Logo
শিরোনাম
রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন কমপ্লিট শাটডাউন : ঢাকাসহ সারা দেশে বিজিবি মোতায়েন জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ইট বোঝায় ট্রাক খাদে কুষ্টিয়ায় আন্দোলনকারী ও ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষ -কয়েকটি মোটর সাইকেলে আগুন পুঠিয়ায় আ’লীগের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা লালমনিরহাটে অনুষ্ঠিত হয়েছে তিস্তা সমাবেশ বেনাপোল স্থল বন্দর দিয়ে মিথ্যা ঘোষণায় আমদানি করা হয়েছে ১৮ কোটি টাকার সালফিউরিক এসিড কুমারখালীতে মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, আহত-২ শরণখোলায় নার্সের চিকিৎসার অবহেলায় এক রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ শেরপুরে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থী-ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত-২০

সুপার এইটে উঠতে বাংলাদেশকে যে সমীকরণ

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image

এখনো শেষ হয়নি নাটকীয়তা, যে সমীকরণে সুপার এইট থেকে ছিটকে পড়তে পারে বাংলাদেশ ,দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জয়ের খুব কাছে গিয়েও শেষ হাসি ধরে রাখতে পারেনি হিমালয় কন্যা নেপাল। দুর্ভাগ্যের এই হারে বিশ্বকাপ থেকেও বিদায় নিতে হয়েছে তাদের। বাংলাদেশের বিপক্ষে পরের ম্যাচে জয় পেলেও তাদের পয়েন্ট থাকবে ৩। যেখানে আগেই ৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে বাংলাদেশ।

তবে নেপালের বিদায় হলেও গ্রুপ ডি থেকে নাটকীয়তা শেষ হয়নি। বিদায় নিয়ে নেপাল হয়েছে শ্রীলঙ্কার সঙ্গী। আর দক্ষিণ আফ্রিকা আগেই গিয়েছে সুপার এইটে। এবার সুপার এইটে ডি-২ স্পটের জন্য লড়াইয়ে আছে বাংলাদেশ এবং নেদারল্যান্ডস। আগামী ১৭ তারিখ ভোরে নিষ্পত্তি হবে কারা যাচ্ছে শেষ আটে।

সমীকরণে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে। নেপালের বিপক্ষে জয় পেলেই বাংলাদেশ সুপার এইটে। আবার সেন্ট ভিনসেন্টে বৃষ্টিতে ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও টাইগাররা চলে যাবে সুপার এইটে। পরিত্যক্ত ম্যাচ থেকে বাংলাদেশ পাবে ১ পয়েন্ট। মোট পয়েন্ট পাবে ৫। সেক্ষেত্রে নিজেদের শেষ ম্যাচ জিতলেও নেদারল্যান্ডসের পয়েন্ট (৪) বাংলাদেশের তুলনায় কমই থাকবে।

তবে নিজেদের ম্যাচে বাংলাদেশ হেরে গেলে আর নেদারল্যান্ডস শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দিলে কিছুটা গাণিতিক হিসাব সামনে আসবে। এইক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডসের পয়েন্ট হবে সমান ৪। তখন বাংলাদেশের রানরেট কম হলেই বাদ যাবে তারা।

যদিও আপাতত রানরেটের হিসেবে বাংলাদেশ বেশ ভালো অবস্থানেই আছে। টাইগারদের রানরেট এখন ০.৪৭৮। নেদারল্যান্ডসের রানরেট -০.৪০৮। শেষ ম্যাচে তাই নেদারল্যান্ডসকে বেশ বড় ব্যবধানেই জয় পেতে হবে বা বাংলাদেশকে হারতে হবে বড় ব্যবধানে।


আরও খবর



রাণীনগর থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ককে অবাঞ্চিত ঘোষনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image

রাণীনগর, নওগাঁ প্রতিনিধি::


নওগাঁর রাণীনগর থানা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মোসারব হোসেনকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হয়েছে। থানা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক ও যুগ্ন আহ্বায়ককে অব্যাহতি এবং নিয়ম বহির্ভূতভাবে ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক অনুমোদনের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলা বাসস্ট্যান্ডে থানা বিএনপির কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা বিএনপির অব্যাহতি পাওয়া আহ্বায়ক রুকুনুজ্জামান খান রুকু। 


