Logo
শিরোনাম
শবে বরাত পালন মুসলিম জাতিকে একতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে। ৫৭ তম খোশরোজ শরীফ ও মইনীয়া যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবীতে প্রতীকী লাশ নিয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মিছিল লক্ষ্মীপুরে কৃষক কাশেম হত্যা: স্ত্রী, শ্বশুরসহ গ্রেপ্তার ৫ কুমিল্লা সিটি’র উপনির্বাচন: মেয়র পদে প্রতীক বরাদ্দ অবৈধ মজুদকারীরা দেশের শত্রু : খাদ্যমন্ত্রী ফতুল্লায় সিগারেট খাওয়ার প্রতিবাদ করায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

সুনামগঞ্জে মোহনা টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

স্টাফ রিপোর্টার :

কেক কাটা,আলোচনা সভা ও র‌্যালীসহ নানান কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে সুনামগঞ্জে গ্রামবাংলার প্রতিচ্ছবি মোহনা টেলিভিশনের ১৩ বছরে পদাপর্ণ উপলক্ষে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত হয়েছে। 

শুক্রবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ জেলা মোহনা টিভি দর্শক ফোরামের আয়োজনে শহরের শহীদ জগৎজ্যোতি পাঠাগার মিলনায়নে প্রধান অতিথি হিসেবে কেক কেটে মোহনা টিভির জন্মদিনের শুভ সূচনা করেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। 

সুনামগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ও মোহনা টেলিভিশনের  জেলা প্রতিনিধি কুলেন্দু শেখর দাসের সভাপতিত্বে ও অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি একে মিলন আহমদের সঞ্চলনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সুমন মিয়া 


আরও খবর



যুদ্ধের দুই বছরেও আশা ছাড়েনি ইউক্রেন

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

ইউক্রেন যুদ্ধের দুই বছর পেরিয়ে গেলো, কিন্তু সহসাই এ যুদ্ধ থামবে এমন কোনো লক্ষণ এখনো দেখা যাচ্ছে না। না ইউক্রেন না রাশিয়া, না তাদের কোনো মিত্র, কারও পক্ষ থেকেই শান্তি প্রতিষ্ঠার কোনো চিহ্ন নেই। তবুও আশা ছাড়েনি ইউক্রেন।

ক্রিভি রিহ শব্দের বাংলা অনুবাদ আঁকাবাঁকা শিং, কিন্তু ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এটিকে বলেন, বিশাল হৃদয় ও আত্মা। যুদ্ধে চূর্ণবিচূর্ণ এই শিল্প শহরটি যেন তাঁর চরিত্রের আদলে গড়া। এই শহরের এন্থিল নামক এলাকার সরু গলিতেই বেড়ে ওঠেছেন তিনি। কিন্তু যখন আপনি তার বিশাল দেহটির সামনে দাঁড়াবেন, তখন আপনার মনে হবে এখানে বেড়ে ওঠা থেকে শুরু করে যুদ্ধকালীন সময়ে দেশের নেতৃত্ব দেওয়া জেলেনস্কি একজন ভিন্ন মাত্রার মানুষ।

শহরটিতে জেলেনস্কির বাবা-মায়ের বাড়ির পাশের একটি বাড়িতে থাকা ভিতা বলেন, আমি চাই এই যুদ্ধ শেষ হোক। প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, সে একজন সাধারণ ভালো মানুষ, যিনি মানুষের জন্য লড়াই করছেন। আর আমি চাই এই যুদ্ধ শেষ হোক, সাইরেনগুলো যেন বন্ধ হয়ে যায়।

যুদ্ধ শেষ হওয়ার আশা অবশ্য সুদূর পরাহত। কিছু কিছু এলাকায় ইউক্রেনের এগিয়ে থাকা এবং বাড়ন্ত রুশ আধিপত্যই এখন চোখে পড়ছে। তবে মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগ দিয়ে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি প্রতিনিধিদের বলেন, কেউ আমাকে যুদ্ধ কবে শেষ হবে, এই কথা জিজ্ঞেস করবেন না। তার পরিবর্তে বলবেন, পুতিন এখনও কেন যুদ্ধ চালিয়ে যেতে পারছেন।

