Logo
শিরোনাম

তফসিলকে স্বাগত জানিয়ে সেচ্ছাসেবক লীগের আনন্দ মিছিল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

নেত্রকোনা জেলা প্রতিনিধি: 

আসন্ন দ্বাদশ নির্বাচনের তফসিলকে স্বাগত জানিয়ে নেত্রকোনা জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের আনন্দ মিছিল।

বৃহস্পতিবার(১৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সভাপতি এড. আরিফুজ্জামান রনি ও সাধারণ সম্পাদক আরেফিন কায়সার শুভ’র নেতৃত্বে দলীয় কার্যালয় থেকে আনন্দ মিছিল শুরু করে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

উক্ত আনন্দ মিছিল শেষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা কর্মীরা জানান, “আসন্ন দ্বাদশ নির্বাচনকে সামনে রেখে আমরা দলের স্বার্থে নিরলস কাজ করে যাব, নির্বাচনের আগে বা নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সন্ত্রাসী গুষ্টি বিএনপি-জামাত যাতে কোনরূপ  বিশৃঙ্খলা অথবা নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকেও লক্ষ্য রাখছি। তাছাড়া এই সরকারের উন্নয়নে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে আমরা মাঠ পর্যায়ে কাজ করে যাচ্ছি। 

পরবর্তীতে আনন্দ মিছিল জেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের কাছাকাছি গেলে আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ সহ অন্যান অঙ্গ সংগঠন গুলোর নেতাকর্মীরা উক্ত আনন্দ মিছিলে যুক্ত হয়।


আরও খবর



ঢাকার ৫ এমপির কপালে চিন্তার ভাঁজ !

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ২৮ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

রাজধানী ঢাকার ২০টি সংসদীয় আসনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য রয়েছেন ১৭ জন। জাতীয় পার্টির ২ জন এবং ওয়ার্কাস পার্টির একজন। আওয়ামী লীগের ১৭ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে ৫টি আসনে প্রার্থী পরিবর্তন হতে পারে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের উচ্চ পর্যায়ের একাধিক নেতা। অন্য সব আসনে প্রার্থী অপরিবর্তিত থাকবে। ইতিমধ্যেই আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ১২ জন সংসদ সদস্যকে সবুজ সংকেতও দিয়েছেন।  


মনোনয়ন বোর্ডে থাকা একজন দায়িত্বশীল নেতা ভোরের পাতাকে বলেন,  ঢাকার যেসব আসনে যোগ্যতম প্রার্থীদেরই বাছাই করা হবে। শরিক দলের তিনটি আসনের মধ্যে একটিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী দিতে পারে, সেক্ষেত্রে অন্য একটি আসন বা ঢাকার বাইরের কোনো আসন ছেড়ে দেয়া হতে পারে। 


নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি ইতিমধ্যেই ঢাকা -১ সালমান এফ রহমান, ঢাকা-২ মো. কামরুল ইসলাম, ঢাকা -৩ নসরুল হামিদ বিপু, ঢাকা-৯ সাবের হোসেন চৌধুরী, ঢাকা-১০ শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ঢাকা-১১ একেএম রহমতুল্লাহ, ঢাকা -১২ আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা-১৫ কামাল আহমেদ মজুমদার, ঢাকা-১৬ মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লা, ঢাকা-১৭ মোহাম্মদ আলী আরাফাত, ঢাকা -১৮  মো. হাবিব হাসান এবং ঢাকা-২০ আসনে বেনজীর আহমেদকে সবুক সংকেত দিয়েছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এসব আসনে প্রার্থী পরিবর্তনের তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। 


অন্যদিকে, ঢাকা ৫ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য কাজী মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দুর্নীর্তির অভিযোগ থাকায় সেখানে অন্য প্রার্থীদের মধ্য থেকে যোগ্যতম কাউকে বেছে নেয়া হতে পারে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।  


ঢাকা ৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী মো. সেলিম আদালত কর্তৃক সাজাপ্রাপ্ত হওয়া এবং শারিরীক অসুস্থতাজনিত কারণে তাকে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের টিকেট দেয়া হচ্ছে না, এটা নিশ্চত করেছে দলের হাইকমান্ড। তার পরিবার থেকেও কাউকে মনোনয়ন দেয়ার সম্ভাবনা কম। এক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের দুইজন কেন্দ্রীয় নেতার মধ্য থেকে একজনকে বেছে নেয়া হতে পারে এ  আসনে নৌকার মাঝি হিসাবে। যদিও কাউকে সরাসরি দলের সভানেত্রী কিছুই জানাননি। 


ঢাকা ১৩ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য মো. সাদেক খানের বিরুদ্ধে নানা সময় সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডে লিপ্ত থাকা এবং মোহাম্মদপুর এলাকায় তার লোকজনকে দিয়ে দখল, চাঁদাবাজির অভিযোগ থাকায় তাকেও এখন পর্যন্ত কোনো সংকেতই দেয়া হয়নি। ফলে তার মনোনয়ন অনিশ্চিত বলেই মনে করেন আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা। সেখানে অন্য কাকে মনোনয়ন দেয়া হতে পারে, সে বিষয়েও কোনো ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি। 


