Logo
শিরোনাম

সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ দেওয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত:Saturday ০৫ November ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ 


নওগাঁর মান্দায় সভাপতির স্বাক্ষর জাল করে কলেজের বিভিন্ন পদে ১৩ জন শিক্ষক-কর্মচারীকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে মান্দা মহানগর কলেজ’ অধ্যক্ষ রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়ে গত ১ নভেম্বর কলেজের সাবেক সভাপতি সামন্ত কুমার সরকার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মান্দা মহানগর কলেজ ২০১২ সালে অ্যাকাডেমিক স্বীকৃতি লাভ করে। কলেজ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত পরিচালনা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা সামন্ত কুমার সরকার। এসময়ে কলেজের বিভিন্ন পদে ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ৩০ জন শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হয়। এ ছাড়া ২০২০ সালে ৬ মাসের জন্য অ্যাডহক কমিটির প্রধানের পদেও ছিলেন তিনি। তার সময় কালে কলেজের আর কোন পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশসহ নিয়োগের কোন কার্যক্রম করেননি।


তিনি অভিযোগে আরো বলেন, আমার দায়িত্ব কালে মোঃ মমিনুল (প্রভাষক), মোঃ আক্কাছ আলী (প্রভাষক ইসলাম শিক্ষা), মোঃ সুলতান মাহাবুব (প্রভাষক), মোঃ রেজাউল করিম (প্রভাষক), মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান (প্রভাষক), মোঃ মামুনুর রশিদ (প্রভাষক), আনিছুর রহমান (প্রভাষক), মো জাহিদুল হক (প্রভাষক), মোঃ মাইনুল ইসলাম (প্রভাষক), জয়ন্ত কুমার সাহা (ডেমো), এটিএম কামরুজ্জামান (ডেমো), মোঃ গোলাম রাব্বানী (ডেমো), মোছাঃ জান্নাতুন ফেরদৌসী (অফিস সহকারী) পদে অবৈধ নিয়োগ দেখানো হয়েছে। আমার স্বাক্ষর জাল করে গোপনে রেজুলেশন তৈরী করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ ও ভূয়া নিয়োগ বোর্ডের মাধ্যমে এসব পদে উল্লেখিত ব্যক্তিদের নিয়োগ দিয়ে টাকা আত্মসাৎ করেন অধ্যক্ষ রুহুল আমিন। উক্ত বিষয়টি আমার নিকট সন্দেহাতীত হলে আমি অধ্যক্ষ মহোদয়কে আমার কার্যকালীন সময়ের রেজুলেশন বই দেখতে চাইলে সে অস্বীকৃতি জানায়।

কলেজের সাবেক সভাপতি সামন্ত কুমার সরকার বলেন, আমার কার্যকালে অতিরিক্ত পদে আর কোনো নিয়োগ দেয়া হয়নি। বিষয়টি জানার পর কলেজ অধ্যক্ষ রুহুল আমিনকে নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে যাবতীয় কাগজপত্র দেখাতে বলেছিলাম। কিন্তু বিভিন্ন অজুহাতে তিনি আজ নেয় কাল বলে সময়ক্ষেপণ করে টালবাহানা করে চলেছেন। এতে আমার সন্দেহ ঘনিভূত হয়ে আরও বেড়ে যায়।

তিনি অভিযোগে আরো উল্লেখ করেন, আমার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে নিয়োগ সংক্রান্ত রেজুলেশন তৈরি করা হয়েছে। এরপর ভূয়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশসহ যোগসাজসী বোর্ড গঠন করে ওইসব পদে শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ দিয়ে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেন অধ্যক্ষ রুহুল আমিন। বিষয়টি তদন্তের জন্য ইতিমধ্যে বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে মান্দা মহানগর কলেজের অধ্যক্ষ রুহুল আমিনকে একাধিক বার মুঠোফোনে কল দিলেও তিনি রিসিভ না করায় তার কোন বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু বাক্কার সিদ্দিক বলেন, ঘটনার বিষয়ে অভিযোগ পাওয়ার পরই বিষয়টি তদন্তের জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে দ্রুত যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



মির্জাগঞ্জে ভোক্তা অধিদপ্তরের অভিযানে ৭ দোকানিকে জরিমানা

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মির্জাগঞ্জ প্রতিনিধি,পটুয়াখালী :


পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জে অভিযান চালিয়ে ৭ টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ৩১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে পটুয়াখালী জেলা জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

বুধবার (১১ জানুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত উপজেলার কলেজ রোড থেকে সুবিদখালী বাজারের ষ্টীল ব্রিজ পর্যন্ত ৭ টি দোকান থেকে এ জরিমানা আদায় করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পটুয়াখালী জেলার সহকারী পরিচালক মো.শাহ শোয়াইব মিয়ার নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় মির্জাগঞ্জ থানার এসআই মো.ইব্রাহীম,উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মাখসুদুর রহমান খান অভিযানে সহয়তা করেন।

