Logo
শিরোনাম

বেশি স্বাস্থ্যকর কোনটি ভাত না রুটি ?

প্রকাশিত:Monday ০৫ December ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

রুটি না হয় ভাত, আমাদের খাবার মেন্যুতে একটি থাকেই। এর উপস্থিতি ছাড়া আমাদের খাবারগ্রহণ যেন অম্পূর্ণ থেকে যায়। অবশ্য বাঙালির খাদ্য তালিকায় ভাত-ই বেশি প্রচলিত। কিন্তু ভাত বা রুটি- এসব খাবার আমাদের কতটা উপকারী এবং কী পরিমাণ খাওয়া উচিৎ? আর ভাত ও রুটির মধ্যে কোনটি স্বাস্থ্যকর ? 

পুষ্টিবিদ তামান্না চৌধুরীর মতে, একজন সুস্থ মানুষ দৈনিক তার খাবার তালিকায় ভাত বা রুটি রাখতে পারেন। তবে ভাত হলে ব্রাউন চাউলের হওয়া উচিত। আর রুটি হলে চালের গুড়া বা ভুট্টার আটার রুটি হতে হবে। কোনোভাবেই গম থেকে তৈরি আটা-ময়দার রুটি খাওয়া যাবে না। শুধু তাই নয়, গমের আটা বা ময়দার তৈরি কোনো খাবারই খাওয়া যাবে না। কারণ, বর্তমানে সারাবিশ্বে যে গম পাওয়া যায়, তা জেনেটিক্যালি মডিফায়েড। অর্গানিক গম কোথাও পাওয়া যায় না। ফলে এসব গমের তৈরি খাবারগ্রহণ করলে ক্যান্সার, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, ব্লাড প্রেসার, লিভার ড্যামেজ, কিডনি ড্যামেজসহ বিভিন্ন ধরনের জটিল রোগ হতে পারে। একইভাবে সাদা চালের তৈরি খাবারেও নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা তৈরি করতে পারে।

কী পরিমাণ খাওয়া যাবে?

তামান্না চৌধুরী, ব্রাউন্ড চালের ভাত বা চালের রুটি পর্যাপ্ত সাক-সবজি, মাছ ও গোস্তের সঙ্গে একজন মানুষ তার প্রয়োজন অনুযায়ী খেতে পারেন। তবে অতিরিক্ত খাওয়া ঠিক নয়। এতে মেদ বৃদ্ধিসহ শারীরিক সমস্যা তৈরি হতে পারে। আর মাছ-গোস্তের ক্ষেত্রে অবশ্যই চাষের মাছ নয় ও ফার্মের গোস্ত নয়।

তবে শরীরের ওজন হ্রাসে ও সুস্থ থাকতে কিংবা বিভিন্ন ধরনের রোগ মুক্তির জন্য কার্বোহাইড্রেট ত্যাগ করা ভালো। কিন্তু যাদের ভাত ও রুটি ছাড়া একেবারে চলে না, তারা অন্তত উপরের নির্দেশনা ফলো করলে বেশ সুফল পাবেন।

কয় বেলা খাবেন? সকালে নাস্তা, ১১টায় ফের নাস্তা, দুপুরের খাবার, বিকেলের নাস্তা ও রাতের খাবার- দৈনিক এভাবে পাঁচবার খাদ্যগ্রহণের উপদেশ কোনো কোনো ক্ষেত্রে চিকিৎসকদের দিতে দেখা যায়। বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীকে এমন পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। আর প্রতিবার খাবারেই কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার থাকে। এতে কোনো কোনো ক্ষেত্রে রোগী সুস্থ হওয়ার পরিবর্তে দিনে দিনে আরো অসুস্থ হতে থাকেন।


আরও খবর



বিশ্বের অনেক দেশ ও অঞ্চলে এবার মন্দা আসবে

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

মার্কিন-চীন বাণিজ্যযুদ্ধ ও করোনা মহামারি বিশ্বের অনেক কিছুই বদলে দিয়েছে । এরপর চলতি বছর বিশ্বের অনেক দেশ ও অঞ্চলের আর্থনীতি মন্দায় পড়বে। তবে পরিস্থিতি বাংলাদেশ ও ভারতের বাণিজ্য ও অর্থনীতির জন্য অনুকুলে থাকবে।

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষে প্রকাশিত এক জরিপের প্রতিবেদনে বাংলাদেশের এই সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে। মূলত অর্থনীতিবিদদের ওপর এই জরিপ করা হয়। অর্থনীতিবিদরা বলেন, পশ্চিমা দেশগুলো এখন পণ্যের জন্য আর এককভাবে চীননির্ভর থাকতে চাইছে না। আমদানির উৎস বাড়ানোর জোর চেষ্টা করছে তারা। এতে সবচে বেশি লাভবান হতে পারে বাংলাদেশ ও ভারতের মতো দেশ । 


আরও খবর



শ্রীনগরে চাঁদাবাজি মামলায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:Sunday ০৮ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Thursday ০২ February 2০২3 |
Image

শ্রীনগর সংবাদদাতা :


মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরে চাঁদাবাজি মামলায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রবিবার বেলা ১১ টার দিকে কামারগাও এলাকা থেকে ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য নুরুল আমিন মোড়ল সহ ১৩ জনকে বিবাদী করে কামারগাও এলাকার মৃত ইদ্রিস মুন্সীর ছেলে মোঃ হাবিবুর রহমান মুন্সীগঞ্জ আদালতে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেন। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, ওই এলাকায় হাবিবুর রহমানের একটি ভবন নির্মাণকে কেন্দ্র করে চাঁদাদাবীর অভিযোগ এনে তিনি আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ পরিদর্শক মোঃ এজাজুল হক তদন্ত প্রতিবেদন প্রদান করেন। পরে আদালত নুরুল আমিন মোড়ল সহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করে। পরোয়ানা পেয়ে শ্রীনগর থানা পুলিশ ইউপি সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করে। 

শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, আদালতের গ্রেপ্তারী পরোয়ানা থাকায় ভাগ্যকুল ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য নুরুল আমিন মোড়লকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরও খবর



গজারিয়ার হোসেন্দী এলাকায়

মেঘনা নদীতে গোসল করার সময় নিখোঁজ ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত:Friday ০৩ February ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক :

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে গোসল করতে নেমে মো. শিহাব (১০) নামে   নিখোঁজ মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর (১০) লাশ উদ্ধার করেছে ডুবুরী দল। 

জানা যায়, আজ শুক্রবার সকাল আনুমানিক ১০ টার দিকে জেলার গজারিয়া উপজেলার ভবানীপুর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নিখোঁজ শিহাব উপজেলার জামালদী গ্রামের মোতালেব মিয়ার ছেলে। সে ভবানীপুর জামিয়া ইসলামিয়া আরাবিয়া কবরস্থান মাদরাসার ছাত্র। 

এদিকে, নিখোঁজ ছাত্রের সন্ধানে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে গজারিয়া ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদল। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের টিম লিডার দুলাল ব্যানার্জী জানান, খবর পেয়েই তারা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। নিখোঁজের সন্ধানে সকাল থেকে  আপ্রাণ চেষ্টা চলছে।

নিখোঁজ শিহাবের মা সালেহা বেগম জানান, 

সকালে মাদরাসা থেকে বের হয়ে সহপাঠী আব্দুল্লাহ আল তামিমের (১০) সঙ্গে পার্শ্ববর্তী বলাকীচর গ্রামের বালুর মাঠে ফুটবল খেলতে যায়। সেখানে খেলাধুলা শেষ করে ভবানীপুর গ্রামের সিটি গ্রুপের লবন ফ্যাক্টরীর পানি নিস্কাষনের ড্রেনের পাশেই মেঘনা নদীতে সহপাঠীকে নিয়ে তার ছেলে গোসল করতে নামে। 

গজারিয়া থানার পরিদর্শক তদন্ত মুক্তার হোসেন বলেন, এক শিক্ষার্থী নিখোঁজের খবর শোনার সঙ্গে সঙ্গেই পুলিশ সেখানে পৌঁছে যায়। ফায়ার সার্ভিসও উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করে, নিখোঁজ ছাত্রের সন্ধানে উদ্ধার তৎপরতায় বিকাল তিনটার দিকে লাশ উদ্ধার করে ডুবুরী দল।


