Logo
শিরোনাম

শিশুদের পরীক্ষামূলক টিকাদান শুরু ১১ আগস্ট

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

পাঁচ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পরীক্ষামূলক টিকাদান কার্যক্রম আগামী ১১ আগস্ট শুরু হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

তিনি বলেন, শিশুদের জন্য আমরা ১৫ লাখ টিকা পেয়েছি। সবকিছু ঠিক থাকলে ১১ আগস্ট থেকে প্রথমে পরীক্ষামূলকভাবে টিকা দেওয়া হবে। পরে ২৬ আগস্ট থেকে পুরোদমে টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হবে।

আজ দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর নিপসম অডিটেরিয়ামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ-২০২২ উপলক্ষে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জাহিদ মালেক বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দেশে এখনো প্রথম, দ্বিতীয় ও বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে। তবে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকা পরে আর পাওয়া যাবে না। দ্বিতীয় ডোজের জন্য আমাদের কাছে যে পরিমাণ টিকা আছে, সেগুলোর মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। যারা এখনো টিকা নেননি, তারা দ্রুত টিকা নেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সারাদেশে সফলভাবে টিকা কার্যক্রম পরিচালনা করছি। ফলে আমরা করোনার সংক্রমণকে নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি। কিন্তু এখনো অনেকে দ্বিতীয় ডোজ নেননি। তাদেরকে বলতে চাই, দ্বিতীয় ডোজ না নিলে কিন্তু বুস্টার ডোজও পাবেন না।


আরও খবর

ছোঁয়াচে ‘চোখ ওঠা’ রোগ ছড়াচ্ছে

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

একদিনে ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যু

সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২




অনিবন্ধিত ক্লিনিক আর থাকছে না

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

দেশের কোথাও কোনো অনিবন্ধিত ক্লিনিক না রাখার ঘোষণা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সংস্থাটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির বলেছেন, আমাদের স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় সরকারি বলেন আর বেসরকারি বলেন একটি ন্যূনতম স্বাস্থ্যসেবা যদি না থাকে, সেই প্রতিষ্ঠান মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করবে সেটা আমরা সহ্য করতে পারব না।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই) ইউএসএআইডির ‘মামনি’ ও নবজাতক স্বাস্থ্যসেবা উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় (ইপিআই) এই কর্মশালায় তিনি একথা বলেন ।

অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির বলেন, ‘অনিবন্ধিত ক্লিনিক এবং যারা প্রতারণা করছে স্বাস্থ্যসেবার নামে সেগুলো কিন্তু প্রায় সবই বন্ধ করে দিয়েছি এবং বলেছি যে অনিবন্ধিত কোনো ক্লিনিক বাংলাদেশে থাকতে পারবে না। এটি একটি খুবই প্রিমেটিভ কাজ, তবে তার মানে এই নয় আমরা খুব ভালো কাজ করে ফেলেছি। যদি কেউ নিবন্ধন নম্বর তাদের প্রতিষ্ঠানে না টাঙিয়ে রাখেন তাহলে অনিবন্ধিত হিসেবেই ধরে নেওয়া হবে।

ডা. আহমেদুল কবির আরো বলেন, আমরা আপনাদের খুব স্ট্রং মেসেজ দিতে চাই। আপনাদের জেলায় কোনো অনিবন্ধিত ক্লিনিক থাকতে পারবে না। এটি একটি পরিষ্কার বার্তা। অনিবন্ধিত ক্লিনিকের অস্তিত্ব বাংলাদেশের মাটিতে থাকতে পারবে না। প্রতিপক্ষ যত শক্তিশালী হোক। দ্বিতীয়ত নিবন্ধিত ক্লিনিক মানেই মানুষের সেবা করছে, সেটাও বলার সুযোগ নেই। এরই মধ্যে আমি হাসপাতাল শাখার পরিচালককে বলেছি, স্বাস্থ্যসেবার ক্যাটাগরাইজেশন করার জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড সেটআপ তৈরি করতে।


