Logo
শিরোনাম

পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ভারতে

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার : বাংলাদেশি পণ্যের গুণগত মান ভালো হওয়ায় চাহিদা বাড়ছে ভারতে। পাশাপাশি বাংলাদেশের স্থিতিশীল অর্থনৈতিক উন্নয়ন ভারতের জন্য নতুন সুযোগ সৃষ্টি করছে। তাছাড়া দুই দেশই কাছাকাছি উৎস থেকে পণ্য সংগ্রহের দিকে মনোযোগ বাড়িয়েছে। এছাড়া সম্প্রতি বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যোগাযোগের উন্নতি এ ক্ষেত্রে বড় প্রভাব ফেলেছে। অর্থাৎ, ভৌগোলিক কারণেই ভারতে বাংলাদেশের রপ্তানি বাড়ছে। ফলে এখন ভারতের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

 চলতি বছরের জুলাই-আগস্ট মাসে ভারতে ওভেন পোশাক রপ্তানি হয়েছে ১০ কোটি ৫৯ লাখ ৭০ হাজার ডলারের। গত বছরের একই সময়ে ওভেন পোশাক রপ্তানি হয়েছিল ৫ কোটি ২৭ লাখ ৬০ হাজার ডলারের। অর্থাৎ প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১০০ দশমিক ৮৫ শতাংশ। আর চলতি অর্থবছরের প্রথম দুই মাসে নিট পোশাক রপ্তানি থেকে এসেছে ৮ কোটি ২৩ লাখ ২০ হাজার ডলার। গত অর্থবছরে একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪ কোটি ১৯ লাখ ডলার। অর্থাৎ গত বছরের তুলনায় এবার নিট পোশাক রপ্তানি বেড়েছে ৯৬ দশমিক ৪৮ শতাংশ।

ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, গত জুলাই মাসে ভারতে ৭ কোটি ৬৯ লাখ ৮০ হাজার ডলারের তৈরি পোশাক রপ্তানি হয়েছে। পরের মাস আগস্টে বাংলাদেশ থেকে ১১ কোটি ১৩ লাখ ১০ হাজার ডলারের পোশাক কিনেছেন ভারত। অর্থাৎ এক মাসের ব্যবধানে ভারতে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রফতানি বেড়েছে ৩ কোটি ৪৩ লাখ ৩০ হাজার ডলার।

ভারতের বাজারে অন্য পণ্যের রপ্তানিও বেড়েছে। ইপিবির তথ্য অনুযায়ী, অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গত অর্থবছরে (২০২১-২২) ভারতে বাংলাদেশের রফতানি ২০০ কোটি (২ বিলিয়ন) ডলারের ঘরে পৌঁছে, যা ছিল আগের অর্থবছরের (২০২০-২১) চেয়ে ৫৫ দশমিক ৬২ শতাংশ বেশি। দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে রপ্তানি বেড়েছে ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ।

তৈরি পোশাক খাতের উদ্যোক্তারা বলছেন, এখন ভারতের বাজারে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের বড় সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। তারা বলছেন, বাংলাদেশ ও ভারত দুই দেশই কাছাকাছি উৎস থেকে পণ্য সংগ্রহের দিকে মনোযোগ বাড়িয়েছে। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে যোগাযোগের উন্নতি এ ক্ষেত্রে বড় প্রভাব ফেলেছে। অর্থাৎ, ভৌগোলিক কারণেই ভারতে বাংলাদেশের রপ্তানি বাড়ছে।

গার্মেন্ট খাতের উদ্যোক্তারা জানান, ভারতের অনেক ব্যবসায়ী এখন বাংলাদেশের কারখানায় পোশাক তৈরি করে নিজেদের দেশে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করছেন। এতে তাদের একদিকে যেমন লিড টাইম কম লাগছে, অপরদিকে খরচও কম হচ্ছে। এছাড়া ভারতে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণি দ্রুত বিকশিত হচ্ছে। সেই সঙ্গে দেশটিতে বাড়ছে ব্র্যান্ড-সচেতনতা। এ কারণে সেখানে স্থানীয় ব্র্যান্ডগুলোও শক্ত অবস্থান তৈরি করছে। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলোও যখন দেশটিতে নতুন নতুন বিক্রয়কেন্দ্র খুলতে শুরু করেছে- ঠিক এমন সময় বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকট বাড়ছে। অর্থাৎ এই সংকট থেকে উত্তরণে প্রায় দেড়শ’ কোটি লোকের চাহিদা মেটাতে হলে ভারতকে বাংলাদেশ থেকেই পোশাক কিনতে হবে। কারণ,ভারতে পোশাক তৈরিতে যে খরচ হয়, বাংলাদেশ থেকে আমদানি করলে তার থেকে অনেক কম পড়ে। সে কারণে সব হিসাব-নিকাশ করেই তারা এখন বাংলাদেশ থেকে বেশি বেশি পোশাক কিনছে।

