Logo
শিরোনাম

তীব্র শীতে হাসপাতালে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা

প্রকাশিত:Saturday ০৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

রোকসানা মনোয়ার :তীব্র শীত ও ঘন কুয়াশায় স্বাভাবিক জনজীবন ব্যাহত হচ্ছে। শীতের প্রকোপে রাজধানীতে বাড়ছে শিশুদের ঠান্ডাজনিত সমস্যা। এতে গত এক সপ্তাহে কেবল ঢাকা শিশু হাসপাতালেই জ্বর-সর্দি-কাশি নিয়ে রোগী বেড়েছে দ্বিগুণ। যেসব শিশুর আগে থেকেই অ্যাজমার সমস্যা আছে তারা ভর্তি হচ্ছে হাসপাতালে। পাশাপাশি বাড়ছে নিউমোনিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই সময় এসবের আগে দরকার অভিভাবকদের সচেতনতা।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সূর্যের দেখা মেলেনি এখানে। পৌষের কনকনে শীতে কাবু হয়ে পড়েছে মানুষ। ঘন কুয়াশায় চারিদিক আবৃত হয়ে আছে। ঘন কুয়াশার কারণে জেলার অধিকাংশ সড়কে যানবাহনগুলো হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে। প্রচন্ড শীতে বেশি কষ্ট পাচ্ছে বৃদ্ধ ও শিশুরা। 

শীতে হাসপাতালগুলোতে ঠান্ডাজনিত রোগীর সংখ্যা অস্বাভাবিকভাবে বাড়ছে। ফসলের বীজতলা ঠিকমতো পরিচর্যা করা যাচ্ছে না। কুয়াশায় চারা ও পান বরজ নষ্ট হওয়ায় কৃষকরা বিপাকে পড়েছেন। হাড় কাঁপানো শীতে রীতি মতো জবুথবু অবস্থা। গায়ে গরম কাপড় ও টুপি পরে মানুষ শীতের তীব্রতা থেকে রক্ষা পাওয়ার চেষ্টা করছেন। দরিদ্র মানুষ কাগজ-খড়কুটো পুড়িয়ে একটু উষ্ণতা পাওয়ার চেষ্টা করছেন। ঠান্ডাজনিত নানা রোগের প্রকোপ বেড়েছে। হঠাৎ করে শীত পড়ায় শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশি, বাত ব্যথায় আক্রান্ত রোগী বৃদ্ধি পেয়েছে। আক্রান্তদের অধিকাংশ শিশু ও বৃদ্ধ। 

সরেজমিনে দেখা যায়, শয্যা সংকট থাকায় হাসপাতালের মেঝে ও বারান্দায় চিকিৎসা নিচ্ছেন অনেক রোগী।

 


আরও খবর



র‌্যাবের অভিযানে কিশোর গ্যাংয়ের লিডারসহ ৪ জন আটক

প্রকাশিত:Wednesday ১১ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন :


কিশোর গ্যাংয়ের লিডার সহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব।

জয়পুরহাটের সদর থানার নতুন চাতাল বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে কিশোর গ্যাংয়ের লিডার গোলাম রব্বানী সহ ৪ জনকে আটক করেছে র‍্যাব। 

সত্যতা নিশ্চিত করে র‍্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট কাম্প থেকে জানানো হয়, র‍্যাব-৫, সিপিসি-৩ জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান এবং স্কোয়াড কমান্ডার সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ মাসুদ রানার নেতৃত্বে বুধবার পূর্বরাত সাড়ে ১২ টারদিকে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, জয়পুরহাট জেলা সদর থানার নতুনহাট শেখপাড়া গ্রামের মোঃ ওবায়দুলের ছেলে মোঃ গোলাম রব্বানী (২৪), একই গ্রামের মোঃ আলতাবের ছেলে মোঃ ফাহিম শেখ (২০), মোঃ নজরুলের ছেলে মোঃ ইব্রাহীম হোসেন (২০) ও একই থানার শান্তিনগর গ্রামের মৃত মতিয়ার রহমানের ছেলে মোঃ শাহিন হোসেন (২৩)।

