Logo
শিরোনাম
শবে বরাত পালন মুসলিম জাতিকে একতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ করে। ৫৭ তম খোশরোজ শরীফ ও মইনীয়া যুব ফোরামের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে সীমান্তে হত্যা বন্ধের দাবীতে প্রতীকী লাশ নিয়ে হানিফ বাংলাদেশীর মিছিল লক্ষ্মীপুরে কৃষক কাশেম হত্যা: স্ত্রী, শ্বশুরসহ গ্রেপ্তার ৫ কুমিল্লা সিটি’র উপনির্বাচন: মেয়র পদে প্রতীক বরাদ্দ অবৈধ মজুদকারীরা দেশের শত্রু : খাদ্যমন্ত্রী ফতুল্লায় সিগারেট খাওয়ার প্রতিবাদ করায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা বকশীগঞ্জে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা নোবিপ্রবিতে সিএসটিই এলামনাই এসোসিয়েশনের নতুন কমিটি গঠন

পাঠান সিনেমায় খলনায়িকা দীপিকা !

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৩ জানুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

সবাই জানত ‘পাঠান’ ছবিতে নায়িকা চরিত্রে থাকবেন দীপিকা। এখন শোনা যাচ্ছে, নায়িকা নন বরং খলনায়িকা অর্থাৎ ভিলেন রূপে এই ছবিতে ধরা দেবেন তিনি।

স্পাই-থ্রিলার জনরার মুভিগুলোতে দৃশ্যের বাঁকে বাঁকে টুইস্ট থাকে। ‘পাঠান’ নির্মাতা সিদ্ধার্থ আনন্দ তার আগের ছবি ‘ওয়ার’-এও এরকম টুইস্ট রেখেছিলেন। টাইগার শ্রফের ‘খালিদ’ চরিত্রটিকে তিনি পজিটিভ এবং নেগেটিভ দুই শেডেই দেখিয়েছিলেন। তাই ‘পাঠান’-এও এমনটা ঘটার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। অন্তত এমনটাই দাবি করছে নেটপাড়ার একাংশ। তাদের মতে, ‘টাইগার’ সিরিজে ক্যাটরিনা কাইফের চরিত্রের মতো এখানেও দীপিকাকে পাকিস্তানের এজেন্ট দেখানো হতে পারে।

মূলত দীপিকার নেগেটিভ চরিত্রের কথা উঠে এসেছে ফ্যান থিওরি থেকেই। আর সেটা আসছে ছবির ট্রেলার ও গানের কিছু সংলাপ যোগ করে। ভক্ত তত্ত্ব বলছে, জন আব্রাহাম নন পাঠানের আসল ভিলেন দীপিকা। কেন এমন কথা বলছে সেটার কারণও ব্যাখ্যা করেছে তারা। ‘ঝুমে জো পাঠান’ গানে ‘দুশমন গালে লাগ জায়ে’ দিয়ে শত্রু দীপিকার সঙ্গে বন্ধুত্বের বার্তাই দিচ্ছেন শাহরুখ! এরপর ট্রেলারে এক জায়গায় জনকে বলতে শোনা যায়, ‘পাঠান দ্য হান্টার… হান্টেড?’। তারমানে শিকারি শাহরুখ নিজেই এখন শিকারে পরিণত হয়েছে।

অবশ্য সবটাই ভক্তদের কল্পনাপ্রসূত ধারণা। আসলেই দীপিকার চরিত্র কী সেটা বোঝা যাবে আগামী ২৫ জানুয়ারি। ওইদিন হিন্দি, তামিল, তেলেগু ভাষায় মুক্তি পাবে ‘পাঠান’ ছবিটি। এতে ক্যামিও চরিত্রে দেখা যাবে সালমান খানকে। যশরাজ ফিল্মসের ‘স্পাই ইউনিভার্স’র অংশ হিসেবে থাকতে পারেন কবির চরিত্রে হৃতিক রোশনও।


আরও খবর

ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন পরীমণি

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত মাহিয়া মাহির

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জোট গঠনে মরিয়া নওয়াজ শরিফ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন)। কিন্তু সরকার গঠন করতে কমপক্ষে ১৩৪ আসন দখল করতে হবে। তাই জোট গঠন করতে হবে রাজনৈতিক দলগুলোকে।

আর এ কারণেই জোট গঠন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন পিএমএল-এন সুপ্রিমো নওয়াজ শরিফ। তিনি বলেছেন, জোট সরকারের জন্য তার দল পিপিপি, এমকিউএম-পি, জেআইআই-এফের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।

নওয়াজ শরিফ বলেছেন, তিনি তার ছোট ভাই শাহবাজকে জোট সরকার গঠনের জন্য পির আসিফ আলী জারদারি, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ফজলুর রেহমান এবং এমকিউএম-পির খালিদ মকবুল সিদ্দিকীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে বলেছেন।

পিএমএল-এন নেতা আরও বলেছেন, পাকিস্তান বর্তমানে যে সমস্যার মধ্যে রয়েছে তা থেকে বের করে আনতে সব রাজনৈতিক দলের একসঙ্গে বসে সরকার গঠন করা দরকার।

পাকিস্তানকে এই সংকট থেকে বের করে আনতে দেশের সব প্রতিষ্ঠান, প্রত্যেকের একসঙ্গে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করা উচিত উল্লেখ করে নওয়াজ বলেন, এটা সবার পাকিস্তান, শুধু পিএমএল-এনের নয়। সবার উচিত মিলেমিশে বসে পাকিস্তানকে সমস্যা থেকে বের করে আনা।

এর আগে ইমরানপন্থি স্বতন্ত্র প্রার্থীদেরকে তার দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। নির্বাচনে জয়লাভের জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থীদের তাদের অভিনন্দনও জানিয়েছেন নওয়াজ শরিফ।


আরও খবর

অনুমতি ছাড়া হজ করলে শাস্তি ঘোষণা

শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪




স্বাধীন বিচার বিভাগ একটি দেশের উন্নয়নকে উৎসাহিত করে

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, স্বাধীন বিচার বিভাগ, শক্তিশালী সংসদ ও প্রশাসন একটি দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে।

তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিশ্বাসকে বাস্তবায়নে বিচার বিভাগকে প্রশাসন থেকে পৃথক করে সম্পূর্ণ স্বাধীন করেছি।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে একবিংশ শতাব্দীতে দক্ষিণ এশীয় সাংবিধানিক আদালত : বাংলাদেশ ও ভারতের শিক্ষা শীর্ষক দুই দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

তিনি বলেন, সরকার বিচার বিভাগকে প্রশাসন থেকে আলাদা এর জন্য পৃথক বাজেট বরাদ্দ করে করেছে।  বিচার বিভাগ আগে আর্থিক বিষয়ে সরকারের ওপর নির্ভরশীল ছিল।

এছাড়া আওয়ামী লীগ সরকার বাংলাদেশে একটি স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য আইন প্রণয়ন করেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। এর আগে নির্বাচন কমিশন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাথে সংযুক্ত ছিল।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমরা এটাকে নির্বাচন কমিশিন (ইসি) হিসেবে সম্পূর্ণভাবে স্বাধীন করেছি এবং এর জন্য আলাদা অর্থ বরাদ্দ দিয়েছি। এর মানে হলো- আমরা নির্বাচন কমিশনের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি এবং আওয়ামী লীগ সরকার তা করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার উচ্চ আদালতের রায় অনুযায়ী সংবিধানে একটি অনুচ্ছেদ সংযোজন করেছে, যাতে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। এই অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে আমি বলতে পারি, জনগণের মৌলিক অধিকার, গণতান্ত্রিক অধিকার সুরক্ষিত হয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ ২০২৬ সাল থেকে উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি অর্জন করেছে।

তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন, ইনশাল্লাহ, ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বাস্তবায়নে বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশে পরিণত করতে সক্ষম হব।

প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, প্রধান বিচারপতি ধনঞ্জয় ওয়াই চন্দ্রচূড়, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক এবং আপিল বিভাগের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।


সূত্র : ইউএনবি
 


আরও খবর



বিশ্বে মাথা উঁচু করেই চলতে চাই: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ |

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একুশ আমাদের শিখিয়েছে মাথা নত না করতে। কাজেই আমরা মাথা নত করে নয়, মাথা উঁচু করেই চলব এবং বিশ্ব দরবারে মর্যাদা নিয়ে এগিয়ে যাব।

