Logo
শিরোনাম

আম খেলে কি ভালো ঘুম হয়

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

সময়টা এখন ফলের রাজা আমের। দেশের সর্বত্র পাওয়া যাচ্ছে রসাল ও পষ্টিগুণে ভরপুর আম। অনেকেরই পছন্দ চিড়া-মুড়ির সঙ্গে আম খেতে। কেউ কেউ জুস করে খেতে পছন্দ করেন। আবার কেউবা আমভাত অথবা আস্ত আমের স্বাদ নিতেই বেশি আগ্রহী। কিন্তু আম খাওয়ার পর কি হালকা ঝিমুনির ভাব আসে কিংবা শরীর এলিয়ে ঘুম ঘুম অনুভূতি হয়, এমন প্রশ্নের উত্তরটা চলুন জেনে নেওয়া যাক। 

আমে প্রচুর পরিমাণে ট্রিপটোফ্যান থাকায় পর্যাপ্ত সেরোটোনিন তৈরি করে। আর সেরোটোনিন হচ্ছে ঘুমের জন্য দায়ী একটি নিউরোট্রান্সমিটার। এটি আম খেয়ে ঘুম পাওয়ার অন্যতম কারণ। কার্বোহাইড্রেট, ফাইবার, ভিটামিন, মিনারেল সমৃদ্ধ আম শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা বৃদ্ধি করে। 

এই ইনসুলিন ট্রিপটোফ্যান মস্তিষ্কে পাঠায়। মস্তিষ্কে ট্রিপটোফ্যান থেকে বিভিন্ন নিউরোট্রান্সমিটার সিনথেসিস হয়। এগুলোর মধ্যে অন্যতম সেরোটোনিন। মস্তিষ্ক শীতল ও ঠাণ্ডা রাখে সেরোটোনিনন। মস্তিষ্ক ঠাণ্ডা হলে শরীরও নিস্তেজ হতে থাকে। ফলে ঘুম পায়। আম খাওয়ার পর ঘুম পাওয়ার কারণ এটাই। বিশেষ করে রাতে ঘুমানোর আগে আম খেলে তন্দ্রাভাব বেশি হয়। তখন শরীর এলিয়ে বিছানায় বা সোফায় ঘুমিয়ে যেতে ইচ্ছে করে। 


আরও খবর

ভয়াবহ হচ্ছে ডেঙ্গু

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২

করোনা টিকার মেয়াদ বাড়ল তিন দিন

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




পাল্টে গেছে জেলেপল্লীর চিত্র ধরা পড়ছে ইলিশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নোয়াখালী দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া ভরা মৌসুমে মেঘনা নদীতে ইলিশশূন্য ছিল। তবে মৌসুমের শেষ দিকে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। এসব ইলিশের আকার প্রায় আড়াই থেকে তিন কেজি। ফলে ঘাট এলাকায় ফিরে এসেছে উৎসবের আমেজ। জেলেদের মুখে ফুটেছে হাসি। পাইকার, আড়তদার ও জেলেদের হাঁকডাকে এখন মুখরিত হাতিয়া নদীর তীরবর্তী ঘাটগুলো।

সরেজমিনে হাতিয়া চেয়ারম্যান ঘাট, স্টিমারঘাট, হন্নি ও চানন্দি ইউনিয়নের নদীর তীরবর্তী ঘাট ঘুরে দেখা যায়, নদীতে কাঙ্ক্ষিত ইলিশ ধরা পড়ায় পাল্টে গেছে জেলেপল্লীর চিত্র। দিন-রাত এক করে ছোট ছোট ট্রলারগুলো ছুটছে নদীতে আর বড় বড় ট্রলারগুলো ছুটছে সাগরের দিকে। তবে স্থানীয় জেলেদের দাবি মেঘনা নদীতে মাছ নেই কিন্তু সাগরে পাওয়া যাচ্ছে কাঙ্ক্ষিত ইলিশ।

আশিনী পূর্ণিমার সময় প্রধান প্রজনন মৌসুম হিসেবে আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ ধরা ও বিক্রি নিষিদ্ধ থাকবে। ইলিশের ভরা প্রজনন ও ডিমছাড়ার সময়ের আগেই এবার ডিম ছাড়তে ইলিশ মেঘনার এসব অঞ্চলে উঠে আসছে। আর এতেই ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ছে জেলেদের জালে।

