Logo
শিরোনাম

সোনাইমুড়ী বাজার কমিটির সভাপতি-বাহার, সম্পাদক-জহিরুল

প্রকাশিত:Monday ০২ May 2০২2 | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

অনুপ সিংহ, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর ঐতিহ্যবাহী সোনাইমুড়ী বাজার বণিক সমিতির কমিটি গঠিত হয়েছে।

রবিবার (৩০ এপ্রিল) সোনাইমুড়ী পৌরসভা মেয়র ভিপি নুরুল হক চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়।

এতে মাহফুজুর রহমান ভিপি বাহারকে সভাপতি এবং জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়াকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।

কার্যকরী কমিটির সভাপতি নাছির উদ্দীন হিরণ পাটোয়ারী,সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন, নূর আলম খোকন।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন নান্নু,মোঃ সোহেল ভূঁইয়া, কোষাধ্যক্ষ পদে দেলোয়ার হোসেন বখতিয়ার, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বেলাল হোছাইন ভূঁইয়া, দপ্তর সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, আইন বিষয়ক সম্পাদক এড.ইদ্রিস মোল্লা,তথ্য গবেষণা ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইন্জিনিয়ার নোমান সিদ্দিকী, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ওসমান আলী,সমাজসেবা ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক জসিম উদ্দিন নষা,পরিবেশ ও শৃঙ্খলা বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সুমন, পরিবহন ও শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ইয়াসিন ভূঁইয়া, ক্রিয়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক জাকির হোসেন বিপ্লব।

এছাড়াও কার্যকরী সদস্যদের মধ্যে রয়েছে মোঃ রুহুল আমিন, নুরুল আমিন, মোঃ ইসমাইল হোসেন, আওরঙ্গজেব,জোটন চৌধুরী, মোঃ শাহিন, মোঃ হোসেন,শাহজাহান সাজু।


আরও খবর



ধামরাইয়ে শেখ কামাল

আন্তঃ স্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Friday ২৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন :

ঢাকার ধামরাইয়ে শেখ কামাল আন্তঃ স্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা (২০২৩) অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার সময় কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ধামরাই উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকি এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ঢাকা (২০) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব বেনজির আহমেদ এমপি।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ এনামুল হক আইয়ুব,ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাইশাকান্দা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজ উদ্দিন সিরাজ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট সোহানা জেসমিন মুক্তা, ধামরাই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শাহিন আশরাফী,ধামরাই উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি মোঃ জামিল হোসেন, কুশুরা আব্বাস আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক সহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

পোলিং এজেন্টকে দড়ি দিয়ে বাঁধার অভিযোগ

প্রকাশিত:Thursday ২৯ December ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

অনুপ সিংহ,নোয়াখালী প্রতিনিধি:


নোয়াখালীর সদর উপজেলায় এক পোলিং এজেন্টকে দড়ি দিয়ে বাঁধার অভিযোগ উঠেছে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মেসবাহ উদ্দিনের বিরুদ্ধে। 

বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুর পৌনে ২টার দিকে উপজেলার নোয়াখালী ইউনিয়নের পশ্চিম চড় উড়িয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,  নোয়াখালী ইউনিয়নের পশ্চিম চড় উড়িয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে কেন্দ্রে  ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা মেম্বার প্রার্থীর (তালগাছ প্রতীক) পোলিং এজেন্টের দায়িত্ব পালন করছিলেন সেলিম।  এক নারী ভোটারকে ইভিএম এ ভোট দেওয়ার পদ্ধতি দেখিয়ে দেওয়ার অভিযোগে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মেসবাহ উদ্দিন সেলিমকে স্কুলের পিলারের সঙ্গে বেঁধে রাখেন।

ভুক্তভোগী মো. সেলিম বলেন, নারীরা কখনো ইভিএম এ ভোট দেয়নি। আমি তাদের দেখিয়ে দিয়েছি। আমাকে এভাবে বেঁধে রাখার চেয়ে মেরে ফেললে ভালো হতো। 

এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সদর উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ জুলকার নাঈম বলেন, সাময়িক সময়ের জন্য সম্ভবত এই ঘটনা ঘটেছে। এ বিষয়ে তিনি আর কিছু জানেননা।    

কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং অফিসার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমাকে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বলছেন বাধন খুলে দিতে। আমি খুলে দিয়েছি।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মেসবাহ উদ্দিন, এ বিষয়ে কোন কথা বলতে রাজি হননি। তিনি বলেন, নির্বাচনী নিয়ম আছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যারা ব্যবস্থা নিচে। তারা বলতে পারবে।  একটি নির্বাচনে রিটার্নিং অফিসার প্রধান। তারা কথা বলবেন। ভুক্তভোগীর অভিযোগের বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, অপরাধী অভিযোগ করে কিভাবে।  

প্রসঙ্গত, নোয়াখালীর সদর উপজেলার ৩টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩৫ জন, সাধারণ সদস্যপদে ৯৫ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্যপদে ৬০ জনসহ মোট ১৯০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ৩৮টি কেন্দ্রের ২৫৯টি বুথে ইভিএমে বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।


আরও খবর



শচিন ছাড়িয়ে উচ্চতায় কোহলি

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

ইয়াশফি রহমান :শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গোহাটিতে প্রথম একদিনের ম্যাচে খেলতে নামার আগে বিরাট কোহলির সামনে সুযোগ ছিল তিনটি নজির গড়ার। তার মধ্যে দু’টি নজির গড়লেন তিনি। একটি ক্ষেত্রে শচিন টেন্ডুলকারকে ছাপিয়ে গেলেন, অপর এক ক্ষেত্রে ধরে ফেললেন ব্যাটিং মাস্টারকে।

ঘরের মাঠে ১৬৪টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে শচিনের শতকের সংখ্যা ২০টি। তার এই বিশ্বরেকর্ড থেকে মাত্র একটি শতক দূরে ছিলেন কোহলি। আজ গোহাটিতে শচিনের সেই নজির স্পর্শ করলেন এই তারকা। দেশের মাটিতে ২০টি শতরান হলো প্রাক্তন অধিনায়কের। তার জন্য শচিনের থেকে ৬২টি ম্যাচ কম, ১০২ ম্যাচ সময় নিয়েছেন তিনি।

গোহাটিতে এদিন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিজের নবম শতরান তুলে নিলেন কোহলি। আর এ জন্য তিনি সময় নিয়েছেন মাত্র ৪৮টি ম্যাচ। যেখানে শচিনকে খেলতে হয় ৮৪টি ম্যাচ।

আরও একটি নজিরের কাছাকাছি রয়েছেন বিরাট কোহলি। একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকদের তালিকায় প্রথম পাঁচে আসতে গেলে কোহলির দরকার ছিল ১৮০ রান। তার মধ্যে গোহাটিতে এদিন ১১৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

অর্থাৎ আর মাত্র ৬৭ রান করলেই লঙ্কান গ্রেট মাহেলা জয়াবর্ধনেকে টপকে তালিকায় পাঁচ নম্বরে চলে আসবেন ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক। এই তালিকার শীর্ষে যথারীতি শচিনই। তিনি ৪৬৩টি ম্যাচ খেলে করেন ১৮,৪২৬ রান। কোহলির রান এখন ১২,৫৮৪।

চট্টগ্রামের পর গোহাটি, পর পর দুটি এক দিনের ম্যাচে শতরান করলেন বিরাট কোহলি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৭৩তম শতরান করে ফেললেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এদিন ৮০ বলে শতরান করলেন বিরাট।

যদিও এই ইনিংসে দুবার তার সহজ ক্যাচ ফেলে দেয় শ্রীলঙ্কা। বিরাটের ক্যাচ ফেলা যে কত ভয়ঙ্কর হতে পারে, তা দেখলেন দাসুন শনাকারা। বিরাটের ইনিংস শেষ হয় ৮৭ বলে ১১৩ রান করে। যাতে ভর করে এদিন ৭ উইকেটে ৩৭৩ রানের স্কোর গড়ে ভারত।

দলের পক্ষে এদিন কোহলি ছাড়া অন্যদের মধ্যে রোহিত ৮৩, শুভমন গিল ৭০ ও লোকেশ রাহুল ৩৯ রান করেন।


আরও খবর



সবজি ও মাছের দাম চড়া

প্রকাশিত:Saturday ২১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শীত মৌসুমে সারাদেশে সবজির উৎপাদন বাড়ে। একই সময় গ্রামীণ জলাশয়গুলোর পানি কমে যাওয়ায় মাছ শিকার বেশি হয়। ফলে এ সময় সবজি ও মাছের সরবরাহ বেশি থাকায় সাধারণত দাম ক্রেতাদের নাগালেই থাকে। কিন্তু বর্তমান চিত্র ভিন্ন। শীতের এ সময়ও রাজধানীর কাঁচাবাজারে মাছ ও বিভিন্ন ধরনের শাক-সবজির দাম চড়া। এ জন্য ব্যবসায়ীরা শীত আর বিশ্ব ইজতেমাকে অজুহাত হিসেবে দাঁড় করাচ্ছেন। তবে ভোক্তাদের মাঝে চাপা ক্ষোভ লক্ষ্য করা গেছে।

