Logo
শিরোনাম

সরকার জনগনকে, বিএনপিকে ভয় পায়

প্রকাশিত:Saturday ২৯ October ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

মিজা ফখরুল : সরকার বলে জনগনকে ভয় পায় না : তাহলে সমাবেশে বাঁধা কেন।  

সমবেশকে বিদ্রোহ এর সমাবেশ তৈরি করেছেন। কারণ একটাই ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ।  চিবিয়ে চিবিয়ে অর্থনীতি খেয়ে ফেলেছে। এখন দেশটাকে খেয়ে ফেলার চেষ্টা করছে।  প্রতিটি ক্ষেতে চুরি চুরি আর চুরি এমনকি মানুষকে ঘর দিয়ে : টাকা নেয়।  এই সরকার এমন কোন খাত নাই যেখান থেকে চুরি করছে না। 

মিথ্যা মামলা গুম খুন করেছে ৩৫ লাখ নেতাকমীদের নামে মামলা দিয়েছে।  যারা দেশকে মানুষ কে ধংস করে দেয় তাদের কি আর ক্ষমতায় রাখা যায় ? 

দুভিক্ষ যদি হয় ; তার সব দায় শেখ হাসিনা এবং আওয়ামীলীগ দুনীতি দায়ী : 

দেশ মধ্য আয়ের দেশ হয়ে গেছে : তাহলে কেন এসব মিথ্যা কঁথা বললেন কেন।   চাল ডাল চিনি ডাল ডিম এতো দাম কেন ৪২:/ ভাগ মানুষ 

মানুষকে বলছেন কম খান। আর নিজেরা চিতল মাঝ খান : ঘন ঘন বিদেশে যান। 

আবার নতুন করে জংগীবাদের ভোতা অস্ত  বের করছে আওয়ামীলীগ।  এসব যে তাদের মিথ্যা আর বিশ্বাস করে না। 

এদেশের মানুষ আর ক্ষমতায় থাকতে দেবে না।   সবাইকে নুরুল উদ্দীনের ডাকে দেন জাগো বাহে কোনঠে সবাই।   

মুক্তি যুদ্ধ কি এই ধরনের শোষন শাসনের জন্য : ১৪ বা ১৮ সালের মতো আর নিবাচন হবে না। সোজা কথা পদত্যাগ করতে হবে : সংসদ ভেংগে দিতে হবে আর নিদলীয় সরকারেরর অধীনে নিবাচন হবে।  বিএনপির এমপি হারুন , রুমিন জাহিদুর মোশাররফ , জিম সিরাজ সবাই রেডি আছে। সংসদ থেকে পদত্যাগ করার জন্য পস্তুত।  আরেকবার মানুষ  যুদ্ধ করে রাহু মুক্ত করতে হবে।


আরও খবর



রাণীনগরে দুই আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দাদের মাঝে শীতের কম্বল বিতরণ

প্রকাশিত:Sunday ১৫ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

রবিবার দুপুরে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলার একডালা ইউনিয়নের ডাকাহার চৌধুরী পুকুর এবং মানিপুকুর এই দুই আশ্রয়ন প্রকল্পের দু:স্থ্য,অসহায় ও শীতার্ত বাসিন্দাদের মাঝে শীতের কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। 

রাণীনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও অতিরিক্ত সচিব (অবসরপ্রাপ্ত) ড. মো: ইউনুস আলী প্রামানিক নিজ ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে কম্বল বিতরণ করেন। এসময় কালীগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বাবলু মন্ডল,উপজেলা হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা (অবসরপ্রাপ্ত) ইয়াকুব আলী প্রামানিক,চৌধুরীপুকুর আশ্রয়ন প্রকল্প সমিতির সভাপতি মোস্তফা হোসেন, মানিপুকুর আশ্রয়ন প্রকল্প সমিতির সভাপতি ফরিদ উদ্দীন, সম্পাদক ইউনুস আলী ও মনি আক্তারসহ প্রকল্পের বাসিন্দারা ও গন্যমান্য লোকজন উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মুখ বেঁধে এসিড দিয়ে পুড়িয়ে হত্যা !

প্রকাশিত:Tuesday ৩১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Monday ০৬ February ২০২৩ |
Image

কুমিল্লা ব্যুরো :

কুমিল্লায় মুখ বেঁধে এসিড দিয়ে পুড়ে হত্যার অভিযোগে দুই ব্যক্তির যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। সেই সঙ্গে উভয়ের দশ হাজার টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ৬ (ছয়) মাসের বিনাশ্রম কারাদÐের আদেশ দেয়া হয়। এসময় মামলার আরেক আসামীকে খালাস দেয়া হয়। মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত-৫ এর বিচারক জাহাঙ্গীর হোসেন এই রায় দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, মো. জাহিদ হাসান (বাবু) ও মো. মাসুম মিয়া।

মামলার বিবরণনে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১২ মার্চ দাউদকান্দি থানাধীন গৌরীপুরস্থ নিউ মাকের্টে চুরির সময় দেখে ফেলায় নাইট গার্ড শফিকুল ইসলামকে হত্যা করে তারা। পরে তার লাশ যেন চেনা না যায় তাই এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এঘটনার শফিকুল ইসলামের স্ত্রী মোসা. জোসনা বেগম অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি থানায় একটি মামলা দায়ের করে। পরে তদন্ত করে আসামীদের পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আসামীরা জবানবন্দী দিলে আদালত তাদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেয়। 

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম বলেন, একটি মোবাইল দোকানে চুরির সময় দেখে ফেলায় তাকে হত্যা করা হয়। হত্যা করেই তারা ক্ষান্ত হয়নি। পরিচয় যেন না সনাক্ত হয় তাই লাশ এসিড দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট।

কুমিল্লা কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. মুজিবুর রহমান জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামীরা উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পর আসামীদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও খবর



ধামরাইয়ের বিখ্যাত মিষ্টি ক্ষীরমোহন

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

মাহবুবুল আলম রিপন (স্টাফ রিপোর্টার):


ঢাকার ধামরাইয়ের কাওয়ালীপাড়া বাজারের ইসমাইল সুইটস এর ক্ষীরমোহন অনন্য এক মিষ্টান্নের নাম। অনেকেই ভীষণ ভোজনপ্রিয় মানুষ। খাবারের নাম শুনলেই জিভে জল চলে আসে। আর যদি সেটা হয় মন জুড়ানো মিষ্টি গন্ধ, তাহলে তো কথাই নেই। এই সুস্বাদু মুখরোচক খাবারটি হচ্ছে কাওয়ালীপাড়ার ‘ক্ষীরমোহন’। দুধ, চিনি, ঘি, দুধের ছানা, ময়দা, তেজপাতা, ছোট এলাচ ইত্যাদি দিয়ে তৈরি ঘন রসযুক্ত মিষ্টান্ন।

ধামরাই উপজেলার গ্রামাঞ্চলে প্রাকৃতিক উপায়ে বেড়ে ওঠা সবুজ ঘাস, লতা-পাতাসহ নানা গো-খাদ্য বাড়িতে পালা গাভিকে খেতে দেয়া হয়। তাই এই এলাকার গরুর দুধ খাঁটি দুধের গুনাগুণ সমৃদ্ধ। সেই দুধ থেকে তৈরি হয় এই ক্ষীরমোহন।

প্রসঙ্গত,ক্ষীর ও মোহনের সংমিশ্রণে তৈরি হয় ক্ষীরমোহন। দুধ ক্ষীরে পরিণত হলে ও মিষ্টির ভেতরে ক্ষীর ঢুকে গেলে তৈরি হয় অমৃত স্বাদের ক্ষীরমোহন।

ইসমাইল সুইটস এর কর্মচারী মোঃ বাদশা মিয়া বলেন, খাঁটি ছানা থেকে তৈরি মিষ্টি প্রথমে গরম চিনির রসে জ্বাল দেয়া হয়। মিষ্টি হয়ে এলে তা থেকে রস ঝরিয়ে নিয়ে দুধে জ্বাল দেয়া হয়। দুধ ক্ষীরে পরিণত হলে ও মিষ্টির ভিতরে ক্ষীর ঢুকে গেলে তৈরি হয় লোভনীয় ‘ক্ষীরমোহন’। সাধারণত ১ মণ দুধ জ্বাল দিয়ে ১৭ থেকে ১৮ কেজি ক্ষীর তৈরি করা হয়। এতে যুক্ত হয় ২৫০ গ্রাম ঘী। এর সাথে ৮ কেজির মত মিষ্টি ক্ষীরে জ্বাল দিয়ে ২৪/ ২৫ কেজি ক্ষীরমোহন বানানো হয়। এর স্বাদ নিতে আসেন ছোট-বড় সকলেই। প্রতিটি ক্ষীরমোহন ৫০ টাকা এবং ৩৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হয় ।

ক্ষীরমোহন খেতে আসা ভোজনপ্রিয় মানুষ মোঃ বাবুল হোসেন বলেন, ক্ষীরমোহনের স্বাদ ও গন্ধ থেকেই জিভে পানি আনার মতো। এই খাবার খেতে খুবই সুস্বাদু আত্মীয় স্বজনদের বাড়ি নিয়ে গেলেও এই রসমালাইকে গুরুত্ব দেয়।


আরও খবর



বকশীগঞ্জে কোরআন প্রতিযোগীতা

প্রকাশিত:Monday ০৬ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

জামালপুর প্রতিনিধি :

জামালপুরের বকশীগঞ্জে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার হুফফাজুল কুরআন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ বকশীগঞ্জ শাখার উদ্যোগে এই প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদে নূরে আয়োজিত কুরআন প্রতিযোগীতায়  উপজেলার বিভিন্ন মাদ্রাসার ছাত্ররা অংশ নেন। পরে প্রতিযোগীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। ৩০ পারা কুরআন প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান লাভ করেন উঠানোপাড়া হাফিজিয়া মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মোস্তাসিন। 

বকশীগঞ্জ নূর মসজিদের সভাপতি গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম সওদাগর। বিশেষ অতিথি হিসেবে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বায়তুল আমান জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা সাইফুল্লাহ, ব্যাবসায়ী আলহাজ্ব আরিফ সিদ্দিকী ও প্যানেল মেয়র মিজানুর রহমান প্রমূখ। সঞ্চালক ছিলেন মফিজল হক সওদাগর হাফেজিয়া মাদ্রাসার মুফতী আব্দুর রশিদ। এ সময় হুফফাজুল কুরআন ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধিগন, ওলামায়ে কেরামগনসহ বিভিন্ন মাদ্রাসার হাফেজগণ উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার

প্রকাশিত:Wednesday ০১ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Tuesday ০৭ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :

নওগাঁয় ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের একটি কষ্টি পাথরের নারায়ণ মূর্তি উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বুধবার পূর্বরাতে নওগাঁর ধামুরহাট থানা পুলিশ ধামুরহাট উপজেলার কুলফৎপুর নামক স্থান থেকে আনুমানিক ৩৫ কোটি টাকা মূল্যের ৪৫ কেজি ৭শ' গ্রাম ওজনের মূর্তিটি উদ্ধার করেন।

সত্যতা নিশ্চিত করে নওগাঁর

ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাম্মেল হক কাজী প্রতিবেদক কে জানান, ধামুরহাট উপজেলার উমার ইউনিয়নের কুলফৎপুর এলাকায় জাহেদুল ইসলাম হেলাল নামে একজন পুকুর খননকালে (মাটির নিচ থেকে বের হওয়া ) পুকুরের মাটিতে একটি মূর্তি জাতীয় কিছু দেখতে পান। 

এমন খবর পেয়ে ধামুরহাট থানার অফিসাার ইনচার্জ (ওসি) মোজাম্মেল হক কাজী সঙ্গীয় অফিসার ও পুলিশ ফোর্সসহ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে মূর্তিটি উদ্ধার পূর্বক থানা হেফাজতে নেয়।

ওসি আরো জানান, উদ্ধারকৃত মূর্তিটির ওজন ৪৫ কেজি ৭শ' গ্রাম এবং কষ্টিপাথরের নারায়ণ মূর্তিটি'র আনুমানিক মূল্য ৩৫ কোটি টাকা বলেও নিশ্চিত করেন ওসি।


আরও খবর