Logo
শিরোনাম

সীমান্তে কাঁটাতার নির্মাণে কাজ করবে দুই দেশ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

বাংলাদেশ-ভারতের ত্রিপুরা থেকে শুরু করে সীমান্তের কাঁটাতারবিহীন অংশে কাঁটাতার নির্মাণের কাজ শেষ করার বিষয়ে একমত হয়েছে দুই দেশ। এছাড়া সীমান্ত রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বিজিবি বিএসএফের পদক্ষেপের মাধ্যমে সীমান্তে মৃত্যু কমিয়ে আনা, অস্ত্র, মাদক ও জাল টাকার চোরাচালান এবং পাচার রোধে পারস্পরিক সহযোগিতাও প্রশংসিত হয়েছে। ভারতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাষ্ট্রীয় সফরে দুই দেশের মধ্যে যৌথ সম্মতিতে নেওয়া হয়েছে সিদ্ধান্তগুলো। কূটনৈতিক সূত্রগুলো এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সম্মিলিতভাবে লড়াইয়ে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ : উভয় নেতাই সন্ত্রাসবাদের সব রূপ ও অভিব্যক্তি নির্মূলে তাদের দৃঢ় অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন। এই অঞ্চল ও এর বাইরে সন্ত্রাসবাদ, সহিংস চরমপন্থা এবং মৌলবাদের বিস্তার প্রতিরোধে ও সে সম্পর্কিত পদক্ষেপে সহযোগিতা আরো জোরদার করার বিষয়ে সম্মত হয়েছে।

প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা সহযোগিতা : বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য যানবাহন সংগ্রহের পরিকল্পনাসহ ৫০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের প্রতিরক্ষা লাইন অব ক্রেডিটের অধীনে প্রকল্পগুলোর প্রাথমিক চূড়ান্তকরণে রাজি হয়েছে। বর্ধিত সামুদ্রিক নিরাপত্তা নিশ্চিতে ২০১৯ সালে স্বাক্ষরিত উপকূলীয় রাডার সিস্টেম সমঝোতা স্মারকের প্রাথমিক কার্যকারিতা চূড়ান্তকরণ।

মানুষ ও পণ্যের স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ চলাচলের সুবিধা নিশ্চিতকরণ : আন্তর্জাতিক সীমান্তের ১৫০ গজের মধ্যে চলমান উন্নয়নমূলক কাজগুলো দ্রুত সম্পন্ন করার বিষয়ে একমত হয়েছে দুই দেশ, যার মধ্যে চার হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্তের বিভিন্ন ক্রসিংয়ে গুরুত্বপূর্ণ অভিবাসন ও বাণিজ্য-সম্পর্কিত অবকাঠামো রয়েছে।

আঞ্চলিক সমস্যা : মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে জোর করে বাস্তুচ্যুত ১০ লাখেরও বেশি মানুষকে আশ্রয় দেওয়া এবং মানবিক সহায়তা প্রদানে বাংলাদেশের উদারতার প্রশংসা করেছে ভারত। জোর করে বাস্তুচ্যুত এসব লোককে নিরাপদ, টেকসই ও দ্রুত স্বদেশ প্রত্যাবর্তন নিশ্চিতে তারা অব্যাহত প্রতিশ্রুতির ওপর জোর দিয়েছে।

উন্নয়ন সহযোগিতা : বাংলাদেশ ভারত সরকারের সঙ্গে যুক্ত লাইন অব ক্রেডিটের অধীনে, বিশেষ করে গত বছরের তহবিল বিতরণের কার্যকারিতা এবং গতির জন্য ভারতের প্রশংসা করেছে। বাংলাদেশকে প্রায় ১ দশমিক ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেয়াতি ঋণ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ভারতের শীর্ষ উন্নয়ন সহযোগী। ভারত কর্তৃক অন্যান্য দেশকে দেওয়া সব উন্নয়ন অর্থায়নের প্রায় এক-চতুর্থাংশ বা ২৫ শতাংশ করে বাংলাদেশকে প্রদান করে।

বঙ্গবন্ধু ও ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা : বঙ্গবন্ধুর ওপর যৌথভাবে নির্মিত বায়োপিক  শিগগিরই শেষ হবে এবং আগামী বছর মুক্তি পেতে পারে। মুক্তিযুদ্ধের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্রের যৌথ প্রযোজনা এবং দুর্লভ ভিডিও ফুটেজের যৌথ সংকলনে সম্মত হয়েছে উভয় পক্ষ। 


আরও খবর

কর্মবিরতিতে নৌযান শ্রমিকরা

রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২




বিয়ানীবাজার ১ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস উত্তোলন শুরু

প্রকাশিত:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ |
Image

রোকসানা মনোয়ার ঃ


সোমবার থেকে জাতীয় গ্রীড সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হচ্ছে আরও প্রায় ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস। সিলেটের বিয়ানীবাজার গ্যাসকেন্দ্রের ১ নম্বর কূপ থেকে এই গ্যাস সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হবে। যা চলমান গ্যাস সঙ্কটক কিছুটা লাঘব সম্ভব হবে বলে মনে করছে বাপেক্স।

পরিত্যক্ত অবস্থায় থাকা বিয়ানীবাজারের ১  কূপ গত গত সেপ্টেম্বরে খনন কাজ শুরু করে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স)।

সোমবার থেকে এই কূপ হতে গ্যাস সরবরাহ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন সিলেট গ্যাস ফিল্ড লিমিটেডের (এসজিএফএল) মহাব্যবস্থাপক (প্রশাসন) আব্দুল জলিল প্রামানিক। তিনি জানান, রোববার বিকেলে পরীক্ষামূলক সব কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। গ্যাসের চাপ পরীক্ষার কাজ শেষে চূড়ান্ত পর্যায়ে জাতীয় গ্রিডে গ্যাস সরবরাহের জন্য কারিগরি সব প্রস্ততি সম্পন্ন করা হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আজ (সোমবার) সকাল থেকেই এ কূপ হতে সঞ্চালন লাইনে গ্যাস সরবরাহ শুরু হবে।

এই কূপ থেকে প্রতিদিন ৮ মিলিয়ন গ্যাস গ্রিড লাইনে সরবরাহ করা সম্ভব হবে বলে জানান তিনি।

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ১ নম্বর কূপ থেকে ১৯৯১ সালে গ্যাস তোলা শুরু হয়। ২০১৪ সালে তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৬ সালে আবার গ্যাস উত্তোলন শুরু হলেও ওই বছরের শেষ দিকে আবারও তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৭ সালের শুরু থেকেই কূপটি পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। এরপর বাপেক্স ওই কূপে অনুসন্ধানকাজ চালিয়ে গ্যাসের মজুত পায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১০ সেপ্টেম্বর ওই কূপে নতুন করে পুনঃখননকাজ (ওয়ার্ক ওভার) শুরু হয়। পুণঃখনন শেষে গত ১০ নভেম্বর থেকে ক’পে গ্যাসের মজুদের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়। এরপর গ্যাসের চাপ পরীক্ষা শেষে কূপ থেকে দ্রুত জাতীয় সঞ্চালন লাইনে গ্যাস দেওয়ার জন্য প্রস্তুত করা হয়।


আরও খবর



রাণীনগর-আত্রাই থানা পুলিশের অভিযানে ৬জন মাদক কারবারী-জুয়ারী আটক

প্রকাশিত:বুধবার ০৯ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

 কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

নওগাঁর রাণীনগর এবং আত্রাই থানাপুলিশ পৃথক পৃথকভাবে অভিযান চালিয়ে ৩জন মাদক কারবারী ও ৩জন জুয়ারীসহ ৬জনকে আটক করেছে। এর মধ্যে দুইজনের নিট থেকে মাদক উদ্ধার করেছে পুলিশ। আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে বুধবার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

রাণীনগর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সেলিম রেজা বলেন,মঙ্গলবার রাতে উপজেলার পূর্ব বালুভরা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় পূর্ব বালুভরা গ্রামের আক্কাছ আলীর ছেলে মুঞ্জ প্রামানিক (৪৮) ও আফজাল মন্ডলের ছেলে ইউনুছ মন্ডল (৪৫) কে ৯০গ্রাম গাঁজা আটক করা হয়। রাতেই তাদের বিরুদ্ধে মাদক মামলা রুজু করা হয়েছে। এছাড়া একই রাতে মাদক মামলায় আদালতের পরোয়ানাভুক্ত আসামী খট্রেশ্বর গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে আব্দুর রশিদ (৩৮)কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অপর দিকে আত্রাই থানাপুলিশ মঙ্গলবার সন্ধায় উপজেলার জাত আমরুল গ্রাম এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘোষপাড়া গ্রামের মিন্টু খামারু (৩২),জাত আমরুল গ্রামের নজরুল ইসলাম (৫০) ও সুজন (৪০) কে আটক করেছে। তাসের মাধ্যমে জুয়া খেলা হচ্ছিল জানিয়ে থানার ওসি তারেকুর রহমান সরকার বলেন রাতেই আটককৃতদের বিরুদ্ধে জুয়া আইনে মামলা রুজু করে বুধবার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


আরও খবর



বাগেরহাটে হত্যার মুল হোতা ফরিদ শেখসহ ৯ জন আটক

প্রকাশিত:রবিবার ১৩ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

এম.পলাশ শরীফ, বাগেরহাটঃ

নূরে আলম ওরফে তানু ভুঁইয়া(৩৫) হত্যাকান্ডের  মুল হোতাসহ ৯ জনকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার দুপুরে বাগেরহাট পুলিশ সুপার কেএম আরিফুল হক প্রেস ব্রিফিং করে আটকৃতদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করেন। এ সময়ে আটককৃতদের নিকট থেকে হত্যায় ব্যবহৃত অগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো হত্যাকান্ডের মুল হোতা বাগেরহাটে শহরের বাসাবাটি এলাকার টুটুল শেখের ছেলে  ফরিদ শেখ (২৮), জামাল মিস্ত্রীর ছেলে মনির (২৬)  আলী আকবরের ছেলে  রাতুল শেখ, সোবহানের ছেলে  সিরাজুল (২৭), এসমাইল শেখের ছেলে আলামিন (৩০) , রুস্তমের ছেলে সুমন (২৬) বাসাবাটি, কাড়াপাড়ার সোহাগ (২৫), পুর্ব বাসাবাটির মোসলেম শেখের ছেলে মুকুল শেখ(৫৩), ও বাসাবাটি মৃত সোবহান শেখের ছেলে কবির শেখ (৫০)। আটককৃতরা পিরোজপুরে জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার বালিপাড়া এলাকায় ফরিদ শেখের ফুফু বাড়ীতে আত্মগোপন করেছিল বলে পুলিশ জানায়। পরে গোপন সংবাদে খবর পেয়ে শনিবার গভীর রাতে ডিবি, ডিএসবি ও থানা পুলিশ যৌথভাবে আসামীদের আটক করতে সক্ষম হয়।

শুক্রবার সাড়ে ১০ টার দিকে আটককৃতরা বাগেরহাট জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম ওরফে তানু ভূইয়াকে গুলি করে হত্যা করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামীরা এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের কারণে এই হত্যা কান্ডটি ঘটিয়েছে বলে পুলিশকে জানয়েছে বলে পুলিশ সুপার জানান। এদিকে তানু ভুইয়ার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা বাদী হয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানায় মোট ১৭ (সতের) জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 


আরও খবর



আত্রাইয়ে বিষক্রিয়ায় কৃষকের মৃত্যু দাবি পরিবারের

প্রকাশিত:শনিবার ২৬ নভেম্বর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

কাজী আনিছুর রহমান,রাণীনগর (নওগাঁ) :

নওগাঁর আত্রাইয়ে ভূট্রা ক্ষেতে কিটনাশক স্প্রে করার সময় বিষক্রিয়ায় ইসরাফিল মোল্লা (৪০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে পরিবার। এঘটনায় আত্রাই থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে।পরে থানাপুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। ইসরাফিল রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড়মাধাইমুড়ি গ্রামের ইয়াছিন আলীর ছেলে।

ইসরাফিলের ছেলে জামিরুল মোল্লা বলেন,গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার একটু আগে পার্শ্ববতি আত্রাই উপজেলার ব্রজপুর মাঠে নিজস্ব ভূট্রার ক্ষেতে কিটনাশক স্প্রে করার জন্য যান বাবা ইসরাফিল মোল্লা। এর পর রাতে আর বাড়ীতে ফিরে আসেনি। পরের দিন শুক্রবার সন্ধান করতে গিয়ে ভূট্রা ক্ষেতে মৃত্যু অবস্থায় পরে থাকতে দেখে সেখান থেকে লাশ বাড়ীতে নিয়ে আসি। তিনি বলেন, কিটনাশক স্প্রে করার সময় মূখে মাস্ক এবং পায়ে স্যান্ডেল ছিলনা। ফলে বিষক্রিয়ায় মৃত্যু হতে পারে বলে জানান তিনি। এঘটনায় ইসরাফিলের স্ত্রী কারিমা খাতুন থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেন। 

আত্রাই থানার ওসি তারেকুর রহমান সরকার বলেন,ইসরাফিলের মৃত্যুর ঘটনায় স্ত্রী বাদী হয়ে অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছেন। মামলার প্রেক্ষিতে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যুর সঠিক কারন জানা যাবে।


আরও খবর



দুবাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় হাজীগঞ্জের মোহাম্মদ হোসেনের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ৩১ অক্টোবর ২০২২ | হালনাগাদ:রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২ |
Image

কামরুজ্জামান টুটুল ঃ

 সোমবার সকালে দুবাইয়ের একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত সপ্তাহে সে সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্বক আহত হয়। হোসেন উপজেলার ৬ নং বড়কুল ইউনিয়নের দক্ষিন রায়চোঁ গ্রামের জমিরা বাড়ির মফিজুল ইসলামের ছেলে। হোসেনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় বাসিন্দা মো: মোরশেদ আলম।

হোসেনের স্ত্রী  তানিয়া আক্তার জানান, তার স্বামী গত ৫ মাস আগে দুবাইতে শ্রমিক হিসাবে কাজ করতে যায়। গত ১ সপ্তাহ আগে সে বাইসাইকেল চালিয়ে রাস্তা পার হতে গিয়ে প্রাইভেট কারের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়। তখন পুলিশ তাকে উদ্ধার করে একটি হাসপাতালে ভর্তি করায়। ঘটনার প্রায় ১ সপ্তাহ পরে সোমবার সকালে সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। 

বাবা মফিজুল ইসলাম বলেন, ছেলেকে হারিয়েছি এখন তার লাশটা চাই। এ জন্য সরকারের সহযোগীতা কামনা করছি।

মোহাম্মদ হোসেন ২ ভাই ১ বোনের মধ্যে সবার ছোট।  তার  একটি শিশু সন্তান রয়েছে। 


আরও খবর