Logo
শিরোনাম

রাণীনগরে অভিযোগের কপি দেয়ালে দেয়ালে

প্রকাশিত:Friday ০৪ November ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) 

নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার আমিরপুর গ্রামের ১২জন ব্যক্তিকে এলাকার “কুখ্যাত সন্ত্রাসী,জেএমবি সদস্য”আখ্যা দিয়ে তাদের বিচার দাবি করে রাতের অন্ধকারে বিভিন্ন মোড়ে,দেয়ালে দেয়ালে পোস্টারিং করা হয়েছে। ৫টি দপ্তরে অভিযোগের আদলে বৃহস্পতিবার রাতে এসব কপি পোস্টারিং করা হয়।

দেয়ালে সাটানো অভিযোগে আমিরপুর গ্রামের মৃত আরফান আলীর ছেলে আফজাল সরদার (৬০)কে “সন্ত্রাসী” দলের সরদার উল্লেখ করে বলা হয়,গত ২০০৫-৬ ইং সালে গ্রামের ১২জন লালবাহীনি জেএমবি কায়দায় খুন,খারাপি ও চাঁদাবাজী এবং নারী ধর্ষণ কাজ সক্রিয়ভাবে পরিচালনা করেছিল। ওইসময় তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের নিকট অভিযোগ করলে প্রশাসনের কর্মকর্তা তাদের পক্ষীয় হওয়ায় কোন ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয়নি। পরবর্তিতে প্রশাসন উক্ত কুখ্যাত জেএমবিদের বিভিন্ন কায়দায় খুন-খারাপি ও চাঁদাবাজী এবং নারী ধর্ষণ বন্ধ করে। বর্তমানে ২০২১সাল থেকে ওইসব সন্ত্রাসীরা আবারও অপকর্ম চালু করেছে। তাদের বিরুদ্ধে কেউ মূখ খোলার সাহস পাচ্ছেনা। যে কোন সময় এলাকায় ভয়াবহ অশান্তি বা খুন খারাপি হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। তাই “কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও জেএমবি সদস্যদের” বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়।এছাড়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ্য ও নির্যাতিত”আখ্যা দিয়ে ১৯জনের নাম ও ফোন নাম্বার দেয়া হয় ওই কপিতে। বৃহস্পতিবার রাতে কে বা কাহারা এলাকাবাসীর বরাদ দিয়ে আমিরপুর,গুয়াতা,চিলাগাড়ী এলাকায় বিভিন্ন মোড়ে,দেয়ালে দেয়ালে দূর্নিতী দমন অফিস,পুলিশ সুপার নওগাঁ,জেলা প্রশাসক নওগাঁ,রাণীনগর থানা এবং সাংবাদিক অফিস রাণীনগর বরাবর পৃথক পৃথক ৫টি দপ্তরে অভিযোগের আদলে এসব কপি লাগানো হয়।

পোস্টারে “ক্ষতিগ্রস্থ্য” অখ্যায়িত আলাউদ্দীন বলেন,জেএমবির সময়কালে আমি নির্যাতনের শিকার হয়েছি। কপিতে যাদেরকে সন্ত্রাসী হিসেবে বলা হয়েছে তাদের মধ্যে অনেকেই জেএমবি ছিল। কিন্তু বর্তমানে গ্রামে সবাই মিলে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করছি। তবে কারা এই পোস্টারিং করেছে বা পোস্টারে নাম দিয়েছে তা বলতে পারছিনা। 

এব্যাপারে পোস্টারে “কুখ্যাত সন্ত্রাসীর সরদার” আখ্যায়িত আফজাল হোসেন বলেন,প্রতিহিংসা বসত আমাদের নামে এসব পোস্টারিং করেছে। জেএমবি বা সন্ত্রাসী কোন সংগঠনের সাথে আমাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই।

রাণীনগর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সেলিম রেজা বলেন,খবর পেয়ে সকালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন পোস্টারে যাদেরকে ক্ষতিগ্রস্থ্য হিসেবে বলা হয়েছে আমরা তাদের অনেকের সাথে কথা বলেছি। সন্ত্রাসী কোন কর্মকান্ড নেই এবং শান্তিতে বসবাস করছি জানিয়ে তারা বলেছেন কারা পোস্টারিং করেছে বা পোস্টারে তাদের নাম দিয়েছে তা বলতে পারেনি। বর্তমানে রাণীনগর উপজেলায় এ রমক কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের নজির নেই। পোস্টারিং কারা করেছে,কেন করেছে তা ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান এই কর্মকর্তা