আরও খবর

এক এনআইডিতে ১৫টির বেশি সিম নয়

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




আশুলিয়ায় ৫শ' বাড়ির গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

আশুলিয়ায় প্রায় ৫শ বাসা বাড়ির অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাস এন্ড ট্রান্সমিশন ডিসট্রিবিউশন কোম্পানি। এসময় জব্দ করা হয়েছে অবৈধ গ্যাস সংযোগে ব্যবহার করা পাইপ ও রাইজার।

মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত আশুলিয়ার ধনাইদ,গোরাট ও ইউসুফ মার্কেট এলাকায় এই উচ্ছেদ অভিযান চালায় তিতাস কর্তৃপক্ষ। কর্মকর্তারা জানায়, মূল লাইন থেকে অবৈধভাবে নিম্নমানের পাইপ ব্যবহার করে একটি চক্র বিভিন্ন বাসাবাড়িতে ঝুঁকিপূর্ণভাবে গ্যাস সংযোগ দিয়েছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। এসময় প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকায় অভিযান চালিয়ে জব্দ করা হয় অবৈধ সংযোগ নিতে ব্যবহার করা পাইপ ও রাইজার। এছাড়া প্রায় ৫শ বাসাবাড়ির অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে তিতাস কর্তৃপক্ষ।


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




যানজটের কারণে এই শহর ছেড়ে চলে যেতে ইচ্ছে করে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সিনিয়র সাংবাদিক লেখক ও গবেষক ঃ

মাঝে মধ্যে কোনভাবেই আর ধৈর্য্য রাখতে পারি না। আর কতো সহ্য করা যায়? প্রায় দুই ঘন্টা বাড্ডা লিংক রোড মোড়ে স্থবির হয়ে আটকে ছিলাম । সহ্য করতে না পেরে বৃষ্টি কাঁদায় হেঁটে অফিসে ফিরেছি।  শুধুমাত্র যানজটের কারণে এই শহর ছেড়ে চলে যেতে ইচ্ছে করে। এভাবে আর কতো? 

আচ্ছা আজ যে মানুষটার হাসপাতালে যাওয়ার কথা, হালকা স্ট্রোক করে অ্যাম্বুলেন্সে যিনি ঘন্টার পর ঘন্টা বসেছিলেন, যে শিশুটির স্কুলে যাওয়ার কথা পরীক্ষা দিতে, ফ্লাইট ধরার কথা যাদের, অফিসে যাওয়ার কথা যার, কী অবস্থা তাদের সবার? আফসোস একটা শহরকে আমরা মৃত বানিয়ে ফেলেছি তারপরও উন্নয়নের গল্প শেষ হয় না।

ভাবুন তো কী এক অদ্ভুত শহর! আপনি বরিশাল কিংবা খুলনা গোপালগঞ্জ থেকে শত শত কিলোমিটার পথ পদ্মা সেতু পেরিয়ে চলে আসবেন দুই ঘন্টায় কিন্তু গুলিস্তান থেকে মিরপুর বা মিরপুর কতো ঘন্টায় যাবেন সেটা বলার শক্তি নেই কারো। কারণ এই শহরে গাড়ির গতি এখানে ঘণ্টায় ৫ কিলোমিটার। অথচ ১২ বছর আগেও এই গতি ছিল ঘণ্টায় ২১ কিলোমিটার৷ এক যুগের ব্যবধানে সেটি পাঁচে নেমে এসেছে। 

মনে রাখবেন, আপনার যতো দামী গাড়িই হোক, বাসে বা উবারে যেভাবেই যান, ঘন্টায় আপনি পাঁচ কিলোমিটারের বেশি যেতে পারবেন না। অথচ পায়ে হেঁটেও একই গতিতে চলা যায়। কিন্তু হাঁটার পরিবেশও কী আছে? হাঁটতে গেলে দেখবেন, ফুটপাতগুলো তো প্রায় সব বেদখলে। মাঝে মধ্যে মনে হয়, আমাদের নীতি নির্ধারকদের বলি, একটু পাবলিক বাসে বা সিএনজিতে চড়েন। এই শহরের পাবলিকের কষ্টটা বোঝেন। 

এই যে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকে থেকে আমরা শেষ হয়ে যাচ্ছি, এই নগরবাসীর শারীরিক মানসিক নানা সংকট তৈরি হচ্ছে এর দায় কার? আমি তো বলবো, এই শহরের মানুষের পারিবারিক বা সামাজিক বহু অশান্তির কারণ এই যানজট। এই শহরের বহু মানুষ সকালে বের হয় আর রাতে বাসায় ফেরে। পথে যানজটে যায় ৬-৭ ঘন্টা। এটা কী কোন নাগরিক জীবন?    