সুবিদখালী কলেজ রোডস্থ সকাল সন্ধ্যা হোটেলকে ৬ হাজার,হোটেল সালামকে ৩ হাজার,মৃধা স্টোরকে ১ হাজার,স্টিল ব্রিজ সংলগ্ন রোগ মুক্তি ফার্মেসীকে ৩ হাজার,অন্তরা মেডিকেল হলকে ১০ হাজার এবং নান্নু শপিং কমপ্লেক্সের সুরাইয়া ফ্যাশনকে ৪ হাজার ও শেফা ফ্যাশন হাউসকে ৪ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।


জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পটুয়াখালী জেলার সহকারী পরিচালক মো.শাহ শোয়াইব মিয়া বলেন,মির্জাগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা,অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপন্য তৈরি ও সংরক্ষন করা,মেয়াদোত্তীর্ন ঔষধ বিক্রয় ও বিক্রয় প্রস্তাব করা,এমআরপি থেকে অতিরিক্ত দামে ঔষধ বিক্রয় করা,বিক্রয় নিষিদ্ধ কসমেটিক্স বিক্রয় করা ও কসমেটিকসের মোড়কে খুচরা মূল্য উল্লেখ না থাকার কারণে ৭ টি  ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়। জনস্বার্থে বাজার তদারকি মূলক এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।


আরও খবর



পিআইবি মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ

মোবাইল সাংবাদিকতা গণমাধ্যম কর্মীদের আরো সমৃদ্ধশালী করবে

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

গজারিয়া প্রতিনিধিঃ 

সাংবাদিকরাই জনগণের বিবেক বলে মন্তব্য করেছেন মুন্সিগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বঙ্গবন্ধুর একান্ত সহচর আলহাজ মো মহিউদ্দিন। মুন্সিগঞ্জে ২ দিনব্যাপী " মোবাইল সাংবাদিকতা বিষয়ক প্রশিক্ষণের সমাপন দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। তিনি আরো বলেন, একমাত্র গণমাধ্যম কর্মীরাই পারে দেশ থেকে সকল ধরনের দূর্নীতি, অন্যায় দুর করতে। দেশকে স্বচ্ছতার রুপ দিতে। দেশকে আরো উন্নত ও সমৃদ্ধ করতে গণমাধ্যম কর্মীদের ভুমিকা অপরিসীম। 

গতকাল মঙ্গলবার সার্কিট হাউস মিলনায়তনে ২দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ” র সমাপণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাপন অনুষ্ঠানে সভাপ্রধান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ ( পিআইবি) মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ। সভাপ্রদানের বক্তব্যে তিনি বলেন, মোবাইল সাংবাদিকতা গণমাধ্যম কর্মীদের আরো সমৃদ্ধশালী করবে। মোবাইল সাংবাদিকতা যেখানে ঘটনা সেখান থেকেই প্রতিবেদন লিখে পাঠানো যায়। সাংবাদিকদের আরো সচেতন ও কর্মঠ করতে মোবাইল সাংবাদিকতার বিকল্প নেই। 

প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ ( পিআইবি) প্রশিক্ষক পারভিন সুলতানা রাব্বির সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এড সোহানা তাহমিনা, ডেফোডিল ইউনির্ভারসিটি সহযোগী অধ্যাপক ( জার্নালিজম মিডিয়া কমিউনিকেশন বিভাগ) ড. জামিল খান, জেলা তথ্য অফিসার দ্বীপক চন্দ্র দাস। 

দুইদিন ব্যাপী প্রশিক্ষণে জেলার ৩৫ জন সাংবাদিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে এতে অংশ নেয়। প্রশিক্ষণে ভিডিও রেকডিং, ভিডিও সম্পাদনা ও স্টোরি, মোবাইল সেটিংস তৈরিসহ নীতিমালার উপর প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। 

সমাপন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন পিআইবি মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ। পরে সকল সাংবাদিকদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন অতিথিরা।


আরও খবর



আবারো কমছে তাপমাত্রা

প্রকাশিত:Saturday ০৪ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় আবারো বাড়তে শুরু করেছে শীতের দাপট উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলার ওপর দিয়ে বইছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ এই পরিস্থিতি আরো দুদিন থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় একই থাকতে পারেকুয়াশা আর মেঘলা আকাশে ঢেকে আছে পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাটসহ উত্তরাঞ্চলের বেশ কিছু জেলাসেই সাথে বইছে হিমেল বাতাস, ঠিকমত সূর্যের দেখাও মিলছে না রাতভর কুয়াশা ঠাণ্ডা বাতাসে নাজেহাল সেখানকার মানুষবিশেষ করে দুর্ভোগে পড়েছেন শ্রমজীবী মানুষ