আরও খবর



গুরুত্বপূর্ন সড়ক ধান ব্যবসায়ীদের দখলে

দশমিনায় ভোগান্তিতে যানচলাচলসহ পথচারী

প্রকাশিত:Tuesday ২৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি :

পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার গুরুত্বপূর্ন সড়কগুলোতে ফড়িয়ারা দখল করে ধানের ব্যবসায় করায় ভোগান্তিতে পড়েছে যানচলাচলসহ পথচারীরা। এতে করে সড়কে সড়কে সৃষ্টি হয়েছে যানজটসহ নানা দুর্ঘটনা। মঙ্গলবার উপজেলার বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ন সড়ক ঘুরে এমন চিত্র দেখা যায়।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন সড়ক, স্কুলের সামনের সড়ক দখল করে ধান ফড়িয়াররা ব্যবসা করছে। উপজেলার রনগোপালদী ইউনিয়নের যৌতা গ্রামে ৬৯ নম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের সড়কের এপাশ ওপাশে প্রায় ২শ’ বস্তা ধান রেখে উচু টিলা বানিয়ে রেখেছে তারা। এছাড়া উপজেলার আরজবেগী বাজারের দক্ষিন পাশে প্যাদাবাড়ির সামনের সড়ক জুড়ে ধানের বস্তার স্তুপ। উপজেলার বেতাগীসানকিপুর ইউনিয়নের বড়গোপালদী বাজারের পুর্ব ও পশ্চিম পাশের সড়কজুড়ে ধানের বস্তা রাখা হয়েছে। উপজেলার টাকুরের হাটে সড়ক জুরে ধানের বস্তা, তারপাশে দাড়িয়ে আছে ট্র্যাক এতে করে দেখা দিয়েছে যানজট। সড়কে ধানের বস্তা ও ট্র্যাক রাখায় রাস্তার এক-তৃতীয়াংশ দখল করে ধান বস্তা, ট্র্যাকে উঠানো এবং ভ্যানগড়ী দিয়ে এনে নামানোর কাজ করছে দিনভর ধান ব্যবসায়ীরা।

দশমিনা সদর ইউনিয়নের বাসিন্দা ও বড়গোপালদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক আহম্মেদ ইব্রাহিম অরবিল বলেন, দশমিনা-পটুয়াখালী ও দশমিনা-বরিশালসহ বিভিন্ন স্থানে লোকজন গুরুত্বপূর্ন কাজে যায় এ সড়ক দিয়ে আসা-যাওয়া করেন, রোগী বহন কারি এ্যাম্বুলেন্স এবং মালামালবাহী মিনি ও বড় ট্র্র্যাক আসা যাওয়া করে কিন্তু ধানের বস্তায় সড়কের বেশিরভাগ জায়গা দখল করায় যানজট সৃষ্টি হয়। এতে করে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয় যানচলাচলকারী গাড়ির। আমার প্রতিদিন বিদ্যালয়ে আসা যাওয়াতে সময় ও জীবনের ঝুঁকি থাকে। 

বেতাগী সানকিপুর ইউনিয়নের ঠাকুরের হাট এলাকার বাসিন্দা খোকন মাঝি, রিপন ও কার্তিক চন্দ্র বলেন, এ বাজারটি সন্ধ্যার পর এলাকার বিভিন্ন পেশার লোকজন এসে নিত্য প্রয়োজনীয় মালামাল কেনা-বেঁচা করে। এখন বাজারটি জুড়ে ধানের বস্তার স্তুপ। কেউ দেখার নেই মনে হচ্ছে ফড়িয়ারদের ধান ব্যবসা করার জন্য এই রাস্তা নির্মান করা হয়েছে। এস্তুপের তলে শিশু ও বৃদ্ধরা যে কোন সময় পড়ে যেতে পারে।  

এ বিষয়ে দশমিনা সদর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়াডে সদস্য রিপন কর্মকার বলেন, এলাকার বিভিন্ন সড়ক দখল করে রাখা হচ্ছে ধানের বস্তা। এতে করে রাস্তায় যে কোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমি বিষয়টি ইউনিয়ন চেয়ারম্যানকে জানাবো।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মহিউদ্দিন আল হেলাল বলেন, খোঁজ খবর নিয়ে ধান ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।


আরও খবর



নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে

ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি'র প্রস্তুতিকালে ৬ জন গ্রেফতার