বুয়েটের এক গবেষণায় বলছে, ঢাকায় যানজটের কারণে প্রতিদিন ৫০ লাখ কর্মঘণ্টা নষ্ট হয়৷ আর এই যানজটে বছরে আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ ৩৭ হাজার কোটি টাকা, যা জাতীয় বাজেটের ১১ ভাগের এক ভাগ৷ ২০১৮ সালের প্রতিবেদনে বিশ্বব্যাংক বলেছে, ১৯৮০ সালে গাড়ির গড় গতি ছিল ঘণ্টায় ২১ কিলোমিটার এবং এখন তা কমে দাঁড়িয়েছে ঘণ্টায় ৭ কিলোমিটারেরও কম। এতে যানজটের কারণে প্রতিদিন ৩ দশমিক ২ মিলিয়ন কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে। ২০৩৫ সালে ঢাকায় জনসংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে ২৫ মিলিয়নে। 

সড়ক ও জনপথ বিভাগের ২০১৩ সালে তার এক গবেষণায় দেখানো হয়, শুধু যানজটে কর্মঘণ্টা নষ্টের জন্য বছরে ক্ষতি হয় ১২ হাজার কোটি টাকা৷ শুধুমাত্র গণপরিবহণ ব্যবস্থা ভালো নয় বলেই এই শহরে অনেকে ধার করে বা ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে একটি গাড়ি কেনে। কিন্তু তাতে লাভটা কী হয়? যতো দামী গাড়ি হোক বাসের বদলে নিজের গাড়িতে যানজটে বসে থাকতে হয় এই যা! 

সবচেয়ে বিস্ময়কর ব্যাপার হলো এই শহরে ট্রাফিক সিগন্যাল বলে কিছু নেই। অথচ ছোটবেলায় আমি দেখেছি এই শহরে ট্রাফিক সিগন্যাল ছিল। লাল-সবুজ বাতি কাজ করতো। এখন সব বৃথা। আর বৃষ্টি হলে তো কথাই নেই। আচ্ছা প্রযুক্তির এই যুগে যেখানে প্রতিটা রাস্তার প্রতিক্ষনের অবস্থা দেখা যায় সেখানে কী যানজটের সমাধানে প্রযুক্তির ব্যবস্থা নেয়া যায় না? 

আমাদের নীতি নির্ধারকদের বলবো, একটু ভাবুন। যানজট সমস্যা দূর করা খুব কঠিন কাজ বলে মনে করি না। কিন্তু আমরা যদি মনে করি সমাধান নেই আর এটাই মেনে নিতে হবে তাহলে তো আমরা শেষ! 

আপনারা যারা সরকারের নীতিনির্ধারক, আপনাদের দোহাই লাগে আপনাদের কাছে অন্ন বস্ত্র বাসস্থান কিছু চাই না। শুধু যানজট থেকে মুক্তি দিন। দেখেন দয়া করে কোটি কোটি টাকার যত্রতত্র পরিকল্পনা নেবেন না। এইসব বিআরটি এইসব ফ্লাইওভার অর্থহীন। দয়া করে গণপরিবহনে নজর দিন। 

আচ্ছা আপনারা যারা নীতি নির্ধারক তারা কি ঢাকার পাবলিক বাসগুলোর চেহারা দেখেছেন? চড়েছেন? সস্তা জনপ্রিয় বুলি না আওড়ে প্লিজ সমাধান খুঁজুন।‌

আমি এখনো মনে করি ঢাকার বিভিন্ন রূটে কয়েকশ করে নতুন পাবলিক বাস নামলে, পাঁচ মিনিট পরপর এসি বাস ছাড়লে লোকে অন্তত সেই বাসে চড়বে। নীতি নির্ধারকেরাও এসব বাসে চলুন। কয়েকদিন ব্যক্তিগত গাড়ি সব বন্ধ করে দেখেন। ফুটপাতগুলো দখলমুক্ত করে দেন। আর সিগন্যালিং সিস্টেমটা ঠিক করুন। 

সত্যি বলছি ভীষণ যন্ত্রনা লাগে! নীতি নির্ধারকদের কাছে তাই হাতজোড় করে অনুরোধ যানজটের রোজকার এই যন্ত্রণা থেকে আমাদের নগরবাসীকে মুক্তি দিন! গণপরিবহন ব্যবস্থা ঠিক করুন নয়তো রাজধানী সরিয়ে নিন। বিকেন্দ্রীকরণ করুন বা অন্য যে কোন কিছু। দয়া করে এই নগরবাসীকে তিলে তিলে শেষ করে দেবেন না! আপনাদের দোহাই লাগে!


আরও খবর

এক এনআইডিতে ১৫টির বেশি সিম নয়

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




করোনায় এক দিনে ৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত ভাইরাসটি ২৯ হাজার ৩৪৫ জনের প্রাণ কেড়ে নিল। মারা যাওয়া ৫ জনের মধ্যে তিনজন পুরুষ ও দুইজন নারী। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগের দুইজন এবং চট্টগাম, বরিশাল ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে মারা গেছেন।সর্বশেষ গত ২৭ জুলাই ৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন আরও ৬১৪ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০ লাখ ১৮ হাজার ৮২৯ জনে।

মঙ্গলবার  স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৮৩১টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ৪ হাজার ৮২৫টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১২ দশমিক ৭৩ শতাংশ। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত মোট শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৬১ শতাংশ।

এতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২৮৩ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ৬১ হাজার ২৬০ জন।


আরও খবর

ছোঁয়াচে ‘চোখ ওঠা’ রোগ ছড়াচ্ছে

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

একদিনে ডেঙ্গুতে ৩ জনের মৃত্যু

সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২




ইটনায় ৩৬ টি মন্ডপে দুর্গোৎসব-থানা পুলিশের মতবিনিময় অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মোজাহিদ সরকার, কিশোরগঞ্জ ঃ

কিশোরগঞ্জের ইটনা উপজেলায় এবার ৩৬টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।মন্ডপগুলোতে সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে থানা পুলিশ প্রশাসন ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। 

২৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সকালে দুর্গা পুজো উপলক্ষে ইটনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ অডিটোরিয়ামে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলার প্রতিটি মন্ডপ পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেন। 

ইটনা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল ইসলাম মোল্লা'র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার(অষ্টগ্রাম সার্কেল) সামুয়েল সাংমা। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ইটনা উপজেলা শাখার সভাপতি তাপস রায় এবং সাধারণ সম্পাদক কৌশিক দেব নাথ জয়। থানা পুলিশের মতবিনিময় সভা পরিচালনায় ছিলেন ইটনা থানা পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ আহসান হাবিব। 

মতবিনিময় অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত পূজা মণ্ডপের সভাপতি ও সম্পাদক বক্তব্য রাখেন এবং উনাদের দুর্গা পুজোর উৎসবে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের কাছে দাবি রাখেন। পূজা মণ্ডপে উচ্চ শব্দে ডিজে গান বাজানোর নিষেধ করেন পূজা উদযাপন পরিষদ ইটনা উপজেলা শাখার সভাপতি তাপস রায় 

সহকারী পুলিশ সুপার(অষ্টগ্রাম সার্কেল) সামুয়েল সাংমা বলেন, এবার শারদীয় দুর্গোৎসব শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন করার লক্ষে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সব সময় তৎপর থাকবে। মন্ডপ এলাকায় কোন ক্রমেই কোন রকম নেশাদ্রব্য গ্রহণ করা যাবে না। এছাড়া উচ্চশব্দে গান বাজানোর ক্ষেত্রে সহনশীল হতে হবে। প্রতিটি মন্ডপে আনসার ও ভিডিপির নারী-পুরুষ সদস্যরা পাহারায় থাকবে। তিনি মন্ডপ গুলোর আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২