Logo
শিরোনাম
নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য

সবুজের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজের(২৫) যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় লালমনিরহাটের দায়রা জজ ও বিচারক (সন্ত্রাস বিরোধী ট্রাইবুনাল - এক) মোঃ মিজানুর রহমান এই রায় দেয়। 

সাজাপ্রাপ্ত আসামি মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজ জেলার কালীগঞ্জ থানার ভোটমারী গ্রামের মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের পুত্র।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার ভোটমারী বাজার সংলগ্ন হানিফ চেয়ারম্যানের বাড়ির পাশে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন সবুজের নেতৃত্বে ৪/৫ জন জঙ্গি নাশকতামূলক তৎপরতা চালাতে গোপন বৈঠক করছে। রংপুর র‍্যাব -১৩ এস আই সুবীরের নেতৃত্বে র‍্যাবের টিম সেখানে অভিযান চালায়। র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ৪/৫ জন জঙ্গি পালিয়ে যায়। র‍্যাব নিষিদ্ধ  জঙ্গি সংগঠন বাংলা টিমের  দলনেতা মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেন কে আটক করে। এ ঘটনায় গত ২০১৮ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর  কালীগঞ্জ থানায় র‍্যাবের এসআই সুবীর বাদী হয়ে মামলা দায়ে করে।  একই দিন মামলাটির তদন্তভার গ্রহন করে  কালীগঞ্জ থানার  এসআই মোঃ মতিয়ার রহমান।  পরে উর্ধতন কতৃপক্ষে নির্দেশে রংপুর  র‍্যাব -১৩ সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবীব দ্বিতীয় বার  তদন্তভার গ্রহণ করে। তদন্ত শেষে  গত ২০১৯ সালের ১০ জানুয়ারি অস্ত্র আইনে চার্জ গঠন করে আদালতে দাখিল করা হয়। মামলা টি প্রমাণে ১৫ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহন ও রাস্ট্র পক্ষের সাক্ষীগণ কে আসামী পক্ষের আইনজীবী  জেরা করেন। গত ২০২০ সালের ১৮ মার্চ আসামী মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র পক্ষের পিপি ও আসামী পক্ষের আইনজীবী উপস্থিতিতে বিচারক দন্ডযোগ্য অপরাধে অভিযোগ গঠন করে। 

রাস্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন জানান, 

সাক্ষ্য প্রমাণ শেষ আজ বৃহস্পতিবার ২৮ জুলাই সকাল ১১ টায় আসামী মোঃ মাহাদী সাদ্দাম হোসেনের উপস্থিতিতে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দেয় বিচারক। ইতোমধ্যে কারাগারে বন্দিজীবনের সময় কে এই রায়ে সাজা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেছে।  রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন পিপি অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন ও আসামী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন এ্যাডভোকেট মিঃ গোলাম মোস্তফা। 

আসামি পক্ষের আইনজীবী মিঃ গোলাম মোস্তফা জানান, এই রায়ের বিপক্ষে আসামির স্বজনরা উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে স্বামী ইব্রাহিম শেখ (৪৫), নামে এক ভ্যান চালকের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। জানাগেছে, হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নের বদনীভাঙ্গা গ্রামে। সোমবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করেছে। এ নিয়ে এলাকায় সবত্রই চলছে গুঞ্জন।

নিহত ভ্যান চালকের ছেলে আলম শেখ জানান, রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে তার পিতা বাড়িতে খাবার খেতে আসে। ঘরে থাকা চালের পোকা দমনের বিষক্রিয়া ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় তার মা পাশের বাড়িতে ছিলো। পরবর্তীতে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হলে। কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে, পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নেওয়ার পথিমথ্যে মৃত্যু হয়। এদিকে মরদেহ আনা হলে স্থানীয় গ্রামবাসী ও ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি মেম্বার হাসপাতাল চত্ত্বরে উপস্থিত হন।

 স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক কলহ ও পরিকিয়ার কারনে আত্মহত্যাটি ঘটনা পারে বলে তারা ধারনা করছেন।  

এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সাইদুর রহমান বলেন, ভ্যান চালকের আত্মহত্যার বিষয়টি শুনে ওই রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। সকালে মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। 


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




সোনারগাঁয়ে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

 নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে তিন হাজার অবৈধ গ্যাসের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস কর্তৃপক্ষ। এছাড়া মিষ্টি তৈরির একটি কারখানাকে জরিমানা করা হয়।

মঙ্গলবার উপজেলার দুলালপুর ও মোগড়াপাড়া এলাকায় অভিযান চালায় উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত। সোনারগাঁ উপজেলা সহকারি কমিশনার ইব্রাহিম জানান, দুলালপুর এলাকায় একটি চুন কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগসহ তিন হাজার অবৈধ আবাসিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। পরে মোগড়াপাড়ায় দুটি খাবার হোটেলের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার পাশাপাশি অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার তৈরির কারণে একটি মিষ্টির কারখানাকে পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




বিশ্বকাপ: প্রস্তুতি ম্যাচে টাইগারদের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান-সাউথ আফ্রিকা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আগে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে এই আসরে অংশ নিতে যাওয়া দলগুলো। এই বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সঙ্গে একই গ্রুপে আছে সাউথ আফ্রিকা। আগামী ২৭ অক্টোবর সিডনিতে মুখোমুখি হবে দুই দল।

বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ে নামার আগেই প্রোটিয়াদের সাথে দেখা হচ্ছে টাইগারদের। দলটি বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে সাকিব আল হাসানের দল। বিশ্বকাপ প্রস্তুতির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ খেলবে আফগানদের বিপক্ষেও।

আজ বৃহস্পতিবার বাংলাদেশসহ অংশগ্রহণকারী ১৬টি দলের বিশ্বকাপ ওয়ার্মআপ ম্যাচের সূচি ঘোষণা করেছে আইসিসি। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ডের খেলা শুরু হবে ১৬ অক্টোবর। দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে খেলবে আটটি দল।

সেরা চারটি দল উঠবে দ্বিতীয় রাউন্ড বা সুপার টুয়েলভে, যেখানে আগের আসরের পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে আগে থেকেই অবস্থান করছে আটটি দল। 


আরও খবর

বিশ্বকাপ নিশ্চিত নারী ক্রিকেট দলের

শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

মুকুট নিয়ে আজ ফিরছে বাঘিনীরা

বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২




নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের বাংলাদেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :  নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য, সমৃদ্ধ ইতিহাস ও ঐতিহ্য, বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতি, দৃষ্টিনন্দন জীবনাচার বাংলাদেশকে গড়ে তুলেছে একটি বহুমাত্রিক আকর্ষণ-সমৃদ্ধ পর্যটন গন্তব্য হিসেবে।

বিশ্ব পর্যটন দিবস আজ। প্রতি বছরের মতো এবারও অন্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশে যথাযথ মর্যাদায় দিবসটি পালিত হচ্ছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘পর্যটনে নতুন ভাবনা’। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন।

ভ্রমণপিপাসুরা বলেন, তুলনামূলক বাংলাদেশ স্বল্প আয়তনের হলেও পর্যটন আকর্ষণে যে বৈচিত্র্য তা সহজেই পর্যটকদের আকর্ষণ করতে পারে। এ দেশে রয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম নীরবচ্ছিন্ন প্রাকৃতিক সমুদ্রসৈকত-কক্সবাজার, পৃথিবীর একক বৃহত্তম জীববৈচিত্র্যে ভরপুর ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল-সুন্দরবন, একই সৈকত থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত অবলোকনের স্থান সমুদ্রকন্যা-কুয়াকাটা, দুটি পাতা একটি কুঁড়ির সবুজ রঙের নয়নাভিরাম চারণভূমি-সিলেট, আদিবাসীদের বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতি ও কৃষ্টি আচার-অনুষ্ঠানসমৃদ্ধ উচ্চ সবুজ বনভূমি ঘেরা চট্টগ্রাম পার্বত্য অঞ্চল, সমৃদ্ধ অতীতের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা উত্তরাঞ্চলের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনগুলো। ফলে স্বাভাবিকভাবে বাংলাদেশের পর্যটনশিল্প উন্নয়নের সম্ভাবনা অপরিসীম। পর্যটনশিল্পের সবটুকু সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পারলে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে মডেল হতে পারে।

এ ছাড়া ‘পর্যটনের নতুন ভাবনা’ প্রতিপাদ্য নিয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটি (বিএমসি) ৭ দিনব্যাপী পর্যটন মেলা ও বিচ কার্নিভ্যালের আয়োজন করছে। কক্সবাজার সৈকতের লাবণী পয়েন্টে বসছে আনন্দ-উৎসবের এ মেলা। প্রসঙ্গত, কক্সবাজারের সপ্তাহব্যাপী পর্যটন মেলা ও বিচ কার্নিভ্যাল আয়োজনে দেশের শীর্ষ স্থানীয় শিল্পপ্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ অন্যতম সহযোগী (স্পন্সর) হিসেবে থাকছে।

বিশ্ব পর্যটন সংস্থার প্রাক্কলন অনুযায়ী ২০২২ সাল নাগাদ পর্যটনশিল্প থেকে প্রতি বছর ২ ট্রিলিয়ন ডলার আয় হবে। ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের ৫১টি দেশের পর্যটকরা বাংলাদেশে ভ্রমণ করবেন, যা মোট জিডিপির ১০ শতাংশ অবদান রাখবে। ধারণা করা হচ্ছে, ২০২৪ সালে মোট কর্মসংস্থানের ১ দশমিক ৯ শতাংশ হবে পর্যটনশিল্পের অবদান। পর্যটনশিল্পের অপার সম্ভাবনা কাজে লাগাতে পারলে বাংলাদেশ হবে দক্ষিণ এশিয়ার রোল মডেল।

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী পর্যটকের সংখ্যা প্রায় ১১০ কোটি। ধারণা করা হচ্ছে, ২০২২ সাল নাগাদ এ সংখ্যা ২০০ কোটি ছাড়িয়ে যাবে। আর বিপুলসংখ্যক পর্যটকের প্রায় ৭৫ শতাংশ ভ্রমণ করবে এশিয়ার দেশগুলোতে। বাংলাদেশ যদি এ বিশাল বাজারে টিকে থাকতে পারে, তাহলে পর্যটনের হাত ধরেই বদলে যেতে পারে দেশের অর্থনীতির রূপরেখা।

২০২৫ সালের মধ্যে পর্যটনশিল্পের সর্বোচ্চ বিকাশে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। পুরো দেশকে আটটি পর্যটন জোনে ভাগ করে প্রতিটি স্তরে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রথমবারের মতো সরকারি-বেসরকারি যৌথ বিনিয়োগের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে কক্সবাজারে পর্যটন অবকাঠামো নির্মাণে ২৫টি প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এগুলোয় প্রায় প্রত্যক্ষভাবে বিনিয়োগ হবে ৩৭ হাজার কোটি টাকা। পরোক্ষভাবে বিনিয়োগ হবে ১ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা। এ ছাড়া সরকারের প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন, আধুনিক হোটেল-মোটেল নির্মাণ, মহেশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ, সোনাদিয়াকে বিশেষ পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তোলা, ইনানি সৈকতের উন্নয়ন, টেকনাফের সাবরাংয়ে ইকো ট্যুরিজম পার্ক নির্মাণ, শ্যামলাপুর সৈকতের উন্নয়ন, ঝিলংঝা সৈকতের উন্নয়ন, চট্টগ্রাম কক্সবাজার রেলপথ নির্মাণ, কুতুবদিয়ায় বায়ুবিদ্যুৎ প্রকল্পের সম্প্রসারণ, চকরিয়ায় মিনি সুন্দরবনে পর্যটকদের গমনের জন্য যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন, ডুলাহাজরা সাফারি পার্কের আধুনিকায়ন ইত্যাদি। এ ছাড়া আরো চারটি নতুন প্রকল্প নিতে যাচ্ছে সরকার। এসব বাস্তবায়ন হলে আগামীতে দেশের পর্যটন খাত আরো চাঙা হবে বলে আশা করা যায়।


আরও খবর



আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : টালবাহানা না করে আগামী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বিরোধীদল যাতে আগামী নির্বাচনে অংশ নিতে না পারে, সেজন্য মাঠ খালি করতে হামলা করা হচ্ছে’- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের এ আহ্বান জানান।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ফখরুল ইসলামের এ ধরনের বক্তব্য হাস্যকর ও নির্লজ্জ মিথ্যাচার ছাড়া আরও কিছু নয়। বিএনপি নেতারাইতো মাঠে নামতে ভয় পায়, আন্দোলনের ডাক দিয়ে তারা ঘরে বসে থাকে। আমরা বারবার চেয়ে এসেছি বিএনপি নির্বাচনে আসুক। তিনি বলেন, নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হোক, আওয়ামী লীগ খালি মাঠে গোল দিতে চায় না। প্রতিদ্বন্দ্বী শক্তিশালী হলে নির্বাচনও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক হবে। শেখ হাসিনা সরকার ভালো একটি নির্বাচন বাংলাদেশে চায়। আওয়ামী লীগ দেশে ভালো একটা নির্বাচন, হোক তা মনে-প্রাণে চায়।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আন্দোলন করেন ভালো কথা। কিন্তু আন্দোলনের নামে সহিংসতা সৃষ্টি করলে জনগণের জানমাল রক্ষায় যা যা করা দরকার সরকার তাই করবে। এখনো সময় আছে, ষড়যন্ত্রের পথ থেকে সরে এসে নির্বাচনের পথে আসুন, নির্বাচনের মাঠেই আপনাদের সাথে মোকাবেলা হবে।


আরও খবর