২০ জানুয়ারি ছুটির দিন সকালে রাজধানীর মিরপুরের শেওড়াপাড়ায় বাজারে এসেছেন বেসরকারি চাকরিজীবী আনোয়ার হোসেন। কিন্তু মাছ আর শীতের সবজির দাম বাড়তি দেখে অবাক তিনি। কিছুটা ক্ষোভের সঙ্গে আনোয়ার বলেন, গত সপ্তাহের চেয়ে সব ধরনের মাছের দাম বেড়েছে। একইসঙ্গে সব ধরনের সবজির দামও বাড়তি। যেকোনো সবজিতে কেজি প্রতি আগের চেয়ে অতিরিক্ত ১০ থেকে ২০ টাকা গুনতে হচ্ছে।

ওই বাজারের মাছ বিক্রেতাদের ভাষ্য, মাছের খাবারের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় মাছের দামও বেড়ে গেছে। তাদের বক্তব্য অনুযায়ী, গ্রামাঞ্চলে অতিরিক্ত শীতের কারণে মাছ সরবরাহ কম হচ্ছে। ফলে মাছের দাম গত সপ্তাহের চেয়ে একটু বেশি।

শীতের দোহাই দিয়ে ব্যবসায়ীরা আরও বলছেন, গ্রামাঞ্চলে অতিরিক্ত শীতের কারণে ফসল তুলতে পারছেন না কৃষকরা। এর প্রভাব পড়েছে রাজধানীর কাঁচাবাজারে। গত সপ্তাহে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের কারণে টঙ্গীতে প্রচুর পরিমাণে সবজির চাহিদা ছিল। তখন সবজির দাম বেড়ে আর কমেনি। আগামী ২২ জানুয়ারি দ্বিতীয় দফায় ইজতেমার সময় পর্যন্ত সবজির দাম চড়া থাকতে পারে। অন্যদিকে গ্রামাঞ্চলে শীত কিছুটা কমে এলে বাড়বে সবজির সরবরাহ। তখন কমতে পারে সবজির দাম।

শুধু শেওড়াপাড়া নয়, শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজার ঘুরে প্রায় একই চিত্র দেখা গেছে। সব ধরনের মাছের দাম তুলনামূলক বেড়েছে। তবে গরু, খাসি, মুরগি, ব্রয়লার আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে।




আরও খবর



নওগাঁয় অটিজম শিশুদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Friday ২৭ January ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

নওগাঁয় অটিজম ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের অংশগ্রহণে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রীড়া পরিদপ্তরের বার্ষিক ক্রীড়া কর্মসূচী ২০২২-২৩ এর আওতায় নওগাঁ জেলা ক্রীড়া অফিসের ব্যবস্থাপনায় অটিজম ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের নিয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা নওগাঁর পত্নীতলা উপজেলার আমবাটি অটিস্টিক ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। 

সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় ৭০ জন অটিস্টিক শিশু অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতায় জেলা ক্রীড়া অফিসার আবু জাফর মাহমুদুজ্জামানের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিজয়ীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরন করেন, পত্নীতলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ রুমানা আফরোজ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নওগাঁ জেলা তথ্য অফিসের উপ-পরিচালক আবু সালেহ মোঃ মাসুদুল ইসলাম, জেলা প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ হুমায়ুন কবির, জেলা নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা চিন্ময় প্রামাণিক, জেলা লাইব্রেরিয়ান এস এম আশিফ, জেলা শিক্ষা অফিসের গবেষণা কর্মকর্তা সবুজ হোসেন। এসময় বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুরা কারো বোঝা নয়। এদেরকে স্নেহ আর ভালোবাসা দিয়ে গড়ে তুলতে পারলে এরাও দেশের সম্পদ হিসেবে নিজেদের তৈরি করতে পারে। তাই এই সব শিশুদের জন্য এই ধরনের আয়োজনের কোন বিকল্প নেই বলে বক্তব্যে বলেন অতিথিরা।


আরও খবর