র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩ আরো জানান যে, আটককৃত ৪ জন এলাকায় কিশোর সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত। এরা সবাই রব্বানী গ্রুপের সদস্য, যেখানে রব্বানি তাদের গাং লিডার। গ্যাং লিডার গোলাম রব্বানীর নামে পুর্বে একটি অস্ত্র মামলাসহ মোট ৪ টি মামলা রয়েছে এবং মোঃ শাহিন হোসেনের নামে একটি মামলা রয়েছে। তারা প্রায় ৭/৮ জন একত্রিত হয়ে জয়পুরহাট সদর থানার নতুন হাট গরুরহাটের এক পরিত্যক্ত দোকানের পেছনে সমবেত হয়ে গাঁজা ও ফেন্সিডিল সেবন করে ছিনতাইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। অভিযানের সময় তাদের কাছ থেকে ধারালো টিপ চাকু, ফেন্সিডিলের বোতল, গাঁজার পুরিয়া সহ মাদক সেবন করার অন্যান্য সরঞ্জামাদিও পাওয়া যায়। এছাড়াও গত শনিবার নতুনহাট গরুর বাজারে এক গরু ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৬ লাখ টাকা ছিনতাই হয়। 

এরপর জয়পুরহাট র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা এ ব্যাপারে নতুনহাট এলাকায় গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ ও নজরদারি বৃদ্ধি করে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উক্ত স্থানে অভিযান পরিচালনা করলে রব্বানী  গ্যাংয়ের ৮ জন সদস্যের মধ্যে ৪ জন সদস্যকে আটক করতে সক্ষম হয়।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে জয়পুরহাট সদর থানায় পেনাল কোড-১৮৬০ এর ৩৯৩/৩৪ তৎসহ মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০১৮ এর ৩৬(৫) ধারায় মামলা দায়ের করে বুধবার দুপুরে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও নিশ্চিত করা হয়।


আরও খবর



গত বছর দেশে ৪৪৬ শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে

প্রকাশিত:Friday ২৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

২০২২ সালে দেশে স্কুল ও কলেজের ৪৪৬ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যা করেছে। দেশের পত্রপত্রিকায় প্রকাশিত খবরের ওপর ভিত্তি করে এই পরিসংখ্যান পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে বেসরকারি সংস্থা আঁচল ফাউন্ডেশন।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আত্মহত্যা করা এসব শিক্ষার্থীদের মধ্যে স্কুল ও সমমান পর্যায়ের ৩৪০ এবং কলেজ পর্যায়ে ১০৬ জন রয়েছেন। এদের মধ্যে ৫৪ জন মাদরাসার শিক্ষার্থী। এসব শিক্ষার্থীদের মধ্যে নারী ২৮৫ জন এবং পুরুষ ১৬১ জন। 

এছাড়া ২০২২ সালে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত ৮৬ জন শিক্ষার্থী আত্মহত্যার পথ বেঁছে নিয়েছেন বলেও জানিয়েছে আঁচল ফাউন্ডেশন।

এদিকে, আত্মহত্যার পেছনের কারণ হিসেবে মান-অভিমানই বেশি। ২৭ দশমিক ০৬ শতাংশ স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থী অভিমানে আত্মহত্যা করেছে। এদের বড় অংশই অভিমান করেছিল পরিবারের সদস্যদের ওপর। 


আরও খবর

সুখবর নেই বাজারে

Saturday ০৪ February ২০২৩




নওগাঁয় সরকারী স্কুলে ষষ্ঠ শ্রেনীতে নিয়মবর্হিভূত ভর্তির অভিযোগ

প্রকাশিত:Wednesday ১৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :


নওগাঁর বদলগাছী সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেনীতে নিয়মবর্হিভূত ভাবে শিক্ষার্থীদের ভর্তি করার অভিযোগ উঠেছে প্রধান শিক্ষক সুরেশ সিংহ এর বিরুদ্ধে। তিনি নীতিমালাকে উপেক্ষা করে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে ভর্তি করিয়েছেন। একই শ্রেনীতে অতিরিক্ত ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানোর ফলে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানে ব্যাঘাত ঘটবে। ফলে যে আশা নিয়ে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের এই বিদ্যালয়ে ভর্তি করিয়েছেন তা পূরণ করা সম্ভব হবে না বলে মন্তব্য করেন অভিভাবকরা।

জানা গেছে, ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে বদলগাছী সরকারি মডেল পাইলট হাইস্কুলে ষষ্ঠ শ্রেনীতে ১২০ আসনে ছাত্র-ছাত্রীদের ভর্তির জন্য গত বছরের ১৬ নভেম্বর অনলাইনে আবেদন করতে বলা হয়। আবেদনের শেষ সময় ছিল ৬ ডিসেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত। এ সময়ের মধ্যে ২৪৭ জন ছাত্র-ছাত্রী আবেদন করে। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ১০ ডিসেম্বর লটারির ১৫১ জনের একটি তালিকা প্রকাশ করে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

এরপর গত ৮ জানুয়ারি মেধা অনুযায়ী রোল নম্বর নির্ধারণের জন্য পঞ্চম শ্রেণির সিলেবাস অনুযায়ী একটি পরীক্ষা হয়। এরপর ১২০ জনকে মেধা তালিকা অনুসারে প্রথমে ভর্তি করানো হয়। পরবর্তীতে লটারিতে উঠা অপেক্ষামান তালিকা থেকে আরো ৩১ জনসহ মোট ১৫১জন ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানো হয়। এছাড়া লটারির বাহিরে থাকা আরো ১৫-২০ জন ছাত্র-ছাত্রীর কাছ থেকে ভর্তি করানো হবে মর্মে টাকা নিয়ে রাখা হয়েছে।

বিদ্যালয়ে দুইটি সেকশন (বিভাগ/ শাখা)। বিদ্যালয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ইংরেজি বিষয়ে শিক্ষক মাত্র একজন। ইংরেজি বিষয়ে পাঠদান করানোর সময় দুই বিভাগের সকল ছাত্র-ছাত্রীদের এক কক্ষে স্থান দেওয়া সম্ভব না। এক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশুনা থেকে পিছিয়ে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

আরো জানা যায়- ২০১৬ সালে সারাদেশে ৩২৮টি বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে প্রথম ধাপে নওগাঁর দুইটি বিদ্যালয় তালিকা ভুক্ত হয়। যার একটি বদলগাছী মডেল পাইলট হাইস্কুল এবং অপরটি আত্রাই উপজেলার আহসানগঞ্জ মেমোরিয়াল একাডেমি উচ্চ বিদ্যালয়। এরপর ২০১৮ সালে ২১ মে সরকারি ঘোষণা করা হয়। এরপর বিদ্যালয়ের সঙ্গে সরকারি শব্দটি যোগ হয়ে বদলগাছী সরকারি মডেল পাইলট হাইস্কুল। তবে বিদ্যালয়টি সরকারিকরণ করা হলেও এখন পর্যন্ত সরকারি কোন সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে না।

ঐ স্কুলের সাবেক ছাত্র ও বদলগাছী উপজেলার গাবনা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা জমসত আলী বলেন, যদি এক শ্রেণীতে ১৫০ জনের অধিক ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হয় তাহলে কিভাবে ভাল পড়াশুনা হবে। বর্তমানে দেখা যায় ছাত্র-ছাত্রী বেশি প্রাইভেট পড়ছে। তাহলে কেন প্রাইভেট পড়ছে? আর এতোগুলো ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানো আসলে ঠিক হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিদ্যালয়ের কয়েকজন শিক্ষক জানান, নতুন ক্যারিকুলামে বিষয়ভিত্তিক একজন করে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষক রয়েছেন এই বিদ্যালয়ে। এত বেশি সংখ্যক শিক্ষার্থী ভর্তি নেওয়ার ফলে দুটি শাখা এক ক্লাসে করেও ক্লাস নেওয়া সম্ভব হবে না। ফলে যে আশা নিয়ে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের এই বিদ্যালয়ে ভর্তি করিয়েছেন তা পূরণ করা সম্ভব হবে না। এবং মান সম্মত শিক্ষা প্রদানে ব্যাঘাত ঘটবে।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক সুরেশ সিংহ বলেন, বিদ্যালয়টি এখনো শিক্ষক আত্তীকরণ হয়নি। একারণে অতিরিক্ত ভর্তি করানো হয়েছে। শিক্ষক আত্তীকরণ হয়ে গেলে তখন আর ১২০ আসনের বেশি ভর্তি করানো যাবে না। উপজেলায় ভাল আর কোন স্কুল নাই। একারণেও কিছু বেশি ভর্তি করাতে হয়েছে। তবে অর্থের বিনিময়ে ভর্তি করানোর অভিযোগটি সঠিক নয়।