প্রথম দিকে নদীতে ইলিশ ছিল না। খুবই দুঃসহ সময় কেটেছে। নদীতে মাছ পাওয়ায় ধার-দেনা পরিশোধ করতে পারবো। মাছ ব্যবসায়ী হাসেম মহাজন বলেন, সরকার মা ইলিশ রক্ষায় যে সময় অভিযান পরিচালনা করে তা থেকে আরো ১০ দিন পিছিয়ে দিলে প্রান্তিক জেলে ও আড়তদাররা পেছনের ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারবে। এদিকে গত দুদিন ধরে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পড়ছে। এতে সাধারণ জেলেরা লোকসান পুষিয়ে নিতে দিনরাত মেঘনায় জাল ফেলছেন।

মৎস্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, ইলিশ রক্ষায় আশিনী পূর্ণিমার সময় প্রধান প্রজনন মৌসুম হিসেবে বিবেচনা করে আগামী ৭ অক্টোবর থেকে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন এ অঞ্চলের ইলিশ ধরা বন্ধ রাখার ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর ১ নভেম্বর থেকে ৬ মাসের জন্য ঝাটকা ধরা নিষিদ্ধ থাকবে।


আরও খবর

শিগগিরই বাড়ছে বিদ্যুতের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




খন্দকার রুহুল আমিন এনআরবি ব্যাংকের

রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ অনুপ সিংহ,

এনআরবি ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের ০৭ আগস্ট অনুষ্ঠিত সভায় খন্দকার রুহুল আমিন সর্বসম্মতিক্রমে বোর্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান পুনর্নির্বাচিত হন।

তিনি নোয়াখালী জেলার সোনাইমুড়ী উপজেলার চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে চলমান রয়েছেন। তিনি দেশে ও বিদেশে একজন দক্ষ ও সফল ব্যবসায়ী। বর্তমানে তিনি আমেরিকায় অবস্থিত ফাদার রিয়ালিটি কর্পোরেশন, সুরমা রিয়ালিটি কর্পোরেশন, আমিন রিয়ালিটি কর্পোরেশন, হরিপুর রিয়ালিটি করর্পোরেশন, বোম্বে গ্রীল, গান্ধী প্যালেস, আমিন ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট, রোশাই ইন্ডিয়ান রেস্টুরেন্ট এবং ইন্ডিয়ান প্যালেস-এর স্বত্ত্বাধিকারী।

আরো রয়েছেন আমিন বাংলাদেশে হোটেল নিউ ইয়র্ক, ক্যাফে নিউ ইয়র্ক, আমিন সিএনজি ফিলিং স্টেশন, ঢাকা নিউ ইয়র্ক এ্যাগ্রো ফিসারিজ এবং খন্দকার টাওয়ার-এর স্বত্ত্বাধিকারী। সামাজিক উন্নয়নে জনহিতকর কর্মকান্ডে তিনি সক্রিয়ভাবে জড়িত।


আরও খবর

লিটারে ১৪ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

মঙ্গলবার ০৪ অক্টোবর ২০২২




কুমিল্লায় পাচারকা‌লে মহাবিপন্ন উল্লুকসহ পাচারকারী গ্রেপ্তার

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

কু‌মিল্লা  ব্যুরো ঃ          

কুমিল্লায় পাচারের জন্য নিয়ে যাওয়ার সময় একটি মহাবিপন্ন উল্লুকসহ এক পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)র একটি চৌকস দল। 

  সোমবার বিকেলে ডি‌বি পুলি‌শের অ‌ভিযা‌নের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অতিরিক্ত পুরিশ সুপার রাজন কুমার দাস। তি‌নি জানান-কু‌মিল্ল‌া জেলা গো‌য়েন্দা পুলি‌শের এক‌টি চৌকস দল রোববার গভীর রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম উপজেলার মিয়াবাজারে হোটেল গ্রীন ভিউতে অভিযান চালিয়ে যাত্রীবাহি বাস থেকে উল্লুকটিসহ পাচারকারীকে গ্রেপ্তার করে। এসময় পাচারকারীর কাছ থে‌কে উল্লুক‌টি উদ্ধার ক‌রে পু‌লিশ।

