Logo
শিরোনাম

কাশ্মিরে সেনাশিবিরে হামলা, তিন সেনাসহ মৃত ৫

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু ও কাশ্মীরে সেনাশিবিরে সন্ত্রাসবাদী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে তিন সেনাসহ নিহত হয়েছে পাঁচজন। মৃতদের মধ্যে দুই জঙ্গিও আছে বলে জানা গেছে।

ডয়েচে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিনকয়েক আগে জম্মু ও কাশ্মিরে বড়সড় হামলা সন্ত্রাসবাদীদের। বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) স্থানীয় সময় ভোররাতে রাজৌরির সেনাশিবির আক্রমণ করে সন্ত্রাসীরা।

জানা যায়, দুইজন সন্ত্রাসী সেনা শিবিরে ঢুকে যায় এবং নির্বিচারে গুলি চালাতে থাকে। সেনা সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়।

পুলিশের এডিজিপি মুকেশ সিং বলেছেন, সন্ত্রাসীরা সেনাশিবিরের তার পেরিয়ে ঢোকার চেষ্টা করেছিল। নিরাপত্তা রক্ষীরা তাদের দেখতে পায়। গুলি বিনিময় হয়।

জম্মুর রাজৌরি ও অন্য অঞ্চল আগে শান্ত ছিল। সন্ত্রাসী হামলা বেশি হয়নি। কিন্তু গত ছয় মাসে এই অঞ্চলে একের পর এক সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। 

পুলিশ জানিয়েছে, লস্কর-ই-তইবার সঙ্গে যুক্ত সন্ত্রাসীরা এই আক্রমণ চালিয়েছে। সম্প্রতি জম্মুতে পুলিশ লস্করের একটি ঘাঁটি ধ্বংস করেছে এবং তালিব হুসেন নামে এক সাবেক বিজেপি নেতাকে ধরেছে। বিজেপি-র সঙ্গে তার এখন কোনো সম্পর্ক নেই।

পুলিশের দাবি, এই অঞ্চলে একের পর এক সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের সঙ্গে এই সন্ত্রাসবাদী যুক্ত। তার কাছ থেকে প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।



আরও খবর

তেলের দাম কমে ৯ মাসে সর্বনিম্ন

মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

মিয়ানমারে জান্তার গোলায় নিহত ২ শিশু

মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২




রেমিট্যান্স সংগ্রহ করবে ১০৮ টাকা দরে

প্রকাশিত:সোমবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো এখন থেকে প্রতি ডলার সর্বোচ্চ ১০৮ টাকা হিসেবে প্রবাসী আয় সংগ্রহ করবে। রফতানি বিল নগদায়ন হবে প্রতি ডলার ৯৯ টাকায়। অর্থাৎ রেমিট্যান্স আহরণ ও রফতানি বিল নগদায়নে ব্যাংকগুলোর গড় খরচ হবে ১০৩ টাকা ৫০ পয়সা। এর সঙ্গে এক টাকা যোগ করে আমদানিকারকের কাছে ডলার বিক্রি করবে ব্যাংকগুলো। এর ফলে এলসি সেটেলমেন্টের জন্য ডলার বিক্রি হবে ১০৪ টাকা ৫০ পয়সায়। 

সোনালী ব্যাংকের বোর্ড রুমে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) এবং বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত হয়। সোমবার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাফেদার চেয়ারম্যান এবং সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আফজাল করিম, এবিবির চেয়ারম্যান সেলিম আর এফ হোসেনসহ বিভিন্ন ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদারের সভাপতিত্বে এক বৈঠকে এ দুটি সংগঠনের হাতে ক্ষমতা দেওয়া হয়।

বর্তমানে ব্যাংকগুলো রফতানি আয় এনক্যাশমেন্ট করছে ৯৯ টাকা থেকে শুরু করে ১০২ টাকায়। এছাড়া ব্যাংকগুলো রেমিট্যান্স সংগ্রহ করছে ১০৮ টাকা থেকে ১১০ টাকায়। এদিকে এক্সচেঞ্জ হাউজগুলো থেকে রেমিট্যান্সের ডলার কিনতে ব্যাংকগুলোকে সর্বোচ্চ ১১৪ টাকা রেট দিতে হয়েছে।


আরও খবর

স্বর্ণের দাম কমেছে

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




ফুলবাড়িতে, জন্মগত শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন

মজিদ পাগলার শেষ আশ্রয় বোনের সংসার

প্রকাশিত:রবিবার ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

উত্তম কুমার মোহন্ত,ফুলবাড়ী, কুড়িগ্রামঃ

বাস্তব এক ইতিহাস ভাই বড় ধন রক্তের বাঁধন, সেই রক্তের বন্ধন যায়কি কোনদিন খণ্ডন।অচল বৃদ্ধবড় ভাইয়ের প্রতি বিধবা দুইছোট বোনের যে মায়া মমতা ভালোবাসা দেখতে যদি চাও,তাহলে পশ্চিম অনন্তপুর বাকুয়ার ভিটা গ্রামে চলে যাও। জন্মগতভাবে শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন আব্দুল মজিদ পাগলার(৬৫)শেষ আশ্রয় স্থল তার ছোট দুই বিধবা বোনের ছোট্ট সংসার। সেই সংসারেও উপার্জনক্ষম নেই কেউ।বৃদ্ধ তিন ভাই বোন মিলে অতিকষ্টে দিনাতিপাত করছেন।

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার কাশিপুর ইউনিয়নের পশ্চিম অনন্তপুর মৌজার বাকুয়ার ভিটা গ্রামের মৃত: মোহাম্মদ আলীর ছেলে, আব্দুল মজিদ পাগলা (৬৫) এলাকার সকলের কাছে মজিদ পাগলা নামে পরিচিত।

সরেজমিনে গিয়ে জানাযায়, আব্দুল মজিদ পাগলা জন্মগত ভাবে শারীরিক অক্ষমতা সম্পন্ন ছিলেন।ছোট বেলা থেকেই ভালোভাবে হাঁটাচলা করতে পারতেন না। শারীরিক নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা ক্ষীণ থাকায় লক্ষ্যেস্থির করে একদিকে হাঁটতে চাইলে অন্যদিকে চলে যেত।লাঠিতে ভর করে কোনরকমে এলাকাতেই চলাফেরা করত। তখন এলাকার লোকজনের নিকট সাহায্য সহযোগিতা ও ভিক্ষাবৃত্তি করে কোন মতেই জীবিকা নির্বাহ করতেন।এখন বয়োঃবার্ধক্যের ভারে চলাফেরার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে শরীরে নানা রোগ বাসা বেঁধেছে সবমিলে দুর্বিষহবস্থায় বিছানায় শুইয়ে বসে কাটাতে হচ্ছে দিন রজনী। জীবনের অনেক চড়াই উৎরাই পেরিয়ে কষ্ট করে জীবন যাপন করতেন শেষ বয়সে এসেও ভালো নেই সহদর তিন ভাইবোন। পৈত্রিক ভিটায় মাত্র আট শতাংশ জমিতে তিন সহদরের মাথা গোঁজার ঠাঁই হলেও উপার্জনক্ষম কেউ নেই। ছোট দুই বোনের  ছেলে মেয়েদের বিয়ে হয়েছে মেয়েরা শ্বশুরালয়ে আর ছেলেরা পৃথক পৃথক ভাবে নিজেদের ঘর-সংসার নিয়ে ব্যস্ত,কেউ তাদের খোঁজ খবর রাখে না। বয়োবৃদ্ধ তিন ভাইবোন একসাথে অতিকষ্টে দিন যাপন করে বসবাস করছেন। 

০৯(সেপ্টেম্বর)শুক্রবার দুপুরে মজিদ পাগলার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, মাত্র চারটি টিন দিয়ে তৈরি ছোট একটি ছাপরা ঘর পুরোনো চাটাই দিয়ে তৈরি জীর্ণশীর্ণ বেড়ায় বেষ্টিত ঘরে প্রচণ্ড রোধের তাপে ছাপরার টিন গুলো আগুনের মতো গরম হয়ে ঘরের ভিতরে পর্যন্ত গরম ভাপ ছুটেছে সেই গরমে মজিদ পাগলা ছোট একটা কাঠের চৌকিতে বসে আছে এদিকে শরীর ঘেমে পানি পরছে নিচে।ঘরের ভিতরে আসবাবপত্র বলতে কাঠের চৌকিটি আর ঘরের এক খুটি থেকে আর এক খুঁটিতে রশি টাঙ্গানো তাতেদুই তিনটি ছিরাফাটা ময়লা পরিধানের কাপড় চোপড় আর কিছু নেই। এমতাবস্থায় ঘরের ভিতরে ঢুকতেই অপরিচিত লোক দেখে চমকে উঠলেন তিনি পরে স্থানীয় কয়েক জনকে সঙ্গে দেখতে পেয়ে খুশিতে মলিন ভাবে একটা হাসি দিয়ে ফেললেন।

কেমন আছেন জানতে চাইলে,দুচোখে জল ছলছল হয়ে এলো কিছুক্ষণ পর মজিদ পাগলা অশ্রুসিক্ত নয়নে বললেন কি আর ভালরে ভাই আগোত তাও লাঠিঢোকা দিয়া চলাফেরা করিয়া এলাকার সগার সাথে দেখা কইরব্যার পাইচোং কথাবার্তা কবার পাইচোং এলা আর শরীলোত বল পাংনা ভাই। এক বছর থাকি ঘরোত পরি আচোং ক্যাং করি ভাল থাকোং।ঘরোত সুতি থাইক প্যার আর ভাল লাগে না।সউগ সময় সুতি থাইকতে, থাইকতে অসুখ মনে হয় মোক আরো বেশি করি ঠাশি ধইর ব্যার নাইকচে। তোমাক গুলাক অনুরোধ করি কংরে ভাই যদি মোক কাইও একটা হুইলচেয়ার দান করিল হয় তাহলে মরার আগোত বাইরার আলো বাতাস দেখি শান্তি পানুহয়। একনা দেখরে ভাই কারোটে এখান হুইলচেয়ার নিয়া দিবার পান নাকি। হুইলচেয়ারোত বসি একনা বাইরে গেনুং হয়।

মজিদ পাগলার বিধবা দুই ছোট বোন জামিলা বেওয়া (৫৪) ও ছালেহা বেওয়া (৫২) বলেন, আমার তিন ভাইবোন মিলে পৈত্রিক ভিটে মাটি আট শতাংশ ছাড়া আর কিছুই নাই।এমনিতেই আমাদের দুই বোনের অভাব অনটনে দিন কাটাতে হয় তারপর বড়ভাই অচল অবস্থায় কোথায় ফেলে দেই সব কিছু ত্যাগ করা রায় রক্তের সম্পর্ক তো আর ত্যাগ করা যায় না একেই মায়ের ওদোরে তিন ভাই বোনে ছিলাম। আল্লাহ যতদিন বাঁচে রাখবে ততদিন একসাথে থাকব আমাদের বাবা বেঁচে নাই বাবার মতো বড়ভাই কে শত দুঃখ কষ্টের মাঝেও ফেলে দিবো না।আমাদের দুইবোনের ও বয়স হয়েছে তারপরও অসুস্থ পাগলা ভাইটাকে কষ্ট করে ঘর বাহির করি ঘরে থাকতে থাকতে ভাইটা বাহির হবার জন্য কেঁদে ওঠে ভাইয়ের এতকষ্ঠ আমরা সইতে পারি না কেউ যদি দয়া করে আমাদের অচল পাগলা ভাইটাকে একটা হুইলচেয়ার দান করতো তাহলে ঘর বাহির করতে কষ্ট একটু কম হতো। হুইলচেয়ার থাকলে পাগলা প্রতিবন্ধী ভাইটা সহ-আমাদের দুই বোনের এই বয়সে একটু হলেও কষ্টটা লাঘব হতো।

স্থানীয় একটি কিন্ডারগার্টেন পরিচালক মোঃ আব্দুল জব্বার (৩৭)পল্লি চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম (৪১) খলিলুর রহমান (৫৪) রফিকুল ইসলাম (৪০) সহ-আরো অনেকে জানালেন মজিদ পাগলা জন্মগত শারীরিক প্রতিবন্ধী হত্তয়ায় কর্মক্ষমতা অক্ষম ছিলেন ভিক্ষাবৃত্তি করে কোনমতে জীবিকা নির্বাহ করতেন। যৌবনের একটি সময়ে বিয়েও করেন তিনি।

শারীরিক অক্ষমতার কারণে‌ সেই সংসার জীবনও বেশিদিন টিকে থাকেনি বিয়ের কিছু দিন পর স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যান, তারপরে দ্বিতীয় বিয়ের কথা আর কোনদিন ভাবেননি তিনি। এখন বয়োঃবৃদ্ধির সাথে সাথে শরীরে বাসা বেঁধেছে নানান রোগ চলাফেরা করতে পারে না দিনরাত ঘরের ভিতরে সুইয়ে বসে থাকতে হয়।মজিদ পাগলার আপনজন বলতে বিধবা দুইটি ছোটবোন ছাড়া আর কেউ নেই।বোনদের সংসারের অবস্থা অসচ্ছল তারপরেও রক্তের টানে অচল পাগলা বড়ভাই কে নিজেদের কাছে রেখে দেখা শুনা করছেন। তাদের ও বয়স হয়েছে একসাথে তিন ভাইবোন মিলে দুঃখ কষ্ট সহ্য করে সাথে অতিকষ্টে দিনযাপন করছেন।স্থানীয় অনেক শুভা কাঙ্ক্ষীরাও একই কথা বলেন যে,সমাজের অনেক হৃদয়বান ও দানশীল ব্যক্তিবর্গ আছেন কেউ যদি এই অচল মজিদ পাগলাকে একটা হুইলচেয়ার দান করতো তাহলে বৃদ্ধ তিনভাই বোনের কষ্টটা একটু লাঘব হতো। 


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




মির্জাগঞ্জে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০১ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

মির্জাগঞ্জ(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ঃ

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪৪তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে মির্জাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।  বৃহস্পতিবার (০১ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় আশ্রাফ প্যালেস ভবনে আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মির্জাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আলহাজ্ব মোঃ আশ্রাফ আলী হাওলাদার। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও আহবায়ক কমিটির ১নং সদস্য মোঃ মোবারক আলী মুন্সি, যুগ্ম-আহ্বায়ক মো.জাহাঙ্গীর হোসেন ফরাজী, মো.আনোয়ার হোসেন সিকদার, মো. আসাদুজ্জামান মনির, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক মো.গাজী রাসেদ শামস,মো. নাশির উদ্দিন হাওলাদার, যুগ্ন-আহবায়ক মোঃ ফেরদৌস হাসান সৌরভ, স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিকসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। 


আরও খবর



তিন অধিদপ্তরে নতুন মহাপরিচালক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর ও উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোতে নতুন মহাপরিচালক (ডিজি) নিয়োগ দিয়েছে সরকার।
শরনার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াত প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন।
চাকরির মেয়াদ শেষ হওয়ায় অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (গ্রেড-১) আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলমকে গত ১৩ জুন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা করা হয়। এরপর অতিরিক্ত মহাপরিচালক সোহেল আহমেদ ও মুহিবুর রহমানকে নিজ দায়িত্বের অতিরিক্ত হিসেবে মহাপরিচালকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল।
উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোতে নতুন মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ ইরফান শরীফ।
স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব রাশেদা আখতারকে নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
অতিরিক্ত সচিব পদমর্যাদার এসব কর্মকর্তাকে নিয়োগ দিয়ে সোমবার (২৯ আগস্ট) রাতে আদেশ জারি করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।


আরও খবর

এক এনআইডিতে ১৫টির বেশি সিম নয়

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২




মোরেলগঞ্জে অন্তসত্ত্বা গৃহবধুসহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ সেপ্টেম্বর 2০২2 | হালনাগাদ:বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে একটি হত্যা মামলা তুলে নিতে জের হিসেবে একই পরিবারের ৫ মাসের অন্তসত্তা গৃহবধুসহ ৫ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। এদের মধ্যে গুরুত্বর জখমী তুহিন মোল্লা (২৮) ও জহিরুল মোল্লা (৩৫ কে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বলইবুনিয়া ইউনিয়নের দোনা গ্রামে। এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

অভিযোগে জানাগেছে, দোনা গ্রামের ব্যবসায়ী এনামুল মোল্লার স্কুল পড়–য়া ছাত্র লিমন মোল্লা (১০) কে গত এক বছর পূর্বে হাত পা বেঁধে নিমমভাবে হত্যা করে পানিতে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় তখন ইমরান কাজীকে প্রধান আসামি করে মামলা দায়ের করা হলে মামলাটি থেকে জামিনে এসে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য বিভিন্নভাবে বাদির পরিবারকে হুমকি ও চাপ সৃষ্টি করে আসছে।  

ঘটনারদিন শুক্রবার একই গ্রামের প্রতিপক্ষ ওই মামলার আসামির পিতা জহিরুল কাজীর নেতৃত্বে ৭/৮ জনের একটি সংঘবদ্ধ দল হত্যা মামলার বাদি এনামুল মোল্লার স্ত্রী ৫ মাসের অন্তসত্তা গৃহবধু লিমা বেগম (২৫), তার ভাই জহিরুল মোল্লা (৩৫), বোনের ছেলে তুহিন মোল্লা (২৮), শিক্ষার্থী আজিজুল বেপারি (১৯), নাসরিন বেগম (২০)কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুত্বর রক্তাক্ত জখম করে ফেলে রেখে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন আহতদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা অবনতি হলে খুমেক মেডিকেলে স্থান্তরিত করা হয়েছে। আহত দু’জনের মাথায় হাড় কাটা একজনের ডান হাত জয়েন্ট ভাঙ্গা গৃহবধুর ৫ মাসের অন্তসত্ত¡া বলে জরুরী বিভাগের দায়িত্বে থাকা কর্তাব্যরত চিকিৎসক মনিকা মল্লিক জানিয়েছেন। এদিকে ভূক্তভোগী পরিবারের এনামুল মোল্লা বাদি হয়ে ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।  

এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সাইদুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


আরও খবর

ফকিরহাটের জন্য সম্মান বয়ে আনলেন

বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২