এ বিষয়ে বদলগাছী মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, সরকারি নীতিমালার বাহিরে যাওয়া সম্ভব নয়। যেহেতু প্রতিষ্ঠানটি সরকারি হয়েছে তাই সরকারি বিধি-নিষেধ মেনে চলতে হবে। আমি আগামীকাল প্রতিষ্ঠানে গিয়ে এবিষয়ে খোঁজখবর নেবো।

বদলগাছী সরকারি মডেল পাইলট হাইস্কুলের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলপনা ইয়াসমিন বলেন, ১২০ আসনের বিপরীতে অতিরিক্ত ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করানোর নির্দেশনা নাই। তবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি সন্তানরা যদি দু-এক জন আসেন তাদের ভর্তি করানো যাবে। অতিরিক্ত ভর্তি করানো সম্ভব না।


আরও খবর



ত্রিশালে ৬ যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ময়মনসিংহের ত্রিশালের মোখলেসুর রহমান মুকুলসহ পলাতক ছয় আসামিকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামসহ তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এ রায় ঘোষণা করেন।

আটক, অপহরণ, নির্যাতন, হত্যাসহ ছয়টি অভিযোগে আসামিদের বিরুদ্ধে রায় দেয়া হয়। রায়ে পলাতকদের দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল।তিনজনকে হত্যার অভিযোগে তাদের মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়। বাকি তিন অভিযোগে ৭ বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। বিচার শুরুতে এ মামলায় মোট নয় আসামি ছিলো। কারাগারে তিন আসামি মারা যায়। ২০১৭ সালের ২৬ জানুয়ারি এ মামলার তদন্ত শুরু হয়। ওই বছরের ৩১ ডিসেম্বর তদন্ত সংস্থা অনুসন্ধান কাজ শেষে প্রতিবেদন জমা দেয়।পরের বছর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।  


আরও খবর



৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:Monday ১৬ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

একযোগে ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শত সেতু- শত সড়ক উদ্বোধনের পর এবার অর্ধশত মসজিদের উদ্বোধন হলো।এ সময় প্রধানমন্ত্রী সবাইকে ইসলামের সঠিক আদর্শে জীবন যাপনের আহবান জানান।

গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি, যুক্ত হয়ে রংপুর সিলেট ও খুলনায় এসব মসজিদের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।নান্দনিক স্থাপত্যে ও ইসলাম চর্চার সুযোগ সুবিধা নিয়ে তৈরি হওয়া মসজিদগুলো একেকটি সংস্কৃতিকেন্দ্র হিসাবেও কাজে লাগবে। যেখানে হজযাত্রীরা প্রশিক্ষণ ও নিবন্ধনসহ প্রস্তুতিমূলক কাজগুলো করতে পারবেন। থাকছে ইমাম প্রশিক্ষণ, নারী- পুরুষের নামাজের ব্যবস্থা, লাইব্রেরি , অটিজম কর্ণার, শিশু ও গণশিক্ষা কেন্দ্রসহ- পূর্ণাঙ্গ ইসলাম চর্চার সবকিছু। 


আরও খবর

সুখবর নেই বাজারে

Saturday ০৪ February ২০২৩