Logo
শিরোনাম

সবজি ও মাছের দাম চড়া

প্রকাশিত:Saturday ২১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শীত মৌসুমে সারাদেশে সবজির উৎপাদন বাড়ে। একই সময় গ্রামীণ জলাশয়গুলোর পানি কমে যাওয়ায় মাছ শিকার বেশি হয়। ফলে এ সময় সবজি ও মাছের সরবরাহ বেশি থাকায় সাধারণত দাম ক্রেতাদের নাগালেই থাকে। কিন্তু বর্তমান চিত্র ভিন্ন। শীতের এ সময়ও রাজধানীর কাঁচাবাজারে মাছ ও বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজির দাম চড়া। এ জন্য ব্যবসায়ীরা শীত আর বিশ্ব ইজতেমাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাচ্ছেন। তবে ভোক্তাদের মাঝে চাপা ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে।

২০ জানুয়ারি ছুটির দিন সকালে রাজধানীর মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় বাজারে এসেছেন বেসরকারি চাকরিজীবী আনোয়ার হোসেন। কিন্তু মাছ আর শীতের সবজির দাম বাড়তি দেখে অবাক তিনি। কিছুটা ক্ষোভের সঙ্গে আনোয়ার বলেন, গত সপ্তাহের চেয়ে সব ধরনের মাছের দাম বেড়েছে। একইসঙ্গে সব ধরনের সবজির দামও বাড়তি। যেকোনো সবজিতে কেজি প্রতি আগের চেয়ে অতিরিক্ত ১০ থেকে ২০ টাকা গুনতে হচ্ছে।

ওই বাজারের মাছ বিক্রেতাদের ভাষ্য, মাছের খাবারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় মাছের দামও বেড়ে গেছে। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, গ্রামাঞ্চলে অতিরিক্ত শীতের কারণে মাছ সরবরাহ কম হচ্ছে। ফলে মাছের দাম গত সপ্তাহের চেয়ে একটু বেশি।

শীতের দোহাই দিয়ে ব্যবসায়ীরা আরও বলছেন, গ্রামাঞ্চলে অতিরিক্ত শীতের কারণে ফসল তুলতে পারছেন না কৃষকরা। এর প্রভাব পড়েছে রাজধানীর কাঁচাবাজারে। গত সপ্তাহে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের কারণে টঙ্গীতে প্রচুর পরিমাণে সবজির চাহিদা ছিল। তখন সবজির দাম বেড়ে আর কমেনি। আগামী ২২ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় ইজতেমার সময় পর্যন্ত সবজির দাম চড়া থাকতে পারে। অন্যদিকে গ্রামাঞ্চলে শীত কিছুটা কমে এলে বাড়বে সবজির সরবরাহ। তখন কমতে পারে সবজির দাম।

শুধু শেওড়াপাড়া নয়, শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে প্রায় একই চিত্র দেখা গেছে। সব ধরনের মাছের দাম তুলনামূলক বেড়েছে। তবে গরু, খাসি, মুরগি, ব্রয়লার আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে।




আরও খবর

কমছে আয়, বাড়ছে ব্যয়

Saturday ০৪ February ২০২৩




নওগাঁয় বিস্ফোরক মামলায় বিএনপির ৮ নেতা-কর্মী কারাগারে

প্রকাশিত:Thursday ০৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর মহাদেবপুর ও পত্নীতলা থানায় দায়েরকৃত বিস্ফোরক মামলায় বিএনপির ৮ নেতা কর্মীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে জেলা ও দায়েরা জজ মোঃ আবু শামীম আজাদ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০ নভেম্বর ২২ তারিখে জেলার পত্নীতলা থানার ২৬/৪০৬ নং  বিস্ফোরক দ্রব্য আইন প্যানেল কোড মামলার এজাহার নামীয় আসামিদের মধ্যে পত্নীতলা থানার যুবদলের যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ শাহির হোসেন শিপু (৩৫), পত্নীতলা থানা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ শাহীন বায়জিদ রহমান (৪২), নজিপুর পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডে যুবদলের সভাপতি মোঃ রনি হোসেন (৩৫), নজিপুর পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ উজ্জল হোসেন (৩৫), নজিপুর পৌর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মোঃ আব্দুল কাদের(৪০), পত্নীতলা ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমিনুল ইসলাম (৪৫) এবং মহাদেবপুর থানার ২২ নভেম্বর ২২ইং তারিখের ২০/৩৭৫ নং মামলার বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের এজাহার নামীয় আসামিদের মধ্যে মহাদেবপুর থানা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ আমিনুল ইসলাম (৪৫), ও থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ এফ আই সবুজ(৩৭)।