ঢাকা-১৪ আসনে উপনির্বাচনে জয়ী সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে  তেমন কোন অভিযোগ না থাকলেও বয়সের কারণে তিনি বাদ পরতে পারেন। সেখানে দলের সহযোগী সংগঠনের দুই শীর্ষ নেতা অথবা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের এক শীর্ষ নেতার কথা ভাবা হচ্ছে। 

ঢাকা-১৯ আসনের সংসদ সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমানকে নিয়ে চূড়ান্তভাবে কোনো সিদ্ধান্ত না আসলেও নিজ এলাকায় আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভেদ মিটাতে না পারা এবং সাবেক একজন সংসদ সদস্যকে আবারো ফিরিয়ে আনার বিবেচনায় তিনি দোদুল্যমান অবস্থায় রয়েছেন বলে জানা গেছে।


আরও খবর



মাভাবিপ্রবিতে নবগঠিত ছাত্রলীগের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

মো: হৃদয় হোসাইন, মাভাবিপ্রবি প্রতিনিধি: 

টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের  মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

২০ নভেম্বর,  (সোমবার) বিকাল ৩.৩০ মিনিটে  বিশ্ববিদ্যালয়ের  তৃতীয় একাডেমিক ভবনের টপ ফ্লোরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের  মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন ছাত্রলীগ সভাপতি মানিক শীল এবং সঞ্চালনা করেন ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির। এছাড়াও এতে  উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীবৃন্দ।  

উক্ত অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগ সভাপতি মানিক শীল বলেন, শেখ হাসিনা সরকারের দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন কর্মকান্ডের চিত্র তুলে ধরে, মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করে ভোট উৎসবের মাধ্যেম সকল ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে পঞ্চমবারের মত বঙ্গবন্ধু তনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা কে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করতে আজকের আমাদের এই মতবিনিময় সভা। আজকের স্মার্ট ছাত্রসমাজ স্মার্ট রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য দেশের উন্নয়নের জন্য দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপার জন্য লড়ে যাবে৷

সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির বলেন, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারাদেশে মাভাবিপ্রবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নৌকাকে জয়ী করতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবে । আমরা প্রান্তিক পর্যায় পর্যন্ত ভোটারদের নিয়ে কাজ করা সহ বিভিন্ন প্রচারণামূলক কাজের মধ্য দিয়ে এদেশের গণতন্ত্রের চলমান ধারাকে অব্যাহত রাখতে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপার বিজয় সুনিশ্চিত করব।

প্রসঙ্গ, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ মাওলানা  ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ  এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করে


আরও খবর



নওগাঁয় দাম বেশি নেওয়ায় ৪ মাংস ব্যবসায়ীর জরিমানা

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ২৯ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, সিনিয়র রিপোর্টার :

নওগাঁর পৌর শহরের মাংসের বাজারে বেশি দামে গরুর মাংস বিক্রির অপরাধে ৪ ব্যবসায়ীকে এক হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে অভিযানে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফরের সহকারী পরিচালক রুবেল আহমেদ এ জরিমানা করেন। এছাড়াও মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় এক সবজি ব্যবসায়ীকে আরও ৫শ টাকা জরিমানা করা হয়।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফরের সহকারী পরিচালক বলেন, সারাদেশে ৫৫০ থেকে ৬০০ টাকা কেজিতে গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু এখানে ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা কেজিতে বিক্রি করতে দেখা যায়। তাই ভোক্তা সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী বিসমিল্লাহ গোস্ত ঘরকে ১ হাজার টাকা, মিজানুর গোস্ত ঘরকে ১ হাজার টাকা, নিউজ মিট স্টোরকে ১ হাজার টাকা ও ভাই ভাই মিট স্টোরকে ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। এছাড়াও মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় কাঁচা বাজারের মতিউর সবজি ঘরকে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এ অভিযানে জেলা কৃষি বিপণন কর্মকর্তা ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



কিশোরগঞ্জে নিহত ২, পুলিশসহ আহত ২০

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩১ অক্টোবর ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৭ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা টানা ৩ দিনের অবরোধ শুরুর প্রথম দিন কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে পুলিশের গুলিতে ১ জন নিহত হয়েছেন। তবে বিএনপির পক্ষ থেকে ২ জন নিহত হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ পুলিশসহ ২০ জন আহত হয়েছেন।

কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি শরীফুল আলম দাবি করেন, পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বিএনপির দুইজন নিহত হয়েছেন। তারা হলেন- বড় ছয়সূতি ইউনিয়নের ছাত্রদল নেতা শেফায়েত উল্লাহ (২০) ও একই ইউনিয়নের কৃষকদল সভাপতি বিল্লাল মিয়া (৩০)।

বিএনপির নেতা-কর্মীদের বলেন, অবরোধের প্রথম দিনে মঙ্গলবার সকাল আটটার দিকে ছয়সূতি ইউনিয়ন বিএনপির পক্ষ থেকে মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি নিয়ে উপজেলার ছয়সূতি বাসস্ট্যান্ড এলাকায় যাওয়ামাত্র আগে থেকে অবস্থান নেওয়া পুলিশ সদস্যরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন। এতে ২০ থেকে ২৫ জন আহত হন।

পুলিশের দাবি, মিছিলকারীরা লাঠিসোঁটা নিয়ে আগে পুলিশের ওপর হামলা করেন। আত্মরক্ষার জন্য পুলিশ পাশের একটি বাড়িতে অবস্থান নেয়। সেখানে গিয়েও বিএনপির কর্মীরা হামলা করেন। তখন উভয় পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তিদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মিছিলকারীরা কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করেন।

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. গোলাম মোস্তফা বলেন, মিছিলকারীরা প্রথমে পুলিশের ওপর হামলা চালান। হামলায় অন্তত ২০ জন আহত হন। তাদের অনেকে হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। আমার জানামতে এ ঘটনায় একজন মারা গেছেন। তবে সেটি গুলিতে, নাকি অন্য কোনো কারণে মারা গেছেন, তা নিশ্চিত নয়।


আরও খবর



নওগাঁয় বাজি ধরে দু' কেজি গুড় খেয়ে এক জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ নভেম্বর 2০২3 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ৩০ নভেম্বর ২০২৩ |

Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, সিনিয়র রিপোর্টার :

নওগাঁয় বাজি ধরে ২ কেজি গুড় ও কলা খেয়ে বায়োজিদ (৪৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। বুধবার জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে তার মৃত্যু হয়। এর আগে মঙ্গলবার দিবাগত রাতে গুড় ও কলা খেয়ে অসুস্থ হয় সে। 

নিহত বায়োজিদ নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার পাড়আধাইপুর গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে। 

স্থানীয় সূত্রে জানায়, মঙ্গলবার ৩১ অক্টোবর দিবাগত রাত সাড়ে ৮টার দিকে বদলগাছী উপজেলার ভাণ্ডারপুর বাজারে পাড়আধাইপুর গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলের সাথে ইসমাইলপুর গ্রামের লবার ছেলে বিতু কসাই সাথে গুড় ও কলা খাওয়া নিয়ে বাজি ধরে। বাজি অনুযায়ী বিতু কসাই স্থানীয় এক দোকানির কাছ থেকে ২কেজি দানাগুড় কিনে এনে বায়জিদকে খেতে দেয়। বাজিতে দুই কেজি গুড় বায়জিদ খেতে পারলে তাকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য আরও দুই কেজি গুড় কিনে দিবে বিতু কসাই। আধা ঘণ্টার মধ্যে দুই কেজি গুড় খেয়ে ফেলে এবং গুড়ের সাথে ২০টির অধিক কাচা মরিচ ও খান। বাজি ধরার পূর্বে বেশ কয়েকটি কলাও খেয়ে ছিলেন তিনি। পরে বাজিতে জয়ের পর আরও দুই কেজি গুড় দেওয়ার কথা থাকলেও বিতু কসাই তা না দিয়ে কৌশলে পালিয়ে যান। এসময় গুড় খাওয়ার বাজি দেখতে উৎসুক জনতা ভিড় জমাই সেখানে। বাজি ধরে গুড় খাওয়ার পর একাধিক ব্যক্তি তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্ক জানতে চায় এবং তাকে স্থানীয় চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার কথা বলেন। কিন্তু তার শরীরের অবস্থা ভালো বলে সে বাড়িতে চলে যায়। বাজি শেষে স্বাভাবিক অবস্থায় বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পর অসুস্থতা অনুভব করলে পরিবারের লোকজন তাকে আক্কেলপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার তার মৃত্যু হয়।

স্থানীয়রা আরো জানান, বায়জিদ ইতিপূর্বেও বিভিন্ন জনের সাথে খাবার খাওয়া নিয়ে নানা সময়ে বাজি ধরে বাজিতে জিতেছে। এছাড়া আরো আগে থেকে তার বাজির অভ্যাস আছে। সে একটা সময় যুবক বয়সে গুড়, রসগোল্লা, জিলাপি, কলার ছড়ি, পাকান, পাতিল ভর্তি খিঁড়সহ নানা ধরনের খাদ্যসামগ্রী বাজি ধরে প্রচুর পরিমান খেয়ে নিতো। বয়স বেড়ে যাওয়ার কারণে এখন আর খুব বেশি পরিমান খেতে পারেন না।

এব্যাপারে নওগাঁর বদলগাছী থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাঃ আতিয়ার রহমান বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি। তবে এঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। যদি কোন অভিযোগ পাওয়া যায় তাহলে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর