Logo
শিরোনাম

সাধনার মাধ্যমে আত্মশুদ্ধি অর্জন

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

মাজহারুল ইসলাম মাসুম, সিনিয়র সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক :

মানুষ প্রধানতঃ দুটি আত্মার অধিকারী। একটি জীবাত্মা বা নফস যা মানব সৃষ্টির চার উপাদান আগুন, পানি, মাটি ও বায়ুর সমন্বয়ে সৃষ্ট এবং অপরটি পরমাত্মা বা রূহ যা মহান আল্লাহ্ হযরত আদম (আঃ)-এর মাঝে তাঁর রূহ থেকে ফুঁকে দিয়েছেন। আমরা সবাই হযরত আদম (আঃ)-এর সন্তান হিসেবে আমাদের মাঝেও রূহ বিদ্যমান। জীবাত্মা অত্যন্ত শক্তিশালী। এই জীবাত্মাই মহান আল্লাহ্ তায়ালার সত্তা রূহ্কে ধারণ করেছে। আর রূহই হচ্ছে মানুষের কাছে আল্লাহ্ পাকের আমানত। জীবাত্মা মূলত সচ্ছ ও পরিশুদ্ধ। কিন্তু এর কিছু শত্রু আছে যেগুলো নফসকে আক্রান্ত করে। কাম, ক্রোধ, লোভ, মোহ, মদ ও মাৎসর্য এই ষড় রিপু নফসকে কলুষিত করে। যেমন জীবানুমুক্ত পানি পান করে জীবের জীবন রক্ষা পায়। যদি পানিতে বিষ মিশ্রিত হয় তখন পানি হয় বিষাক্ত। আর এই বিষাক্ত পানি পান করলে জীবের প্রাণনাশ হয়। তেমনি পরিশুদ্ধ জীবাত্মা যখন ষড়রিপু দ্বারা আক্রান্ত হয় তখন তা কলুষিত হয়ে যায় এবং দুনিয়ার লোভ আর ভোগ বিলাসে মত্ত হয়ে পাপাচারে লিপ্ত হয়ে পড়ে। অশান্তি সৃষ্টি হয় ব্যক্তি জীবন থেকে সামাজিক ও রাষ্ট্রিয় জীবন পর্যন্ত। কলুষিত নফস ধারী ব্যক্তি শান্তি ও ন্যায়ের পথ থেকে বিচ্যুত হয়ে অশান্তির পথে ধাবিত হয়। কাজেই জীবাত্মা যাতে ষড়রিপু দ্বারা আক্রান্ত হতে না পারে সেজন্যই আত্মশুদ্ধি লাভ করা প্রয়োজন। পরিশুদ্ধ জীবাত্মা হলো বাহন আর রূহ সোয়ারী। এই দুয়ে মিলে আত্মিক জগত ভ্রমণ করতে পারে এবং আত্মিক জগতের সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম হয়। তাহলে প্রশ্ন জাগে, কি করে ষড়রিপুর আক্রমণ প্রতিরোধ করে জীবাত্মাকে পরিশুদ্ধ রাখা যায়। জীবাত্মাকে নফস নামেও অভিহিত করা হয়। হযরত রাসূল (সঃ) বলেছেন, “নফসের সাথে যুদ্ধ করাই প্রকৃত জেহাদতিনি আরো বলেন, “যে নিজকে (নিজের নফসকে) চিনতে পেরেছে, সে তার প্রভুকে চিনতে পেরেছেতাহলে আমাদেরকে চিন্তা করতে হবে, হযরত রাসূলে পাক (সঃ)-এর শিক্ষা পদ্ধতি কি ছিল? তিনি কোন প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত ছিলেন না। সুদীর্ঘ ১৫ বছর হেরা পর্বতের নির্জন গুহায় ধ্যান সাধনা তথা মোরাকাবা করেছেন। মক্কা থেকে ৩ মাইল দূরে যে হেরা পর্বতের গুহা প্রায় পৌণে দুইশবছর পরও ইতিহাসের সাক্ষ্য বহন করছে, যেখানে উঠতে রাসূল (সঃ) প্রেমিকদের আজো হিমসিম খেতে হয়, সেই নির্জন মরু পাহাড়ের গুহায় তিনি যৌবনের ১৫ টি বছর ধ্যান সাধনায় কাটিয়েছেন। এই ধ্যান সাধনার বিদ্যার মাধ্যমেই তিনি তাঁর প্রভুর সন্ধান পেয়ে পবিত্র বাণী প্রাপ্ত হয়েছেন। পরবর্তীতে তিনি তাঁর অনুসারী তথা মুসলিমদেরকে সেই ধ্যান সাধনার বিদ্যাই শিক্ষা দিয়েছেন। আর ওই বিদ্যায় বিদ্বান হয়ে নিজেদের জীবাত্মা তথা নফসকে পরিশুদ্ধ করে (আত্মশুদ্ধি লাভ করে) মহান আল্লাহ্ ও হযরত রাসূল (সঃ)-এর প্রেমে দেওয়ানা হয়ে গিয়েছেন। সাহাবায়ে কেরাম কাফেরদের শত অত্যচার-নির্যাতন সহ্য করেছেন হাসিমুখে। তাঁরা নিজেদের ধন-সম্পদ, আত্মিয়-স্বজনের মায়া পরিত্যাগ করে রাসূল (সঃ)-এর প্রেমে জন্মভূমি মক্কা ছেড়ে তাঁর সাথে মদিনায় হিযরত করেছেন। অসংখ্য সাহাবায়ে কেরাম রাসূল (সঃ)-এর নির্দেশে কাফেরদের সাথে যুদ্ধ করে হাসিমুখে শহীদের মর্যাদা লাভ করেছেন। আমরা সেই সে জাতি, উম্মতে মোহাম্মদী, মোহাম্মদী ইসলামের অনুসারী। পরম সৌভাগ্য যে, আল্লাহ্ পাক আমাদেরকে দয়া করে উম্মতে মোহাম্মদীর মর্যাদা দান করেছেন। কিন্তু পরিতাপের বিষয়, যে শিক্ষায় নিজের জীবাত্মা বা নফসকে পরিশুদ্ধ করা যায়, যে শিক্ষায় আত্মশুদ্ধি লাভ করা যায়, সেই মোহাম্মদী ইসলামের শিক্ষা, ধ্যান সাধনার শিক্ষা, মোরাকাবার শিক্ষা আমরা হারিয়ে ফেলেছি। ফলে নফসের খায়েসে, শয়তানের ধোঁকায় পড়ে দুনিয়া লোভী হয়ে পাপাচারের মাধ্যমে যেমন নিজেদেরকে (জীবাত্মা বা নফসকে) কলুষিত করে অশান্তিতে ভুগছি, তেমনি আমাদের এমন কার্যাদিতে সমাজেও অশান্তি বাড়ছে। ধর্ম পালন করেও ধর্মের প্রকৃত স্বাদ বা ফল আমরা ভোগ করতে পারছিনা।

হযরত রাসূল (সঃ)-এর যুগে তাঁর কাছ থেকে সাহাবায়েকেরাম ধ্যান সাধনার বিদ্যার মাধ্যমে আত্মিক পরিশুদ্ধতা অর্জন করে ধর্ম পালন করতঃ শান্তির পধে চলার ক্ষমতা অর্জন করেছেন। এমনকি তাঁরা আত্মিক জগতের সাথে যোগাযোগ করতেও সক্ষম হয়েছেন। তাঁরা ছিলেন উজ্জল নক্ষত্র। আর তাঁরা তা করতে পেরেছেন, হযরত রাসূল (সঃ)-কে অনুকরণ ও অণুসরণ করে। পবিত্র হাদিসে হযরত রাসূল(সঃ) বলেছেন, “শরীয়ত আমার বাক্য(কথা), তরীকত আমার কাজ, হাকীকত আমার অবস্থা এবং মারেফাত আমার নিগুঢ় রহস্য।হযরত রাসূল (সঃ) তাঁর অনুসারীগণকে শরীয়ত, তরীকত, হাকীকত ও মারেফাতের বিদ্যা শিক্ষা দিয়েছেন। শরীয়ত যেমন দেহ পরিষ্কার করে তেমনি মারেফাত আত্মিক পরিশুদ্ধতা অর্জনে সহায়তা করে। হযরত রাসূল (সঃ)-এর ওফাত লাভের পর চার খলিফার যুগ পর্যন্ত হযরত রাসূল (সঃ)-এর মৌলিক শিক্ষা চালু ছিল। এজন্য ওই যুগকে ইসলামের স্বর্ণ যুগ বলা হতো। পরবর্তীতে বিশেষ করে কারবালা যুদ্ধের পর দুরাচার এজিদ ক্ষমতায় আসার পর থেকে ইসলাম হয়ে পড়ে শুধু শরীয়ত সর্বস্ব। বেলায়েতের যুগে যাঁরা এজিদের বিরুদ্ধাচরণ করেছেন, এজিদকে সমর্থন করেননি, তাঁরা ছিলেন মোহাম্মদী ইসলামের প্রকৃত ধারক ও বাহক। আর তাঁদের মাধ্যমেই দুনিয়াতে টিকে আছে প্রকৃত মোহাম্মদী ইসলামের শিক্ষা-এলমে শরীয়ত ও এলমে মারেফাত যা মানুষের বাহ্যিক ও আত্মিক পরিশুদ্ধতা আনয়ন করে। বেলায়েতের যুগে অসংখ্য অলী-আল্লাহ্, মোর্শেদ তথা পথপ্রদর্শক জগতে আগমন করেছেন, যাঁরা হযরত রাসূল (সঃ)-এর শিক্ষায় মানুষকে শিক্ষিত করেছেন। যাঁরা শরীয়ত, তরীকত, হাকীকত ও মারেফতের বিদ্যা শিক্ষা লাভ করে ধর্ম পালন করেছেন তাঁরাই সফলকাম হয়েছেন।


আরও খবর

আত্মিক জ্ঞান ও বাহ্যিক জ্ঞান

শুক্রবার ১৮ নভেম্বর ২০২২

মাইজভান্ডারী তরিকা

মঙ্গলবার ২৫ অক্টোবর ২০২২




মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচন

প্রকাশিত:রবিবার ২০ নভেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে আনোয়ার ইব্রাহিম ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মধ্য দিয়ে দেশটি ঝুলন্ত পার্লামেন্টের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

রবিবার ঘোষিত ফলাফলে দেখা যাচ্ছে নির্বাচনে পার্লমেন্টের ২২২টি আসনের মধ্যে আনোয়ার ইব্রাহিমের পাকাতান হারাপান জোট ৮২টি আসন পেয়েছে আর এর ঠিক পেছনেই আছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিনের ন্যাশনাল এলায়েন্স। দলটি পেয়েছে ৭৩টি আসন। তবে একটি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি আর দুটি আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি।
আনোয়ার ইব্রাহিম এবং মুহিদ্দিন দুজনই দাবি করেছেন যে সরকার গঠন করার মতো পর্যাপ্ত সমর্থন তাদের রয়েছে তবে দুজনের কেউই খোলাসা করেননি কাদের সঙ্গে তারা জোট করবেন।


আরও খবর

থাইল্যান্ডে গাড়িবোমা বিস্ফোরণ

মঙ্গলবার ২২ নভেম্বর 20২২

হেরে গেলেন মাহাথির

রবিবার ২০ নভেম্বর ২০22




মোরেলগঞ্জে বিএনপির সংহতি দিবসে আলোচনা

প্রকাশিত:সোমবার ০৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সোমবার বেলা সাড়ে ৭টায় বিএনপি নেতা কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের বাসভবনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সভায় সভাপতিত্ব করেন পৌর বিএনপির সহসভাপতি জামাল হোসেন শিকদার। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনা করেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শিকদার ফরিদুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফারুক হোসেন সামাদ।

এ ছাড়াও মহিলা দলের আহ্বায়ক মাহমুদা আক্তার

পৌর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান মহারাজ, শ্রমিক দলের সভাপতি মাসুদ খান চুন্নু ও পল্লী চিকিৎসক দলের সভাপতি মো. রমিজ উদ্দিন শেখ উপস্থিত ছিলেন। 


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে স্বেচ্ছাসেবকলীগের কমিটি গঠন

প্রকাশিত:শনিবার ১৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাট প্রতিনিধি :

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের পৌর শাখার পূর্বের কমিটি বিলুপ্তি করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। নবগঠিত পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান ইমরাজ ও সাধারণ সম্পাদক মো. শফিক কাজী।

বাগেরহাট জেলা কমিটির আহবায়ক মো. মোস্তাফিজুর রহমান সোহেল, যুগ্ম আহবায়ক সরদার আ. কাদের, যুগ্ম আহবায়ক বিশ্বজিৎ সরকার শনিবার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর নিশ্চিত করেছেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে নবগঠিত এ কমিটি আগামি এক মাসের মধ্যে পুনাঙ্গ কমিটি তালিকা প্রকাশ করে জেলায় পাঠানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। 


আরও খবর



নওগাঁয় সড়ক দুর্ঘটনায় মেয়ের মৃত্যু, মা- বাবা -বোন গুরুতর আহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৮ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


নওগাঁয় ট্রাক ও মটরসাইকেল সংঘর্ষে জান্নাতুল ফেরদৌস (১১) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এদূর্ঘটনায় নিহত জান্নাতুল ফেরদৌস এর মা  মোসাঃ শান্তনা আক্তার (৩১) ও তার বাবা আবু সাইম সরকার (৩৮) ও ছোট বোন মোসাঃ লামিয়া জান্নাত (৫) মারান্তক আহত হয়েছেন।  আবু সাইম সরকার নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার উত্তর গ্রামের আব্দুল হামিদ সরকারের ছেলে।  