প্রকাশিত:Tuesday ২৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি'র প্রস্তুতিকালে ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে জব্দ করা হয় একটি গাড়ির নম্বর প্লেট, ২টি ডিবি পুলিশের জ্যাকেট, হ্যান্ডকাপ, অকেজো ওয়াকিটকি,খেলনা পিস্তল,আর্মি পোষাকের সদৃশ্য জ্যাকেট ও দেশীয় অস্ত্র। গ্রেপ্তারকৃতরা হলঃ-খলিলুর রহমান মৃধা, জামাল আকন, আবু সালে হাওলাদার, বিল্লাল, আবু হানিফ ও ইউসুফ।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) তরিকুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জ মিজমিজি পশ্চিমপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদেরকে তল্লাশি করে দেশীয় অস্ত্র, খেলনার পিস্তলসহ ডাকাতি কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। দীর্ঘদিন যাবত তারা মহাসড়কে ডাকাতি করে আসছিল। তারা বিভিন্ন জেলার বাসিন্দা। তাদের বিরুদ্ধের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। এঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর



দাঁতের সমস্যা হৃদরোগের কারণ হতে পারে

প্রকাশিত:Monday ০৬ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

দাঁতের বিভিন্ন সমস্যায় কখনো কখনো কমবেশি সবাই ভোগেন। পিরিওডনটিটিস নামক মাড়ির এক ধরনের রোগে মুখে দুর্গন্ধ থেকে দাঁত থেকে রক্তপাতের মতো সমস্যা হতে পারে।

তবে অবাক হবেন, মাড়ির রোগের কারণে হৃদযন্ত্রেও সমস্যা দেখা দিতে পারে। নতুন এক গবেষণায় এমনটিই দাবি করা হয়েছে। তাই শুধু ডায়েট বা শরীরচর্চা নয়, নজর রাখতে হবে মাড়ির স্বাস্থ্যের দিকেও।

ক্লিনিক্যাল ফিজিওলজিতে প্রকাশিত এক গবেষণায় এই বিষয় জানিয়েছেন গবেষকরা। তাদের মতে, পিরিওডনটিটিস এর সঙ্গে হৃদযন্ত্রে ফাইব্রোসিসের যোগাযোগ মিলেছে। এটা এমন একটা সমস্যা যার ফলে হার্টবিট বা হৃৎস্পন্দন অনিয়মিত হয়ে যায়।

হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর শুনসুকে মিয়াউচির মতে, পিরিওডনটিটিসের কারণে দীর্ঘদিন ধরে প্রদাহের সৃষ্টি হয়। এই প্রদাহই ফাইব্রোসিসের কারণ।

প্রফেসর শুনসুকে মিয়াউচি জানান, মাড়ির এই রোগ আট্রিয়াল ফাইব্রোসিস তৈরি করে। বিভিন্ন রোগীর ইতিহাস যাচাই করা জানা গেছে, পিরিওডনটিটিস ও আট্রিয়াল ফাইব্রোসিসের পরিস্থিতির মধ্যে সম্পর্ক আছে।

মাড়ির ওই রোগ যত জটিল হবে, হৃদযন্ত্রে ফাইব্রোসিসের অবস্থাও ততটাই খারাপ হবে। এই ঘটনা থেকে গবেষকরা দাবি করেছেন, মাড়ির সমস্যার সঙ্গে হৃদরোগের সম্পর্ক আছে।

হিরোশিমা বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েট স্কুল অব বায়োমেডিক্যাল অ্যান্ড হেলথ সায়েন্স এর গবেষক উকিকো নাকানোও এই গবেষণার সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন।

যে সমীক্ষা হয়েছে তাতে দেখা গেছে পিরিওডনটিটিস আট্রিয়াল ফাইব্রোসিস-এর সমস্যা দ্রুতগতিতে বাড়াতে পারে।

গবেষকদের পরামর্শ অনুযায়ী, হৃদরোগের সমস্যা দূরে রাখতে জীবনধারায় পরিবর্তন আনতে হবে। ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া, শরীরচর্চা ও ওজন নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি মাড়ির দিকেও খেয়াল রাখতে হবে। পাশাপাশি ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাসও বাদ দিতে হবে।


আরও খবর



তুমি তোমার কাজ করে যাও, থেমে যেওনা

প্রকাশিত:Tuesday ২৪ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান চৌধুরী, শিক্ষাবিদ :

