Logo
শিরোনাম
মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচন

শ্রীনগর থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় সদস্য হচ্ছেন মাহাবুব উল্লাহ কিসমত

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 শ্রীনগর সংবাদদাতাঃ

মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে শ্রীনগর থেকে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায়  সদস্য হচ্ছেন এম মাহাবুব উল্লাহ কিসমত। রবিবার জেলা পরিষদের নির্বাচনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতায়  ২ প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায়  একক প্রার্থীতা লাভ করেন। 

কোলাপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য এম মাহবুব উল্লাহ কিসমতের প্রতিদ্ব›দ্বী প্রার্থী ছিলেন জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য ও বাড়ৈখালী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেন মাস্টার, ষোলঘর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট কামরুল হাসান। 

শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জানান, শ্রীনগর উপজেলা থেকে ১টি পদের বিপরীতে যে ৩জন প্রার্থী হয়েছিলেন তারা সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেন। দলীয় শৃংখলা বজায় রাখার জন্য আলোচনার ভিত্তিতে ২জন তাদের মনোনয়ন প্রত্যাহার করলে এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত একক ভাবে প্রার্থী হন। তার কোন প্রতিদ্বন্দ্বী  প্রার্থী না থাকায় এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত আগামী জেলা পরিষদ নির্বাচনে শ্রীনগর থেকে সদস্য নির্বাচিত হবেন। 

এম মাহবুব উল্লাহ কিসমত মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া জানিয়ে বলেন, দলীয় সিদ্ধান্তে শ্রীনগর উপজেলার সদস্য পদে একক প্রার্থী হতে পেরেছি। এজন্য আমি আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের কাছে কৃতজ্ঞ  

এই বিষয়ে বক্তব্য নেওয়ার জন্য ইকবাল হোসেন মাস্টারকে ফোন দিলে তার নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। অপরদিকে এডভোকেট কামরুল হাসানের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।


আরও খবর



উচ্ছেদ হচ্ছে না হাতিরঝিলের বাণিজ্যিক স্থাপনা

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

রাজধানীর হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি প্রকল্পে সব ধরনের বাণিজ্যিক স্থাপনা উচ্ছেদসহ ৪ দফা নির্দেশনা ও ৯ দফা সুপারিশ সম্বলিত হাইকোর্টের রায়ের ওপর স্থিতাবস্থা জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে এই রায়ের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করা হয়েছে। এ আদেশের ফলে হাতিরঝিল বেগুনবাড়ি প্রকল্পের বাণিজ্যিক স্থাপনা যে অবস্থায় ছিল সে অবস্থায় থাকবে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। অপরদিকে রাজউকের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন ও ব্যারিস্টার ইমাম হাসান। আদেশের বিষয়টি জানিয়েছেন আইনজীবী ইমাম হাসান।

এর আগে গত ১৯ জুন আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ বিষয়ে আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য ২৭ জুন নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন।

গত ২৪ মে হাতিরঝিল-বেগুনবাড়ি প্রকল্পে সব ধরনের বাণিজ্যিক স্থাপনা উচ্ছেদ সহ ৪ দফা নির্দেশনা ও ৯ দফা সুপারিশ দিয়ে পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেন হাইকোর্ট। এছাড়া বর্তমানে পরিচালিত ওয়াটার টাক্সি সার্ভিস চলাচল বন্ধ করতে নির্দেশ দেন আদালত। সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে ৫৫ পৃষ্ঠার ওই রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিটি প্রকাশিত হয়েছে।

রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত বলেছেন, প্রতি ফোঁটা পানি অতি মূল্যবান। পানির চেয়ে তথা সুপেয় পানির চেয়ে মূল্যবান আর কোনও সম্পদ এ পৃথিবীতে নাই। সুতরাং প্রতিটি ফোঁটা পানির দূষণ প্রতিরোধ করা একান্ত আবশ্যক।

আদালত আরও বলেছে, দ্বিতীয় কোনও পৃথিবী নেই। এ পৃথিবী ব্যতিত আর কোনও গ্রহে পানির কোনও অস্তিত্ব পাওয়া যায় নাই। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন ডলার খরচ করে এক ফোঁটা পানি এ পৃথিবীর বাইরে থেকে আনতে সক্ষম হয় নাই। অথচ উক্ত খরচের শত ভাগের এক ভাগ টাকা খরচ করলে আমরা আমাদের গ্রহের পানিকে দূষণমুক্ত ব্যবহারযোগ্য রাখতে সক্ষম। হাতিরঝিলের পানি এবং এর নজরকাড়া সৌন্দর্য অমূল্য সম্পদ। এ অমূল্য সম্পদকে কোনরূপ ধ্বংস বা ক্ষতি করা যাবে না। রায়ে রিট মামলাটি একটি চলমান আদেশ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া যেসব প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়া হাতিরঝিল ও পরিবেশ রক্ষায় ব্যাপক প্রচারণা ও সোচ্চার ভূমিকা পালন করে চলেছে রায়ে তাদের অভিনন্দন জানানো হয়েছে।