জানা গেছে, ২০১১ সালের শেষের দিকে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি কারখানার কাছ থেকে পোশাক নিয়ে টাকা দেয়নি ভারতীয় কোম্পানি লিলিপুট। সে জন্য ওই সময় থেকে বেশ কয়েক বছর ভারতে পোশাক রফতানিতে ভাটা পড়ে। কিন্তু গত কয়েক বছরে ভারতের বিভিন্ন শহরে পোশাকের নামিদামি বিদেশি অনেক ব্র্যান্ড বিক্রয়কেন্দ্র খোলায় পোশাক রফতানি বৃদ্ধি পায়।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ম্যাকেঞ্জি অ্যান্ড কোম্পানির এক প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, ২০২২ সালে ভারতের কাপড়ের বাজার হবে ৫ হাজার ৯০০ কোটি ডলারের।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, ২০২০-২১ অর্থবছরে ভারতে ১২৭ কোটি ৯৬ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানি করা হয়। ২০১৯-২০ অর্থবছরে রপ্তানি হয় ১০৯ কোটি ৬১ লাখ ৬০ হাজার ডলার। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ভারতে ১২৫ কোটি ডলারের পণ্য রপ্তানি করেছিল বাংলাদেশ।


আরও খবর

পঞ্চগড়ে নৌকা ডুবে ২৪ জন নিহত

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

এবার ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা

রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২




মোরেলগঞ্জে ভ্যাকসিন সংকটে প্রাণিসম্পদ অফিস

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ আগস্ট ২০২২ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক  

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল ভ্যাকসিন সংকটে ভোগান্তিতে পড়েছে খামারিরা। প্রতিনিয়ত চাহিদা অনুযায়ী হাঁস-মুরগির ভ্যাকসিন না পেয়ে খালি হাতে ফিরে যেতে হচ্ছে প্রত্যন্ত গ্রাম-গঞ্জের সাধারণ মানুষকে।

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলছেন চাহিদা অনুযায়ী বরাদ্দ পাচ্ছেননা। বিসিআরডিভি ভ্যাকসিনের চাহিদা রয়েছে মাসে পাঁচশত সেখানে পাচ্ছেন একশত। ডাকপ্লেগ ভ্যাকসিন চাহিদা মাসে দুইশত থাকলেও সেখানে পাচ্ছেন একশত। কলেরা ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে দু’মাসে গিয়ে পাচ্ছেন ৫০টি।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন  সহ একটি পৌরসভায় প্রায় ৫লক্ষ মানুষের বসবাস এখানে। প্রতিনিয়ত গবাদিপশু হাঁস-মুরগি, গরু ছাগল, মহিষ সহ গৃহপালিত পশুপাখি বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পরছে। রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে সরকারিভাবে প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর থেকে ভ্যাকসিন সরবরাহের ব্যবস্থা থাকলেও চাহিদা অনুযায়ী সাধরণ মানুষসহ খামারিরা পাচ্ছেন না এ ভ্যাকসিন। প্রতিদিন এ নিয়ে গ্রাহকদের সাথে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ছেন কর্মকর্তারা ।

অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ উপজেলায় রেজিষ্ট্রেশনভুক্ত খামারির সংখ্যা রয়েছে ৩হাজার ৬’শ ৬৭টি। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য মুরগির খামার রয়েছে ১৩০ এবং হাঁসের খামারও ১৩০টি কাগজে কলমে দেখানো হয়েছে। এদিকে মাঠ পর্যায়ের চিত্র রয়েছে ভিন্ন সঠিক জরিপের তালিকা নেই প্রাণিসম্পদ দপ্তরে।  

 বিসিআরডিভি ভ্যাকসিন (বাচ্চা মুরগি রানীক্ষেত) আরডিবি (বড় মুরগি রানীক্ষেত) প্রতিটি ভ্যাকসিনের সরকারিভাবে মূল্য তালিকায় দাম রয়েছে ১৫ টাকা। চাহিদা রয়েছে প্রতিমাসে ৫ শতাধিক। সেখানে বরাদ্দ পাচ্ছেন ১শ’। ডাকপ্লেক ভ্যাকসিন সরকারি মূল্যে ৩০ টাকা, মাসে চাহিদা রয়েছে দুইশ’ সেখানে পাচ্ছেন ১শ’। হাঁস মুরগির কলেরা ভ্যাকসিন মূল্য ৩০ টাকা, মাসে চাহিদা রয়েছে ১শ’ সেখানে দুই মাসে মিলছে না ৫০টি।