আজ মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জাতীয় জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তির মাঝে ‘একুশে পদক-২০২৪’ প্রদানকালে  প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা আমাদের শুধু স্বাধীনতাই দিয়ে যাননি, তিনি আমাদের একটা মর্যাদাবোধ দিয়ে গেছেন। বিজয়ী জাতি হিসেবে সারা বিশ্বে আমরা মাথা উঁচু করেই চলতে চাই। এই কথাটা সকলকে মনে রাখতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বলেছিলেন, ‘১৯৫২ সালের আন্দোলন কেবলমাত্র ভাষা আন্দোলনের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল না। এই আন্দোলন ছিল সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা আমাদের যে মর্যাদা দিয়ে গিয়েছিলেন সেই মর্যাদাটা ’৭৫ এর পর বাঙালি জাতি হারিয়ে ফেলেছিল। কিন্তু আজকে আমি অন্তত এইটুক দাবি করতে পারি আবার বাঙালি বিশ্বের দরবারে এখন মাথা উঁচু করে চলতে পারে।

সেই মর্যাদা আমরা ফিরিয়ে এনেছি। আর এই মর্যাদা আমাদের সমুন্নত রেখেই আগামীর দিনে এগিয়ে যেতে হবে। তিনি বলেন, কারো কাছে হাত পেতে নয়, ভিক্ষা করে নয়, আমরা আত্মমর্যাদা নিয়ে বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে চলব। কারণ, একুশ আমাদের মাথা নত না করা শিখিয়েছে। কাজেই, আমরা মাথা নত করে নয় মাথা উঁচু করে চলবো। এর আগে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় এবারের একুশে পদক ২০২৪ বিজয়ী ২১ জনের তালিকা প্রকাশ  করে প্রজ্ঞাপন জারি করে। 

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন পদক বিতরণ পর্বটি সঞ্চালনা করেন এবং পদক বিজয়ীদের সাইটেশন পাঠ করেন। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব খলিল আহমদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাসনা জাহান খানম স্বাগত বক্তৃতা করেন।


আরও খবর



রমজানে কোনো জিনিসের অভাব হবে না

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, রমজানে কিন্তু কোনো জিনিসের অভাব হবে না। ইতোমধ্যে সমস্ত কিছু ব্যবস্থা করা আছে। এটা নিয়ে অনেকে কথা বলবে, কিন্তু কোনো অসুবিধা হবে না। রমজান তো কৃচ্ছতা সাধনের জন্য, রমজানে মানুষ একটু কম খায়। আমাদের দেশে রমজানে খাবার-দাবারের চাহিদা একটু বেড়ে যায়।

জার্মানি সফরের বিষয়ে আজ (শুক্রবার) সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান শেখ হাসিনা। ১৬-১৮ ফেব্রুয়ারি জার্মানির মিউনিখ শহরে অনুষ্ঠিত হয় ৬০তম মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্স। সে বিষয়েই আজকের সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, রমজানে ছোলা, খেজুর, চিনি পর্যাপ্ত পরিমাণে আনার ব্যবস্থা আছে, এগুলো নিয়ে সমস্যা হবে না। সেই ব্যবস্থা অনেক আগেই করে রেখেছি।

তিনি আরো বলেন, গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে একটা দেশ উন্নত হয়। গত পনেরো বছরে আত্মসমাজিক উন্নয়ন হয়েছে, মানুষের মন-মানসিকতার পরিবর্তন হয়েছে, সব দিক থেকে বাংলাদেশ অনেক উপর উঠে আসতে সক্ষম হয়েছে। আমরা এখন স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছি। উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমরা যথাযথভাবে এগিয়ে যেতে পারি সেই কাজটাই আমাদের বড় কথা। এদিকে আমার মনোযোগ দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, রাজনৈতিক দলের অভাব বাংলাদেশে। আওয়ামী লীগ ৪৯ সালে গঠিত হয়েছিল গণমানুষের কথা বলে। সেই সময় থেকে আন্দোলন সংগ্রাম করেই আওয়ামী লীগ এগিয়ে গেছে। আমি যদি আমার প্রতিপক্ষ কয়েকটি দল দেখি, একটা হচ্ছে যুদ্ধাপরাধী দল জামাত। যাদের রাজনীতি নিষিদ্ধ ছিল। অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে জিয়াউর রহমান সংবিধান সংশোধন করে তাদেরকে রাজনীতি করার সুযোগ করে দেয়। পাসপোর্ট নিয়ে যারা পাকিস্তান গেছে তাদেরকে ফিরিয়ে এনে ভোটের অধিকার দিয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে সরকারপ্রধান বলেন, তারা চায় এমন একটা পরিবেশ হোক, তাদেরকে কেউ ক্ষমতায় বসিয়ে দেবে। সেটা করতে গিয়ে তারা যে প্রথম ধরা খেল, সেটা ২০১৮ নির্বাচন। প্রচার-প্রচারণা সব দিক থেকে আওয়ামী লীগ বিএনপি সমান-সমান ভাব ছিল। ২০০৮ নির্বাচন নিয়ে কেউ প্রশ্ন করতে পারেনি। সেই নির্বাচনের রেজাল্টটা কি? গণতান্ত্রিক ধারাকে আমরা স্থায়ী করেছি, যার সুফল মানুষ পাচ্ছে। তাদের জীবনমান উন্নত হয়েছে। আমরা চাই এ ধারাবাহিকতা যেন বজায় থাকে।


আরও খবর



বাঙালি সাংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার সাথে সম্পর্ক রয়েছে

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ |

Image

২২ শে ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা মোঃ আকরাম খাঁ হলে বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির (বিএসপি) উদ্যোগে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সবাই সভাপতির বক্তব্যে  বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান ড. শাহজাদা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভাণ্ডারী বলেন, বাংলা ভাষা হচ্ছে আমাদের স্বতন্ত্রতার স্মাক্ষর। জাতীয়তাবাদের মূল ভিত্তি হচ্ছে বাংলা ভাষা। বাংলা ভাষা চর্চায় বিচ্যুত হলে সেটা হবে আত্মঘাতী।  কোন জাতি নিজ ভাষাকে ধারণ না করলে সংকটাপন্ন অবস্থা সৃষ্টি হয়। তাই আমাদের দ্বায়িত্ব গৌরবের সাথে বাংলা ভাষাকে তুলে ধরা। 

তিনি বলেন,  আমাদের মাইজভান্ডারী যে গান রয়েছে সেটা বাঙালী সংস্কৃতির একটা অংশ। এই বাঙালী সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করেছে মাইজভাণ্ডারী আধ্যাত্মিক গান। একারণে বাঙালী সংস্কৃতিতে মাইজভাণ্ডারী ত্বরীকার নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। এই দেশ এবং দেশের মাটিকে নিয়েই এই দরবার শরীফ, তরিকা তৈরি হয়েছে। ধর্মীয় অঙ্ঘন থেকে অনেকেই রয়েছে যারা এই দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী না, তারা এই দেশের মুক্তির সংগ্রামের বিরোধিতা করেছে। 

তিনি আরও বলেন, এই দেশের টাকা লুটপাট করে যারা বিদেশে প্রাসাদ  তৈরি করতে চায়, দেশের সম্পদকে ধ্বংস করতে চায়, তারা কখনো দেশ প্রেমিক হতে পারে না। এই দুর্নিতীবাজ লুটেরারা আমাদের দেশকে আজকে পংগু করে দিয়েছে। যে পরিমান টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গিয়েছে সেগুলো দিয়ে আমাদের দেশের পাঁচ বছরের বাজেট করা সম্ভব। গরীব জনগণের গলা টিপে টাকা আদায় না করতে সরকারের প্রতি আমাদের আহ্ববান থাকবে যারা দেশের লক্ষ কোটি টাকা বাইরে পাচার করেছে,  প্রয়োজনে পৃথক মন্ত্রনালয় গঠন করে সে টাকা ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হোক। তাহলে আমাদের রিজার্ভ সংকট কেটে যাবে। দেশের মানুষ স্বস্তিতে থাকতে পারবে। 

তিনি বলেন, আজকে বাজার সিন্ডিকেটের মাধ্যমে  রাতারাতি যেভাবে জিনিসপত্রের দাম দ্বিগুন হয়ে যায় সেখনে পাশের দেশ ভারতে কোন জিনিসের দাম ১০ টাকা বাড়লে মানুষ রাস্তা বন্ধ করে দেয়। আমাদের এই ব্যাপারে সচেতন হতে হবে।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ,

গ্লোবাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপাচার্য প্রফেসর এমিরাটস ডক্টর আনিসুজ্জামান,

অধ্যাপক ডক্টর শহীদ মঞ্জুর,গণ আজাদী লীগের চেয়ারম্যান আতাউল্লাহ খান,

বিএসপি মহাসচিব অ্যাডভোকেট আব্দুল আজিজ সরকার,  জাতীয় স্থায়ী পরিষদের সদস্য ও সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, যুগ্ম মহাসচিব মোঃ আসলাম হোসাইন 


আরও খবর