Logo
শিরোনাম

মা‌লে‌শিয়ায় কু‌মিল্লা বিভা‌গ বাস্তবায়‌নের দাবী‌‌তে সভা

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ জুলাই ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

কু‌মিল্লা ব্যুরো ঃ 

মালেশিয়ায় বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির আয়োজনে কুমিল্লার নামে বিভাগ বাস্তবায়নের লক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হ‌য়ে‌ছে।

রবিবার ৩জুলাই মালেশিয়া কুয়ালালামপুর জালান আমপাং হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল বাংলাদেশের সময় বিকেল ৫ টায়  কুমিল্লা বিভাগ বাস্তবায়নের শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়, অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহার।

. অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মালেশিয়া বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতির সভাপতি অহিদুর রহমান অহিদ, সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুল হামিদ জাকারিয়া।

কুমিল্লার সদর সংসদ সদস‌্য হাজী আ,ক,ম বাহাউ‌দ্দিন বাহার  মালেশিয়ায় শোভাযাত্রা উপলক্ষে মালেশিয়ায় অবস্থিত বৃহত্তর কুমিল্লার প্রবাসীদের উদ্যোগে কুমিল্লার বিভাগ কুমিল্লার নামে হবার প্রস্তাব করা হয়। সেখানে বসবাসরত কুমিল্লার প্রবাসীদের একটাই দাবী জানান বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কুমিল্লার বিভাগ কুমিল্লা নামেই করার জন্যে।

এছাড়াও মালেশিয়া বসবাসরত প্রবাসীরা কুমিল্লা সদর সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম বাহাউদ্দীন বাহারে মাধ্যমে এবং মালেশিয়া বাংলাদেশ হাইকমিশনারের কাছে সাক্ষরিত কপি দিয়ে কুমিল্লার নামে বিভাগ বাস্তবায়ন প্রস্তাব জানানো হয়।


আরও খবর



খেলাপির ঝুঁকিতে বিশ্বের ৫৪ দেশ

প্রকাশিত:শনিবার ১২ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

বিশ্বের ৫০টিরও বেশি উন্নয়নশীল দেশ ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে আছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচি সংস্থা (ইউএনডিপি) প্রধান আচিম স্টেইনার। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, যদি উন্নত বিশ্বের দেশগুলো সহায়তা না করে তাহলে ঝুঁকিতে থাকা এসব দেশ দেউলিয়া হয়ে যেতে পারে। বৃহস্পতিবার মিসরে কপ-২৭ জলবায়ু সম্মেলনে এমন তথ্য জানান আচিম। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

আচিম স্টেইনার জানিয়েছেন, মুদ্রাস্ফীতি, জ্বালানি সংকট এবং ক্রমবর্ধমান সুদ হার এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি করছে যেখানে বেশ কয়েকটি দেশ ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে পড়েছে। যার মারাত্মক প্রভাব সাধারণ মানুষের ওপর পড়বে।

তিনি বলেন, আমাদের তালিকায় এখন ৫৪টি দেশ রয়েছে যেগুলো ঋণ খেলাপির ঝুঁকিতে পড়তে পারে। যদি আমরা আরও ধাক্কা খাই, সুদের হার বাড়ে, ঋণ গ্রহণ আরও ব্যয়বহুল হয়ে যায়, জ্বালানির মুল্য, খাদ্যের মুল্য বাড়ে তাহলে আমরা দেখব এ দেশগুলো আর ঋণ পরিশোধ করতে পারছে না।

তিনি আরও বলেন, এটি ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করবে- শ্রীলঙ্কার দিকে তাকান। যেটি এখন নিজের সঙ্গে সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সমস্যা নিয়ে চলছে।

কপ-২৭ জলবায়ু সম্মেলনে জাতিসংঘের এ জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ঋণ খেলাপির ঝুঁকির বিষয়টি জলবায়ু মোকাবেলার ওপরও মারাত্মক প্রভাব ফেলবে। তিনি বলেছেন, ‘এরকম ঋণ খেলাপির ঝুঁকি জলবায়ু সমস্যা সমাধান আরও জটিল করে তুলবে। এটি অবশ্যই জলবায়ু কার্যক্রমকে সহায়তা করবে না।’

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, উন্নত দেশগুলোর সহায়তা ছাড়া অনুন্নত দেশগুলো জলবায়ু সমস্যার সমাধান করতে পারবে না।

জাতিসংঘের ইউএনডিপির প্রধান আরও বলেছেন, জলবায়ুর সমস্যার কারণে উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলোর অর্থনৈতিক সমস্যা আরও বাড়ছে। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, এসব দেশ ইতোমধ্যে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছে। উন্নয়নশীল দেশগুলোকে উন্নত দেশগুলো যে সহায়তার প্রতিশ্রতি দিয়েছিল সেগুলো তারা পূরণ করেনি। কিন্তু এরমধ্যে ঝড়, বন্যা, খরা এবং তাপপ্রবাহের মতো সমস্যাগুলোর ঝুঁকি বাড়ছে।

তাছাড়া বৈশ্বিক পরিবর্তিত জলবায়ুর সঙ্গে মানিয়ে নিতে এবং গ্রিনহাউজ গ্যাসের নির্মগণ মাত্রা কমিয়ে আনতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে উন্নত দেশগুলো বার্ষিক যে ১০০ বিলিয়ন ডলার সহায়তার প্রতিশ্রতি দিয়েছিল, সেটি যদি তারা না রাখে তাহলে এসব দেশ জাতিসংঘের জলবায়ু কার্যক্রম থেকে দূরে সরে যেতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।


সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান


আরও খবর

স্পেনে ইউক্রেন দূতাবাসে বোমা বিস্ফোরণ

বৃহস্পতিবার ০১ ডিসেম্বর ২০২২




সম্মেলন থেকে ফেরার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতার মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ২১ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রিপোর্টারঃ 


স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন থেকে ফেরার পথে নওগাঁর বদলগাছীতে সড়ক দুর্ঘটনায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জহুরুল ইসলাম স্বাধীন নামের স্থানীয় এক নেতার মৃত্যু হয়েছে। নিহত জহুরুল ইসলাম উপজেলার চাংলা গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রবিবার বিকেলে নওগাঁয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টারদিকে মোটরসাইকেল যোগে জহুরুল ইসলাম বাড়ি যাচ্ছিলেন। বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার কুশারমুড়ি নামক স্থানে একটি ট্রাকের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

সত্যতা নিশ্চিত করে বদলগাছী থানার ওসি আতিয়ার রহমান বলেন, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ না থাকায় এবং তাদের অনুরোধে নিহতের মৃতদেহ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, তিনি জীবন দশায় বঙ্গবন্ধু সরকারী কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভি‌পি, বদলগাছী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপ‌তি, বদলগাছী উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক প্রতিষ্ঠতা আহবায়ক ছিলেন। তার এ অকাল মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন মহাদেবপুর-বদলগাছীর সংসদ সদস‌্য জনাব মোঃ ছ‌লিম উদ্দীন তরফদার সেলিম সহ, বদলগাছী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপ‌তি, সাধারণ সম্পাদক সহ সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দ।


আরও খবর



ভোগান্তিতে রোগি ও অভিভাবকগণ

লালমনিরহাট সদর হাসাপাতালে অব্যবস্থাপনা

প্রকাশিত:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি

লালমনিরহাটে ঠান্ডাজনিত রোগে প্রায় ১হাজার শিশুরোগি বিভিন্নচিকিৎসা কেন্দ্র চিকিৎসা নিচ্ছেন। সদর হাসাপাতালে অব্যবস্থাপনা ও শিশু চিতিৎসকেচেম্বারে না থাকায় রোগি নিয়ে ভোগান্তিতে অভিভাবকগণের অভিযোগ । তথ্য আনতে গেলে আরও এমও ডা: সামিরা সাংবাদিকদেরকে  বাঁধা প্রদানের চেষ্টা  এবং  ঔদ্ধত্য  আচরণ করেন।    