সংবাদ সম্মেলনে রুকু বলেন উপজেলা বিএনপির আমি এবং ১নং যুগ্ন আহবায়ক ও আহবায়ক কমিটির সদস্যবৃন্দ উপজেলার ৭২টি সাংগঠনিক ওয়ার্ডসহ ৮টি ইউনিয়ন বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি গত মাসের ২৭তারিখে অনুমোদন দেয়া হয়। এর মধ্যে ৪টি ইউনিয়ন কমিটি বহাল রেখে বাঁকী ৪টি ইউনিয়ন কমিটিতে জেলা বিএনপির আহবায়ক ও সদস্য সচিবের পছন্দের লোক না থাকায় বিধি ও গঠনতন্ত্র বহির্ভূত ভাবে বাতিল করে জেলা বিএনপি। এছাড়া উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্যদের উপেক্ষা করে উল্লেখিত কমিটি পূর্ণ গঠন করে।এতে রাজনৈতিক পরিক্ষীত মেধাবী,যোগ্য ও ত্যাগী নেতা-কর্মীদেরকে বাদ রেখে অযোগ্য ও আওয়ামীলীগের ডামী নির্বাচনে সহায়তাকারী ব্যাক্তিদের পদ-পদবী প্রদান করেছে। 


ফলে দলের জন্য আগামী আন্দোলন সংগ্রামকে দুর্বল করবে। সুতরাং এই নিয়ম বহির্ভূত কমিটি প্রত্যাখান করে সেই সাথে আওয়ামীলীগের চর ও এজেন্ডা বাস্তবায়নকারী নিয়ম বহির্ভূত ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মোসারব হোসেনকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করছি। 


সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে আহ্বায়ক কমিটির অব্যাহতি পাওয়া যুগ্ন আহ্বায়ক আতিকুজ্জামান জাপান (ভি.পি),আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মেজবাউল হক লিটন,মাহমুদুল হাসান মধু,থানা কৃষকদলের সভাপতি আব্দুল মতিন,থানা ছাত্রদলের যুগ্ন আহ্বায়ক ইউসুফ খাঁন,থানা সৈনিক দলের সভাপতি পাভেল রহমান প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।


ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক মোসারব হোসেন বলেন,বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে আহ্বায়ক রুকুনুজ্জামান খাঁন রুকু ও ১নং যুগ্ন আহ্বায়ক আতিকুজ্জামান জাপানকে জেলা বিএনপি তাদের পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে নিয়ম অনুযায়ী আমাকে ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়কের দায়িত্ব দিয়েছেন। এখানে কোন অনিয়ম করা হয়নি। এছাড়া অব্যাহতি পাওয়া আহ্বায়ক এবং যুগ্ন আহ্বায়ক আমাকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করতে পারেননা। 


তিনি অভিযোগ করে আরো বলেন,অব্যাহতি পাওয়া অহ্বায়ক ও যুগ্ন আহ্বায়ক দলীয় কার্যালয়ের তালা ভেঙ্গে অফিসে ঢুকে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। আমি এদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে জেলা বিএনপিতে অভিযোগ দায়ের করব। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে রুকুনুজ্জামান খাঁন রুকু বলেন,আমাদের দলীয় কার্যালয়ের চাবি আমাদের কাছেই ছিল। এখানে তালা ভাঙ্গার কোন ঘটনা ঘটেনি। জেলা বিএনপির সদস্য সচিব বায়েজিদ হোসেন পলাশ এর মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। 


উল্লেখ্য,অনিয়ম ও দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের দায়ে গত ২৮জুন রাণীনগর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির ১নং যুগ্ন আহ্বায়ক আতিকুজ্জামান জাপান (ভি.পি)কে এবং ৮জুলাই আহ্বায়ক রুকুনুজ্জামান খাঁন রুকুকে পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করে নওগাঁ জেলা বিএনপি। সেই সাথে গত ৮জুলাই কমিটির ২নং যুগ্ন আহ্বায়ক মোসারব হোসেনকে ভারপ্রাপ্ত আহবায়কের দায়িত্ব প্রদান করা হয়।




