কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বৈঠকে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর পক্ষে ৭ জন সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন লেঃ কর্নেল মোঃ হামিদ উদ্দিন, বিজিবি, এমএস, পিএসসি, অধিনায়ক, পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি)। অপরদিকে ভারতের ৭ সদস্য বিশিষ্ট বিএসএফ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন শুকভীর ধাংঘার কমান্ড্যান্ট ১৩৭ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ, আরাদপুর, ভারত। পতাকা বৈঠকে পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন এর অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ হামিদ উদ্দিন, বিজিবিএমএস, পিএসসি প্রতিপক্ষ ১৩৭ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ কমান্ড্যান্ট কে ঐতিহ্যবাহী  আলতাদিঘী পূনঃখননে অবশিষ্ট অংশের কার্যক্রমের সহযোগিতা কামনা করলে বিএসএফ কমান্ড্যান্ট পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। এছাড়াও অধিনায়ক, পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) জয়পুরহাট জেলার (কড়িয়া কোম্পানীর দায়িত্বপূর্ন এলাকায়) সৌলাগাড়ি বিলের জলবদ্ধতা নিরসনে বিএসএফ কর্তৃক সার্বিক সহযোগিতার জন্য প্রতিপক্ষ ১৩৭ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ কমান্ড্যান্টকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পত্নীতলা ব্যাটালিয়ন (১৪ বিজিবি) এবং প্রতিপক্ষ ১৩৭ ব্যাটালিয়ন বিএসএফ এর মধ্যে সু-সমন্বয় ও দ্বি-প্রাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন এর ফলে বিগত দু বছরে সীমান্তে কোন ধরনের অনাকাংক্ষিত ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি এবং উভয় দেশের অধিনায়ক এ ধারা আগামীতেও অব্যাহত রাখার জন্য অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। পরিশেষে, সীমান্তে অবৈধ অনুপ্রবেশ-সীমান্ত লঙ্ঘন, চোরা চালান প্রতিরোধ সহ সীমান্ত বর্তী সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। সভায় সীমান্ত বর্তী জন সাধারণের নিরাপত্তা এবং সীমান্তে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে উভয় অধিনায়ক এক সাথে কাজ করার ব্যাপারে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। পরিশেষে সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে পতাকা বৈঠক শেষ হয়।  


আরও খবর



বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

 জামালপুর প্রতিনিধি : বকশীগঞ্জ নূর ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড ক্লিনিকের উদ্যোগে ২০২৪ সালে দেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষায় উর্ত্তীন্ন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধণা দেয়া হয়েছে শুক্রবার সকালে নূর ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড ক্লিনিকে জমকালো সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়

 সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগের উপ সচিব মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন সভাপতিত্ব করেন নূর ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড ক্লিনিকের অন্যতম কর্নধার পঙ্গু হাসপাতালের (নিটোর) স্পাইন অর্থোপেডিক সার্জন অধ্যাপক ডা.রেজাউল করিম রেজা বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শ্রীবরদী সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ হাসান বিন রফিক, অর্থোপেডিক সার্জন ডা.মোহাম্মদ নাদের হোসেন,বীর মুক্তিযোদ্ধা আফছার আলী,বাট্টাজোর নগর মাহমুদ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মামুনুর রশিদ,কৃতি শিক্ষার্থী হৃদয় ইসলাম, তাসনিমা হাসনাইন,আবরার জাওয়াদ রাইয়ান তালুকদার,তাহমিদ হাসান,জান্নাতুল ফেরদৌসি, নিশাত তাসনিম ছোয়া, জান্নাতুল ফেরদৌসি মীম,আদিবা মুয়িম্মাহ নূর আফজা মোহনা

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নূর ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড ক্লিনিকের অন্যতম কর্নধার ইসলামী ব্যাংক বকশীগঞ্জ শাখা ব্যাবস্থাপক আনোয়ার হোসেন ফুয়াদ কৃতি শিক্ষার্থীদের হাতে ক্রেস্ট মেডিকেলের বই তুলে দেন অতিথিবৃন্দ


আরও খবর



বইমেলা শুরু বৃহস্পতিবার

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

বছর ঘুরে অমর একুশে গ্রন্থমেলার শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার (১ ফ্রেব্রুয়ারি)। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানজুড়ে তৈরি বইয়ের স্টলগুলো বাহারি রঙের ছোঁয়া ও সজ্জায় বর্ণিল হয়ে উঠেছে। কাল থেকে প্রচ্ছদে রঙিন হয়ে উঠবে বইয়ের তাকগুলো।

১৯৫২র ভাষাশহীদদের স্মরণে আয়োজিত অমর একুশে বইমেলা এবারও পয়লা ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে। অধিবর্ষ হিসেবে ২০২৪ সালের বইমেলা হবে ২৯ দিন। এবার মেলার প্রতিপাদ্য, পড়ো বন্ধু গড়ো দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ।

বাংলা একাডেমি সূত্রে জানা গেছে, ১ ফেরুয়ারি বিকেল ৩টায় মাসব্যাপী বইমেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি সেলিনা হোসেন, স্বাগত বক্তব্য দেবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক মুহম্মদ নূরুল হুদা। এই মঞ্চ থেকেই বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ২০২৩ তুলে দেওয়া হবে।

২০২৪ সালের অমর একুশে বইমেলার এর সার্বিক প্রস্তুতি বিষয়ে মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারি) একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলা একাডেমি। এতে বইমেলার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা।

একাডেমির মহাপরিচালক জানান, উদ্বোধনের পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মেলা ঘুরে দেখতে যাওয়ার পথের দুপাশে বঙ্গবন্ধু ও ভাষা আন্দোলনের নানা স্মৃতি সাজানো হয়েছে। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সম্প্রতি পুরস্কার ফেরত দিয়ে বাংলা একাডেমি নিয়ে কথাসাহিত্যিক জাকির তালুকদারের তোলা নানা প্রসঙ্গ আমলে নিয়ে বিভিন্ন বিষয় সংস্কার করা হবে বলে আশ্বস্ত করেন তিনি।

এ দিকে বইমেলার আগেই রাজধানীতে শুরু হয়েছে মেট্রোরেল সার্ভিস। ফলে যানজটের ভয়ে উত্তরা, মিরপুরসহ বিভিন্ন এলাকার যেসব পাঠক-ক্রেতা বইমেলায় আসতে চাইতেন না, তারাও আসবেন আশা করা হচ্ছে। মেট্রোরেলের টিএসসি স্টেশনে নামলেই বইমেলা। তাই মেট্রোরেল চলাচলের সময়সীমা রাত ৯টা পর্যন্ত বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছে বাংলা একাডেমি।

এছাড়া বইমেলা প্রাণোবন্ত করতে এ বছরই প্রথম ঢাকার ২৫টি স্কুলের প্রশাসনের কাছে তাদের শিক্ষার্থীদের বইমেলায় আনার জন্য চিঠি পাঠিয়েছে বাংলা একাডেমি।

মঙ্গলবার বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঘুরে দেখা গেছে, স্টলের তুলনায় প্যাভিলিয়নগুলো নির্মাণ ও সজ্জা দিক দিয়ে এগিয়ে আছে। তবে স্টল সংশ্লিষ্টরা আশা করছেন, মেলা উদ্বোধনের আগেই সাজসজ্জার কাজ শেষ হয়ে যাবে।

বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানকে ৪টি চত্বরে সাজানো হয়েছে। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের স্টল থাকছে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে থাকছে সৃজনশীল প্রকাশনা সংস্থা ও লিটলম্যাগ চত্বর।

একাডেমি সূত্রে জানা গেছে, মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে স্টল থাকছে ৪৫৯টি। উদ্যানের শিশু চত্বরে স্টল বরাদ্দ পেয়েছে ৬৭টি প্রতিষ্ঠান। চলতি বছর ২০টি নতুন প্রকাশনা সংস্থাকে স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এবার লিটল ম্যাগ চত্বর সরিয়ে উদ্যানের মুক্তমঞ্চের পাশে নিয়ে আসা হয়েছে। টিএসসির দিকের গেট দিয়ে মেলায় প্রবেশ করলে হাতের ডানে পড়বে এই চত্বরটি। একইভাবে উদ্যানের মন্দিরের গেটের পাশেই থাকছে শিশু চত্বর। উদ্যানের অংশে থাকছে লেখক বলছি মঞ্চ। সেখানে নতুন বই নিয়ে হবে লেখক-পাঠক মতবিনিময়।

এদিকে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে নজরুল মঞ্চের পাশেই থাকছে মেলার মূল মঞ্চ। মেলা উপলক্ষে মূল মঞ্চে থাকবে মাসব্যাপী সেমিনার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের জন্য চিত্রাঙ্কন, সংগীত ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা হবে।

মেলার তথ্যকেন্দ্রে নতুন বইয়ের খবর পাওয়া যাবে। থাকছে ডিজিটাল দিকনির্দেশনা। বইমেলার পরিধি ও বিন্যাস অপরিবর্তিত থাকছে। স্টল বিন্যাসের ক্ষেত্রে ফাঁকা জায়গা কম রেখে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে কাছাকাছি রাখা হয়েছে।

মেলায় প্রথমবারের মতো স্টল দিচ্ছে প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান বেঙ্গলবুকস। লেকচার পাবলিকেশন লিমিটেডের এই প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের প্রকল্পপ্রধান আজহার বিন ফরহাদ বলেন, অমর একুশে বইমেলায় প্রথমবার স্টল পাওয়া চ্যালেঞ্জিং। এজন্য বাংলা একাডেমির দেওয়া নিয়মনীতি অনুসরণ করতে হয়েছে।

শিল্পী আজহার ফরহাদ আরো বলেন, বিগত দিনের অভিজ্ঞতায় বলব, এবারের বইমেলা নতুন প্রকাশকদের জন্য আশাপ্রদ একটি মেলা। যেখানে আগে স্টল হতো না, সেখানে স্টল দেওয়া হয়েছে। নতুন প্রকাশকের জন্য অনেক সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। তবে মেলা শুরুর পর এর বাস্তবতা বোঝা যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে মেলার প্রস্তুতি বিষয়ে অবহিত করেন বইমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্যসচিব এবং বাংলা একাডেমির মানবসম্পদ উন্নয়ন ও পরিকল্পনা বিভাগের পরিচালক কে এম মুজাহিদুল ইসলাম। তিনি জানান, শুধু মেলার পূর্বপ্রস্তুতি ও পর্যবেক্ষণের জন্য এবার ৭টা কোর কমিটি কাজ করছে। গতবারের মেলায় ওঠা অভিযোগ এবার সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে। মেলার সুন্দর করতে গত বছর বইমেলা শেষ হওয়ার পর থেকেই প্রস্তুতি নেওয়া হয়। বিগত সময়ে কিছু ঘটনার কারণে এবারও মেলার নিরাপত্তায় নেওয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি। সিসি ক্যামেরাসহ কয়েক স্তরের সুরক্ষা ব্যবস্থা থাকছে মেলা এলাকায়।


আরও খবর