বেগুনবাড়ি খালসহ হাতিরঝিল প্রকল্পটি ২০১৩ সালের ২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন। ১ হাজার ৯৭১.৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে মোট ৩০২ একর জমির উপর এ প্রকল্পটি প্রতিষ্ঠিত। প্রকল্প এলাকার মোট ১৬ কি.মি. রাস্তায় কোনও বাস অথবা মিনিবাস চলাচলের অনুমতি ছিল না।

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ৫/২০০৯তম সভায় অনুমোদিত লে-আউটে প্রস্তাবিত ওয়াকওয়ে ও রোডওয়ে এলাইনমেন্ট ব্যতিত অন্য কিছু ছিল না। প্রকল্পটি ঢাকা মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন, বৃষ্টি, বন্যাজনিত পানি ধারণ, বৃষ্টির পানি পয়ঃনিষ্কাশন ও নগরের নান্দনিক সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে এবং সার্বিক পরিবেশ উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখে।

খালগুলোর জন্য প্রস্তাবিত সুবিশাল লেকটি একটি নিয়ন্ত্রিত ‘হাইড্রোলিক সিস্টেম’ হিসাবে কার্যকর হয়। এতে ওই এলাকার ড্রেনেজ ম্যানেজমেন্ট ক্যাপাসিটি বৃদ্ধি পায়, পরিবেশগত ভারসাম্য রক্ষায় ও সৌন্দর্যমন্ডিত পাবলিক স্পেসের ক্ষেত্র প্রস্তুত হয়। রমনার পাশাপাশি একটি সুবিশাল নীল জলাধার বেষ্টিত উন্মুক্ত স্থানের অভাব লাঘব হয়। যা বিশ্বের কাছে ঢাকা মহানগরীর গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি করে।




আরও খবর



নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় মেয়ের মৃত্যু, মা- বাবা -বোন গুরুতর আহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


নওগাঁয় ট্রাক ও মটরসাইকেল সংঘর্ষে জান্নাতুল ফেরদৌস (১১) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এদূর্ঘটনায় নিহত জান্নাতুল ফেরদৌস এর মা  মোসাঃ শান্তনা আক্তার (৩১) ও তার বাবা আবু সাইম সরকার (৩৮) ও ছোট বোন মোসাঃ লামিয়া জান্নাত (৫) মারান্তক আহত হয়েছেন।  আবু সাইম সরকার নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার উত্তর গ্রামের আব্দুল হামিদ সরকারের ছেলে।  

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ১৮ নভেম্বর আবু সাইম সরকার তার স্ত্রী ও কন্যা শিশুকে নিয়ে একটি মোটরসাইকেল যোগে শশুর বাড়ী পত্নীতলা উপজেলার আমন্ত গ্রামে যাওয়ার পথে

পত্নীতলা উপজেলার  নজিপুর-সাপাহার  আঞ্চলিক সড়কের আত্রাই নদীর সেতুর উপর পৌছালে এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সাথে বিকাল ৫ টার দিকে  মটরসাইকেলের সাথে সংঘর্ষ ঘটলে মোটরসাইকেল আরোহীরা সবাই ছিটকে পরে। স্থানীয়রা তাদের ৪ জন কে  উদ্ধার করে পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক শিশু  জান্নাতুল ফেরদৌস(১১) কে মৃত ঘোষনা করেন। এবং অপর ৩ জনের মধ্যে  সাইম ও শান্তনার অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় তাদের কে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে রেফার্ড করেন। 

সত্যতা নিশ্চিত করে পত্নীতলা থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন

এক কন্যা  শিশু মারা গেছে এবং ৩ জন আহত হয়েছে তারা ৪ জনই একই মটরসাইকেলে ছিল।


আরও খবর



রাঙ্গামাটি রিজার্ভ বাজার মহসিন কলোনীর অগ্নিকান্ডে ১২ টি বসতঘর পুড়ে ছাই

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

উচিংছা রাখাইন কায়েস, রাঙ্গামাটি ঃ 

রাঙ্গামাটি শহরের রিজার্ভ বাজার মহসিন কলোনী এলাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১২ টি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আজ দুপুরে সাড়ে ১২ টার দিকে মহসিন কলোনীর মিয়া সদাগরের ভাড়াটিয়ার বাড়ী থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত ঘটে। মুহুর্তের মধ্যে আগুন চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। প্রথমে স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করলেও আগুনের লেলিহান শিখা বেড়ে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিস এসে প্রায় ১ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। আগুনে প্রায় অর্ধ কোটি টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা জানায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায় আজ দুুপুর হঠাৎ আগুনের লাগার হইচই শোনা যায়। এ সময় সকলে তাৎক্ষনিক আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেস্টায় চালায়। পরবর্তীতে আগুন কোন ভাবে নিয়ন্ত্রনে না আসায় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়া হয়। আগুন লাগার প্রায় ২০ মিনিট পর ফায়ার সার্ভিস ঘটনা স্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ চালায়। ফায়ার সার্ভিসের ৩টি ইউনিট ও সাধারণ জনগন প্রায় ১ ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। আগুনের লেলিহান শিখা এতোই বেশী ছিলো যে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেগ পেতে হয়েছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদেরকে। 

রাঙ্গামাটি জেলা ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল হোসেন জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে সাথে সাথে আমরা ঘটনাস্থলে এসে পৌছায় এবং আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ করি। প্রায় ঘন্টা খানেক ৩ টি ইউনিটি তিন দিক থেকে আগুনের নেভাতে প্রচেষ্টা চালায়। তিনি বলেন, তবে তাৎকক্ষনিক কিভাবে আগুন লেগেছে তা জানা সম্ভব হয়নি। আগুনে ১৫ টি বাড়ী পড়ে ছাই হয়ে গেছে। ক্ষয়ক্ষতি নিরূপন করে পরে তথ্য দেয়া হবে। 

তাৎক্ষনিক রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ সাইফুল ইসলাম, রাঙ্গামাটি পৌরসভার প্যানেল মেয়র মোঃ হেলাল উদ্দিন ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের সাথে কথা বলেন এবং ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন করে সহযোগিতার কথা উল্লেখ করেন। 


আরও খবর



বাগেরহাটে হত্যার মুল হোতা ফরিদ শেখসহ ৯ জন আটক

প্রকাশিত:রবিবার ১৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাটঃ

নূরে আলম ওরফে তানু ভুঁইয়া(৩৫) হত্যাকান্ডের  মুল হোতাসহ ৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার দুপুরে বাগেরহাট পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক প্রেস ব্রিফিং করে আটকৃতদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করেন। এ সময়ে আটককৃতদের নিকট থেকে হত্যায় ব্যবহৃত অগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো হত্যাকান্ডের মুল হোতা বাগেরহাটে শহরের বাসাবাটি এলাকার টুটুল শেখের ছেলে  ফরিদ শেখ (২৮), জামাল মিস্ত্রীর ছেলে মনির (২৬)  আলী আকবরের ছেলে  রাতুল শেখ, সোবহানের ছেলে  সিরাজুল (২৭), এসমাইল শেখের ছেলে আলামিন (৩০) , রুস্তমের ছেলে সুমন (২৬) বাসাবাটি, কাড়াপাড়ার সোহাগ (২৫), পুর্ব বাসাবাটির মোসলেম শেখের ছেলে মুকুল শেখ(৫৩), ও বাসাবাটি মৃত সোবহান শেখের ছেলে কবির শেখ (৫০)। আটককৃতরা পিরোজপুরে জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার বালিপাড়া এলাকায় ফরিদ শেখের ফুফু বাড়ীতে আত্মগোপন করেছিল বলে পুলিশ জানায়। পরে গোপন সংবাদে খবর পেয়ে শনিবার গভীর রাতে ডিবি, ডিএসবি ও থানা পুলিশ যৌথভাবে আসামীদের আটক করতে সক্ষম হয়।

শুক্রবার সাড়ে ১০ টার দিকে আটককৃতরা বাগেরহাট জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম ওরফে তানু ভূইয়াকে গুলি করে হত্যা করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের কারণে এই হত্যা কান্ডটি ঘটিয়েছে বলে পুলিশকে জানয়েছে বলে পুলিশ সুপার জানান। এদিকে তানু ভুইয়ার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা বাদী হয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানায় মোট ১৭ (সতের) জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 


আরও খবর



নওগাঁয় বিদ্যুৎ পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু, একজন আহত

প্রকাশিত:বুধবার ১৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ


নওগাঁয় পুকুরে জাল দিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎ পৃষ্ট হয়ে শরিফুল ইসলাম (২৯) নামে এক যুবকের মর্মান্তিক ভাবে মৃত্যু হয়েছে। এসময় খোরশেদ আলী (৪৫) নামের অপর একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। আহত খোরশেদ আলীকে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার ১৬ নভেম্বর ভোর সকালে নওগাঁর ধামুরহাট উপজেলার মঙ্গোলিয়া গ্রাম এলাকায়। নিহত যুবক ধামুরহাট উপজেলার মঙ্গোলিয়া গ্রামের মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে। ঘটনার পর থেকে নিহত যুবকের ৮ মাসের অন্তসত্বা স্ত্রী ও স্বজনদের কান্নায় এলাকার লোকজনের মাঝে শোকের ছাঁয়া নেমে এসেছে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আহত ব্যক্তি একই গ্রামের মৃত কেরামত আলীর ছেলে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সত্যতা নিশ্চিত করে ধামইরহাট থানার ওসি মোজাম্মেল হক কাজী জানান, এখন পর্যন্ত এঘটনায় কোন অভিযোগ করা হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।



আরও খবর