আরও খবর



মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিভিন্ন সময় মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মান করা হয়েছে এবং তারা তাদের সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। আমি চাই যুগ যুগ ধরে দেশের মানুষ মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান দেবে। মুক্তিযোদ্ধাদের সব সময় সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ‌প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ ২০২৪-২৫-এর নির্বাচিত ফেলোদের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, লাখো শহীদের রক্তে অর্জিত স্বাধীনতা কখনো ব্যর্থ হতে পারে না। মুক্তিযোদ্ধা যে দলেরই হোক, তাদের সব সময় সর্বোচ্চ সম্মান দিতে হবে।

বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, আমাদের দেশের ছেলেমেয়েরা সবচেয়ে বেশি মেধাবী। তাদের সুযোগ তৈরি করে দিতে হবে। সেটাই আমাদের কর্তব্য। সেই সুযোগ আমরা করে দিতে চাই। সেই কারণে ফেলোশিপটা চালু করেছি।

২০২১ থেকে ২০৪১ সাল নির্দিষ্ট করেছি। ২০৪১ সালে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ব। আমাদের জনশক্তি স্মার্ট জনশক্তি হবে। আমাদের বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। বলেন সরকারপ্রধান।

নারী, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী, প্রতিবন্ধী কেউ যাতে পিছিয়ে না থাকে তার জন্য সরকার সচেষ্ট বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ অ্যাওয়ার্ড ভবিষ্যতে কেউ যেন বাতিল করতে না পারে সেজন্য একে ট্রাস্টের আওতায় আনা হবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। এজন্য ৫০০০ কোটি টাকার ফান্ড প্রয়োজন বলে জানান তিনি।

চতুর্থ শিল্পবিপ্লব মোকাবিলায় তরুণদের উপযুক্ত করে গড়ে তোলার প্রত্যয়ের কথাও জানান সরকারপ্রধান।


আরও খবর

রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪




ভারতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে এইচআইভি

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভয়াবহরকমভাবে ছড়িয়ে পড়েছে এইচআইভি। ত্রিপুরার এইডস নিয়ন্ত্রণ সোসাইটির প্রকাশিত তথ্যের মাধ্যমে সামনে এসেছে বিষয়টি।

সংস্থাটি জানিয়েছে, ত্রিপুরায় ৮২৮ শিক্ষার্থী এইচআইভিতে আক্রান্ত হয়েছে। যার মধ্যে ৪৭ জন মারা গেছে। যারা এইচআইভিতে আক্রান্ত হয়েছে তাদের বেশিরভাগই সিরিঞ্জের মাধ্যমে মাদক গ্রহণ করেছিল।

এই ৮২৮ শিক্ষার্থীর দেহে এইচআইভি শনাক্ত হয়েছে ২০০৭ সালের এপ্রিল থেকে ২০২৪ সালের মে মাস পর্যন্ত।

৮শরও বেশি শিক্ষার্থীর এইচআইভি আক্রান্ত হওয়া নিয়ে রাজ্যে শোরগোল চলছে। অনেকে মনে করছেন এই শিক্ষার্থীরা অল্প কয়েকদিনের ব্যবধানে প্রাণঘাতী এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে বিষয়টি পরিষ্কার করেছে সংস্থাটি। তারা এক বিবৃতিতে বলেছে, এই তথ্যটি গত ১৭ বছরের।

আর যারা এইচআইভিতে আক্রান্ত হয়েছেন তাদের মধ্যে বেশিরভাগই বেঁচে আছে। এছাড়া তাদের সবাইকে সরকারি ওষুধও প্রদান করা হয়েছে।

সংস্থাটি আরও জানিয়েছে এইচআইভি ত্রিপুরার ২২০টি স্কুল এবং ২৪টি কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ছড়িয়ে পড়েছে। আর এইচআইভিতে আক্রান্ত হওয়া শিক্ষার্থীদের বেশিরভাগের বাবা-মা সরকারি চাকরীজীবি অথবা আর্থিকভাবে স্বচ্ছল। এসব বাবা-মায়ের সন্তানেরা যে পরিমাণ অর্থ চায় তা সহজেই পেয়ে যায়। এরপর এই অর্থ তারা মাদকের পেছনে ব্যয় করে। বাবা-মা যখন সন্তানের মাদকাসক্তির বিষয়ে জানতে পারেন তখন অনেক দেরি হয়ে যায়।