আরও খবর



প্রধানমন্ত্রীর সাথে আইএমএফ ডিএমডি

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

আসছে ৩০ জানুয়ারিতে নির্ধারিত সভায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল-আইএমএফ এর নির্বাহী পর্ষদ বাংলাদেশের ঋণ প্রস্তাবে চূড়ান্ত অনুমোদন দিতে পারে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতকালে এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন ঢাকা সফররত সংস্থাটির ডিএমডি অ্যান্তইনেত মনসিও সায়েহ। এসময় বেসরকারি বিনিয়োগ, রপ্তানি খাত এবং জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় বাংলাদেশের পরিকল্পনা নিয়েও আলোচনা করেন তিনি ।

গণভবনে এই সাক্ষাত উপলক্ষে এক বিবৃতিতে বলা হয় মূল্যস্ফীতি ও জিডিপি'র তুলনায় ঋণের হার নিয়ন্ত্রণ সহ অর্থনৈতিক নানা ধাক্কা সামলাতে বাংলাদেশের উদ্যোগগুলোর প্রসংশা করছে আইএমএফ। অ্যান্তইনেত বলেন, রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিও ঝুঁকিতে আছে তবে সংকট উত্তরণে সরকারের পদক্ষেপগুলো প্রসংশাযোগ্য। রির্জাভ ঘাটতি মেটাতে সহায়তার প্রশ্নে তিনি বলেন, এজন্য সরকারের নেয়া সংস্কার কর্মসূচিগুলো নিরিক্ষা করছে আইএমএফ কারণ আগামী দিনে রাজস্ব আয় আরও বাড়ানো এবং আর্থিক খাতে স্থিশীলতা জরুরি।  


আরও খবর

কমছে আয়, বাড়ছে ব্যয়

Saturday ০৪ February ২০২৩




ডলারের অস্থিরতা আর কতদিন ?

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

জহিরুল কবীর আমজাদ :আলোচনা টেবিলে বার বার ঘুরে-ফিরে বিষয় এখন একটাই। আর তা হলো ডলার। সরকারের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নানা উদ্যোগের পরও ডলার নিয়ে অস্থিরতা কাটছে না। বরং দিনের পর দিন টাকার মান কমছে, বাড়ছে ডলারের দাম। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বেঁধে দেওয়া দাম থেকে অনেক বেশি দরে বিক্রিও হচ্ছে। সবশেষ খোলাবাজারে ১২১ টাকা ছুঁয়েছে এক ডলারের বিনিময়মূল্য। সামনে আরও বাড়বে এমন গুঞ্জনও আছে বাজারে। তাই কোথায় গিয়ে থামবে ডলারের দাম আর সংকট কবে কমবে তা কারো বলার যেন সাধ্য নেই!

বিশেষজ্ঞরাও বলছেন, ডলারের এই অবস্থা দিনে দিনে কেটে যাবে এমনটা মনে করার কারণ নেই। তবে পরিস্থিতি সামাল দিতে আমদানির বিষয়ে নির্দেশনাসহ সরকারের নেওয়া উদ্যোগের সঠিক প্রয়োগ, স্বল্প এবং মধ্যমেয়াদে পদক্ষেপগুলো বাস্তবায়নের কৌশল ঠিক করতে হবে। অন্যথায় পরিস্থিতি আরও বেশি খারাপ হওয়ার আশঙ্কার কথাও বলেছেন বিশেষজ্ঞরা। ইতোমধ্যেই ডলার-সংকট নিরসনে সরকার নানামুখি উদ্যোগও নিয়েছে।


এদিকে আনুষ্ঠানিক দরের বালাই নেই খোলা বাজারে। খোলা বাজারে ১১৫ টাকার বিক্রি হওয়া ডলার মাঝে একদিন আশুরার বন্ধের পর বুধবার এক লাফে সাত টাকা বেড়ে খোলা বাজারে ১২১ টাকায় পৌঁছেছে। যা দেশের ইতিহাসে খোলাবাজারে সর্বোচ্চ দর। গত সোমবারও এই দাম ছিল ১১৫ টাকা ৬০ পয়সা। অন্যদিকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতেও ১০৮ থেকে ১১০ টাকার ওপরে বিক্রি হচ্ছে ডলার। কিন্তু দামে রেকর্ড হওয়ার পরও ডলার সংকট কাটছে না। এর প্রভাব পড়ছে বিদেশগামী সাধারণ মানুষ, ভোক্তা, ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে সবার ওপর।


আরও খবর

কমছে আয়, বাড়ছে ব্যয়

Saturday ০৪ February ২০২৩