তোমাকে নিয়ে মানুষ হাসছে, ঠাট্টা-বিদ্রুপ করছে, তাদের করতে দাও, বাধা দিওনা | তুমি তোমার কাজ করে যাও | থেমে যেওনা | একটা কথা সব সময় মনে রেখো, পৃথিবীতে আজ যাদের আমরা সফল মানুষ বলে জানি,  একদিন তাদের দেখেও  মানুষ হেসেছিলো, ঠাট্টা-বিদ্রুপ করেছিল | তারা থেমে যায়নি | তাদের কাজ থেকে এতটুকু  সরে যায়নি বরং মানুষের এই অবহেলা, অবজ্ঞা, অপমানকে তারা চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছিল, কিন্তু তাদের বুঝতেও দেয়নি | হয়তো তারা কেঁদেছিলো, নীরব যন্ত্রনায় পুড়েছিল, আঘাতের ক্ষত চিহ্ন তারা বয়ে  বেড়াচ্ছিল | কিন্তু কখনো কারো সহানুভূতি চায়নি, কারো ভালোবাসা পেতে নিজেদের ব্যক্তিত্বকে হারিয়ে ফেলেনি, কখনো কারো কাছে তাদের বুকের ভিতরে জমে থাকা কষ্টগুলো প্রকাশ করেনি | কারণ তারা জানতো, মানুষের কাছে কখনো দুর্বলতা প্রকাশ করতে নেই |  

মানুষ দুর্বলদের উপর বুভুক্ষু শুকুনির মতো ঝাঁপিয়ে পড়তে ভালোবাসে  | নিজের বড়ত্ব দেখানোর নাম করে সর্বস্ব কেড়ে নিতে এতটুকু ছাড় দেয়না |  বাস্তবতা হলো মানুষ মানুষের অসহায়ত্ব নিয়ে খেলতে ভালোবাসে, মানুষের দুঃখকে পুঁজি করে নিজের লাভটা কড়ায় গন্ডায়  বুঝে নিতে বিন্দুমাত্র কার্পণ্য করেনা  |  

মানুষ অভিনয় করে হয়তো মাথায় হাত বুলিয়ে দিয়ে সহানুভূতি, আবেগ, ভালোবাসা দেখানোর চেষ্টা করবে | সেটা মেরুদন্ড ভেঙে দেবার একটা কৌশল, সেটা মানুষের ভিতর জেগে উঠা স্বপ্নকে মুছে ফেলার একধরণের সুপ্ত কূটনীতি  | কূটনীতি থেকে মানুষকে গিনিপিগ বানানোর রাজনীতিও হয়ে উঠতে পারে সেটা | সহানুভূতি, আবেগ, ভালোবাসা কখনো কখনো আত্মঘাতী হয়, মানুষকে তার লক্ষ্য থেকে বিচ্যুত করে |  মিথ্যে ভালোবাসায় লোকদেখানো অতি আবেগ থাকে, ভালোবাসা সত্য হলে সেখানে আগুনে পোড়া রুটির মতো কঠিন বাস্তবতা থাকে |  

তোমার মনকে শক্ত করো, মাটিকে খড়কুটোর মতো  আঁকড়ে ধরো, প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে লড়তে লড়তে তোমার স্বপ্নকে অতিক্রম করতে শেখো | মনে রেখো স্বপ্নের পিছনে ছোটা মানে স্বপ্নের কাছে পরাজয় মেনে নেওয়া, তোমাকে এমনভাবে ভেঙে ভেঙে গড়ে তুলো যাতে স্বপ্ন তোমার পিছনে ছুটতে  ছুটতে  ক্লান্ত হয়ে পড়ে  |  যেদিন দেখবে তুমি তোমার স্বপ্নের চেয়েও এগিয়ে গেছো  সেদিন তোমার কাছে স্বপ্নগুলো বাস্তবতা হয়ে হার মানতে বাধ্য হবে | তুমি তোমাকে চেনো, তোমার ভিতরের ঘুমন্ত মানুষটাকে চেনো, তাকে ঘুম থেকে জাগিয়ে তোলো | হয়তো তখন দেখবে তুমি এমন কিছু সৃষ্টি করেছো যা ইতিহাসের সব সৃষ্টিকে হার মানিয়েছে, সময়কেও তোমার পিছনে ফেলে দিয়েছে |   