এ ভ্যাকসিন বিতরণ করছেন অফিসের একজন এ আই ফিল্ড এ্যাসিট্য্যান্ড (কৃত্রিম প্রজনন) মো. আলি আকবর তিনি এ ভ্যাকসিন সরবরাহের অফিসিয়াল দায়িত্ব না থেকেও দায়িত্ব পালন করছেন। দায়িত্বরত উপ-সহকারি প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফিরোজ আলী খানের দায়িত্ব থাকলেও স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের কারনে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রেখেছেন কর্মকর্তারা তাকে।

ভ্যাকসিন নিতে আসা গ্রহক মোরেলগঞ্জ সদর ইউনিয়নের নুর আলী শিকদার, বারইখালী আলী আকবর শেখ, সুতালড়ি গ্রামের মর্জিনা বেগম,  ভাইজোড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম, দেবরাজ গ্রামের আলমঙ্গীর হোসেনসহ একাধিক সুবিধাবঞ্চিতরা বলেন, মুরগির ভ্যাকসিন একের অধিক চাইলেই চোখ রাঙ্গানো দেখতে হয় অফিসারদের। অনেক বাকবিতান্ডা করে দিনের পর দিন ঘুরেও প্রয়োজনীয় চাহিদা অনুযায়ী ভ্যাকসিন পাচ্ছিনা। এ দুর্ভোগের শেষ কোথায়?। এগুলো দেখারকি কেউ নেই।

এ সর্ম্পকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সঞ্চয় বিশ্বাস জানান, এ উপজেলায় চাহিদা অনুযায়ী হাঁস মুরগির ভ্যাকসিনের সংকট লাঘবের জন্য ইতোমধ্যে জেলা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। চলতি বছরের চাহিদার তালিকায় বেশী বরাদ্দের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা। 


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে স্ত্রীর পরকীয়ায় স্বামীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদক

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে স্ত্রীর পরকীয়ার জেরে স্বামী ইব্রাহিম শেখ (৪৫), নামে এক ভ্যান চালকের আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে। জানাগেছে, হোগলাবুনিয়া ইউনিয়নের বদনীভাঙ্গা গ্রামে। সোমবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করেছে। এ নিয়ে এলাকায় সবত্রই চলছে গুঞ্জন।

নিহত ভ্যান চালকের ছেলে আলম শেখ জানান, রোববার দুপুর আড়াইটার দিকে তার পিতা বাড়িতে খাবার খেতে আসে। ঘরে থাকা চালের পোকা দমনের বিষক্রিয়া ট্যাবলেট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ে। এ সময় তার মা পাশের বাড়িতে ছিলো। পরবর্তীতে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নেওয়া হলে। কতর্ব্যরত চিকিৎসক তাকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে, পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নেওয়ার পথিমথ্যে মৃত্যু হয়। এদিকে মরদেহ আনা হলে স্থানীয় গ্রামবাসী ও ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি মেম্বার হাসপাতাল চত্ত্বরে উপস্থিত হন।

 স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক কলহ ও পরিকিয়ার কারনে আত্মহত্যাটি ঘটনা পারে বলে তারা ধারনা করছেন।  

এ বিষয়ে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. সাইদুর রহমান বলেন, ভ্যান চালকের আত্মহত্যার বিষয়টি শুনে ওই রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। সকালে মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট মর্গে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে। 


আরও খবর



নাটরের লালপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে যুবক গুলিবৃদ্ধ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

নিজস্ব প্রতিনিধি:  নাটরের লালপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের বাক বিতন্ডের এক র্পযায়ে প্রতিপক্ষের গুলিতে রজব সরদার নামে এক যুবক গুলিবৃদ্ধ সহ ৪জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার ১৩ই সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার বিলমারিয়া ইউনিয়নের নাগশোষা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুলিবৃদ্ধ যুবক রজব সরদার একই গ্রামের ফজর সরদারের ছেলে। এছাড়াও রেখা, ফরিদা,ও রাকিব, নামে আরো তিনজন আহত হয়েছে।

স্থায়ী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনকে কেন্দ্র করে রজবের সাথে একই এলাকার শীর্ষ সন্তাসী ও মাদক ব্যবসায়ী সুমন,সবার,ও রুবেলের বাক বিতন্ড হয়। এক পর্যায়ে সন্তাসী সুমন তার কাছে থাকা অবৈধ অস্ত্র বের করে রজব সরদার ও তার ভাইদেরকে লক্ষ করে কয়েক রাউন্ড গুলি করে। এক পর্যায়ে রজব গুলিবৃদ্ধ হয়। স্বজনরা রবজকে উদ্ধার করে লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কতব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। হাসপাতালে খবর নিয়ে জানা যায় রজব সরদারের অবস্থা আশংকা জনক,এবং এখনও গুলি বের করা সম্ভব হয়নি।

পরে রজব সরদারের ভাই আনারুল সরদার বাদী হয়ে শীর্ষ সন্তাসী ও মাদক ব্যবসায়ী সুমন কে প্রধান আসামী করে  ৭জনের নামে লালপুর থানায় একটা হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের করে।

এবিষয়ে লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মনুয়ারুজ জামান বলেন, পানি নামাকে কেন্দ্র করে এঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে ১রাউড গুলির খোসা ও ১রাউড পিস্তলের তাজা গুলি উদ্ধার করে। এছারা ৫ জন আসামী আদালতে আত্বসমারপন করে জামিনে আছে। প্রধান আসামী সুমনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


আরও খবর



আসরের সেরা খেলোয়াড় সাবিনা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০22 | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

বাংলাদেশের মেয়েদের প্রথম সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ে বড় অবদান রেখেছেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। টুর্নামেন্টে ৮ গোল করে তিনিই সর্বোচ্চ গোলাদাতা। আবার আসরের সেরা খেলোয়ারও তিনি।

গতকালকের ফাইনালে গোল না পেলেও গোল করিয়েছেন তিনি। প্রায় প্রতি ম্যাচেই কোনো না কোনোভাবে দলে জয়ে অবদান রেখেছেন সাবিনা। ফাইনালের আগপর্যন্ত করেছেন ৮ গোল। যার মধ্যে দুটি হ্যাটট্রিক। প্রথম ম্যাচে মালদ্বীপের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয়ে সাবিনার দুই গোল। পাকিস্তানের বিপক্ষে দলের ৬-০ গোলে জয়ে সাবিনারই তিন গোল। ভারতের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয়ে সাবিনা গোল না পেলেও, সেমিফাইনালে ৮-০ গোলে ভূটানকে উড়িয়ে দেয়া ম্যাচেও হ্যাটট্রিক করেন সাবিনা।


আরও খবর

বিশ্বকাপ নিশ্চিত নারী ক্রিকেট দলের

শনিবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

মুকুট নিয়ে আজ ফিরছে বাঘিনীরা

বুধবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২




মোংলায় হাঁস-মুরগির খোপে মিললো বিশাল অজগর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

মোংলায় হাঁস-মুরগির খোপ থেকে ১৫ ফুট লম্বা একটি অজগর উদ্ধার করেছেন বনবিভাগের সদস্যরা।

বৃহস্পতিবার (৮ আগষ্ট) সকালে উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের খরমা কাটাখালি গ্রামের মোঃ রুহুল আমিন এর বাড়ি থেকে অজগরটি উদ্ধার করা হয়। ধারনা করা হচ্ছে খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে এসেছে সাপটি।

রুহুল আমিন বলেন, ‘সকালে হাঁস-মুরগির অস্বাভাবিক ডাকাডাকি শুনে খোপের মুখ খুলে দেখি একটি অজগর শুয়ে আছে। ভয়ে দূরে সরে গিয়ে বনবিভাগকে খবর দিই। তারা এসে অজগরটি ধরে নিয়ে যায়।’

তিনি আরও বলেন, খোপে থাকা দুটি মুরগি ও দুটি হাসও খেয়ে ফেলে এই অজগরটি।

পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের জিউধারা স্টেশন কর্মকর্তা মো. শাহজাহান মোক্তাদির জানান, উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের খরমা কাটাখালি গ্রামের রুহুল আমিনের বাড়ির মুরগির খোপে অজগর সাপটি দেখতে পেয়ে আমাদের খবর দিলে সেখান থেকে সাপটি উদ্ধার করি আমরা। উদ্ধার হওয়া অজগরটি আমরা সুন্দরবনের গহিনে অবমুক্ত করি।

লোকালয় থেকে উদ্ধার হওয়া অজগরটি লম্বায় প্রায় ১৫ ফুট এবং ওজন প্রায় ২৭ কেজি। অজগরটিকে সুন্দরবনে অবমুক্ত করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ধারণা করা হচ্ছে খাবারের সন্ধানে লোকালয়ে যেয়ে থাকতে পারে সাপটি।

কোন বন্যপ্রাণী লোকালয়ে চলে আসলে তার ক্ষতি না করে আমাদেরকে খবর দিলে আমরা সেটিকে উদ্ধার করে তার সঠিক নিরাপদ আবাসে ফিরে দিবো। 


আরও খবর