গ্রেপ্তারকৃত পাচারকারী  মোঃ জুয়েল রহমান সোহেল (২৭)। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ১৭ নং ওয়ার্ডের হাফিজনগর এলাকায়। ‌   


  ডি‌বি ও‌সি রা‌জেশ বড়ুয়া বি‌পিএম জানান-গোপন সংবাদে খবর পেয়ে পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান, বিপিএম (বার)এর নির্দেশনায় তারঁ নেতৃ‌ত্বে ডি‌বি পু‌লি‌শের একটি চৌকস টিম নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে।    ডি‌বি ও‌সি জানান -  সাম্প্রতিক বন্যপ্রাণী বিলুপ্তি ও পাচার প্রতিরোধে বিভিন্ন সংস্থা বৈশ্বিকভাবে কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। INTERPOL কর্তৃক আন্তর্জাতিকভাবে বন্যপ্রাণী সংরক্ষনের জন্য বিশ্বব্যাপি ‘Illegal Wildlife supply Chains Between Africa and Asia বিষয়ের উপর ভিত্তি করে গত জুলাইয়ে মাসব্যাপী “Operation Golden Strike 2022” শিরোনামে Intelligence-led Operation পরিচালনা করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাত ২ টায় কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থানাধীন মিয়াবাজার সংলগ্ন গ্রীণ ভিউ হোটেলের পার্কিংয়ে পার্ক করা অবস্থায় কক্সবাজার টু খুলনাগামী ইম্পেরিয়াল এক্সপ্রেস (এসি বাস) হতে গ্রেফতারপূর্বক পাচারকারী সো‌হে‌লের নিকট থাকা বাজারের ব্যাগ দিয়ে মোড়ানো প্লাষ্টিকের ঝুড়িতে একটি অতিবিরল মহাবিপন্ন উল্লুক উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামী জুয়েল রানাকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, বান্দরবান পার্বত্য জেলা হতে বিরল জাতির উল্লুকটি সংগ্রহ করে সে খুলনা-সাতক্ষীরা সীমান্ত হয়ে ভারতে পাচার করার উদ্দেশ্যে নিয়ে যাচ্ছিল। উল্লুক অতি বিরল স্তন্যপায়ী প্রাণী। বানর প্রজাতির মধ্যে একমাত্র উল্লুক লেজবিহীন প্রাণী। বাংলাদেশের সিলেটের লাউয়াছড়া রাঙ্গামাটি ও বান্দরবানে উল্লুকের দেখা মিলে। সারা বাংলাদেশে বর্তমানে ২৫০টির মত উল্লুক আছে মর্মে জানা যায়। উদ্ধারকৃত বিরল প্রজাতির উল্লুকটি বন বিভাগের কর্মকর্তাদের নিকট হস্তান্তর করা হয়।এই ঘটনায় এক‌টি মামলা প্রক্রিয়াধীন র‌য়ে‌ছে বলে জানান ডি‌বি ও‌সি ।


আরও খবর



বিশ্বকাপ নিশ্চিত নারী ক্রিকেট দলের

প্রকাশিত:শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

ইয়াশফি রহমান : বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে থাইল্যান্ডকে ১১ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। সেমিফাইনাল ম্যাচে এই জয়ের ফলে ফাইনালের সঙ্গে আগামী বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিটও নিশ্চিত করলো বাংলাদেশ।

শুক্রবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৩৪ রানের উদ্বোধনী জুটি পায় টাইগ্রেসরা।

এদিন খেলার শুরুতে ১৭ বলে ১১ রান করে আউট হন ফারজানা হক। আরেক ওপেনার মুর্শিদা খাতুন ২ চারে ৩৫ বলে ২৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন। অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি ২ চারে ২৪ বলে ১৭ রান করে বিদায় নেন। শেষ পর্যন্ত রুমানা হকের ২৪ বলে ২৮ ও রিতু মণির ১০ বলে ১৭ রানের ইনিংসের কল্যাণে নির্ধারিত ২০ ওভার ব্যাট করে ৫ উইকেট হারিয়ে ১১৩ রান করতে পারে বাংলাদেশ।

১১৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই কঠিন চাপে পড়ে যায় থাইল্যান্ড। ইনিংসের পাঁচ ওভারের মধ্যে মাত্র ১৩ রানে সাজঘরে ফিরে যান তিন ব্যাটার। সেখান থেকে প্রতিরোধ গড়ে চতুর্থ উইকেটে ৩২ রান যোগ করেন নারুমল চাওয়াই ও নাত্থাকাম চান্থাম। অধিনায়ক নারুমল ইনিংসের ১৩তম ওভারে দলীয় ৪৫ রানে আউট হওয়ার আগে খেলেন ২৭ বলে ১২ রানের ইনিংস।

এরপর আহত অবসর হন চানিদা সুত্থিরুয়াং। তার জায়গায় নামা সোনারিন টিপোচকে নিয়ে শেষ চেষ্টা চালান চান্থাম। বিশেষ করে শেষ তিন ওভারে ৫১ রানের চাহিদায় ১৮তম ওভারে ১৬ রান ও ১৯তম ওভারে ১৩ রান নিয়ে খেলা জমানোর আভাস দেন তিনি। কিন্তু ইনিংসের শেষ ওভারে অভিজ্ঞ অফস্পিনার সালমা খাতুনের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হওয়ার আগে চারটি চার ও তিনটি ছয়ের মারে ৫১ বলে ৬৪ রান করেন ২৬ বছর বয়সী চাত্থাকাম। শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেটে ১০২ রান করে থাইল্যান্ড। বাংলাদেশের পক্ষে ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রান খরচায় ৩ উইকেট নেন সালমা। এছাড়া মেঘলা দুই ও নাহিদা আখতারের শিকার এক উইকেট।


আরও খবর

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

রবিবার ০২ অক্টোবর 2০২2

নারী এশিয়া কাপ ক্রিকেট

শনিবার ০১ অক্টোবর ২০২২




ধর্ষণ মামলায় মামুনুল হকের আদালতে হাজিরা

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৬ অক্টোবর ২০২২ |
Image

বুলবুল আহমেদ সোহেল ঃ

নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় দায়ের করা ধর্ষণ মামলায়  হেফাজতে ইসলাম সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের আদালতে হাজিরা। দুজন পুলিশ কর্মকর্তা সাক্ষ্য।

নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁয়ে রির্সোট কান্ডের ঘটনায় থানায় দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় ৭ম দফায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বিরুদ্ধে আরও দুজন পুলিশ কর্মকর্তা সাক্ষ্য দিয়েছেন। সাক্ষীরা হলেন- এএসআই বোরহান দর্জি, এবং এএসআই ওবায়েদ হোসেন।৩ অক্টোবর সোমবার নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালতে এ সাক্ষ্যগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে সকাল ১০টায় কাশিমপুর কারাগার থেকে নারায়ণগঞ্জের আদালতে আনা হয়। কড়া নিড়াপত্তায় সকাল ১১টায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামলের আদালতে তাকে উঠানো হয়।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) রকিব উদ্দিন আহমেদ এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় আরও দু’জন পুলিশ কর্মকর্তা সাক্ষ্য দিয়েছেন। এ নিয়ে মোট ১৫ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। এ মামলার চার্জশিটে সাক্ষী রয়েছেন ৪০ জন। 

প্রসঙ্গত,  ২০২১ সালের ৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়েল রিসোর্টে এক নারীর সঙ্গে অবস্থান করছিলেন মামুনুল হক। ওই সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসে মামুনুল হককে ঘেরাও করেন। পরে স্থানীয় হেফাজতের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা এসে রিসোর্টে ব্যাপক ভাঙচুর করেন এবং তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যান। পরে ৩০ এপ্রিল সোনারগাঁ থানায় মামুনুল হকের বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলা করেন ওই নারী। তবে ওই নারীকে তার দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করে আসছেন মামুনুল হক।


আরও খবর