এই পৃথিবীতে বড় হতে হলে অনেক ছোট হতে হয়, সবার পিছনে দাঁড়িয়ে নিজের পিছিয়ে পরার কষ্টটাকে আনন্দ  বানাতে হয়, অবহেলা, অযত্নকে মেনে নিয়ে নিজের ভিতরের অমিত শক্তিটাকে খুঁজতে হয় |  মনে রেখো এই পৃথিবীতে তুমি কখনো হাত ধরে উপরে তোলার মানুষ পাবেনা, তোমার বড় হয়ে উঠার কঠিন লড়াইকে কেউ মেনে নিতে চাইবেনা, তুমি যতই নিজেকে প্রমান করো না কেন মানুষ তা কখনো স্বীকার করে নেবেনা | 

তারপরও তুমি তোমার হাত ছেড়োনা, তুমি তোমার লড়াইটা থামিয়ে দিওনা, তুমি তোমাকে প্রমান করার চেষ্টাটা বন্ধ করোনা | মনে রেখো পৃথিবীটা খুব নির্মম | পৃথিবীর মানুষের বিচারে তুমি যদি ফেল করো তাহলে বুঝে নিও  তুমি পাশ করেছো | কারণ মানুষ যা ভাবে তা বলেনা, মানুষ যা বলেনা মানুষ সেটাই ভাবে | 

তুমি তোমাকে বিচার করতে শেখো, নিজেকে বিচার করতে শিখলে মানুষের বিচারের জন্য কখনো বসে থাকতে হয়না | আর একটা কথা সব সময় মনে রেখো  যে  মানুষরা তোমাকে দেখে একদিন  হেসেছিলো, অপমান করার খেলায় মেতেছিলো সময়ের স্রোতে  তারা ভেসে যাবে একদিন, ইতিহাসও  তাদের কখনো মনে রাখেনি, রাখবেনা কোনোদিনও  |


আরও খবর



সব রেকর্ড কি ভাঙতে চলেছে ‘পাঠান’ ?

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

পাঁচ বছর পর পর্দায় ফিরতে চলেছেন শাহরুখ খান। তাকে শেষবার পর্দায় দেখা গিয়েছিল ‘জিরো’ ছবিতে। সেই ছবি বক্স অফিসে একেবারেই সাফল্য পায়নি। কার্যত মুখ থুবড়ে পড়ে। মাঝে দীর্ঘ বিরতি নেন কিং খান। স্বাভাবিকভাবেই এতদিন পর শাহরুখ খানের ছবি মুক্তির অপেক্ষায় ছিলেন তার অনুরাগীরা।

অবশেষে অপেক্ষার অবসান হতে চলেছে। আর দিন দশেক পর মুক্তি পাবে ‘পাঠান’। ছবিটিকে ঘিরে তাদের উত্তেজনা তুঙ্গে। সূত্রের খবর, ইতোমধ্যেই বেশ কিছু জায়গায় অগ্রিম বুকিং শুরু হয়ে গেছে এই ছবির। তাছাড়াও দর্শকদের উত্তেজনা নজর করে বিশেষজ্ঞদের দাবি, শাহরুখ খানের কামব্যাক ছবি অন্যতম হিট ছবি হতে চলেছে।

সম্প্রতি ট্রেড অ্যানালিস্ট এবং বিশেষজ্ঞদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, ‘পাঠান’ মুক্তি পাওয়ার পর তা শাহরুখ খানের অন্যতম হিট ছবি হতে চলেছে। আন্তর্জাতিক বাজারে এই ছবিকে ঘিরে দর্শকদের উত্তেজনা তুঙ্গে। শুধু আমাদের দেশেই নয়, বিশ্বজুড়ে মুক্তি পাবে এই ছবি। আর সাম্প্রতিক পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, আমেরিকা, আরব আমিরাত, অস্ট্রেলিয়ার মতো জায়গায় ইতোমধ্যেই ব্যাপক মাত্রায় টিকিট বিক্রি শুরু হয়ে গেছে। সেই তথ্য অনুযায়ী, দেশের পাশাপাশি বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোতেও প্রচুর পরিমাণে ব্যবসা করার সম্ভাবনা রয়েছে এই ছবির।

‘পাঠান’ মুক্তি পাওয়ার আগে থেকেই শুরু হয়ে গেছে বিতর্ক। এই ছবি প্রথম গান ‘বেশরম রং’ ঘিরে কম বিতর্ক দেখা দেয়নি। দীপিকা পাড়ুকোনের পোশাককে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় ওঠে। সমালোচকরা ছবির গানের কিছু দৃশ্য বদলানোর দাবি তোলেন। আর সেন্সর বোর্ডের পক্ষ থেকেও বেশ কিছু দৃশ্য এবং ডায়লগ বদলানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বেশ কিছু কাটছাঁটের পরই মুক্তি পাবে ‘পাঠান’।


আরও খবর