তবে গত ১৭ বছরে ৮২৮ শিক্ষার্থী এইচআইভিতে আক্রান্ত হলেও প্রতি বছর রাজ্যটিতে যে পরিমাণ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন তা খুবই উদ্বেগের। এইডস নিয়ন্ত্রণ সোসাইটির তথ্য অনুযায়ী ত্রিপুরায় ২০২২-২৩ সালে ১ হাজার ৮৪৭ জন এইচআইভি পজেটিভ হয়েছেন। ২০২৩-২৪ সালে এই সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৭৯০ জন।

সূত্র: দ্য ইকোনোমিক টাইমস


আরও খবর



শেরপুরে কোটাবিরোধী শিক্ষার্থী-ছাত্রলীগের সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত-২০

প্রকাশিত:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image
আরএম সেলিম শাহী, বিভাগীয় প্রধান ময়মনসিংহ::

শেরপুরে কোটা বিরোধী আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় এক সাংবাদিকসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে।

বুধবার(১৭ জুলাই) দুপুরে ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত শহরের নিউমার্কেট মোড়, থানা মোড়, চকবাজারে এসব সংঘর্ষ ঘটে৷ এর আগে সাধারণ শিক্ষার্থীরা দুপুর তিনটায় শেরপুর সরকারী কলেজে অবস্থান নেয়৷ সেখান থেকে মিছিল শুরু করে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণের সময় ছাত্রলীগের বাঁধার মুখে পড়ে৷ এসময় শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট পাটকেল নিক্ষেপের ফলে এক সাংবাদিকসহ দুই গ্রুপের অন্তত ২০জন আহত হয়।

এখন পর্যন্ত শহরে অধিকাংশ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে, পুলিশ সাউন্ড গ্রেনেড ব্যবহার করে পরিবেশ শান্ত করার চেষ্টা করছে।

আরও খবর



ধেয়ে আসছে বন্যা, সিলেটসহ পাঁচ জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২০ জুলাই ২০24 |

Image



বিডি টুডেস ডেস্ক:


দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে অতিবৃষ্টি ও উজানের ঢলে বন্যাপ্রবণ প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি বাড়ছে। সারাদেশে ধেয়ে আসছে বন্যা।



 ইতিমধ্যে পাঁচ নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে উঠেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড। এদিকে সিলেটে তৃতীয় দফার বন্যায় ফের প্লাবিত হয়েছে জেলার ৯৭ ইউনিয়নের এক হাজার ১৭৬ গ্রাম। 


এতে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন ৭ লাখ ১ হাজার ৬৫৮ জন। এছাড়া সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, নেত্রকোণা ও শেরপুরের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।



মঙ্গলবার (২ জুলাই) বন্যার পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় নির্বাহী প্রকৌশলী সরদার উদয় রায়হান স্বাক্ষরিত এক সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে অতিবৃষ্টি এবং উজানের ঢলে দেশের বিভিন্ন এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে।



 দেশের বন্যাপ্রবণ প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি হু হু করে বাড়ছে। ইতোমধ্যে পাঁচ নদীর পানি বিপৎসীমার ওপরে উঠে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।



এতে আরও বলা হয়েছে, দেশের উত্তরাঞ্চল, উত্তর-পূর্বাঞ্চল, দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল ও তৎসংলগ্ন উজানে আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তরাঞ্চলের তিস্তা, ধরলা ও দুধকুমার নদীসমূহের পানি সমতল সময় বিশেষে বৃদ্ধি পেয়ে কতিপয় পয়েন্টে স্বল্পমেয়াদে বিপৎসীমা অতিক্রম করতে পারে।


পানি উন্নয়ন বোর্ডের সতর্কীকরণ জানিয়েছে, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদ-নদীর পানি সমতলও বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। এছাড়া গঙ্গা-পদ্মা নদীর পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।


আরও খবর

রাজধানীর সেতু ভবনে আগুন

বৃহস্পতিবার ১৮ জুলাই ২০২৪