আরও খবর



জমে উঠেছে লোককারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব

প্রকাশিত:Monday ২৩ January 20২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল :

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে চলছে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনে চলছে মাসব্যাপী লোককারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব। দেশের ঐহিত্যবাহী লোককারু শিল্পের নিদর্শন সংগ্রহ সংরক্ষন, প্রদর্শন ও পুনরুজ্জীবিত করে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার জন্যই প্রতি বছর এ মেলার আয়োজন। দর্শনার্থীদের কাছে সব আয়োজন ঠিকঠাক থাকলেও অভিযোগ উঠেছে মূল ভিষণ থেকে সরে যাচ্ছে ফাউন্ডেশন, চারুকারু শিল্পীদের দেয়া হয়নি পর্যাপ্ত স্টল, কনস্ট্রাকশন কাজ বিনষ্ট হচ্ছে প্রাকৃতিক রূপ।

বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ভেতরে শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন কারুশিল্প যাদুঘর এবং লোক ও কারুশিল্প যাদুঘর।  গ্রাম বাংলার ইতিহাস ও ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক এ দুটি যাদুঘরে স্থান পেয়েছে প্রাচীন লোক ও কারুশিল্প।  মাসব্যাপী এ উৎসবেকে কেন্দ্র করে পুরো ফাউন্ডেশন চত্বরকে সাজানো হয়েছে বর্নিল সাজে।  প্রতিদিনই বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রদর্শন করছে লোক জীবন প্রদর্শনী,গ্রাম্য নালিশ,কনে দেখা, বিয়ে,জামাইকেও পিঠা আপ্যায়নের দৃশ্য, গ্রামীন খেলা হা-ডু-ডু ও কানামাছি। 

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা কারুশিল্পীদের প্রদর্শনী,  পুতুল নাচ, বায়স্কোপ, নাগর দোলা, মুন্সিগঞ্জ ও মৌলভী বাজারের শীতল পাটি, মাগুরা ও ঝিনাইদহের শোলা শিল্প, রাজশাহীর শখের হাড়ি ও মুখোশ, চট্টগ্রামের তালপাতার হাতপাখা, রংপুরের শতরঞ্জি, সোনারগাঁওয়ের জামদানী নিয়ে অংশ গ্রহন করেছেন চারু কারু শিল্পিরা। 

এদিকে দর্শনার্থীদের বিনোদনকে আরো প্রানবন্ত করতে ফাউন্ডেশনের ভেতরের লেকে নৌকায় চড়ে ঘুরে বেড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিদিন সন্ধ্যায় লোকজ এই উৎসবে থাকছে পালাগান, বাউল ও জারিসারি গানের।করোনা ভাইরাসের কারনে গত কয়েক বছর মেলা বন্ধ থাকায় এবার অন্তত একলাখ দর্শনার্থী লোকজ এ উৎসবে অংশ নেবেন বলে আশাবাদী আয়োজকরা।

মেলায় দর্শনার্থীরা গ্রামীন এসব ঐতিহ্যে দেখে ও ছেলে মেয়েদের পরিচয় করিয়ে দিতে পেরে অনেকটাই আবেগ আপ্লুত। 

এদিকে বিভিন্ন জেলা থেকে আগত শিল্পিরা জানালেন প্রতিবছরই এ মেলায় অংশ গ্রহণ করেন তারা। তবে প্লাস্টিক ও বিদেশী পণ্যের দাপটে আজ বিপন্ন হওয়ার পথে এসব গ্রামীন ঐতিহ্য। বংশ পরম্পরায় অংশ গ্রহন কারী এসব শিল্পীরা বললেন সরকারী ভাবে পিষ্ট পোষকতা ছাড়া এ শিল্প ধরে রাখা যাবেনা। তারা বললেন যাদের জন্য এ মেলার আয়োজন তাদেরকেই অবমূল্যায়ন করা হয়েছে এবার। কয়েকটি স্টলেই দুজন করে শিল্পকে দেয়া হয়েছে। 

মেলা পরিদর্শনে আসা কবি শাহেদ কায়েস বলেন, ফাউন্ডেশনের মূল  উদ্দেশ্য থেকে সরে যাচ্ছে। চারু কারুশিল্পীদের প্রমোট করা,আর্থিকভাবে স্বচ্ছল করা ও গবেষণা কেন্দ্র গড়ে তোলার লক্ষেই জয়নুল আবেদিন প্রতিষ্ঠা করেছিল এ ফাউন্ডেশন। প্রতিবছর মেলার আয়োজন ছাড়া তেমন কোন কার্যক্রমই চোখে পড়েনা। আবার যাদের জন্য এ মেলার আয়োজন তাদেরকেও অবহেলা করা হচ্ছে। ১শটি স্টলের মধ্যে ৩২ স্টল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে শিল্পীদের। কোন কোন স্টলে দুজন শিল্পীকে বরাদ্ধ দেয়া হচ্ছে। এখানেতো অন্তত ৬৪ জেলার জন্য ৬৪টি স্টল বরাদ্ধ দিয়ে দেশের সব প্রান্ত থেকে অন্তত একজন করে শিল্পীকে জড়োকরা সম্ভব। তা না করে বেশীরভাগ স্টল দেয়া হচ্ছে বিভিন্ন ব্যাবসায়ীদের। যারা এখানে প্লাস্টিক ও চায়না প্রডাক্ট বিক্রি করে লাভবান হচ্ছে।  কোটি টাকার বাজেটে বিভিন্ন ভবন তৈরী হচ্ছে। যা এখানকার প্রাকৃতিক পরিবেশ বিনিষ্ট করা হচ্ছে।

এসব ব্যাপারে ফাউন্ডেশনের পরিচালক এস এম রেজাউল করিম বলেন,তিনি মাত্র একমাস হয়েছে দায়িত্বে বসেছেন। অভিযোগ গুলো তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেবেন। এ বছর কর্মরত কারুশিল্পীদের প্রদর্শনীর জন্য ৩২টি স্টল সহ ১০০টি স্টল বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে। মেলা চলবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত।


আরও খবর



বাসায় আটকে রেখে যুবতীকে ধর্ষণ, অভিযুক্তকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:Tuesday ১৭ January ২০২৩ | হালনাগাদ:Saturday ০৪ February ২০২৩ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টার :

যুবতীকে ভাড়া বাসায় আটকে রেখে জোর পূর্বক অনৈতিক কাজে বাধ্য করা (ধর্ষণের) ঘটনায় র‌্যাবের অভিযানে (ভিকটিম) যুবতীকে উদ্ধার সহ অভিযুক্ত যুবক আটক। 

সত্যতা নিশ্চিত করে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩,জয়পুরহাট কাম্প থেকে জানানো হয়, ভিকটিম যুবতী (১৯) কে হিরো (৩৪) নামের এক অভিযুক্ত যুবক একটি ভাড়া বাড়িতে আটকে রেখে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক অনৈতিক কাজ (ধর্ষণ) করছেন বলে ভুক্তভোগী যুবতীর পরিবার থেকে র‌্যাব কাম্পে অভিযোগ করা হলে অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩, জয়পুরহাট ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল কোম্পানী অধিনায়ক মেজর মোঃ মোস্তফা জামান এর নেতৃত্বে সোমবার দিনগত রাত সারে ৮ টারদিকে জয়পুরহাট জেলা সদর উপজেলার বিশ্বাসপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ভিকটিম (যুবতী) কে উদ্ধার পূর্বক অভিযুক্ত ধর্ষক হিরো নামে এক যুবক কে আটক করা হয়। আটককৃত যুবক হিরো জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার পাঁচবিবি গ্রামের ফজল করিম বাবুয়া'র ছেলে।

র‌্যাব আরো জানান, ভিকটিমের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রথমে অবস্থান সনাক্ত করণের মাধ্যমে সোমবার দিনগত রাতে আভিযান পরিচালনা করে ভিকটিমকে উদ্ধার পূর্বক অভিযুক্ত যুবক হিরোকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় র‌্যাব।

এঘটনায় জয়পুরহাট সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন র‌্যাব।


আরও খবর