স্থানীয় ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ১৮ নভেম্বর আবু সাইম সরকার তার স্ত্রী ও কন্যা শিশুকে নিয়ে একটি মোটরসাইকেল যোগে শশুর বাড়ী পত্নীতলা উপজেলার আমন্ত গ্রামে যাওয়ার পথে

পত্নীতলা উপজেলার  নজিপুর-সাপাহার  আঞ্চলিক সড়কের আত্রাই নদীর সেতুর উপর পৌছালে এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সাথে বিকাল ৫ টার দিকে  মটরসাইকেলের সাথে সংঘর্ষ ঘটলে মোটরসাইকেল আরোহীরা সবাই ছিটকে পরে। স্থানীয়রা তাদের ৪ জন কে  উদ্ধার করে পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক শিশু  জান্নাতুল ফেরদৌস(১১) কে মৃত ঘোষনা করেন। এবং অপর ৩ জনের মধ্যে  সাইম ও শান্তনার অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় তাদের কে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে রেফার্ড করেন। 

সত্যতা নিশ্চিত করে পত্নীতলা থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন

এক কন্যা  শিশু মারা গেছে এবং ৩ জন আহত হয়েছে তারা ৪ জনই একই মটরসাইকেলে ছিল।


আরও খবর



নওগাঁয় সংবাদ সম্মেলন

রাজনৈতিক দলে ৩৩ শতাংশ নারীনেতৃত্ব নিশ্চিতের দাবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ


রাজনৈতিক দলের সব পর্যায়ে ৩৩ শতাংশ নারী নেতৃত্ব নিশ্চিত করাসহ ৭ দফা দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নওগাঁ নারী উন্নয়ন ফোরাম ও অপরাজিতা নেটওয়ার্ক। মঙ্গলবার ১৫ নভেম্বর দুপুরে নওগাঁ জেলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি উপস্থাপন করেন নারী সংগঠনের নেত্রীবৃন্দরা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, অপরাজিতা নেটওয়ার্ক এর সদস্য মরিয়ম বেগম। 

তিনি বলেন, গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ (আরপিও) অনুযায়ী রাজনৈতিক দলগুলোতে ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব রাখার বিধান কার্যকর করার বিষয়টি দিন দিন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ-১৯৭২ অনুচ্ছেদে রাজনৈতিক দলগুলির কেন্দ্রীয় কমিটিসহ সকল কমিটিতে ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব ২০২০ সালের মধ্যে নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) থেকে নিবন্ধন নিয়েছিল দলগুলো। কিন্তু ২০২২ সাল অতিক্রম করলেও এখনও প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোসহ অন্য কোনো রাজনৈতিক দলই এই শর্ত পূরন করেনি। 

লিখিত বক্তব্য তিনি আরও বলেন, তাই নতুন একটি সময়সীমা বেঁধে দিয়ে আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে রাজনৈতিক দলসমূহের সকল কমিটিতে এক-তৃতীয়াংশ (৩৩ শতাংশ) নারী প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করার শর্ত যুক্ত করে রাজনৈতিক দল নিবন্ধন আইন-২০২০ বাস্তবায়ন করতে হবে। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিওতে) রাজনৈতিক দলের সম্পাদকমন্ডলী বিশেষ করে সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ন সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক পদগুলোর মধ্যে যেকোনো একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নারী অন্তভুক্তিকরণের বিষয়টি আবশ্যক করতে হবে। 

এছাড়া জেলা-উপজেলা এবং ইউনিয়নে রাজনৈতিক দলের মূল কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণ ও অগ্রগতি কতটুকু হলো তা নির্বাচন কর্মকর্তাদের নিয়মিতভাবে পর্যবেক্ষণ করা, জাতীয় ও স্থানীয় সরকারের নির্বাচনে ৩৩ শতাংশ মনোনয়ন দেওয়ার শর্ত যুক্ত করা, রাজনৈতিক দলের কমিটিগুলোর মেয়াদ শেষ হওয়ার সাথে সাথে সম্মেলনের করা এবং যে কোনো নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নের ক্ষেত্রে নারীর প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে এবং মনোনয়ন বৃদ্ধি করার দাবি জানানো হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও অপরাজিতা নেটওয়ার্ক সদস্য শাহনাজ আক্তার, মরিয়ম বেগম, মর্জিনা বেগম সহ অপরাজিতা নেত্রীবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর