Logo
শিরোনাম

নৌকা এখন আওয়ামী লীগের হাতে নেই, জামায়েত-বিএনপির হাতে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ৩০ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক বাগেরহাটঃ


বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে জাতিয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় বক্তারা বলেছেন, দেশের উন্নয়নে দলের স্বার্থে দলীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিভক্ত নয়। প্রয়োজনের তাগিদে তারা এক হতে পারে। 

মঙ্গলবার দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু’র ৪৭ তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত শোক দিবস ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এ্যাড. শাহ-ই-আলম বাচ্চু।

ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যাক্ষ মো. শাহবুদ্দিন তালুকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. হারুন অর রশিদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক মোজাম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের নেত্রী অধ্যাপিকা আফরোজা আক্তার লিনা, আওয়ামী লীগ নেতা লুৎফর রহমান, শাহজাহান হাওলাদার।  

অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন ইউনিয়ন আওয়ামীগের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক হাফিজুর রহমান, ইউপি সদস্য আবুল কালাম আজাদ, আলম মৃধা, আওয়ামী লীগ নেতা কামরুল ইসলাম পলাশ, ইকবাল হোসেন বাদল, মো. রুনু খান, জয়নাল আবেদিন ফকির, যুবলীগ নেতা আনিসুর রহমান কাইয়ুম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন যুবলীগ নেতা সাব্বির হোসেন সুমন।

এ সময় নিশানবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাচ্চু বলেন, নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগকে ভেঙ্গে চুরমার করে দিয়েছে। নৌকা এখন আওয়ামী লীগের হাতে নেই, জামায়েত বিএনপির হাতে। আওয়ামী লীগের নেতাদের কাঁধে ভর করে জামায়াত বিএনপি বৈতরনী পার হতে চায়। ১৯৭৫ সাল থেকে ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত উপজেলা যুবদলের সভাপতি কে ছিলেন। বিএনপির অফিস কোথায় ছিলো নেতাকর্মীরা জানতে চায়।


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে ক্যান্সারে আক্রান্ত এক দিনমজুর বাচঁতে চায়

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক  :

“মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য একটু সহানুভতি কি মানুষ পেতে পারেনা ও বন্ধু”? তাইতো একটু সহানুভূতি ও সহযোগীতা চেয়েছেন মরণব্যধি ক্যান্সারে আক্রান্ত বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ বারইখালী ইউনিয়নের উত্তর সুতালড়ী গ্রামের দিনমজুর মো. তৈয়ব আলী হাওলাদার (৬০)। একটু সহযোগীতা পেলে তিনি হয়ত জীবন যুদ্ধে জয়ী হতে পারে। ফিরে পেতে পারে স্বাভাবিক জীবন।   

শয্যাশায়ী ক্যান্সারে আক্রান্ত তৈয়ব আলী এক বছর পূর্বে শরীরে বিভিন্ন সমস্যা অনুভুত হলে জাতীয় ক্যান্সার ইনষ্টিটিউট মহাখালী ঢাকায় পরীক্ষা-নীরিক্ষা করা হলে রিপোর্টে ক্যান্সার ধরা পরে। দীর্ঘ এক বছরে অপারেশন করার পরে চিকিৎসা চালিয়ে সহায় সম্বল হারিয়েছে পরিবার নিঃস্ব প্রায়। বর্তমানে রোগ-যন্ত্রনায় খুবই কষ্টের মধ্যে দিন যাপন করছেন। অর্থাভাবে চিকিৎসা বন্ধ। তৈয়ব আলী হাওলাদারের স্ত্রী, ৫ মেয়ে ও ২ ছেলে রয়েছে। তৈয়ব আলীর পূর্ব পেশা হিসেবে এ সন্তাননেরা মাছ বিক্রি করে সংসার কোন মতে চালাচ্ছে। 

চিকিৎসার জন্য মোরেলগঞ্জ উপজেলা সমাজ সেবা দপ্তরে আবেদন করেছেন। স্বল্প সময়ে চিকিৎসা না হলে তার জীবন প্রদীপ নিভে যেতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে চিকিৎসার জন্য সমাজের স্ব”ছল মানুষদের কাছে আর্থিক সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন অসহায় মানুষটি। হৃদয়বান ব্যক্তিরা তার পাশে দাঁড়ালে হয়তো তিনি আবার সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন।

সাহায্য পাঠানোর মো. তৈয়ব আলী হাওলাদারের মেয়ে শাহানাজ বেগম, একাউন্ড নং-১৭৯৩৫, ইসলামী ব্যাংক, মোরেলগঞ্জ শাখা,বাগেরহাট। সরাসরি যোগাযোগ মোবাইল নং-(০১৭৩২-২৩৮১৮৩/০১৭১১২৮৪৩৬০)-বিকাশ-পার্সোনাল)। 


আরও খবর



রাঙ্গামাটি বগাইছড়ি দূর্গম এলাকায়

প্রথম বারের মতো সাজেকে এসএসসি কেন্দ্র চালু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

উচিংছা রাখাইন  রাঙ্গামাটি  :

সারা দেশের ন্যায় রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের দূর্গম অঞ্চল বাঘাইহাট  উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রথম বারের মতো এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। সেনাবাহিনীর বাঘাইহাট জোন ও  এলাকার জনপ্রতিনিধি এবং  স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় এবারই প্রথম বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের কেন্দ্র সচিব মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম বলেন  সাজেকের দূর্গম শতাধিক গ্রাম থেকে ২২৪ জন শিক্ষার্থী এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে । নতুন কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে এসে  শীক্ষার্থী ও অভিভাবক মহলেও ব্যাপক উৎসাহ তৈরি হয়েছে। সাজেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অতুলাল চাকমা বলেন আগে ৪০ কিলোমিটার দূরে গিয়ে পরীক্ষা দিতে হতো এতে ছাত্র ছাত্রীদের মূল্যবান সময় ও অভিভাবকদের আর্থিক অনেক ক্ষতি হতো, সেনাবাহিনীর সহায়তায় বাঘাইহাটে পরীক্ষা কেন্দ্র চালু হওয়ায় এলাকাবাসী ও ছাত্র ছাত্রীদের অনেক উপকার হয়েছে।


একেবারে ঘরের উঠানে পরীক্ষা দেয়ার মত। মৈত্রী ত্রিপুরা নামে একজন পরীক্ষার্থী বলেন আগে উপজেলা সদরে বাসা ভাড়া করে পরীক্ষা দিতে হতো এখন বাড়িতে থেকে পরীক্ষা দিতে পারছি এতে আমাদের কষ্ট, টাকা, সময় সবকিছু বাঁচবে সেনাবাহিনী ও শিক্ষামন্ত্রীকে অনেক কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকাল ১১ ঘটিকায় বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা  কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন সেনাবাহিনীর বাঘাইহাট জোনের জোন কমান্ডার লেঃ কর্ণেল মুনতাসীর রহমান চৌধুরী (পিএসসি),  এসময় তিনি কেন্দ্রের সার্বিক ব্যবস্থা দেখে সন্তুষ প্রকাশ করেন। পরে তিনি বলেন পাহাড়ে   বর্তমান সরকারের  ধারাবাহিক উন্নয়নের একটি অংশ হিসেবে সাজেকে এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র চালু হয়েছে , এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে সম্প্রিতির বন্ধন আরো সূদৃঢ় করতে হবে। পাহাড়ে সেনাবাহিনী উন্নয়নের পাশাপাশি সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে সম্প্রিতির  সেই কাজই করছে। উল্লেখ  যে বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়টি তৎকালিন জোন কমান্ডার লে: কর্নেল জাহাঙ্গীর  আলম চৌধুরী,পিএসসি, ২৪ ফিল্ড রেজিমেন্ট  আর্টিলারি  সার্বিক  সহযোগীতায়  ১৯৯২ সালে বাঘাইহাট জুনিয়র হাই স্কুল নামে অত্র স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত হয়। তারপর ১৯৯৯ সালে তৎকালিন জোন কমান্ডার লে: কর্নেল আবু সোহেল পিএসসি,১ ইস্ট বেংগল এর সার্বিক সহযোগীতায় সরকারি  এমপিও ভূক্তকরন হয়।


 পরবর্তীতে তৎকালিন জোন কমান্ডার লে: কর্নেল মোঃ মুহসিন আলম,পিএসসি,১৪ বীর এর সার্বিক সহযোগীতায়  ২০১০ সালে জেএসসি পরিক্ষার কেন্দ্র অনুমোদন হয়। বর্তমান জোন কমান্ডার-  লে: কর্নেল মুনতাসির রহমান চৌধুরী, পিএসসি,৬ ইস্ট বেংগল  এর সার্বিক সহযোগীতায়  ২০২২ সালে এস এস সি পরিক্ষার কেন্দ্র  ( মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড  ,চট্টগ্রাম) কেন্দ্র অনুমোদন হয়।


আরও খবর

বিশ্বজয় করে দেশে ফিরল ক্ষুদে হাফেজ

শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২




পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ভারতে

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : বাংলাদেশি পণ্যের গুণগত মান ভালো হওয়ায় চাহিদা বাড়ছে ভারতে। পাশাপাশি বাংলাদেশের স্থিতিশীল অর্থনৈতিক উন্নয়ন ভারতের জন্য নতুন সুযোগ সৃষ্টি করছে। তাছাড়া দুই দেশই কাছাকাছি উৎস থেকে পণ্য সংগ্রহের দিকে মনোযোগ বাড়িয়েছে। এছাড়া সম্প্রতি বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যোগাযোগের উন্নতি এ ক্ষেত্রে বড় প্রভাব ফেলেছে। অর্থাৎ, ভৌগোলিক কারণেই ভারতে বাংলাদেশের রপ্তানি বাড়ছে। ফলে এখন ভারতের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

 চলতি বছরের জুলাই-আগস্ট মাসে ভারতে ওভেন পোশাক রপ্তানি হয়েছে ১০ কোটি ৫৯ লাখ ৭০ হাজার ডলারের। গত বছরের একই সময়ে ওভেন পোশাক রপ্তানি হয়েছিল ৫ কোটি ২৭ লাখ ৬০ হাজার ডলারের। অর্থাৎ প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১০০ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আর চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে নিট পোশাক রপ্তানি থেকে এসেছে ৮ কোটি ২৩ লাখ ২০ হাজার ডলার। গত অর্থবছরে একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪ কোটি ১৯ লাখ ডলার। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় এবার নিট পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৯৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, গত জুলাই মাসে ভারতে ৭ কোটি ৬৯ লাখ ৮০ হাজার ডলারের তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে। পরের মাস আগস্টে বাংলাদেশ থেকে ১১ কোটি ১৩ লাখ ১০ হাজার ডলারের পোশাক কিনেছেন ভারত। অর্থাৎ এক মাসের ব্যবধানে ভারতে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রফতানি বেড়েছে ৩ কোটি ৪৩ লাখ ৩০ হাজার ডলার।

ভারতের বাজারে অন্য পণ্যের রপ্তানিও বেড়েছে। ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গত অর্থবছরে (২০২১-২২) ভারতে বাংলাদেশের রফতানি ২০০ কোটি (২ বিলিয়ন) ডলারের ঘরে পৌঁছে, যা ছিল আগের অর্থবছরের (২০২০-২১) চেয়ে ৫৫ দশমিক ৬২ শতাংশ বেশি। দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে রপ্তানি বেড়েছে ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

তৈরি পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা বলছেন, এখন ভারতের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। তারা বলছেন, বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশই কাছাকাছি উৎস থেকে পণ্য সংগ্রহের দিকে মনোযোগ বাড়িয়েছে। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যোগাযোগের উন্নতি এ ক্ষেত্রে বড় প্রভাব ফেলেছে। অর্থাৎ, ভৌগোলিক কারণেই ভারতে বাংলাদেশের রপ্তানি বাড়ছে।

গার্মেন্ট খাতের উদ্যোক্তারা জানান, ভারতের অনেক ব্যবসায়ী এখন বাংলাদেশের কারখানায় পোশাক তৈরি করে নিজেদের দেশে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করছেন। এতে তাদের একদিকে যেমন লিড টাইম কম লাগছে, অপরদিকে খরচও কম হচ্ছে। এছাড়া ভারতে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণি দ্রুত বিকশিত হচ্ছে। সেই সঙ্গে দেশটিতে বাড়ছে ব্র্যান্ড-সচেতনতা। এ কারণে সেখানে স্থানীয় ব্র্যান্ডগুলোও শক্ত অবস্থান তৈরি করছে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলোও যখন দেশটিতে নতুন নতুন বিক্রয়কেন্দ্র খুলতে শুরু করেছে- ঠিক এমন সময় বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকট বাড়ছে। অর্থাৎ এই সংকট থেকে উত্তরণে প্রায় দেড়শ’ কোটি লোকের চাহিদা মেটাতে হলে ভারতকে বাংলাদেশ থেকেই পোশাক কিনতে হবে। কারণ,ভারতে পোশাক তৈরিতে যে খরচ হয়, বাংলাদেশ থেকে আমদানি করলে তার থেকে অনেক কম পড়ে। সে কারণে সব হিসাব-নিকাশ করেই তারা এখন বাংলাদেশ থেকে বেশি বেশি পোশাক কিনছে।

জানা গেছে, ২০১১ সালের শেষের দিকে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি কারখানার কাছ থেকে পোশাক নিয়ে টাকা দেয়নি ভারতীয় কোম্পানি লিলিপুট। সে জন্য ওই সময় থেকে বেশ কয়েক বছর ভারতে পোশাক রফতানিতে ভাটা পড়ে। কিন্তু গত কয়েক বছরে ভারতের বিভিন্ন শহরে পোশাকের নামিদামি বিদেশি অনেক ব্র্যান্ড বিক্রয়কেন্দ্র খোলায় পোশাক রফতানি বৃদ্ধি পায়।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ম্যাকেঞ্জি অ্যান্ড কোম্পানির এক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালে ভারতের কাপড়ের বাজার হবে ৫ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-২১ অর্থবছরে ভারতে ১২৭ কোটি ৯৬ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানি করা হয়। ২০১৯-২০ অর্থবছরে রপ্তানি হয় ১০৯ কোটি ৬১ লাখ ৬০ হাজার ডলার। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভারতে ১২৫ কোটি ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল বাংলাদেশ।


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




সোনারগাঁয়ে সড়ক দূর্ঘটনায় নানি নাতির মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

সোনারগাঁ প্রতিনিধিঃ

ঢাকা–চট্টগ্রাম মহাসড়কের নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের দড়িকান্দী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় যাত্রীবাহি বাসের ধাক্কায় নানী আনোয়ারা বেগম (৬৫) ও নাতি জাওয়াদ (৬) নিহত হয়েছেন। 

নিহতরা হলেন মুন্সিগঞ্জের গজারিয়ায় টেঙ্গারচর এলাকার বাসিন্দা আনোয়ারা বেগম (৬৫)। সোনারগাঁ উপজেলার দড়িকান্দি মধ্যপাড়া এলাকার জহিরুল ইসলামের ছেলে মো. জাওয়াদ (৬) ।

শনিবার দুপুরে আনোয়ারা বেগমের সঙ্গে জাওয়াদ তার নানীর সঙ্গে বাড়ি ফিরছিল। দড়িকান্দি এলাকায় সড়ক পারাপারের সময় ঢাকা থেকে চট্টগ্রামগামী তিশা পরিবহনের একটি বাস তাদের ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশু জাওয়াদের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় আনোয়ারা বেগমকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি নবীর হোসেন  বলেন, সড়ক দূর্ঘটনায় দুজন নিহত হওয়ার ঘটনায় বাসটিকে আটক করা হয়েছে। তবে বাসের চালক ও তাঁর সহকারী পালিয়ে গেছেন। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। 


আরও খবর



রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্য

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে স্থানীয় সময় সকাল ১১ টায় শুরু হয়েছে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের শেষকৃত্য অনুষ্ঠান। এতে যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন দেশের নেতারা । 

ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ রাষ্ট্রীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে প্রয়াত ব্রিটিশ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে শেষ বিদায় জানানো হচ্ছে। সকালে ওয়েস্টমিনস্টার হল থেকে অল্প দূরত্বে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবের দরজাগুলো অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে আসা অতিথিদের জন্য খুলে দেওয়া হয়। রাজকীয় নৌবাহিনীর ১৪২ জন নাবিক একটি কামানবাহী শকটে করে কফিনটি টেনে নিয়ে যান ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে। রাজা তৃতীয় চার্লস ও রাজপরিবারের সদস্যরা ছিলেন কফিনের সাথে। দিনব্যাপী নানা আনুষ্ঠানিকতার পর রানীকে সমাহিত করা হবে সেন্ট জর্জেস চ্যাপেলে তার স্বামী প্রিন্স ফিলিপের পাশে।


আরও খবর

জাতিসংঘে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

জাতিসংঘের ভূমিকায় হতাশ মালয়েশিয়া

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২