টানা কয়েকদিনের হিমেল হাওয়ায় ঠান্ডাজনিত রোগে লালমনিরহাট জেলার ৫টি উপজেলার প্রায় ১ হাজার শিশু রোগি সঠিক চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ উঠছে ।এদিকে শিশুরোগিদেরকে নিয়ে বিপাকে এ জেলার রোগাক্রান্ত শিশুদের অভিভাবকগণ। হাসাপাতালে গিয়ে দেখা গেছে আরএমও ডা: সাবরিনা ও তত্ববধায়ক সহ শিশু বিশেষজ্ঞ কেউ হাসাপাতালের স্ব স্ব চেম্বারে উপস্থিত নেই।   একাধিকবার মোবাইল ফোনে কল দেয়ার চেষ্টা করা হলেও ফোন কল তাদের ফোনেব্যিস্ত দেখায় আর কথা বলা হয়নি ।   পরে অব্যবস্থাপনায় থাকা অস্থায়ী শিশু ওয়ার্ডে তথ্য ও ছবি আনতে গেলে    দপ্তরের আড়ালে থাকা আর এমও ডা: সাবরিনা কয়েকজন নার্স সহ এসে রোগির লোক না সাংবাদিক ঔদ্ধত্য  আচরণে জানতে চান এবং ওই মহিলা চিকিৎসক কটুক্তিও করে বলেন এখানে  এই হাসাপাতালেিচিকিৎসক থাকবে কিনা তা খোর কেউ নয় সাংবাদিকরা।       

পরে তত্ববধায়ক ডা: রমজান আলীর মোবাইলে কথা হলে এ প্রতিনিধিকে  জানান,মোট কতজন রোগি আছে খোঁজ নিয়ে জানচ্ছি। আর হাসাপাতালে চবি তুললে পারমিশন নিতে হবে।   কতজন শিশু বিশেষজ্ঞ আছেন এবং তারা উপস্থিত নেই অভিযোগ আছে এমন কথা বলতে ফোনটি রেখে দেন।     

এদিকে শিশুরোগির অভিভাবকগণ  জানান, চিকিৎসা নিতে এসে কয়েকদিন ডাক্তারকে না পাওয়ায় ফেরত গেছেন।


আরও খবর



রাণীনগরে ডিমান্ড চার্জ আদায়ে

অটো রাইস মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযোগ

প্রকাশিত:বুধবার ২৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

 কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

নওগাঁর রাণীনগরে লোড বৃদ্ধির ডিমান্ড চার্জ আদায়ের অযুহাতে দীর্ঘ প্রায় তিন বছর পর এক সাথে ডিমান্ড চার্জ আদায়ে অটোমেটিক রাইস মিলের সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযোগ ওঠেছে। রোববার দুপুরে উপজেলা সদরে আব্দুস ছাত্তার শাহার অটোমেটিক রাইস মিলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। মিল মালিক বলছেন,২০১৯ সালে মিলে লোড বৃদ্ধির আবেদন এবং ফি জমা দিলেও গত তিন বছরে বিদ্যুৎ বিলের কাগজে বৃদ্ধিকৃত চুক্তিবদ্ধ লোড এবং লোডের ডিমান্ড চার্জ বসানো হয়নি। 

রাণীনগর উপজেলার পশ্চিম বালুভরা গ্রামের মৃত সখিন উদ্দীনের ছেলে অটোমেটিক রাইস মিলের মালিক আব্দুস ছাত্তার শাহ অভিযোগ করে বলেন,আত্রাই-নওগাঁ সড়কের উপজেলা সদরে শাহি ফিলিংষ্টেশ সংলগ্ন অটোমেটিক রাইস মিল স্থাপন করে ব্যবসা করে আসছেন। মিলে বিদ্যুতের চাহিদা বেরে যাওয়ায় ২৮৩ কিলোওয়ার্ডের স্থলে আরো ১৬৭ কিলোওয়াড সংযুক্ত করে মোট ৪৫০কিলোওয়ার্ড লোড বৃদ্ধির জন্য গত ২০১৯ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর রাণীনগর জোনাল অফিস বরাবর আবেদন করেন। এর পর নিয়ম অনুযায়ী পল্লীবিদ্যুৎ কারিগরি বিভাগ পরিদর্শণ পূর্বক লোড বৃদ্ধির ডিজাইন ও প্রাক্কলন প্রস্তুত করে প্রাক্কলিত ফি জমা দিতে পত্র দেয়া হয়। পত্র অনুযায়ী ওই বছরের ১২ ডিসেম্বর নির্দিষ্ট ফি জমা করেন। এর পর দীর্ঘ দুই বছর অতিবাহিত হলেও অটোমেটিক মিলে লোড বৃদ্ধি করা হয়নি দাবি করে চুক্তিবদ্ধ লোর্ড বৃদ্ধির জন্য গত ২০২১ সালের ২ফেব্রুয়ারী আবারো আবেদন করেন। এর পর চলতি বছরের ৫জুন হঠাৎ করেই বিদ্যুৎ অফিস থেকে অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ লোড বৃদ্ধি করা হয়েছে দাবি করে এক সাথে ২৯মাসের ডিমান্ড চার্জ দুই লক্ষ ৯০ হাজার ৫৮০টাকা পরিশোধের জন্য পত্র দেয়া হয়। এর পর আবারো তিনি চুক্তিবদ্ধ লোড বৃদ্ধি করা হয়নি দাবি করে রাণীনগর জোনাল অফিসের মাধ্যমে নওগাঁ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি জেনারেল ম্যানেজার বরাবর আবেদন করেন।এরপর রাণীনগর জোনাল অফিস থেকে আবারও ডিমান্ড চার্জ পরিশোধের জন্য পত্র দেন। ছাত্তার শাহ বলেন,বিদ্যুৎ অফিস থেকে পত্রের মাধ্যমে ২০১৯ সালের ১২ডিসেম্বর থেকে ১৬৭ কিলোওয়ার্ড লোড বৃদ্ধি করা হয়েছে দাবি করে গত জুন মাস থেকে ডিমান্ড চার্জ পরিশোধের জন্য কয়েকটি পত্র দেয়। কিন্তু লোড বৃদ্ধির টাকা জমার পর থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের কাগজে আগের চুক্তিবদ্ধ ২৮৩কিলোওয়াড লোড দেখানো হয়েছে এবং নিয়মিত বিল পরিশোধ করেছি। এরপর দীর্ঘ প্রায় তিন বছর পর গত মে মাসে আবেদনকৃত অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ ১৬৭ কিলোওয়ার্ড লোড যুক্ত করে মোট ৪৫০ কিলোওয়ার্ড লোডে ডিমান্ড চার্জ দেখানো হয়। তিনি বলেন,আবেদনের প্রেক্ষিতে মিটারে অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ ১৬৭ কিলোওয়াড লোড এপ্রিল পর্যন্ত সংযুক্ত না হওয়ায় সরকারী খাদ্য বিভাগ হতে মিলের অনুকূলে চাল বরাদ্দ কম পেয়েছেন। যেহেতু পূর্বে মিটারে অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ লোড সংযুক্ত করা হয়নি সে কারনে মে মাসের বিলে ডিমান্ড চার্জ দুই লক্ষ ৯০হাজার ৫৮০ টাকা বাদ দিয়ে বিল সংশোধনের জন্য জোনাল অফিসে আবেদন করলে অফিস অতিরিক্ত ডিমান্ড চার্জ বাদ দিয়ে বিল সংশোধন করে দেন। এর পর আবারো পত্রের মাধ্যমে ডিমান্ড চার্জ দাবি করলে বাধ্য হয়ে চলতি মাসের ৩নভেম্বর অতিরিক্ত ডিমান্ড চার্জ অবৈধ দাবি করে নওগাঁ সহকারী জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। ছাত্তার শাহ বলেন,মামলার নোটিশ পাওয়া মাত্রই ক্ষিপ্ত হয়ে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ রোববার আমার অটোমিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। তিনি বলেন গত মে মাসের পূর্ব পর্যন্ত কোন বিলেই অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ লোড এবং লোডের ডিমান্ড চার্জ সংযুক্ত করা হয়নি। মিলের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করায় একদিকে যেমন ব্যবসায়ীকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্থ্য হচ্ছেন,অন্য দিকে মিলের প্রায় অর্ধশত শ্রমীক বেকার হয়ে পরেছেন। আমি এঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন।

নওগাঁ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতি-১এর রাণীনগর জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) আকিয়াব হোসেন বলেন, ছাত্তার শাহার অটোমেটিক রাইস মিলে ২০১৯ সালের ১২ডিসেম্বর চুক্তিবদ্ধ অতিরিক্ত ১৬৭ কিলোওয়ার্ড লোড বৃদ্ধি করা হয়েছে। অফিসিয়ালভাবে লোডবৃদ্ধির কাগজপত্র সদস্য সেবা বিভাগ থেকে বিলিং শাখায় প্রেরণ না করাই অতিরিক্ত লোডের ডিমান্ড চার্জ বিদ্যুৎ বিলের সাথে যোগ করা হয়নি। ফলে বিষয়টি নজরে আসায় মোট ২৯ মাসের অতিরিক্ত চুক্তিবদ্ধ লোডের ডিমান্ড চার্জ বিদ্যুৎ বিলের কাগজে এক সঙ্গে দেয়া হয়েছে। তবে দীর্ঘ সময় ধরে কেন বিলে ডিমান্ড চার্জ তুলে দেয়া হয়নি তা ক্ষতিয়ে দেখে দোষিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি বলেন ডিমান্ড চার্জ আদায়ে বার বার পত্র দেয়ার পরেও চার্জ পরিশোধ না করায় সংশ্লিষ্ঠ উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে মিলের বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে। 


আরও খবর



নওগাঁয় মোটরসাইকেল খাদে পড়ে এক যুবক নিহত দু' যুবক আহত

প্রকাশিত:শনিবার ০৫ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২২ |
Image

শহিদুল ইসলাম জি এম মিঠন, স্টাফ রির্পোটারঃ


নওগাঁয় মোটরসাইকেল খাদে পড়ে মানিক কুমার (২০) নামে একজন যুবক নিহত হয়েছেন। একই দূর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী আরো দু' জন আহত হয়েছেন।

এসড়ক দূর্ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার রাত ৮টারদিকে নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়কের রাণীনগর উপজেলার গোনা খানপাড়া এলাকায়।

নিহত মানিক কুমার আত্রাই উপজেলার সুবর্নকুন্ড গ্রামের লঘুনাথ চন্দ্রের ছেলে। আর আহত শীবেন হালদার (২৩) একই উপজেলার ভবানীপুর গ্রামের শিখিল হালদারের ছেলে ও গুপি (১৯) সুবর্নকুন্ড গ্রামের খোকার ছেলে।

নিহত ও আহতের সত্যতা নিশ্চিত করে রাণীনগর থানার ওসি (তদন্ত) সেলিম রেজা জানান, একটি মোটরসাইকেলে মদ্যপ অবস্থায় ৩ জন বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালিয়ে নওগাঁ-নাটোর আঞ্চলিক মহাসড়ক দিয়ে আত্রাইয়ের দিকে যাচ্ছিল। এমতবাস্থায় আঞ্চলিক মহাসড়কের রাণীনগর উপজেলার গোনা খানপাড়া এলাকায় পৌঁছালে মোটরসাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ছিটকে সড়কের পাশে খাদে পড়ে যায়। এতে মোটরসাইকেল আরোহী মানিক, শীবেন ও গুপি গুরুত্বর আহত হন। স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাদের ৩ জনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। সেখানের তাদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় নওগাঁ সদর হাসপাতালে রেফার্ট করা হয়। সেখানেও তাদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকের কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত ১১টারদিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মানিককে মৃত ঘোষণা করেন। আর আহত শীবেন ও গুপি রাজশাহী মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


আরও খবর