এর মাধ্যমে তিনি যারা অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ পাঠাতে দেরি করছেন, তাদের মনে করিয়ে দিলেন, এগুলো ইউক্রেনের জন্য কতটা প্রয়োজনীয় হয়ে উঠেছে।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির জনপ্রিয়তা এখন আকাশচুম্বী। ইতোমধ্যে তিনি রাজধানী কিয়েভ ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তাবও প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি বলেন, আমার দরকার গোলাবারুদ, ঘুরে বেড়ানো নয়।

ইউক্রেনের একজন মুদি দোকানি ভ্যালেরি বলেন, আমি কোনো রাজনীতিবিদ নই, তাই আমরা জিজ্ঞেস করতে পারি না, কবে যুদ্ধ শেষ হবে? আমাদের অবশ্যই লড়াই করতে হবে। আমরা আর সহ্য করতে পারছি না, লোকজন খুব ক্ষেপে আছে।


আরও খবর

অনুমতি ছাড়া হজ করলে শাস্তি ঘোষণা

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




ঝাঁজ বেড়েছে পেঁয়াজের, সবজিতে স্বস্তি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

শীতের অজুহাতে কয়েক সপ্তাহজুড়ে ভরা মৌসুমেও চড়া দাম ছিল সবজির। তবে আজ কিছুটা কমেছে সবজির দাম। কেজি প্রতি ১০-২০ টাকা কমেছে প্রায় প্রত্যেকটি সবজি। তবে এখনও স্বস্তি ফিরেনি।

এদিকে গত দুদিনে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিপ্রতি ২০ টাকা। এখন ঢাকার বাজারে প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা দরে, যা ছিল ১০০ টাকা। আর গত এক সপ্তাহে বেড়েছে ৪০ টাকা। তার আগের সপ্তাহে কেজি ছিল ৮০ টাকার মধ্যে।

০৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, লম্বা বেগুন প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০-৭০ টাকা, গোল বেগুন ৭০-৮০ টাকা, ফুলকপি ৪০-৫০ পিস, একই দামে বাঁধাকপি। শিম ৭০-৮০ টমেটো ৫০-৬০, পেঁপে ৪০-৫০ টাকা, করলা ৭০-৮০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০-৭০ টাকা, ঢেঁড়শ ৭০-৮০ টাকা মান ও সাইজভেদে লাউ ৭০-১০০ টাকা, শশা ৫০-৬০, মূলা ৪০-৫০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। যা গেল সপ্তাহজুড়ে কিছুটা ১০-২০ টাকা বেশি দামে বিক্রি হয়েছে।

এছাড়াও শাকের মধ্যে সরিষা শাক আটি ১৫ টাকা, ডাটা শাক ১৫ টাকা, পালং ১৫-২০ টাকা, লাউ শাক ৪০-৫০, লাল শাক ১৫ টাকা, বথুয়া শাক ১৫-২০ টাকা আটি বিক্রি হচ্ছে। তবে বাজারে দোকানের তুলনায় ভ্যানে কিংবা ফুটপাতের দোকানগুলোতে প্রত্যেক সবজির দাম ৫-১০ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে আলুর দাম কিছুটা কমেছে। গত সপ্তাহে ৪০-৪৫ টাকা কেজি বিক্রি হলেও আজ তা ৩৫-৪০ টাকায় নেমেছে। তবে কমেনি পেঁয়াজের দাম। ১০০-১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ।

অপরদিকে অস্বস্তি রয়েই গেছে মাছ-মাংসের বাজারে। আবারও ২০০ টাকা ছাড়িয়েছে ব্রয়লার মুরগীর দাম। সোনালি ৩০০-৩৩০ টাকা। আবারও গরুর মাংস ৭০০-৭৫০ টাকায় দাম উঠেছে।

মাছের বাজারে সাইজ ভেদে তেলাপিয়া ২২০-২৩০ ও পাঙাশ ১৮০ থেকে ২২০ টাকা। যা গেল সপ্তাহেও একই দামে বিক্রি হয়েছে। অন্য মাছের মধ্যে মাঝারি ও বড় আকারের চাষের রুই, কাতলা ও মৃগেল মাছের দাম প্রতি কেজি ৩০০ থেকে ৪০০ টাকা। এছাড়াও ৬০০ টাকার নিচে নেই পাবদা, টেংরা, কই, বোয়াল, চিতল, আইড় ও ইলিশ মাছ। মাছ যত বড় তার দাম ততো বেশিতে বিক্রি হচ্ছে।


আরও খবর

চড়া দাম অধিকাংশ পণ্যের

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ট্রেনের টিকিট কালোবাজিদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাবে রেলপথ মন্ত্রণালয়

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

রাজবাড়ী প্রতিনিধি :  ট্রেনের টিকিট কালোবাজারিদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাবে রেলপথ

মন্ত্রণালয়। ইতমধ্যে এই চক্রের বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনার সদস্যরা। এই

অভিযান অব্যাহত থাকবে। আসন্ন ঈদযাত্রায় ট্রেনের টিকিট প্রাপ্তিকে স্বস্তি থাকবে বলে জানান রেলপথ

মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম। ট্রেনের টিকিট কালোবাজির চক্রের সাথে ‘সহজ’ ডটকম,

রেলের কর্মচারীসহ অসাধু কিছু কর্মকর্তারা জড়িত।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজবাড়ীর মাদ্রাসা পাংশা- বালিয়াকান্দি ও কালুখালী শিক্ষক-কর্মচারীবৃন্দের

আয়োজনে পাংশা জর্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন রেলমন্ত্রী।

সংগঠটির সমিতির সভাপতি মীর আব্দুল বাতেনের সভাপতিত্বে মন্ত্রী বলেন, বিএনপির সময় রেলপথ ধ্বংস

করা হয়েছিল। রেলে আগুন দিয়ে রেলপথকে ধ্বংস করতে চায় বিএনপি। বিভিন্ন জেলায় নতুন নতুন রেলপথ

নির্মাণ করে বাংলাদেশকে রেল নেটওয়ার্কের আওতায় আনতে হবে।

ট্রেনে যাত্রীদের জন্য যে খাবার সরবরাহ করা হয় সেগুলো অত্যন্ত নি¤œমানের। মানুষ টাকা দিয়ে খাবার ক্রয়

করে খায়। কিন্তু খাবারের মান ভালো করার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। আগামী ১৩ ফেব্রæয়ারী

্ধসঢ়;এসব বিষয় নিয়ে মন্ত্রণালয়ে সভা আহŸান করা হয়েছে।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল মোরশেদ আরুজ, পাংশা উপজেলা পরিষদের

চেয়ারম্যান ফরিদ হাসান ওদুদ, বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদের আবুল কালাম আজাদ, পাংশা উপজেলা

আওয়ামী লীগের সভাপতি খোন্দকার সাইফুল ইসলাম বুড়ো প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


আরও খবর



রাণীনগরে পানি সেচ না দেয়ায় আলু ক্ষেত নষ্টের অভিযোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

নওগাঁর রাণীনগরে চলতি মৌসুমে জমিতে পানি সেচ না দিয়ে আলু ক্ষেত নষ্টের অভিযোগ ওঠেছে গভীর নলকূপ অপারেটর মোজাম্মেল মোল্লার বিরুদ্ধে। এঘটনায় ভুক্তভোগী কৃষক উপজেলা সেচ কমিটি এবং বিএমডিএ বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থার মাধ্যমে সু-বিচার দাবি করেছেন কৃষক এনামুল হক।

উপজেলার কালীগ্রাম ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে কৃষক এনামুল হক অভিযোগ করে বলেন,চলতি মৌসুমে গ্রামের পশ্চিম মাঠে বিএমডিএর গভীর নলকূপের আওতায় প্রায় সাড়ে ১৬শতক জমিতে আলু রোপন করেছেন। জমিতে আলু রোপনের পর থেকে একই মাঠে সকল কৃষকের জমিতে পানি সেচ দিলেও আমার জমিতে এক ফোটা পানিও সেচ দেয়নি গভীর নলকূপের অপারেটর একই গ্রামের মোজাম্মেল মোল্লা। এতে পানির অভাবে ক্ষেতের ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি আরো জানান,জমিতে পানি সেচ না দেয়ায় স্থানীয় মেম্বার ও গন্যমান্য লোকজন নিয়ে বসেছিলাম। সেখানে পানি সেচের জন্য ১৫শত টাকা মিটমাট হলেও পরে আর পানি দেয়নি। ফলে ক্ষেতের ফসল নষ্ট হয়ে গেছে। তিনি জানান,পারিবারিক দ্ব›েদ্বর জ্বের ধরে জমিতে পানি সেচ দেয়নি। বাধ্য হয়ে সু-বিচার পেতে রোববার বিকেলে উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং বিএমডিএ বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

স্থানীয় মেম্বার হেলাল উদ্দীন বলেন,আমরা বিষয়টি নিয়ে বসে সমাধান করেছিলাম। কিন্তু উভয় পক্ষের জিদের কারনে পরে আবারো তা ভেস্তে গেছে।

এব্যাপারে গভীর নলকূপের অপারেটর মোজাম্মেল হকের সাথে যোগাযোগ করতে তাকে না পাওয়ায় মোজাম্মেলের ছেলে আব্দুল মমিন মোল্লা বলেন,ধানের জমিতে পানি সেচ দিয়ে গত দুই বছরেও এনামুল কোন টাকা দেয়নি। তার জমিতে পানি সেচ ও জমিতে চাষ বাবদ ৩হাজার  ৩০০টাকা পাওনা রয়েছি আমরা। টাকা চাইলে নানানভাবে টালবাহনা করে। ফলে আমরা জমিতে পানি সেচ দিইনি।

রাণীনগর উপজেলা বিএমডিএর সহকারী প্রকৌশলী ইমানুর রহমান বলেন,এব্যপারে খোঁজ খবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উপজেলা সেচ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে তাবাসসুম বলেন,লিখিত অভিযোগের বিষয়টি দ্রুত তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



লালমনিরহাটে পৃথক অভিযানে ৯ মাদক কারবারি আটক

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

নিজস্ব প্রতিনিধি,লালমনিরহাট: 

জেলা সদর লালমনিরহাট থানা পুলিশের পৃথক পৃথক তিনটি অভিযানে ৩৫ বোতল মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সহ ০২ জন, ১০ বোতল মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিলসহ ০২ জন, এবং ০২ কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজাসহ ০১ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, মাদকদ্রব্য পরিবহনে ব্যবহৃত ০১টি ব্যাটারী চালিত অটো রিক্সা জব্দ।

পুলিশ সুপার লালমনিরহাট এর দিক নির্দেশনায় লালমনিরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ  মোঃ ওমর ফারুক এর নের্তৃত্বে মাদকবিরোধী অভিযানে লালমনিরহাট থানা পুলিশের অভিযান টিম এর এসআই দীপ্ত কুমার সিং সঙ্গীয় ফোর্সসহ ১নং মোগলহাট ইউনিয়নের দুরাকুটি মৌজাস্থ বিষবাড়ী এলাকার সামনে মোগলহাট টু লালমনিরহাট গামী পাকা রাস্তার ওপর হইতে আসামী মিস্টার আলী(৩৮), পিতা-মৃত-জহুরুল হক, সাং- দুর্গাপুর, থানা- আদিতমারী, জেলা -লালমনিরহাট,মোঃ সাজ্জাদ কবির @ রতন (৪১), পিতা-মোঃ ফারুক হোসেন, সাং- মিয়াপাড়া দোয়ানীটারী, থানা- হারাগাছ, জেলা -রংপুরদ্বয়কে হাতে নাতে গ্রেফতার করেন। 

এছাড়াও থানা পুলিশের অপর অভিযানে এসআই মোঃ আশরাফুল ইসলাম ফোর্সসহ লালমনিরহাট থানাধীন ০৮ নং গোকুন্ডা ইউনিয়নের তিস্তা এলাকা হইতে আসামী মোঃ আব্দুর রহিম(২৮), পিতা-মোঃ আজিজার রহমান, গ্রাম- দুলালী, ইউপি-গোরল ০৬নং ওয়ার্ড , থানা- কালীগঞ্জ, জেলা -লালমনিরহাট, মোঃ মামুন শেখ (২২), পিতা-তছির উদ্দিন, মাতা-মোছাঃ মাছুদা বেগম, গ্রাম- বেড়াভাঙ্গা, থানা- পলাশবাড়ী, জেলা -গাইবান্ধাদ্বয়কে হাতে নাতে গ্রেফতার করেন।


একই এলাকায় আরেকটি অভিযানে এসআই মোঃ রুহুল ইসলাম ০২ কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজাসহ আসামী মোঃ আনিছুর রহমান, পিতা- মোঃ আলেফ উদ্দিন, সাং-রতিপুর বাতানটারী, থানা ও জেলা- লালমনিরহাটকে হাতে নাতে গ্রেফতার করেন। এসময় মাদকদ্রব্য গাঁজা পরিবহনে ব্যবহৃত একটি ব্যাটারী চালিত পুরাতন অটো রিক্সা জব্দ করে।

 মাদকদ্রব্যসহ গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে পৃথক পৃথক মাদক মামলা রুজু করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ও ওমর ফারুক।


আরও খবর