বৃহস্পতিবার বিজ্ঞ আদালতে তারা হাজির হয়ে জামিনের জন্য আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালতের বিচারক জেলা জজ মোঃ আবু শামীম আজাদ তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে (পত্নীতলা থানার ৬ জন এবং মহাদেবপুর থানা ২ জন) মোট ৮ জনকে কারাগারে প্রেরনের আদেশ দেন।


আরও খবর



ধামরাইয়ের বিখ্যাত মিষ্টি ক্ষীরমোহন

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন (স্টাফ রিপোর্টার):


ঢাকার ধামরাইয়ের কাওয়ালীপাড়া বাজারের ইসমাইল সুইটস এর ক্ষীরমোহন অনন্য এক মিষ্টান্নের নাম। অনেকেই ভীষণ ভোজনপ্রিয় মানুষ। খাবারের নাম শুনলেই জিভে জল চলে আসে। আর যদি সেটা হয় মন জুড়ানো মিষ্টি গন্ধ, তাহলে তো কথাই নেই। এই সুস্বাদু মুখরোচক খাবারটি হচ্ছে কাওয়ালীপাড়ার ‘ক্ষীরমোহন’। দুধ, চিনি, ঘি, দুধের ছানা, ময়দা, তেজপাতা, ছোট এলাচ ইত্যাদি দিয়ে তৈরি ঘন রসযুক্ত মিষ্টান্ন।

ধামরাই উপজেলার গ্রামাঞ্চলে প্রাকৃতিক উপায়ে বেড়ে ওঠা সবুজ ঘাস, লতা-পাতাসহ নানা গো-খাদ্য বাড়িতে পালা গাভিকে খেতে দেয়া হয়। তাই এই এলাকার গরুর দুধ খাঁটি দুধের গুনাগুণ সমৃদ্ধ। সেই দুধ থেকে তৈরি হয় এই ক্ষীরমোহন।

প্রসঙ্গত,ক্ষীর ও মোহনের সংমিশ্রণে তৈরি হয় ক্ষীরমোহন। দুধ ক্ষীরে পরিণত হলে ও মিষ্টির ভেতরে ক্ষীর ঢুকে গেলে তৈরি হয় অমৃত স্বাদের ক্ষীরমোহন।

ইসমাইল সুইটস এর কর্মচারী মোঃ বাদশা মিয়া বলেন, খাঁটি ছানা থেকে তৈরি মিষ্টি প্রথমে গরম চিনির রসে জ্বাল দেয়া হয়। মিষ্টি হয়ে এলে তা থেকে রস ঝরিয়ে নিয়ে দুধে জ্বাল দেয়া হয়। দুধ ক্ষীরে পরিণত হলে ও মিষ্টির ভিতরে ক্ষীর ঢুকে গেলে তৈরি হয় লোভনীয় ‘ক্ষীরমোহন’। সাধারণত ১ মণ দুধ জ্বাল দিয়ে ১৭ থেকে ১৮ কেজি ক্ষীর তৈরি করা হয়। এতে যুক্ত হয় ২৫০ গ্রাম ঘী। এর সাথে ৮ কেজির মত মিষ্টি ক্ষীরে জ্বাল দিয়ে ২৪/ ২৫ কেজি ক্ষীরমোহন বানানো হয়। এর স্বাদ নিতে আসেন ছোট-বড় সকলেই। প্রতিটি ক্ষীরমোহন ৫০ টাকা এবং ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হয় ।

ক্ষীরমোহন খেতে আসা ভোজনপ্রিয় মানুষ মোঃ বাবুল হোসেন বলেন, ক্ষীরমোহনের স্বাদ ও গন্ধ থেকেই জিভে পানি আনার মতো। এই খাবার খেতে খুবই সুস্বাদু আত্মীয় স্বজনদের বাড়ি নিয়ে গেলেও এই রসমালাইকে গুরুত্ব দেয়।


আরও খবর



চান্দিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় সিএনজি অটোচালকের মৃত্যু

প্রকাশিত:Thursday ১৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :

কুমিল্লার চান্দিনায় সিএনজি অটোরিক্সা ও প্রাইভেটকার সংঘর্ষে অটোরিক্সা চালকের মৃত্যু ঘটেছে।                                       বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারী) ভোর ৬টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার কুটুম্বপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহত সিএনজি অটোরিক্সা চালক মো. হাবিবুর রহমান (৪০) চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া ইউনিয়নের কুটুম্বপুর গ্রামের অলিউল্লাহ’র ছেলে। 

স্থানীয় রন‌বীর জানায়, বৃহস্পতিবার ভোরে ইলিয়টগঞ্জ সিএনজি পাম্প থেকে হাবিব তার অটোরিক্সায় গ্যাস নিয়ে কুটুম্বপুরে এসে ‘ইউ ট্রার্ন’ নিতেই ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকার ধাক্কা দেয়। এসময় সিএনজি অটোরিক্সাটি দুমরে মুচরে গে‌লে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু ঘটে ‌সিএন‌জিঅ‌টো‌রিক্সার চালকের।

ঘটনার বিষয়‌টি নি‌শ্চিত ক‌রে হাইওয়ে পুলিশ ইলিয়টগঞ্জ ফাঁড়ির ইন-চার্জ (ইন্সপেক্টর) ওবায়েদুল হক বলেন, দুর্ঘটনার পরপর নিহতের পরিবার মরদেহ নিয়ে যায়। পু‌লিশ প্রাইভেটকারটি আটক করেছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।


আরও খবর



ধামরাই ইসলামপুরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image
একই পরিবারের ৫ জন দগ্ধ

মোঃ মাহবুবুল আলম রিপন :


ঢাকার ধামরাই উপজেলার ইসলামপুরে একটি বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের পাঁচ জন দগ্ধ হয়েছেন। তারা সবাই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন আছেন।শনিবার (৭ জানুয়ারি) ভোরে এ ঘটনা ঘটে। 

দগ্ধ ব্যক্তিরা হলেন, মো. মনজুরুল ইসলাম (৩৫), জোসনা আক্তার (২৫), সাদিয়া আক্তার (১৯), হোসনে আরা (২০) ও মরিয়ম (২)।

দগ্ধদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা মো. সুফিয়ান ইউটিভিকে জানান, পোশাক শ্রমিক মনজুরুল ইসলামের স্ত্রী জোসনা আক্তার শনিবার ভোরে রান্নাঘরে রান্না করতে গেলে গ্যাস সিলিন্ডার লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ হয়। এ ঘটনায় আগুন সারা বাড়িতে ছড়িয়ে যায়। এতে মনজুরুলের শ্যালিকা, ভাতিজি ও দুই বছরের শিশুকন্যা মরিয়মসহ ওই পরিবারের পাঁচজন দগ্ধ হন। তাদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে আনা হয়েছে। তারা এখন চিকিৎসাধীন আছেন।

আবাসিক সার্জন ডা. এস এম আইউব হোসেন ইউটিভিকে বলেন, সকালে শিশুসহ পাঁচজন দগ্ধ হয়ে এসেছেন। এদের মধ্যে মনজুরুলের শরীরের ৩৩ শতাংশ, তার স্ত্রী জোসনার ৪০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বাকিরা জরুরি বিভাগের চিকিৎসাধীন আছেন।


আরও খবর



ধামরাইয়ে ভুট্টাক্ষেত থেকে গলায় ওড়না পেচানো যুবতীর লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত:Monday ০৯ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ০২ February 2০২3 |
Image

 মাহবুবুল আলম রিপন স্টাফ রিপোর্টার :


ঢাকার ধামরাইয়ে ভুট্টাক্ষেত থেকে গলায় ওড়না পেচানো অজ্ঞাত এক যুবতী মহিলার(২৮) লাশ উদ্ধার করেছে ধামরাই থানা পুলিশ। 

সোমবার (৯ জানুয়ারি) বিকাল ৩টার দিকে ধামরাই উপ জেলার কুল্লা ইউনিয়নের কেলিয়া এলাকা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উত্তর পাশে একটি ভুট্টাক্ষেত থেকে অজ্ঞাত যুবতীর লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কেলিয়া এলাকায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের উত্তর পাশে একটি ভুট্টাক্ষেতে অজ্ঞাত যুবতী মহিলার লাশ দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে তারা ধামরাই থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। তবে লাশের কোন নাম পরিচয় জানা যাযনি। লাশের গলায় ওড়না পেছানো এবং হাতে ও জামার মধ্যে রক্ত লেগে আছে। 

এবিষয়ে ধামরাই থানার (ওসি তদন্ত) মোহাম্মদ ওয়াহিদ পারভেজ সাংবাদিক দের  বলেন, কেলিয়া এলাকায় ভুট্টাক্ষেতে একটি অজ্ঞাত যুবতী মহিলার লাশ উদ্ধার করা হয়।  লাশের পড়নে একটি সেলোয়ার ক্যামিজ ও গলায় একটি ওড়না পেছানো ছিল। তবে ধারনা করা হচ্ছে যুবতী মহিলাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। লাশটি ময়না তদন্তের জন্য হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হবে, এই ব্যাপারে থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও খবর